বাইডেনের সঙ্গে উচ্ছ্বসিত বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত রুমানা

অনলাইন ডেস্ক

বাইডেনের সঙ্গে উচ্ছ্বসিত বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত রুমানা

বাইডেনের সঙ্গে রুমানা

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সদ্য নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন শপথ গ্রহণের পর হোয়াইট হাউজে ফের জায়গা করে নিয়েছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত রুমানা আহমেদ। এর আগে ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসনের আমলেও হোয়াইট হাউজে গুরুত্বপূর্ণ একটি পদে তিনি ছিলন। কিন্তু রুমানা মুসলিম হওয়ায় হিজাব পড়ার জন্য অপদস্থ হতে হতো থাকে। এ কারণে পদ থেকে পদত্যাগ করেন রুমানা আহমেদ। বাইডেন ক্ষমতায় এসে তাকে ফিরিয়ে আনেন।

সম্প্রতি প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত রুমানা আহমেদের একটি ছবি প্রকাশ্যে এসেছে। ছবিটি দেখে স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে নিজের জায়গায় ফিরে আসতে পেরে বেশ উচ্ছ্বসিত ও আনন্দিত রুমানা আহমেদ। 

এর আগে হিজাবের কারণে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের টিমে টিকতে পারেননি। যোগ্যতা থাকলে একজন মানুষকে আটকিয়ে রাখা যায় না, তারই প্রমাণ দিয়েছেন রুমানা। তাই তো ফের ফিরে এসে ইতোমধ্যে ইউনাইটেড স্টেটস এজেন্সি ফর গ্লোবাল মিডিয়ার (ইউএসএজিম) রিভিউ প্যানেলের সাত সদস্যের অংশ হয়ে কাজ শুরু করেছেন।

রুমানা আহমেদ মুসলিম হওয়ায় হিজাব পরেন। হিজাব পরায় ট্রাম্পের লোকজনের কাছে প্রায়ই অপদস্থ হতেন। তাকে কেউই স্বাভাবিকভাবে নিতে পারত না। ২০১৭ সালে পদত্যাগের নেপথ্য এই কারণগুলো জানিয়ে দ্য আটলান্টিকে একটি কলাম লেখেন রুমানা। ওই লেখা প্রকাশিত হওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে সমালোচনার ঝড় বয়ে যায়।

রুমানার বাবা ১৯৭৮ সালে লেখাপড়ার উদ্দেশ্যে বাংলাদেশ ছেড়ে যুক্তরাষ্ট্রে যান। তার মা দেশটিতে একটি দোকানে ক্যাশিয়ার হিসেবে কাজ শুরু করেন। পরে নিজের উদ্যোগে একটি ডে-কেয়ার সেন্টার চালু করেন। বাবা ব্যাংক অব আমেরিকায় লেটনাইট কর্মী হিসেবে কাজ করতেন। পরে একটি শাখার অ্যাসিস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে প্রমোশন পান। রুমানার বাবার স্বপ্ন ছিল পিএইচডি করবেন। কিন্তু ১৯৯৫ সালে তার সেই স্বপ্ন থেমে যায়। সড়ক দুর্ঘটনায় একটি গাড়ি তার বাবার মৃত্যু হয়।

রুমানা জর্জ ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটি থেকে গ্র্যাজুয়েশন শেষ করার পর সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার প্রশাসনে যোগ দেন। ওবামার আমলে দেশটির ন্যাশনাল সিকিউরিটি কাউন্সিলে কাজ করতে থাকেন। তবে ওবামা ক্ষমতা ছাড়লে হোয়াইট হাউজে তার অবস্থান দুর্বল হয়ে পড়ে। সপ্তাহ পার হতে না হতে তাকে চাকরি ছেড়ে দিতে হয়।

রুমানা বলেন, ট্রাম্প যখন সাতটি মুসলিম-প্রধান দেশের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করলেন, তখনই বুঝে যাই আমার আর সময় নেই। ভাবতে থাকি, এমন একটা প্রশাসনে কাজ করি, যারা আমাকে অধীনস্থ নাগরিক মনে করে, হুমকি হিসেবে দেখে। আমি ১২ বছর বয়স থেকে হিজাব ব্যবহার শুরু করি। পরিবার আমাকে উৎসাহিত করলেও এটা আমার নিজেরই পছন্দ ছিল। এটা ছিল আমার বিশ্বাসের, সত্তার এবং সহনশীলতার প্রতীক। রুমানা এত বঞ্চনা সহ্য করতে পারতেন বাবার শেখানো ইসলামিক বক্তব্যে অনুপ্রাণিত হয়ে। তার বাবা বাংলায় বলতেন, কেউ যখন তোমাকে ফেলে দেবে, উঠে দাঁড়াবে। দুহাত মেলে তাকে ভাই বলে ডাকবে।

 


কোহলির সঙ্গে খেলতে চায় সানি লিওন!

৪০তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষার ফল প্রকাশ

সন্তানদের মুখে দুমুঠো ভাত তুলে দিতে যৌনপেশা

নায়িকা তমার ‘গোপন ভিডিও’ প্রকাশের হুমকি দিলেন সাবেক স্বামী


news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

চীনে কয়লাখনিতে বন্যার পানি, অবরুদ্ধ ২১ শ্রমিক

অনলাইন ডেস্ক

চীনে কয়লাখনিতে বন্যার পানি, অবরুদ্ধ ২১ শ্রমিক

বন্যার পানিতে চীনের শিনজিয়াং অঞ্চলের এক কয়লা খনিতে ২১ জন শ্রমিক আটকা পড়েছেন। রোববার দেশটির রাষ্ট্রায়ত্ত বার্তা সংস্থা সিনহুয়া জানিয়েছে, শনিবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টার পর খনিটির একটি অংশ প্লাবিত হলে সেখানকার বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

এসময়ে খনিটিতে ২৯ শ্রমিক কাজ করছিলেন বলে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। ঘটনার পর আট শ্রমিককে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে।

আরেক প্রতিবেদনে জানা গেছে, যারা আটকা পড়েছেন তাদের মধ্যে রোববার পর্যন্ত ১২ জনের অবস্থান শনাক্ত করা গেছে এবং তাদের উদ্ধার করা সম্ভব হবে বলে আশা করা হচ্ছে।


আরও পড়ুনঃ


সন্তানদের লড়াই করা শেখান

শুধুমাত্র পরিবারের সদস্যদের নিয়েই হবে প্রিন্স ফিলিপের শেষকৃত্য

বাংলাদেশের জিহাদি সমাজে 'তসলিমা নাসরিন' একটি গালির নাম

করোনা আক্রান্ত প্রতি তিনজনের একজন মস্তিষ্কের সমস্যায় ভুগছেন: গবেষণা


বাকি ৯ জন শ্রমিকের অবস্থান নির্ণয়ের প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে বলে জানিয়েছে রাষ্ট্রায়ত্ত গণমাধ্যম।

এর আগে চলতি বছরের জানুয়ারিতে দেশটির পূর্বাঞ্চলে একটি খনিতে বিস্ফোরণের পর ২২ শ্রমিক আটকা পড়েছিলেন। গত বছরের ডিসেম্বরেও দেশটির একটি কয়লা খনিতে আটকা পড়ে ২৩ শ্রমিকের মৃত্যু হয়।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

যুক্তরাষ্ট্রের মানবিক সাহায্যের দাবি 'হাস্যকর' বলে উড়িয়ে দিলো উত্তর কোরিয়া

অনলাইন ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের মানবিক সাহায্যের দাবি 'হাস্যকর' বলে উড়িয়ে দিলো উত্তর কোরিয়া

মার্কিন সাম্রাজ্যবাদবিরোধী দেশ উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে যেসব নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে তাতে সেদেশের জনগণকে টার্গেট করা হয়নি, বরং উত্তর কোরিয়ায় মানবিক সাহায্য পাঠাতে বিভিন্ন দেশ ও আন্তর্জাতিক সংস্থার সঙ্গে সহযোগিতা চালিয়ে যাচ্ছে বলে দাবি করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

হোয়াইট হাউজের মুখপাত্র জেন সাকি স্থানীয় সময় শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে দাবি করেন, পিয়ংইয়ং-এর বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপসহ অন্যান্য যেসব পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে তাতে উত্তর কোরিয়ার জনগণ ক্ষতিগ্রস্ত হয়নি।

ইরানভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম পার্সটুডে জানায়, যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞার পাশাপাশি করোনাভাইরাসের প্রকোপের কারণে চরম বিপাকে রয়েছে উত্তর কোরিয়া।

পাশাপাশি জাপানের মতো যুক্তরাষ্ট্রের আঞ্চলিক মিত্র দেশগুলিও উত্তর কোরিয়ার পরমাণু অস্ত্র ও ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচির অজুহাতে দেশটির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে রেখেছে।


আরও পড়ুনঃ


সন্তানদের লড়াই করা শেখান

শুধুমাত্র পরিবারের সদস্যদের নিয়েই হবে প্রিন্স ফিলিপের শেষকৃত্য

বাংলাদেশের জিহাদি সমাজে 'তসলিমা নাসরিন' একটি গালির নাম

করোনা আক্রান্ত প্রতি তিনজনের একজন মস্তিষ্কের সমস্যায় ভুগছেন: গবেষণা


উত্তর কোরিয়া সাম্প্রতিক সময়ে ঘোষণা করেছে, জো বাইডেনের নেতৃত্বাধীন নয়া মার্কিন প্রশাসন ইমেইল ও টেলিফোন কলের মাধ্যমে পিয়ংইয়ং-এর সঙ্গে আলোচনায় বসার আগ্রহ ব্যক্ত করেছে। 

যুক্তরাষ্ট্রের এই প্রচেষ্টাকে ‘হাস্যকর প্রতারণা’ বলে উড়িয়ে দিয়েছে তারা। এছাড়া যতদিন উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের বিদ্বেষী নীতি অব্যাহত থাকবে ততদিন তাদের সঙ্গে কোনো আলোচনাও হবে না বলে জানিয়েছে উত্তর কোরিয়া।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

শুধুমাত্র পরিবারের সদস্যদের নিয়েই হবে প্রিন্স ফিলিপের শেষকৃত্য

অনলাইন ডেস্ক

শুধুমাত্র পরিবারের সদস্যদের নিয়েই হবে প্রিন্স ফিলিপের শেষকৃত্য

করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে আরোপিত বিধিনিষেধের কারণে ডিউক অব এডিনবার্গ প্রিন্স ফিলিপের শেষকৃত্যে থাকবেন না ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। শুধুমাত্র পরিবারের সদস্যদের নিয়েই তার শেষকৃত্য অনুষ্ঠিত হবে।

আগামী শনিবার (১৭ এপ্রিল) প্রিন্স ফিলিপের শেষকৃত্যের আয়োজন করা হবে যেখানে তার সন্তান, নাতি-নাতনি ও পরিবারের ঘনিষ্ঠরাসহ মাত্র ৩০ জন উপস্থিত থাকতে পারবেন। এমনকি জনসাধারণকেও এ অনুষ্ঠান এড়িয়ে যাওয়ার অনুরোধ করা হয়েছে।


আরও পড়ুনঃ


নিউইয়র্ককে টপকে এখন বিলিয়নিয়ারদের শহর বেইজিং

মাওলানা মামুনুলের রিসোর্ট কাণ্ডে 'পুরুষশুন্য' কয়েক গ্রাম!

ফেসবুকে আপনার তথ্য ফাঁস হয়েছে কিনা যেভাবে জানবেন

করোনা আক্রান্ত প্রতি তিনজনের একজন মস্তিষ্কের সমস্যায় ভুগছেন: গবেষণা


উইন্ডসরের সেন্ট জর্জ চ্যাপেলে এই শেষকৃত্য অনুষ্ঠান আয়োজন করা হবে।

গত শুক্রবার উইন্ডসর ক্যাসেলে ব্রিটিশ রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের স্বামী প্রিন্স ফিলিপ মৃত্যুবরণ করেন। তার বয়স হয়েছিল ৯৯ বছর।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ভূমিকম্পে ইন্দোনেশিয়ায় শতাধিক ভবন ধস, নিহত ৮

অনলাইন ডেস্ক

ভূমিকম্পে ইন্দোনেশিয়ায় শতাধিক ভবন ধস, নিহত ৮

ইন্দোনেশিয়ায় ভয়াবহ ভূমিকম্পে এ পর্যন্ত ৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন আরও অন্তত ১২ জন। এরমধ্যে দুইজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে। এছাড়াও বেশ কয়েকটি শহরের শতাধিক ভবন ধসে পড়েছে বলে দেশটির দুর্যোগ প্রশমন সংস্থা জানিয়েছে। খবর এএফপির।

শনিবার (১০ এপ্রিল) দেশটির পূর্ব জাভা, বালি দ্বীপসহ বেশ কয়েকটি প্রদেশে এ ভূমিকম্প অনুভূত হয়। রিখটার স্কেলে কম্পনের মাত্রা ছিল ৬।

দেশটির দুর্যোগ প্রশমন সংস্থা জানিয়েছে, ভূমিকম্পটির গভীরতা ছিল ভূপৃষ্ঠ থেকে ৮২ কিলোমিটার (৫০ মাইল)। এর কেন্দ্র ছিল পূর্ব জাভা দ্বীপের মালাং শহর থেকে প্রায় ৪৫ কিলোমিটার দূরে। ভূমিকম্প কবলিত এলাকার বেশ কয়েকটি গ্রামের বাসিন্দাদের সরিয়ে নেয়া হয়েছে। তবে সুনামি সতর্কতা জারি করা হয়নি।

আরও পড়ুন


ইউক্রেন সীমান্তে ‘ইস্কান্দার’ ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েন করেছে রাশিয়া

কি এমন দোয়া যা বিপদে পড়লেও করতে নিষেধ করেছেন প্রিয় নবী

রমজানুল মোবারক শুরুর আগে যে ১১ প্রস্তুতি নেয়া জরুরি

হাজী মাস্তান কর্নেল আকবরের গোপন বিয়ে রাম রহিম কাহিনি


স্থানীয় বাসিন্দা ইডা ম্যাগফিরোহ বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, ভূমিকম্পটি বেশ শক্তিশালী ছিল এবং এটি বেশ কিছুক্ষণ ধরে স্থায়ী হয়েছে। তিনি বলেন, সবকিছুই যেন কাঁপছিল।

প্রশান্ত মহাসাগরীয় রিং অব ফায়ারে অবস্থানের কারণে ইন্দোনেশিয়ায় প্রায়ই ভূমিকম্প আঘাত হানে। এর আগে ২০১৮ সালে সুলায়েশি দ্বীপের পালুতে ৭ দশমিক ৫ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্পে ৪ হাজার তিনশোর বেশি মানুষ মারা যায় বা নিখোঁজ হয়েছিল।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ইউক্রেন সীমান্তে ‘ইস্কান্দার’ ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েন করেছে রাশিয়া

অনলাইন ডেস্ক

ইউক্রেন সীমান্তে ‘ইস্কান্দার’ ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েন করেছে রাশিয়া

রাশিয়ার কৌশলগত ‘ইস্কান্দার’ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ইউক্রেন সীমান্তে মোতায়েন করা হয়েছে বলে কোনো কোনো গণমাধ্যম খবর দিয়েছে।

রুশ গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে ইরানের ফার্স বার্তা সংস্থা জানিয়েছে, রাশিয়া মার্চ মাসের শেষ দিক থেকেই ইউক্রেনের সীমান্তবর্তী অঞ্চলগুলোতে বিপুল পরিমাণ সামরিক সরঞ্জাম মোতায়েন করেছে। বিশেষ করে ক্রিমিয়া, বোরোনোঝ ও রোস্তভ অঞ্চলে রুশ সেনাবাহিনীর তৎপরতা ব্যাপকভাবে বেড়ে গেছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিও ক্লিপে দেখা যাচ্ছে, রাশিয়ার সেনাবাহিনী ভোরোনোঝ অঞ্চলে ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ‘ইস্কান্দার’ মোতায়েন করছে।

আরও পড়ুন


কি এমন দোয়া যা বিপদে পড়লেও করতে নিষেধ করেছেন প্রিয় নবী

রমজানুল মোবারক শুরুর আগে যে ১১ প্রস্তুতি নেয়া জরুরি

হাজী মাস্তান কর্নেল আকবরের গোপন বিয়ে রাম রহিম কাহিনি

মিলল মাওলানা মামুনুলের আরেক চাঞ্চল্যকর তথ্য, হতভম্ব গোয়েন্দারা


ইস্কান্দার এমন একটি ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা যা দিয়ে শত্রুসেনাদের ক্ষেপণাস্ত্র হামলা প্রতিহত করার পাশাপাশি ভূমিতে অবস্থিত শত্রুবাহিনীর রাডার ব্যবস্থায় হামলা করা যায়।

সাম্প্রতিক সময়ে ইউক্রেন এই অভিযোগ করেছে যে, দেশটির সীমান্ত এলাকাগুলোতে রাশিয়ার সামরিক তৎপরতা বেড়ে গেছে। এছাড়া রাশিয়ার সমর্থনপুষ্ট গেরিলারা পদ্ধতিগতভাবে পূর্ব ইউক্রেনে যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করে যাচ্ছে বলেও কিয়েভ অভিযোগ করেছে। এর আগে গতকাল রাশিয়া ইউক্রেন ইস্যুতে পূর্ণাঙ্গ যুদ্ধের হুমকি দিয়েছে। সূত্র: পার্সটুডে।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর