ইরান ভীত নয়: রুহানি সরকার

আসমা তুলি

ইরান ভীত নয়: রুহানি সরকার

ট্রাম্প প্রশাসনের কঠোর পররাষ্ট্রনীতিই মধ্যপ্রাচ্যে ইরানের শক্তিমত্তা প্রদর্শনের লাগাম টানতে পেরেছে। রোববার ক্যালিফোর্নিয়ায় এই মন্তব্য করেন মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স। সেখানে ওবামার সরকারের ইরাননীতির সমালোচনা করেন তিনি। এদিকে, মার্কিন বোমারু বিমানের মহড়ায় ইরান ভীত নয় বলে জানিয়েছে রুহানি সরকার।

ইরানের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদসহ যুক্তরাষ্ট্রের নানা অভিযোগকে এখন আর আমলে নেয় না তেহরান। মার্কিন কোন হুমকি ধামকিকেও ভয় পায় না রুহানি সরকার। এমনকি যুক্তরাষ্ট্রের B-52 বোমারু বিমানের মহড়াকেও তোয়াক্কা করছে না ইরান। রোববার এক টুইটে এমন মন্তব্য করেছেন ইরানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ। তিনি আরো বলেন, ইরান যুদ্ধবাজ নয়। গেল ২শ বছরের মধ্যে তারা কোনো যুদ্ধ শুরু করেনি। তবে সতর্ক করেন, কেউ যদি আগ্রাসন চালায়, তার দাঁতভাঙ্গা জবাব দিতে মোটেও পিছপা হবে না ইরান।

বিদায় বেলায় ট্রাম্প প্রশাসনের পররাষ্ট্রনীতির তারিফ করেন মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স। বলেন, তাদের সরকারের পররাষ্ট্রনীতি বিশেষ করে ইরান নীতি অত্যন্ত সঠিক ছিলো। কারণ ওবামা প্রশাসনের ‘ভুল নীতির’ কারণে গোটা মধ্যপ্রাচ্যে শক্তিমত্তা প্রদর্শন করতে শুরু করেছিল ইরান। রোববার ক্যালিফোর্নিয়ার লেমুর সেনা ঘাঁটিতে এইসব মন্তব্য করেন তিনি।


সাহারায় তুষারপাত!

হোয়াইট হাউজে পা রেখেই ট্রাম্পের নীতি বদলাবেন বাইডেন


মাইক পেন্স বলেন, ইতিহাস বলে, দুর্বলতা মন্দকে জাগিয়ে তোলে। তাই আমাদের প্রশাসন সে নীতি থেকে সরে এসেছিলো। মেনে চলেছে শুধু একটি নীতি-যদি তুমি শান্তি চাও, যুদ্ধোর জন্য প্রস্তত থাকো। গেল কয়েকদশকে যুক্তরাষ্ট্রে একমাত্র ট্রাম্প প্রশাসনই নতুন কোন যুদ্ধে জড়ায়নি।

এদিকে, সন্ত্রাসী গোষ্ঠী আল কায়েদার সঙ্গে ইরানের যোগসাজশ রয়েছে সম্প্রতি মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওর এমন অভিযোগের প্রতিবাদ জানিয়েছে পাকিস্তান।

রোববার পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম বোল নিউজকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এর নিন্দা জানান প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। বলেন, বিদায় বেলায় পম্পেওর এই বক্তব্য শুধুমাত্র ইসরাইলকে সন্তুষ্ট করার জন্য। কারণ ২০২৪ সালে তিনি ফের নির্বাচন করতে চান। তাই ইহুদিবাদীদের সহমর্মিতা পাওয়ার চেষ্টা করছেন পম্পেও।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

করোনার মধ্যেও ভারতে বেড়েছে বিলিওনিয়ার

অনলাইন ডেস্ক

করোনার মধ্যেও ভারতে বেড়েছে বিলিওনিয়ার

করোনা মহামারির মধ্যেও ভারতে গত এক বছরে বেড়েছে বিলিওনারের সংখ্যা। যুক্তরাজ্যভিত্তিক গবেষণা সংস্থা নাইট ফ্রাংকের ‘দ্য ওয়েলথ রিপোর্ট-২০২১’ এ এমন বেশ কিছু তথ্য উঠে এসেছে।

২০১৯ সাল শেষে দেশটিতে শতকোটিপতির সংখ্যা ছিল ১০৪। ২০২০ সাল শেষে যা হয়েছে ১১৩ জন। আগামী ২ মার্চ পুরো প্রতিবেদন প্রকাশ করবে নাইট ফ্রাংক। এ উপলক্ষে গত মঙ্গলবার প্রতিবেদনটির কিছু বিষয় তুলে ধরে তারা। টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদন।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০২৫ সাল নাগাদ ভারতে শতকোটিপতির সংখ্যা ৪৩ শতাংশ বেড়ে ১৬২ জনে পৌঁছাবে।


ভূতের আছর থেকে বাঁচতে পৈশাচিক কান্ড

হৃদরোগে মৃত্যুর পরও ফাঁসিতে ঝুলানো হল নিথর দেহ

টিকা নেয়ার ১২ দিন পর করোনায় আক্রান্ত ত্রাণ সচিব

যমজ ভাই অস্ত্রোপচার করে পরিণত হলেন যমজ বোনে


নাইট ফ্রাংক ভারতের সিএমডি শিশির বাইজাল বলেন, অর্থনৈতিক পরিচালন দক্ষতা বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে ভারত যেহেতু আগামী কয়েক বছরের মধ্যে ট্রিলিয়ন ডলার ক্লাবে প্রবেশের দিকে এগিয়ে চলেছে, সেহেতু নতুন উদীয়মান অর্থনৈতিক সুযোগ লাভজনক সম্পদ সৃষ্টিতে সহায়তা করবে, যা অর্থনীতিতে নতুন ধনী ব্যক্তি যুক্ত করবে।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রতিবাদে স্কুটিতে মমতা !

অনলাইন ডেস্ক

প্রতিবাদে স্কুটিতে মমতা !

পেট্রোল-ডিজেলের ক্রমাগত মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদ দেখাতে অভিনব পন্থা অবলম্বন করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার ইলেকট্রিক স্কুটিতে সওয়ারি হয়ে নবান্নে যাত্রা করলেন মুখ্যমন্ত্রী।  চালকের আসনে ছিলেন রাজ্যের পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। কালীঘাটের নিজের বাড়ি থেকে প্রায় সাড়ে সাত কিলোমিটার ব্যাটারিচালিত স্কুটিতে চড়ে নিজের অফিস নবান্নে পৌঁছান মমতা। 

কনভয়ের মতো করেই ইলেকট্রিক বাইকে মমতাকে ঘিরে থাকেন নিরাপত্তারক্ষীরাও। পুরমন্ত্রী ও মুখ্যমন্ত্রীর গলায় ছিল প্রতিবাদী ব্যানারও। এদিন নবান্নে পৌঁছে মমতা জানিয়ে দেন যে আজ তিনি এই স্কুটিতে চেপেই বাড়ি ফিরবেন। 

তিনি বলেন, কেন্দ্রীয় সরকার যেভাবে দেশের জনগণের দুর্দশা বাড়িয়ে চলছে, রান্নার গ্যাসের দাম বাড়াচ্ছে, তার প্রতিবাদ করতেই আজ এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

ওদিকে একদিনের সফরে ভোটের প্রচারে এসে লক্ষ্য সোনার বাংলা গড়ার কর্মসূচি ঘোষণা করলেন বিজেপি সভাপতি জে পি নাড্ডা।

কলকাতায় প্রতি লিটার পেট্রোলের দাম প্রায় ৯২ টাকা, ডিজেল ৮৫ টাকার ঘরে। চলতি মাসেই ১৫ বার দাম বেড়েছে পেট্রোল পণ্যের। শুধু তাই নয়, বুধবার রাতে নতুন করে রান্নার গ্যাসের দাম প্রতি সিলিন্ডারে ২৫ টাকা বেড়েছে। চলতি মাসে তিন দফায় এখানে বেড়েছে প্রায় ১০০ টাকা। 


নাসির প্রেমিক না আমার বন্ধু : মডেল মিম

আমার বয়ফ্রেন্ড নিয়ে আমিও মজায় আছি : নাসিরের সাবেক প্রেমিকা

বাংলাদেশে সেরা লাইকি

আমাকে নিয়ে আর খেলতে দিবো না : মিলা


করোনার কারণে প্রায় এক বছর বির্পযস্ত ভারতের সাধারণ মানুষ যখন ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছেন, তখনই পেট্রোপণ্যের এই দাম বৃদ্ধি দেশের অর্থনীতিতে বড় প্রভাব ফেলবে বলে মনে করছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

তাই এদিন স্কুটিতে চড়ে পেট্রোপণ্যের দাম বাড়ার অভিনব প্রতিবাদ করেছেন। সকাল সাড়ে ১১টায় কালীঘাটের নিজের বাড়ি থেকে কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিমের স্কুটিতে সাওয়ার হন, প্রায় সাড়ে সাত কিলোমিটার পথ স্কুটিতে চড়েই অতিক্রম করে মমতা তার কর্মস্থল নবান্নে পৌঁছান। 

এদিকে ভোটের মুখে যখন অভিনব প্রতিবাদে গোটা রাজ্যের মানুষের সামনে নতুন করে হাজির হলেন মমতা, ঠিক তখনই বিজেপি সোনার বাংলা গড়ার কর্মসূচি নিয়ে ভোটমুখী পশ্চিমবঙ্গের মানুষের কাছে হাজির হলেন বুধবার। 

আগামি মে মাসের আগেই পশ্চিমবঙ্গে অনুষ্ঠিত হবে বিধানসভা ভোট। রাজ্যজুড়ে শাসক তৃণমূল ও বিরোধী বিজেপি দু’টি দল প্রচারের নানা কৌশল অবলম্বন করছেন। এদিন মমতার এই প্রতিবাদটিও ভোটের প্রচার কৌশল হিসেবেই মনে করছেন অনেকেই।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

স্কুলের হোস্টেল থেকে একই সাথে করোনায় আক্রান্ত ২২৯ জন

অনলাইন ডেস্ক

স্কুলের হোস্টেল থেকে একই সাথে করোনায় আক্রান্ত ২২৯ জন

ভারতের মহারাষ্ট্রে একটি স্কুলের হোস্টেলে একই সাথে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ২২৯ জন। আক্রান্তদের মধ্যে ২২৫ জন ছাত্র এবং চারজন শিক্ষক রয়েছেন। আক্রান্ত শিক্ষার্থীদের বেশিরভাগ অমরাবতী থেকে এসেছেন।

বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের প্রতিবেদনে বলা হয়, ওয়াসিম জেলার ওই হোস্টেলে গত সপ্তাহে ২৬ ছাত্রকে করোনা পজিটিভ অবস্থায় পাওয়া যায়।

তারপর সকল শিক্ষার্থীদের করোনা পরীক্ষা করা হয়। ওই হোস্টেলকে ইতোমধ্যে কন্টেনমেন্ট জোন হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে।


হাতে নেই ছবি, তবুও বিলাসবহুল জীবনযাপন?

হৃদরোগে মৃত্যুর পরও ফাঁসিতে ঝুলানো হল নিথর দেহ

টিকা নেয়ার ১২ দিন পর করোনায় আক্রান্ত ত্রাণ সচিব

যমজ ভাই অস্ত্রোপচার করে পরিণত হলেন যমজ বোনে


রাজ্য স্বাস্থ্য বিভাগ জানিয়েছে, মহারাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৮ হাজার ৮০৭ জন করোনা রোগী শনাক্ত করা হয়।

এছাড়া একই সময়ে মারা যান ৮০ জন। এখন পর্যন্ত এই রাজ্যে মোট ২১ লাখ ২১ হাজার ১১৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

খুন করে আলু দিয়ে হৃৎপিণ্ড খেতেন তিনি!

অনলাইন ডেস্ক

খুন করে আলু দিয়ে হৃৎপিণ্ড খেতেন তিনি!

প্রথমে একজনকে খুন করে তারই হৃৎপিণ্ড কেটে আলু দিয়ে রান্না করে খান খুনি লরেন্স পল অ্যান্ডারসন। এতেই ক্ষান্ত হননি খুনি। প্রথম খুনের পরে আর নিজ পরিবারের বাকি দুজনকে হত্যার আগে মানুষের সেই তরকারি তাদের খাওয়ানোর চেষ্টা করেছিলেন তিনি। পরে একে একে হত্যা করেন চাচা ও তার চার বছর বয়সী শিশুকে।

যুক্তরাষ্ট্রের ওকলাহোমা অঙ্গরাজ্যে এমনই এক রোমহর্ষক ঘটনা ঘটেছে।

খুনি লরেন্স পল অ্যান্ডারসনকে আটক করেছে স্থানীয় পুলিশ। আটকের পর খুনের ঘটনা ও হৃৎপিণ্ড কেটে আলু দিয়ে রান্না করে খাওয়ার কথা স্বীকার করেছেন তিনি।


মেসি ম্যাজিকে বার্সার বড় জয়

১০জনের আটালান্টার বিপক্ষে কষ্টার্জিত জয় পেল রিয়ালের

বাংলাদেশে সেরা লাইকি

আমাকে নিয়ে আর খেলতে দিবো না : মিলা


 

বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) স্থানীয় সংবাদমাধ্যম ওকলাহোমা সিটি নিউজ ৪ টিভির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, লরেন্স পল অ্যান্ডারসন প্রথমে একজন প্রতিবেশীকে ছুরিকাঘাতে হত্যার পর তার শরীর থেকে হৃৎপিণ্ড বিচ্ছিন্ন করে ফেলেন। এ হৃৎপিণ্ড নিয়ে আসেন তার চাচার বাসায়। যেখানে তিনি আলুর সঙ্গে ওই হৃৎপিণ্ড রান্না করে তার চাচা এবং চাচিকে খাওয়ানোর চেষ্টা করেন।

তদন্তকারী কর্মকর্তারা বলেছেন, প্রতিবেশীকে খুনের পর গত ৯ ফেব্রুয়ারি চাচা ও তার চার বছর বয়সী নাতনিকে খুন করেন অ্যান্ডারসন। চাচিকেও স্প্রের মাধ্যমে মারাত্মক আহত করেন তিনি।

২০১৭ সালে মাদকের একটি মামলায় অ্যান্ডারসনকে ২০ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছিল।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

গুগল-ফেসবুককে বিজ্ঞাপনের মুনাফা শেয়ারে বাধ্য করল অস্ট্রেলিয়া

ডিজিটাল দুনিয়াই নতুন দিগন্তের সুচনা অস্ট্রেলিয়ার

অনলাইন ডেস্ক

ডিজিটাল দুনিয়াই নতুন দিগন্তের সুচনা অস্ট্রেলিয়ার

তুমুল বিরোধিতা ও সমালোচনা সত্ত্বেও অবশেষে সংবাদ প্রচারের জন্য দুই টেক জায়ান্ট—গুগল ও ফেসবুককে বিজ্ঞাপনের মুনাফা শেয়ারে বাধ্য করেছে অস্ট্রেলিয়া। বিশ্বে প্রথম দেশ হিসেবে এমন আইন পাস করেছে অস্ট্রেলিয়া। সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ খবর জানিয়েছে।

অর্থ আদায়ে বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) এ বিষয়ে আইন পাস করেছে দেশটি। বিশ্লেষকরা বলছেন, অস্ট্রেলিয়ার দেখানো পথে এবার অন্যান্য দেশের সঙ্গেও ফেসবুক ও গুগলকে আপস করতে হবে।

নতুন আইনে গুগল ও ফেসবুকের মতো প্ল্যাটফর্মগুলোকে নিউজ কনটেন্ট প্রকাশ করতে হরে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে অর্থ দিতে বলা হয়েছে। গুগল বা ফেসবুক তাদের প্ল্যাটফর্মে যে খবরগুলো রাখবে, তার জন্য ওই নির্দিষ্ট সংবাদমাধ্যমকে অর্থ দিতে হবে।

গুগল, ফেসবুকের মতো সংস্থাগুলো একেবারে বিনা খরচেই স্থানীয় সংবাদ সংস্থা ও গণমাধ্যমের খবরা খবর দেখায়। শেয়ার করা যায় বিভিন্ন সংবাদের লিঙ্ক। আর এ বিজ্ঞাপন থেকে তারা মোটা অঙ্কও আয় করে। যে গণমাধ্যমগুলোর খবর শেয়ার করে ফেসবুক ও গুগল কোটি কোটি টাকা পাচ্ছে, সেই গণমাধ্যমগুলোই বিজ্ঞাপন থেকে বঞ্চিত। আর এই বৈষম্য দূর করতেই ফেসবুক ও গুগলের মতো সংস্থাগুলোর বিজ্ঞাপনের লভ্যাংশ দাবি করে অস্ট্রেলিয়া সরকার। এ জন্য চুক্তি অনুযায়ী অর্থ দেয়ার বিধান রেখে আইন প্রস্তাব করেন প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন।


মেসি ম্যাজিকে বার্সার বড় জয়

১০জনের আটালান্টার বিপক্ষে কষ্টার্জিত জয় পেল রিয়ালের

বাংলাদেশে সেরা লাইকি

আমাকে নিয়ে আর খেলতে দিবো না : মিলা


তবে বেকে বসে ফেসবুক। ফেসবুক ও গুগলের মতো কোম্পানিগুলো বলছে ইন্টারনেট যেভাবে কাজ করে তা এই আইনে প্রতিফলিত হয়নি। অন্যায্যভাবে তাদের জরিমানা করা হচ্ছে। এরই জেরে সবশেষ বৃহস্পতিবার অস্ট্রেলিয়ায় নিজেদের বিভিন্ন পেজে সংবাদ পরিষেবা বন্ধ করে দেয় মার্ক জাকারবার্গের প্রতিষ্ঠানটি। শুধু তাই নয় ফেসবুকে সরকারি স্বাস্থ্য, জ্বালানির মতো জরুরি সরকারি তথ্য সংক্রান্ত পরিসেবার পেজগুলোও বন্ধ ছিল।

তবে তুমুল দরকষাকষির পর পাঁচ দিনের মাথায় ফেসবুকে সংবাদ পরিষেবা দিতে রাজি হয় ফেসবুক। এর দুদিন পর বৃহস্পতিবার সংশোধিত আইন পাস করল অস্ট্রেলিয়া।

নতুন পাস হওয়া সংশোধিত আইনটিতে বলা হয়েছে, অর্থ ভাগাভাগি নিয়ে গণমাধ্যম ও প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলো নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে নেবে। আলোচনা ব্যর্থ হলে বিচারের ব্যবস্থাও রাখা হয়েছে।

অস্ট্রেলিয়া সরকারের দাবি, এই আইনের মধ্য দিয়ে সব পক্ষের মধ্যে ন্যায্য দরকষাকষি করা যাবে। এতে সংবাদ প্রতিষ্ঠানগুলো আরও বেশি লাভবান হবে। অস্ট্রেলিয়ার এই আইন অনুসরণ করে বিশ্বের অন্যান্য দেশও একই ধরনের আইন করতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। বিশেষ করে কানাডা, যুক্তরাজ্যসহ ইউরোপের দেশগুলোও এই পথে হাঁটতে পারে।

ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমগুলো ভালো কনটেন্ট তৈরি করেও বিজ্ঞাপন পায় না। বেশ কিছুদিন ধরে এই বিষয়টি নিয়ে বিশ্বে আলোচনা হচ্ছে। যে মডেলে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মগুলো চলে তা নিয়েও বহু কথা হচ্ছে। দেখা যায়, ডিজিটাল মিডিয়ার ভালো কনটেন্ট থেকে গুগল ও ফেসবুক রোজগার করছে। কারণ, তারা বিজ্ঞাপন পাচ্ছে। অথচ সেই কনটেন্টের জন্য সংবাদমাধ্যমের পেজটিতে কেউ বিজ্ঞাপন দিচ্ছে না। অস্ট্রেলিয়ার নতুন আইন সেই সমস্যা অনেকটা দূর করবে বলে বিশেষজ্ঞেরা মনে করছেন। একই সঙ্গে ভুয়া খবরের ওপরেও এর ফলে নিয়ন্ত্রণ আসবে বলে অনেকের ধারণা।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর