সুন্দরী কচি বউ পেয়ে চোখ কপালে উঠেছিল?
সুন্দরী কচি বউ পেয়ে চোখ কপালে উঠেছিল?

আমিনুল ইসলাম

সুন্দরী কচি বউ পেয়ে চোখ কপালে উঠেছিল?

Other

এক মেয়ে'কে জোর করে বিয়ে দেয়া হয়েছে। মেয়ে ঢাকার একটা নামকরা কলেজের ছাত্রী। সচ্ছল পরিবার। মেয়ের বাবা-মা এক পুলিশ অফিসারের কাছে মেয়েকে বিয়ে দিয়েছে।

 

এসএসসি সার্টিফিকেট অনুযায়ী মেয়ের বয়েস ১৮ হয়নি। এই জন্য বাবা-মা মেয়েটির বয়সও পরিবর্তন করে ১৮ করেছে! 

জোর করে বিয়ে দেয়ার পর এখন মেয়েটি বলছে- সে এই বিয়ে মানে না! তার এখনও বয়েস ১৮ হয়নি। তার বাবা-মা তাকে জোর করে বিয়ে দিয়েছে! 

শেষমেশ পুলিশ, মেয়ের বাবা-মা, মানবাধিকার কর্মী আর মেয়ে সবাই থানায় হাজির হয়েছে মীমাংসা করার জন্য।  

তো, সেদিন'ই মেয়েটির ডিভোর্স হয়েছে! 
তার জামাই, মানে ওই পুলিশ অফিসারকে জিজ্ঞেস করা হয়েছে 
-আপনি এই মেয়েকে কেন বিয়ে করলেন? 
-আমি তো এইসবের কিছুই জানতাম না। আমাকে তো বলা হয়েছে মেয়ের বয়েস ১৮ হয়েছে।  

মেয়ের বাবা'কে জিজ্ঞেস করা হয়েছে
-আপনি তাকে কেন বিয়ে দিলেন?

উত্তরে মেয়ের বাবা বলেছে 
- মেয়ে দেখতে সুন্দর। চারদিকে মানুষ ডিস্টার্ব করে। নানান হুমকি আছে!  এই জন্য বিয়ে দিয়েছি।  

এদিকে মেয়ে বলেছে 
- আমি পড়াশুনা শেষ করতে চাই। নিজের পায়ে দাঁড়াতে চাই। আমার বাবা আমাকে জোর করে বিয়ে দিয়েছে। আমি এই বিয়ে মানি না! 

যা হোক, ডিভোর্স হওার পর মেয়ের বাবা-মা বলেছে 
- আমরা এই মেয়েকে ঘরে নেব না। সে আমাদের মান-সম্মান সব ডুবিয়েছে! 
আমার এই লেখার অবতারণা মেয়েটির বাবা-মা'র এই মন্তব্য থেকে।  
আপনারা কতো গুলো অন্যায় করেছেন জানেন? 
- মেয়ের বয়েস বিয়ের জন্য বাড়িয়েছেন! 
-মেয়ে সুন্দর বলে মেয়েকে বিয়ে দিয়ে দিয়েছেন! 
আচ্ছা মেনে নিলাম- আপনাদের মেয়ে আপনারা বিয়ে দিতেই পারেন।  
- তো, মেয়ের মতের বাইরে গিয়ে কি করে বিয়ে দিলেন? 

আপনাদের হিসেব অনুযায়ী মেয়েটির যদি ১৮ বছর হয়েই থাকে, তাহলে তো আপনারা মেয়ের অমতে বিয়ে দিয়ে মহা অন্যায় করেছেন! সেটি কি আপনারা বুঝতে পারছেন? এই জন্য তো উল্টো আপনাদের জেল হাজতে থাকা উচিত! 

সেটি না করে আপনারা কিনা মেয়েটিকে পুলিশ হেফাজতে রেখে চলে গিয়েছেন! মেয়েটা আছে ভিক্টিম সেন্টারে! 

এতো গুলো অন্যায় করার পরও আপনাদের মান-সম্মান যাচ্ছে না। তো, মান-সম্মানটা কখন গেলো আপনাদের? 
যখন মেয়েটি নিজ মুখে বলেছে- সে এই বিয়ে মানে না। সে পড়াশুনা করতে চায়। নিজের পায়ে দাঁড়াতে চায়।  

আপনাদের তো উচিত ছিল নিজেদের ভুল বুঝতে পেরে মেয়েটাকে সম্মানের সাথে বাড়িতে নিয়ে যাওয়া। সেটা না করে কিনা আপনাদের মনে হচ্ছে - মেয়েটা আপনাদের মান সম্মান সব ধ্বংস করে দিয়েছে! 

এটা কেমন সমাজ? 
একটা মেয়েকে জোর করে বিয়ে দিয়ে দিলে কোন সমস্যা নাই। কম বয়েসে বিয়ে দিয়ে দিলেও সমস্যা নেই।  
সেই মেয়েটা যখন মাথা তুলে বলে বসে- আমি এই বিয়ে মানি না। তখন আপনাদের সম্মান চলে যায়! 
নাকি পুলিশ অফিসার জামাই পেয়ে সব ভুলতে বসেছিলেন? 
আর ওই পুলিশ অফিসার জামাই? 
কি চমৎকার ব্যাপার! 
আপনি কিছুই জানতেন না! 

উইন্ডিজদের বিপক্ষে বাংলাদেশের সিরিজ জয়

সুন্দরবনে নিখোঁজ তিনজনের মধ্যে দুজনের লাশ উদ্ধার

আচ্ছা মেনে নিলাম- মেয়ের পরিবার আপনাকে কিছুই জানায়নি। কিন্তু আপনি কি জানতেন না- মেয়েটি এইচএসসি'তে পড়ে?
এইচএসসি'তে পড়ুয়া একটা মেয়ের বয়েস আর কতো হতে পারে? এটা তো সবার'ই জানা! 
নাকি সুন্দরী কচি বউ পেয়ে চোখ কপালে উঠেছিল? 

পুলিশ অফিসার জামাই পেয়ে মেয়ের অমতে জোর করে বিয়ে দিলে এই সমাজে মান-সম্মান যায় না।  

সুন্দর কচি বউ পেয়ে ইন্টারমিডিয়েটে পড়ুয়া একটা মেয়েকে দিব্যি বিয়ে করে ফেললেও এই সমাজে সম্মান যায় না। সম্মান চলে যায় যখন মেয়েটা বলে বসে- আমি এই বিয়ে মানি না।

আমিনুল ইসলাম, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক, অস্ট্রিয়া।

news24bd.tv নাজিম