দল যে কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারে কিন্তু মুখ বন্ধ হবে না: কাদের মির্জা

নিজস্ব প্রতিবেদক

দল যে কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারে কিন্তু মুখ বন্ধ হবে না: কাদের মির্জা

বসুরহাট পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র কাদের মির্জা বলেছেন, সাম্প্রতিক সময়ে আমার দেওয়া বক্তব্যের জন্য দল যে কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারে। কিন্তু আমার মুখ বন্ধ করা যাবে না। আমি অপরাজনীতির বিরুদ্ধে কথা বলেই যাবো। 

তিনি বলেন, আমার দল আওয়ামী লীগ একটি গণতান্ত্রিক দল। এখানে গণতন্ত্রের চর্চা হয়। তাই আমি গণতান্ত্রিক চর্চা অব্যাহত রাখবো। 

আজ রাতে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল নিউজ টোয়েন্টিফোর টিভির সঙ্গে একান্ত সাক্ষাতকারে এসব কথা বলেন তিনি। 

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

বিএনপি নেতা হাবিব-উন-নবী খান সোহেলসহ ৬ জনের জামিন

অনলাইন ডেস্ক

বিএনপি নেতা হাবিব-উন-নবী খান সোহেলসহ ৬ জনের জামিন

জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনায় করা মামলায় বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকুসহ ৬ জনকে আগাম জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট।

বুধবার তাঁরা আত্মসমর্পণ করে জামিন চাইলে বিচারপতি হাবিবুল গণির নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন। আদালতে জামিন আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার কায়সার কামাল। আগামী ৪ এপ্রিল পর্যন্ত তাঁদের জামিন দেওয়া হয়েছে।

জামিন পাওয়া অন্য নেতারা হলেন, ছাত্রদলের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের ভূঁইয়া জুয়েল ও ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক জুয়েল হাওলাদার।

গত ২৮ ফেব্রুয়ারি ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবি এবং কারাগারে লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর ঘটনার প্রতিবাদে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের সমাবেশকে কেন্দ্র করে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনায় ৪৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা করে পুলিশ। মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে পুলিশকে মারধর, সরকারি কাজে বাধা, ভাঙচুরের অভিযোগ আনা হয়।

আরও পড়ুন:


যে জায়গায় মিল পাওয়া গেছে বুবলী-দীঘির

সোনালির প্রেমে পড়ে স্ত্রীকে ডিভোর্স দিতে চেয়েছিলেন যেসব তারকারা

পুলিশ হেফাজতে আইনজীবীর মৃত্যু: বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ

ভাসানচরে যাচ্ছে দুই হাজারের বেশি রোহিঙ্গা


সে সময় শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মামুন-অর-রশীদ বলেন, এজাহারে ৪৭ জন নেতাকর্মীর নাম উল্লেখ করা হয়েছে, অজ্ঞাতপরিচয় আরও ২০০ থেকে ২৫০ জনের কথা উল্লেখ হয়েছে। 

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে বন্দি মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর ঘটনায় ওইদিন ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ করতে প্রেসক্লাবের সামনে গেলে লাঠিপেটা করে ও কাঁদানে গ্যাস ছুড়ে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয় পুলিশ। এ সময় ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল ছুড়তে শুরু করলে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনের এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

পরাজয় নিশ্চিত জেনে বিএনপি তৃণমূল নির্বাচন থেকে সরে যাচ্ছে: কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক

পরাজয় নিশ্চিত জেনে বিএনপি তৃণমূল নির্বাচন থেকে সরে যাচ্ছে: কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, অপরাজনীতির কারণে জনগণ ও নেতাকর্মী থেকে বিএনপি বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। তাদের ভোট নেই। তাই পরাজয় নিশ্চিত জেনে তৃণমূল নির্বাচন থেকে সরে যাচ্ছে।

আজ দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ উপ-কমিটির পরিচিতি সভায় এ কথা বলেন কাদের। তিনি তার সরকারি বাস ভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে সভায় যুক্ত হন।

কাদের বলেন, গণতন্ত্রের মুখোশের আড়ালে বিএনপি বারবার স্বাধীনতার চেতনা ও মানবাধিকার ভূলুণ্ঠিত করেছে। স্বাধীনতা বিরোধীদের সঙ্গে মিলে বিএনপির স্বাধীনতা দিবস পালন তামাশা ছাড়া কিছু নয়।


ফাবিয়ানা আজিজ পারটেক্স স্টার গ্রুপের নতুন ডিএমডি

এবার শাকিবের নায়িকা ভারত বাংলার এই সুন্দরী

গাজী গ্রুপে মার্কেটিং অফিসার পদে চাকরির সুযোগ

সাবেক স্বামীর ৯৭ কোটি টাকার উপহার বিক্রি করেছেন অ্যাঞ্জেলিনা জোলি


বিএনপির সমাবেশ উপলক্ষে বাস বন্ধ করে দেয়ার অভিযোগের জবাবে তিনি বলেন, বিএনপির সমাবেশের কারণে বাসমালিকরা জ্বালাও পোড়াওয়ের ভয়ে বাস চালানো বন্ধ করে দেয়। এতে সরকারের কোনো হাত নেই। বিএনপি লাঠিসোটা দিয়ে পুলিশকে পেটাচ্ছে এটা জনগণ দেখছে। এটাই বিএনপির রাজনীতি। বিএনপি তাদের নেতিবাচক রাজনীতির ধারা থেকে বের হয়ে আসতে পারেনি।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

সিইসিকে একহাত নিলেন রিজভী

নিজস্ব প্রতিবেদক

সিইসিকে একহাত নিলেন রিজভী

 

নির্বাচন কমিশনকে নিয়ে ধারাবাহিকভাবে সমালোচনা করে আসা নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদারকে নিয়ে গতকাল প্রকাশ্যে ক্ষোভ ঝাড়েন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নূরুল হুদা। ‘জাতীয় ভোটার দিবসের’ অনুষ্ঠানে সিইসি তার কড়া সমালোচনা করেন। আর বিষয়টি সিইসিকে একহাত নিলেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।  

তিনি বলেন, সিইসির ন্যূনতম লজ্জা থাকলে মাহবুব তালুকদারের সমালোচনা করতেন না।

আজ সকালে রাজধানীর মিরপুরে 'সরকারের হেফাজতে লেখক মুশতাকের মৃত্যু ও সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের খেতাব বাতিলের অপচেষ্টার প্রতিবাদে' একটি বিক্ষোভ মিছিল হয়। বিক্ষোভ মিছিল শেষে বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। 


ফাবিয়ানা আজিজ পারটেক্স স্টার গ্রুপের নতুন ডিএমডি

এবার শাকিবের নায়িকা ভারত বাংলার এই সুন্দরী

গাজী গ্রুপে মার্কেটিং অফিসার পদে চাকরির সুযোগ

সাবেক স্বামীর ৯৭ কোটি টাকার উপহার বিক্রি করেছেন অ্যাঞ্জেলিনা জোলি


রিজভী বলেন,  মাহবুব তালুকদার ইসির ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করেননি; বরং সিইসিই নির্বাচন ব্যবস্থা ধ্বংস করে দিয়েছেন। তার নেতৃত্বে বাংলাদেশ থেকে নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচন বিতাড়িত হয়েছে। সিইসির ন্যূনতম লজ্জাবোধ থাকলে তিনি ইসি মাহবুব তালুকদারের সমালোচনা করতেন না। বরং যদি তার মধ্যে ন্যূনতম বিবেকবোধ থাকত, তা হলে নিজের অপকর্মের জন্য অনুশোচনা করতেন। দেশের গণতন্ত্রের ধ্বংসের জন্য দায়ী এই সিইসি।

কর্মসূচিতে মহানগর উত্তরের যুগ্ম সম্পাদক এজিএম শামসুল হক, দপ্তর সম্পাদক এবিএম আব্দুর রাজ্জাক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা দেখে করোনা টিকা নেয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত

অনলাইন ডেস্ক

খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা দেখে করোনা টিকা নেয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত

বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার স্বাভাবিক চিকিৎসা সরকার নিশ্চিত করলে তার শারীরিক অবস্থা দেখে করোনা টিকা নেয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন খালেদা জিয়ার আইনজীবী ব্যারিস্টার কায়সার কামাল। 

বুধবার সকালে হাইকোর্টে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ তথ্য জানান খালেদা জিয়ার আইনজীবী। এসময় তিনি আরো বলেন, বিএনপি চেয়ারপার্সন এখনো অসুস্থ, আগে তার শারীরিক অবস্থার আরো উন্নত হওয়া দরকার। সরকার তার চিকিৎসা করার সুযোগ দিচ্ছে না বলে আইনজীবীর অভিযোগ। 


কাশ্মীর ইস্যুতে পাকিস্তানকে সমর্থন তুরস্কের, ভারতের ক্ষোভ

আবারও ইকো ট্রেন চলবে ইরান-তুরস্ক-পাকিস্তানে

সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে বিজিবির অভিযান, বিপুল গোলাবারুদ উদ্ধার

দেনমোহর পরিশোধ না করে স্ত্রীকে স্পর্শ করা যাবে কি না?


স্বাভাবিক চিকিৎসা সুবিধা নিশ্চিত হওয়ার পরে করোনা প্রতিরোধের ভ্যাকসিন টিকা নেয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। ২০১৮ সালের ৮ই ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় পাঁচ বছরের দণ্ড নিয়ে কারাগারে যান খালেদা জিয়া।

পরে সরকারের নির্বাহী আদেশে গত বছরের ২৫ শে মার্চ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতাল থেকে মুক্তি পেয়ে তার গুলশানের বাসায় যান।

news24bd.tv আয়শা

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ব্যানারে নেই বেগম জিয়া, এনিয়ে বিস্তর আলোচনা

অনলাইন ডেস্ক

ব্যানারে নেই বেগম জিয়া, এনিয়ে বিস্তর আলোচনা

গত ১ মার্চ সোমবার স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষ্যে বছরব্যাপী কর্মসূচির উদ্বোধন করে বিএনপি। কিন্তু উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সব জমকালো আয়োজন ফেলে এখন আলোচনার বিষয় ব্যানার নিয়ে। কারণ ব্যানারে নেই খালেদা জিয়ার ছবি।

ব্যানারে কেন খালেদা জিয়ার ছবি নেই তা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে চলছে জোর আলোচনা সমালোচনা। অনুষ্ঠানের সকল ব্যানারে খালেদা জিয়ার ছবি থাকলেও উদ্বোধনী ব্যানারে ছিল চেয়ারপার্সনের ছবি। ব্যানারে শুধু ছিল দলটির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান।

খালেদা জিয়ার ছবি না থাকায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত নেতাকর্মীদের মধ্যে অসন্তোষ সৃষ্টি হয়েছে। ক্ষোভ প্রকাশ করে বিএনপির চেয়ারপারসনের প্রেস সচিব মারুফ কামাল খান এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে লেখেন, ‘বদলে যাওয়া এ এক অন্যরকম বিএনপি। সব আছে, সবাই আছে, শুধু নেই বেগম খালেদা জিয়ার ছবি ও নামটি। এই ঘোর দুষ্কালেও অনেকেই ছিলেন স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদ্যাপন অনুষ্ঠানমালার শুভ উদ্বোধন উপলক্ষ্যে লেকশোর হোটেলে আয়োজিত এই জাঁকালো অনুষ্ঠানে। তবে বিএনপির আমন্ত্রণ পেয়েও সভানেত্রী শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগ নেতারা এবং দাওয়াত না পাওয়ায় জামায়াত নেতারা ছিলেন অনুপস্থিত।’

আরও পড়ুন:


ফাবিয়ানা আজিজ পারটেক্স স্টার গ্রুপের নতুন ডিএমডি

এবার শাকিবের নায়িকা ভারত বাংলার এই সুন্দরী

গাজী গ্রুপে মার্কেটিং অফিসার পদে চাকরির সুযোগ

সাবেক স্বামীর ৯৭ কোটি টাকার উপহার বিক্রি করেছেন অ্যাঞ্জেলিনা জোলি


এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা নাজিম উদ্দিন আলম বলেন, আমানউল্লাহ আমানের নেতৃত্বে নয়াপল্টনে যে সাজসজ্জা করা হয়েছে সেখানে জিয়াউর রহমান, খালেদা জিয়া এবং তারেক রহমানের ছবি রয়েছে। জিয়াউর রহমান আমাদের গর্ব। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে কেন ম্যাডামের ছবি রাখা হয়নি, তা আমি জানি না। আমার মনে হয়, ম্যাডামের ছবি রাখা উচিত ছিল।

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদ্যাপন জাতীয় কমিটির সদস্যসচিব ও বিএনপির চেয়ারপাসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম বলেন, জিয়াউর রহমান মানেই মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস। বাংলাদেশ মানেই জিয়া। তাই স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠানে শুধু জিয়াকে ফোকাস করতে চেয়েছি। এ কারণে দলীয় চেয়ারপারসনের ছবি ব্যবহার করা হয়নি।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর