বিলাইছড়িতে অস্ত্র ও গোলাবারুদসহ ৭ জেএসএস কর্মী আটক
Breaking News
বিলাইছড়িতে অস্ত্র ও গোলাবারুদসহ ৭ জেএসএস কর্মী আটক

বিলাইছড়িতে অস্ত্র ও গোলাবারুদসহ ৭ জেএসএস কর্মী আটক

Other

রাঙামাটির বিলাইছড়ি থেকে অস্ত্র ও গোলাবারুদসহ পার্বত্য চট্টগ্রাম জন সংহতি সমিতি আর্থাৎ জেএসএসের সাত সক্রিয় কর্মীকে আটক করেছে সেনাবাহিনী।

আটকরা হলেন- বীর বাহাদুর ত্রিপুরা (২৬), চাইল ত্রিপুরা (৬০), বলিরাম ত্রিপুরা (৪৮), বীর মণি ত্রিপুরা (৪৫), বিষ্ণুমণি ত্রিপুরা (৪৪), লক্ষণ ত্রিপুরা (৩০) ও জীবন ত্রিপুরা (২৬)।

সিরাজুল আলম খানের অবস্থা উন্নতির দিকে

রোববার রাতে বিলাইছড়ি উপজেলার ফারুয়া ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের নতুন পাড়া থেকে এদের আটক করা হয়। আটকের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা সবাই পার্বত্য চট্টগ্রাম জন সংহতি সমিতি আর্থাৎ জেএসএসের সক্রিয় কর্মী বলে দাবি করেছে।

তবে এ বিষয়ে কথা বলতে নারাজ পার্বত্য চট্টগ্রাম জন সংহতি সমিতি আর্থাৎ জেএসএসের নেতারা।

সংশ্লিস্ট সূত্রে জানা গেছে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাঙামাটির বিলাইছড়ি উপজেলার ফারুয়া ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের নতুন পাড়া এলাকায় অভিযানে নামে সেনাবাহিনীর একটি বিশেষ দল। এসময় ওই এলাকায় নিজেদের আস্তানা আড্ডা দিচ্ছিল বীর বাহাদুর ত্রিপুরা, চাইল ত্রিপুরা, বলিরাম ত্রিপুরা, বীর মণি ত্রিপুরা, বিষ্ণুমণি ত্রিপুরা , লক্ষণ ত্রিপুরা ও জীবন ত্রিপুরা। এসময় সেনা সদস্যরা চারপাশ ঘেরাও করে ওই আস্তানা থেকে আস্ত্রসহ আটক করে তাদের। এসময় তাদের আস্তানা তল্লাশি করে ৬টি একনলা বন্দুক, ২টি ছুড়ি ও বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরক দ্রব্যাদি উদ্ধার করে।

বিলাইছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) মো. নুরুল হক বলেন, আটকদের পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে সেনাবাহিনী। পরে তাদের বিরুদ্ধে বিলাইছড়ি থানা-পুলিশ বাদী হয়ে একটি অস্ত্র মামলা ও একটি বিস্ফোরক দ্রব্য মামলা দায়ের করা হয়েছে। আজ সোমবার তাদের রাঙামাটি আদালতে হাজির করা হবে।

news24bd.tv তৌহিদ

;