বড় চিকিৎসক হওয়ার স্বপ্ন পূরণ হলো না মনিরার

অনলাইন ডেস্ক

বড় চিকিৎসক হওয়ার স্বপ্ন পূরণ হলো না মনিরার

রাজশাহীর মেয়ে সিরাজুম মনিরা সোমা চীনের একটি মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস পাস করেন। এরপর গত বছরের মার্চ মাস থেকে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ইন্টার্নশিপ করছিলেন। সেখানে আরেক ইন্টার্ন চিকিৎসক এস এম রাকিবুল আজাদের সঙ্গে মনিরার পরিচয় হয়। এরপর তাঁদের মধ্যে সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

দুদিন আগে গত সোমবার সকালে সিরাজুম মনিরার লাশ উদ্ধার করে খিলক্ষেত থানা–পুলিশ। মুনিরার দুই হাত ও গলায় কালো স্কচটেপ দিয়ে প্যাঁচানো ছিল। খবর পেয়ে রাজশাহী থেকে ঢাকায় আসেন মনিরার মা–বাবা। মনিরার মা হোসনে আরা রাজশাহীর একটি স্কুলের শিক্ষিকা। আর বাবা আতাউর রহমান প্রাণিসম্পদ বিভাগের সহকারী উপসহকারী প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা।

সিরাজুম মনিরাকে খুন করার অভিযোগে রাকিবুল আজাদকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। এই খুনের রহস্য উদঘাটনের জন্য আজ বুধবার ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালত আজাদকে তিন দিন রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করার অনুমতি দিয়েছেন।

খিলক্ষেত থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুন্সী ছাব্বির আহম্মদ  বলেন, এ হত্যার ঘটনায় রাকিবুল আজাদ জড়িত বলে সন্দেহ করা হচ্ছে। দুজনে বাসা ভাড়া নিয়ে একসঙ্গে থাকতেন বলে জানা গেছে। তবে কী কারণে সিরাজুম মনিরাকে আজাদ খুন করেছেন, সেই বিষয়টি জানার চেষ্টা চলছে। আসামি আজাদকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে খুনের রহস্য জানা সম্ভব হবে।


কোহলির সঙ্গে খেলতে চায় সানি লিওন!

৪০তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষার ফল প্রকাশ

সন্তানদের মুখে দুমুঠো ভাত তুলে দিতে যৌনপেশা

নায়িকা তমার ‘গোপন ভিডিও’ প্রকাশের হুমকি দিলেন সাবেক স্বামী


বড় চিকিৎসক হওয়ার স্বপ্ন ছিল মুনিরার 

খুন হওয়া সিরাজুম মনিরার মা–বাবা ও ভাইয়ের সঙ্গে কথা বলে জানা গেল, সিরাজুম মনিরা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিকে জিপিএ–৫ পেয়েছিলেন। এরপর আট বছর আগে (২০১২) সালে যান চীনে। সেখানকার একটি মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস পাস করেন। বছর দুয়েক আগে তিনি বাংলাদেশে আসেন। এরপর গত বছরের মার্চ মাস থেকে ঢাকার কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ইন্টার্ন চিকিৎসক হিসেবে কাজ করছিলেন।

মনিরার বাবা আতাউর রহমান কিছুটা অসুস্থ। তাঁর মা হোসনে আরারও কিডনিজনিত সমস্যা রয়েছে।

আতাউর রহমান বলেন, চীন থেকে এমবিবিএস পাস করার পর তাঁর মেয়ে ঢাকায় থাকতে শুরু করেন। তাঁর মেয়ে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ইন্টার্ন শুরুর আগে তিনি একটি বাসা ভাড়া করে দিয়ে গিয়েছিলেন। তবে ইন্টার্ন শুরু করার পর গত বছর তাঁর মেয়ে জানিয়েছিলেন, হাসপাতালের কাছাকাছি কোনো বাসায় থাকতে পারলে সুবিধা হয়। তখন তিনি মেয়েকে পরামর্শ দেন হাসপাতালের কাছে একটি বাসা ঠিক করতে। মেয়ে মনিরাও তাঁকে জানিয়েছিলেন, হাসপাতালের কাছে খিলক্ষেতের একটি বাসায় সে উঠেছে।

খিলক্ষেত থানা–পুলিশ এবং মামলার নথিপত্রের তথ্য বলছে, গত বছরের এপ্রিল মাসে খিলক্ষেতের একটি বাসা ভাড়া নেন সিরাজুম মনিরা ও রাকিবুল আজাদ।

মনিরার মা হোসনে আরা মুঠোফোনে বলেন, ছোটবেলা থেকে তাঁর মেয়ের স্বপ্ন ছিল, সে একজন নামকরা চিকিৎসক হবেন। খুন হওয়ার আগের দিন দুপুরেও মনিরার সঙ্গে তাঁর কথা হয়। মনিরা লন্ডনে গিয়ে চিকিৎসাবিদ্যায় উচ্চতর ডিগ্রি নিতে চেয়েছিলেন। তাঁর স্বপ্ন ছিল, অনেক বড় নামকরা একজন চিকিৎসক হবেন।

মনিরার বাবা ও মামলার বাদী আতউর রহমান বলেন, ‘অনেক কষ্ট করে মেয়ের লেখাপড়ার খরচ জুগিয়েছি। আমার স্বপ্ন ছিল, মেয়ে যেন চিকিৎসক হয়ে মানুষের সেবা করতে পারে। মেয়ে এমবিবিএস পাসও করল। কিন্তু মেয়ে আমার মানুষের সেবা করার সুযোগ পেল না। যে আমার মেয়েকে খুন করেছে, তার যেন দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হয়।’

সূত্র: প্রথম আলো

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

তরুণীকে ধর্ষণ এবং অন্তঃসত্ত্বা হলে গর্ভপাতের অভিযোগ ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে

অনলাইন ডেস্ক

তরুণীকে ধর্ষণ এবং অন্তঃসত্ত্বা হলে গর্ভপাতের অভিযোগ ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে

বিয়ের আশ্বাস দিয়ে এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে বরিশাল মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি জসিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে।

ওই তরুণী গতকাল সোমবার রাতে জসিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে বিমানবন্দর থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন বলে নিশ্চিত করেন বরিশাল নগর পুলিশের বিমানবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কমলেশ হালদার।

তিনি আজ মঙ্গলবার দুপুরে বলেন, ওই তরুণী ছাত্রলীগের নেতা জসিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযোগটি প্রাথমিকভাবে তদন্ত করা হচ্ছে। সত্যতা পেলে মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করা হবে।

তবে মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি জসিম উদ্দিন অভিযোগটিকে মিথ্যা দাবি করেন।


মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে বেধড়ক পিটুনির ১মিনিট ৩২ সেকেন্ডের ভিডিও ভাইরাল

ডাক্তার-পুলিশের এমন আচরণ অনাকাঙ্ক্ষিত: হাইকোর্ট

একদিনে করোনা শনাক্ত ৪৫৫৯

২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ৯১ জন


তিনি বলেন, ওই তরুণী তাঁর আত্মীয়। তিনি গত রোববার বিয়ে করেছেন। এরপরই অজ্ঞাত কারণে ওই তরুণী তাঁর বিরুদ্ধে ধর্ষণের মিথ্যা অভিযোগ তুলেছেন। জসিমের দাবি, রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ তাঁকে ফাঁসাতে ওই তরুণীকে দিয়ে মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করিয়েছে।

লিখিত অভিযোগে তরুণী উল্লেখ করেছেন, ২০১৯ সালের ১০ সেপ্টেম্বর জসিম উদ্দিন তাঁর বাসায় ঢুকে তাঁকে ধর্ষণ করেন। এরপর বিয়ের আশ্বাস দিয়ে ঘুরতে যাওয়ার কথা বলে বিভিন্ন জায়গায় নিয়ে গিয়ে জসিম তাঁকে একাধিকবার ধর্ষণ করেন। একপর্যায়ে তরুণী অন্তঃসত্ত্বা হলে তাঁকে গর্ভপাতের ওষুধ খাওয়ানো হয় এবং নগরের সদর হাসপাতালে নিয়ে গর্ভপাত করানো হয়।

এরপর তিনি জসিম উদ্দিনকে বিয়ের জন্য চাপ দিলে গত ৫ মার্চ জসিম দুদিনের মধ্যে তাঁকে বিয়ে করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। তবে পরে জসিম তরুণীকে জানিয়ে দেন, তিনি বিবাহিত। তাঁকে (তরুণী) বিয়ে করা সম্ভব নয়।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রবাসীর স্ত্রীকে শ্বশুরবাড়িতেই ধর্ষণের পর হত্যা

অনলাইন ডেস্ক

প্রবাসীর স্ত্রীকে শ্বশুরবাড়িতেই ধর্ষণের পর হত্যা

সাউথ আফ্রিকা প্রবাসীর স্ত্রীকে শ্বশুরবাড়িতে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ উঠেছে। সোমবার রাতে টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার ১৩নং বাঁশতৈল ইউনিয়নের একটি বাড়ি থেকে দুই হাত পেছনে বাঁধা ও ফাঁসিতে ঝুলন্ত অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বাড়ির  আশপাশের লোকজন তার লাশ ঝুলন্ত অবস্থায় দেখে পুলিশকে খবর দেন। রাতে মির্জাপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে।

ঘটনার পর থেকেই বাড়ির লোকজন পলাতক রয়েছে বলে জানা গেছে।

ওই গৃহবধূর পিতা জানান, মেয়ের জামাই সাউথ আফ্রিকায় থাকায় বাড়ির লোকজনদের দেখাশোনার জন্য তার মেয়ে শ্বশুরবাড়িতেই বেশিরভাগ সময় থাকতো। রোজার কয়েক দিন আগে তার মেয়ে শ্বশুরবাড়ি থেকে তাদের বাড়িতে বেড়াতে আসে। দুই দিন আগে আবার শ্বশুরবাড়ি চলে যায়।

তিনি অভিযোগ করেন, তার মেয়ের নুনাসের জামাই বিভিন্ন সময় তার মেয়েকে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। আমার মেয়ে আমাকে সব ঘটনা মোবাইল ফোনে কয়েক দিন আগে জানায়। নুনাসের জামাইয়ের কুপ্রস্তাবের কথা আমার মেয়ের মোবাইলে রেকর্ডিং করা আছে বলে আমাদের জানিয়েছিল। আমার মেয়েকে ধর্ষণ করার পর হত্যা করা হয়েছে।

তিনি জানান, সোমবার রাতে পরিকল্পিতভাবে তার মেয়েকে খুন করে ওড়না দিয়ে দুই হাত পিছনে বেঁধে লাশ ফাঁসিতে ঝুলিয়ে রাখে।

এ ব্যাপারে মির্জাপুর থানার ওসি মো.রিজাউল হক বলেন, দুই হাত ওড়না দিয়ে পেঁচানো অবস্থায় গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের পর আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

সালথায় তাণ্ডব : সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান গ্রেফতার

অনলাইন ডেস্ক

সালথায় তাণ্ডব : সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান গ্রেফতার

ফরিদপুরের সালথায় সহিংস তাণ্ডবের ঘটনায় সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মো. ওয়াহিদুজ্জামানকে (৪০) গ্রেফতার করেছে ওয়াহিদুজ্জামানকে (৪০) গ্রেপ্তার করেছে ডিবি পুলিশ। সোমবার রাত ৮টার দিকে ডিবি পুলিশের একটি দল ফরিদপুর শহরের ঝিলটুলি এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে।

সালথার তাণ্ডবের ঘটনায় পুলিশের দায়ের করা মামলায় ওয়াহিদকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ। ওয়াহিদ উপজেলার ভাওয়াল ইউনিয়নের ইউসুফদিয়া গ্রামের মৃত আব্দুল হাই মোল্যার ছেলে।

বিষয় নিশ্চিত করে ফরিদপুরের পুলিশ সুপার আলীমুজ্জামান বলেন, সালথায় সরকারি অফিসে তাণ্ডবের ঘটনায় গ্রেফতার হওয়া সাত আসামির আদালতে দেওয়া স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে ওয়াহিদের নাম ওঠে আসায় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাণ্ডবের ঘটনায় সালথা থানা পুলিশের এসআই মিজানুর রহমানের দায়ের করা মামলায় ওয়াহিদকে গ্রেফতার দেখিয়ে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত, লকডাউনকে কেন্দ্র করে ও পরে নানা গুজব ছড়িয়ে গত ৫ এপ্রিল সোমবার রাতে সালথা উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন সরকারি অফিসে তাণ্ডব চালায় কয়েক হাজার উত্তেজিত জনতা। এ সময় দু’টি সরকারি গাড়িসহ কয়েকটি মোটরসাইকেল পুড়িয়ে দেয় তারা। এতে প্রায় আড়াই কোটি টাকার সম্পদ ধ্বংস হয়েছে।

এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত সালথা থানায় মোট সাতটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এতে মোট ৩৬৪ জনকে এজাহারভুক্ত আসামি করা হয়েছে। অজ্ঞাতনামা আসামি দেখানো হয়েছে আরও কয়েক হাজার জনকে। এসব মামলায় মঙ্গলবার সন্ধ্যা পর্যন্ত মোট ৯৯ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর মধ্যে ৯৫ জনকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। 

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে বেধড়ক পিটুনির ১মিনিট ৩২ সেকেন্ডের ভিডিও ভাইরাল

অনলাইন ডেস্ক

মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে বেধড়ক পিটুনির ১মিনিট ৩২ সেকেন্ডের ভিডিও ভাইরাল

কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী উপজেলায় দুই মাস আগে মাদ্রাসার এক শিক্ষার্থীকে করা নির্যাতনের এক মিনিট ৩২ সেকেন্ডের একটি ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। সোমবার (১৯ এপ্রিল) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এমডি লাভলু মিয়া মিলন নামের প্রোফাইলে ভিডিও ক্লিপটি আপলোড করা হয়।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন ভূরুঙ্গামারী উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. জাহাঙ্গীর হোসেন এবং থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আলমগীর হোসেনসহ মোবাইল কোর্ট।

তারা তৃতীয় জামায়াতের লাল মিয়া নামের ওই শিক্ষার্থী এবং তার বাবা মোতালেব হোসেনের জবানবন্দি নেন।

ওসি মো. আলমগীর বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে শিক্ষার্থী লাল মিয়া বলেছে- দুই মাস আগে তাকে শিক্ষক মো. আবু সাঈদ মারপিট করেছে। বিষয়টি ভয়ে কাউকে জানায়নি।

বাবা মোতালেব হোসেনসহ শিক্ষক এবং এলাকাবাসী জানান, তারাও ঘটনাটি জানতেন না। ফেসবুকে আপলোড করা ভিডিও দেখে তারা মারপিটের ঘটনা জানতে পেরেছেন।

ওসি আরও জানান, প্রাথমিকভাবে শিক্ষার্থী লাল মিয়ার শরীরে মারপিটের কোনো চিহ্ন পাওয়া যায়নি। এখন শিক্ষক মো. আবু সাঈদকে খোঁজা হচ্ছে। তাকে পাওয়া গেলে ওই শিক্ষার্থীকে মারধর করার বিষয়টি পরিষ্কার হবে। এছাড়াও ফেসবুকে আপলোড করা ভিডিওটি যাচাই করে দেখা হচ্ছে। 

আপলোড হওয়া ভিডিওটিতে দেখা যায়, মাদ্রাসার ঘরের ভেতরটা অন্ধকার। দিনে না রাতে ক্লাশ চলছে স্পষ্ট নয়। ক্লাসে অভিযুক্ত মাদ্রাসা শিক্ষক একহাতে একটি বই ও অন্য হাতে একটি লাঠি (বেত) নিয়ে বসে আছেন। কিছুক্ষণ পর গোলাপি পাঞ্জাবি পরিহিত একজন শিক্ষার্থীকে একটি আঘাত করেন। পরে সাদা পাঞ্জাবি পড়া একজন শিশু শিক্ষার্থীকে মাথা নিচু করে মাটিতে লাগিয়ে পেছনে সজোরে কয়েকটি আঘাত করেন। পরে ওই শিক্ষার্থীর হাত ধরে বেধড়ক পেটাতে থাকেন আবার কখনও মাটিতে আছড়াতে থাকেন। এতে ওই শিক্ষার্থী চিৎকার করতে থাকে। 

শিক্ষার্থী লাল মিয়ার বাবা এবং মাদ্রাসা সংলগ্ন মুদি দোকানদার মোতালেব মিয়ার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানিয়েছেন, বলে দেওয়া হোম ওয়ার্কের বদলে অন্য লেখা দেওয়ায় ওই শিক্ষক পিটিয়েছে বলে তার ছেলে লাল মিয়া তাকে জানিয়েছে।

মাদ্রাসার প্রধান মৌলভী মাওলানা আবু বক্কর সিদ্দিক জানান, শিক্ষার্থীকে নির্যাতন করার ঘটনা নিয়ে সোমবার বাদ আছর মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষের মিটিং হয়েছে। মিটিংয়ে নির্যাতনের শিকার হওয়া শিক্ষার্থীর বাবা মোতালেব মিয়ার বড়ভাই উপস্থিত ছিলেন। শিক্ষক মো. আবু সাঈদকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে আপত্তিকর পোস্ট, হেফাজত কর্মী আটক

অনলাইন ডেস্ক

ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে আপত্তিকর পোস্ট, হেফাজত কর্মী আটক

প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে আপত্তিকর একটি ভিডিও পোস্ট দেওয়ার অভিযোগে চাঁদপুরে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। তার নাম জাকারিয়া খান (২২)।

সোমবার (১৯ এপ্রিল) লক্ষ্মীপুর জেলার রামগঞ্জের একটি মাদ্রাসা থেকে তাকে আটক করে চাঁদপুরের গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। জাকারিয়ার বাড়ি চাঁদপুরে। চাকরি করেন লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জের একটি প্রতিষ্ঠানে।


পুলিশের হাতে চিকিৎসক হয়রানি, প্রতিবাদ এফডিএসআরের

সুরা আরাফ ও সুরা আনফালের বাংলা অনুবাদ

নারী ফুটবল দলে করোনার হানা

নিখোঁজের ১১২ দিন পর সেপটিক ট্যাঙ্কে মিলল নারীর লাশ

‘মামুনুলকে গ্রেপ্তারে সরকারের লকডাউন’ যারা বলছেন, তাদের বলছি


পুলিশ পরিদর্শক সানজিদ আহমেদ জানান, জেলা পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদের নির্দেশে ডিবি পুলিশের একটি দল অভিযান চালিয়ে জাকারিয়া খানকে আটক করে।

তিনি আরও জানান, খোঁজ নিয়ে ডিবি পুলিশ জেনেছে জাকারিয়া খান হেফাজতে ইসলামের একজন সক্রিয় কর্মী। চাঁদপুর শহরের সাত নাম্বার ওয়ার্ডে তার বাসা।

এদিকে সোমবার রাতেই চাঁদপুর ডিবি পুলিশের উপপরিদর্শক ইমাম হোসেন বাদী হয়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে সদর মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। এতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে আপত্তিকর পোস্ট বিষয়ক অভিযোগ আনা হয়েছে।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর