বিচারককে ঘুষ দিতে গিয়ে এসআই আটক অতঃপর...

অনলাইন ডেস্ক

বিচারককে ঘুষ দিতে গিয়ে এসআই আটক অতঃপর...

সিলেটের জকিগঞ্জে খাস কামরায় ঢুকে বিচারককে ঘুষ দিতে গিয়ে রাজা মিয়া নামে পুলিশের এক এসআই আটক করার পর শর্ত সাপেক্ষে মুক্তি পেয়েছেন। বিচারককে ঘুষ দিতে রাজা মিয়া খাস কামরায় যায়। এতে বিব্রতবোধ করেন ওই বিচারক। কৌশলে এসআইকে এজলাসে নিয়ে এসে আটকের নির্দেশ দেন। পরে আদালত পুলিশ ও থানা পুলিশের অনুরোধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের শর্তে রাতে তাকে মুক্তি দেয়া হয়।

আদালতে উপস্থিত থাকা আইনজীবীরা জানিয়েছেন, জকিগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের নির্দেশে ৫৮/২০২০নং সিআর মামলা তদন্ত করে একজন আসামিকে বাদ দিয়ে ৩ আসামির বিরুদ্ধে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন জকিগঞ্জ থানার এসআই রাজা মিয়া। কেন একজনকে ছাড়া হয়েছে জানতে চেয়ে আদালত মামলার বাদী ও তদন্ত কর্মকর্তার উপস্থিতিতে শুনানির দিন ধার্য করেন। গত মঙ্গলবার ধার্য তারিখের দিন অনুমতি ছাড়া এসআই রাজা মিয়া বিচারক আনোয়ার হোসেন সাগরের খাস কামরায় ঢুকে উৎকোচ প্রদানের চেষ্টা করেন।


ভয়েসে চলবে ইউটিউব

ভালগারিজম নিয়ে মুখ খুললেন পূর্ণিমা

তরুণীকে ৩৮ জনে মাসের পর মাস ধর্ষণ


বিচারক এসআইকে কৌশলে এজলাসে নিয়ে যান। সেখানে আইনজীবী ও উপস্থিত লোকজনদের সম্মুখে এসআই রাজা মিয়াকে গ্রেপ্তারপূর্বক জেলহাজতে প্রেরণের নির্দেশ দিলে আদালত এসআই রাজা মিয়া কান্নাকাটি করে করজোড়ে ক্ষমা চাইলেও আদালতে রাত ৮টা পর্যন্ত তাকে আটক রাখা হয়। 

খবর পেয়ে জকিগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুদীপ্ত রায় ও ওসি মীর মো. আব্দুন নাসের ও বিচারকের খাস কামরায় অবস্থান করে বিভাগীয় দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থা নেয়ার শর্তে তাকে মুক্ত করেন।

এ অভিযোগে বুধবার এসআই রাজা মিয়াকে সিলেট পুলিশলাইনে ক্লোজ করা হয়। ক্লোজ করার বিষয়টি নিশ্চিত করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুদীপ্ত রায়। তিনি জানিয়েছেন, এসআই রাজার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

৩ বছর পর রহস্য উদঘাটন

১৩-১৪ বছরের দুই বোনের সঙ্গেই শরীরিক মেলামেশা ছিল তার

অনলাইন ডেস্ক

১৩-১৪ বছরের দুই বোনের সঙ্গেই শরীরিক মেলামেশা ছিল তার

দীর্ঘ অনুসন্ধান শেষে দায়ী মেরাজুল ইসলাম নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পিবিআই। যার সঙ্গে দুই খালাতো বোনের প্রেম ও শারীরিক সম্পর্ক ছিল। 

এদিকে নিজের দোষ স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দিও দিয়েছে মেরাজুল।

১৬৪ ধারায় দেওয়া জবানবন্দি থেকে উঠে আসে ত্রি-ভূজ প্রেমের করুণ পরিণতির ঘটনা।
  
শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) আদালতে দেয়া জবানবন্দি থেকে পিবিআই-এর রংপুরস্থ পুলিশ সুপার জাকির হোসেন জানান, স্কুল-পড়ুয়া দুই খালাতো বোন লাতুল ও অন্নির সঙ্গে গোপনে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে প্রতিবেশী যুবক মেরাজুল। বিয়ের প্রলোভন দিয়ে দুইজনের সঙ্গেই শারীরিক মেলামেশা করেন তিনি।


এক নারী দিয়ে হতো না, প্রতিদিন নতুন নারী লাগত তার

অস্ত্রের মুখে ছাত্রীকে বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণের পর দফায় দফায় ধর্ষণ

মেয়েকে তুলে নিয়ে মাকে রাত কাটানোর প্রস্তাব অপহরণকারীর

নাসির বিয়ে করেছেন আপনার খারাপ লাগে কেন?

ঘুমন্ত স্বামীর পুরুষাঙ্গ কাটলেন স্ত্রী


কিন্তু এক সময় প্রেমিক মেরাজুলের এই প্রতারণার কথা জানতে পেরে অপমান-লজ্জায় ভুগতে থাকে তারা। তারপর একই দিনে বিষপান করে আত্মহত্যা করে দুই বোন।
      
২০১৮ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি রংপুর নগরীর শেখপাড়ায় চাঞ্চল্যকর এ ঘটনায় তৎকালীন রংপুর জেলা পুলিশের কোতোয়ালি থানায় একটি মামলা দায়ের হয়। প্রায় দুই বছর ৬ মাস তদন্ত করার পরও ঘটনার রহস্যভেদ হয়নি। পরে পিবিআইকে মামলাটির তদন্তভার প্রদান করলে পিবিআই-এর রংপুরস্থ পরিদর্শক যোতিন শর্মাকে তদন্তকারী কর্মকর্তা নিয়োগ করা হয়। 

পিবিআই-এর পুলিশ সুপার জাকির হোসেন জানান, মাত্র ১৩-১৪ বছর বয়সী দুই খালাতো বোনের মরদেহের ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন মূলত মামলার রহস্যের জট খুলে দেয়। কারণ তারা দুজনই মৃত্যুর আগে ধর্ষিত হওয়ার বিষয়টি জানা যায় ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনই। তারপর তথ্য-প্রযুক্তির ব্যবহার ও অনুসন্ধানেই পুরো বিষয়টি খোলসা হয়ে আসে। মামলাটির পুরো তদন্ত এখনও শেষ হয়নি বলে জানান জাকির হোসেন।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

সুনামগঞ্জের ঘুঙ্গিয়ারগাঁওয়ে তিন দিনের জন্য ১৪৪ ধারা

অনলাইন ডেস্ক

সুনামগঞ্জের ঘুঙ্গিয়ারগাঁওয়ে  তিন দিনের জন্য ১৪৪ ধারা

একই জায়গায় এক সময়ে কীর্তন ডাকায় সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলার বাহারা ইউনিয়নের ঘুঙ্গিয়ারগাঁও গ্রামে তিন দিনের জন্য ১৪৪ ধারা জারি করা।

এ তথ্য নিশ্চিত করেন শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে শাল্লা উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মো.আল মোক্তাদির হোসেন।

উপজেলা প্রশাসনের সূত্র জানায়, শাল্লা উপজেলার ঘুঙ্গিয়ারগাঁও গ্রামে স্থানীয় মহাদেব গাছতলা কীর্তনকে কেন্দ্র করে এক গ্রাম দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে একই জায়গায় এক সময়ে কীর্তন করতে চাচ্ছে গ্রামবাসী। এ নিয়ে গত কয়েকদিন যাবত গ্রামে উত্তেজনা চলছে।


অস্ত্রের মুখে ছাত্রীকে বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণের পর দফায় দফায় ধর্ষণ

মেয়েকে তুলে নিয়ে মাকে রাত কাটানোর প্রস্তাব অপহরণকারীর

নাসির বিয়ে করেছেন আপনার খারাপ লাগে কেন?

ঘুমন্ত স্বামীর পুরুষাঙ্গ কাটলেন স্ত্রী


এতে দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ রোধে ঘুঙ্গিয়ারগাঁও গ্রামে স্থানীয় মহাদেব গাছতলা ৪০০ শত গজের মধ্যে শুক্রবার বিকাল ৩ টা থেকে আগামী (২৮ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১১ টা পর্যন্ত কোনো ধরনের ব্যক্তির চলাফেরা, সমাবেশ, কীর্তনসহ কোন কিছু করা যাবে না।

শাল্লা উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মো.আল মোক্তাদির হোসেন জানান, এক গ্রাম দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে একই স্থানে কীর্তন করতে চাচ্ছে সেই জন্য গত কয়েক দিন যাবত ওই এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

নবম শ্রেণির কিশোরী ধর্ষণের মামলায় কনস্টেবল গ্রেপ্তার

অনলাইন ডেস্ক

নবম শ্রেণির কিশোরী ধর্ষণের মামলায় কনস্টেবল গ্রেপ্তার

ফেনীতে কিশোরীকে ধর্ষণের মামলায় তৌহিদুল ইসলাম শাওন নামে এক পুলিশ কনস্টেবলকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার তার বর্তমান কর্মস্থল রাঙ্গামাটি থেকে গ্রেপ্তার করে শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) আদালতের মাধ্যমে ফেনী কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এর আগে তিনি ফেনীর ফুলগাজী থানায় কর্মরত ছিলেন।

মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, পুলিশ কনস্টেবল তৌহিদুল ইসলাম বছরখানেক আগে ফেনীর ফুলগাজী থানায় কর্মরত ছিলেন। তখন তিনি স্থানীয় নবম শ্রেণির এক ছাত্রীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন। একদিন ঘুরে বেড়ানোর কথা বলে ফেনী শহরের একটি বাসায় নিয়ে ফলের জুসের সঙ্গে চেতনানাশক ওষুধ মিশিয়ে মেয়েটিকে পান করান শাওন। এতে ওই কিশোরী অচেতন হয়ে পড়লে তাকে ধর্ষণ করে ভিডিও ধারণ করেন তিনি।

জ্ঞান ফেরার পর ওই কিশোরী ধর্ষণের বিষয়টি বুঝতে পেরে এর প্রতিবাদ করে। তখন তার অশ্লীল ভিডিও ধারণ করা হয়েছে জানিয়ে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেন শাওন। ওই ভিডিওর জেরে বিভিন্ন সময় ভয়ভীতি দেখিয়ে একাধিকবার ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করেন অভিযুক্ত পুলিশ সদস্য। এতে ওই ছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে।


অস্ত্রের মুখে ছাত্রীকে বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণের পর দফায় দফায় ধর্ষণ

মেয়েকে তুলে নিয়ে মাকে রাত কাটানোর প্রস্তাব অপহরণকারীর

নাসির বিয়ে করেছেন আপনার খারাপ লাগে কেন?

ঘুমন্ত স্বামীর পুরুষাঙ্গ কাটলেন স্ত্রী


পরে কিশোরীর পরিবার তাদের মেয়ের অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার বিষয়টি জানতে পেরে বিষয়টি সমাধানের জন্য শাওনকে বিয়ের জন্য চাপ দিতে থাকে। এক পর্যায়ে শাওন ধারণ করা সেই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার দেয়ার ভয় দেখিয়ে সেই বিয়ে আটকান। তবে গত ১২ ফেব্রুয়ারি ওই কিশোরী একটি সন্তান জন্ম দিলে বিষয়টি জনসম্মুখে চলে আসে।

এর জেরে বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) ফেনীর আদালতে কিশোরীর মা বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন। এরপর ফেনীর জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কামরুল হাসান কিশোরীর ২০ ধারায় জবানবন্দি রেকর্ড করে আসামির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। পরে এ ঘটনায় তৌহিদুল ইসলাম শাওনকে তার বর্তমান কর্মস্থল রাঙ্গামাটি থেকে গ্রেফতার করা হয়।

ফুলগাজী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কুতুব উদ্দিন পুলিশ সদস্য শাওনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ পৌর নির্বাচন স্থগিতের আদেশ

তানভীর আজাদ মামুন, জামালপুর

জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ পৌর নির্বাচন স্থগিতের আদেশ

পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচন স্থগিত করেছে নির্বাচন কমিশন। শুক্রবার দুপুরে নির্বাচন কমিশন সচিবালয় এই নির্বাচন স্থগিতের আদেশ জারি করে।

নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের নির্বাচন পরিচালনা ২ অধিশাখার উপ সচিব মো. আতিয়ার রহমান স্বাক্ষরিত এক আদেশে জানানো হয়েছে, আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচন পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত স্থগিতের সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন।


গণধর্ষণের চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে কলেজছাত্রীর গায়ে আগুন

বাবার সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে রাতধর ধর্ষণের শিকার মেয়ে

৩০-৩২ গার্লফ্রেন্ড থাকার পরও আমাকে ভালোবাসত নাসির: তামিমা

আমার সব প্রশ্নের জবাব ইসলামে পেয়েছি: কানাডিয়ান নারী


জামালপুর জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা গোলাম মোস্তফা নির্বাচন স্থগিতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

উল্লেখ্য, নির্বাচন স্থগিত হওয়ায় দেওয়ানগঞ্জ ব্যতিত আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি জামালপুর, ইসলামপুর ও মাদারগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচন স্থগিত

তানভীর আজাদ মামুন, জামালপুর

দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচন স্থগিত

২৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচন পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত স্থগিত ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন।

বিস্তারিত আসছে...

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর