পরপুরুষের সঙ্গে যে নারী মদের আড্ডায় বসে সে ভালো হতে পারে না: কাদের মির্জা

অনলাইন ডেস্ক

পরপুরুষের সঙ্গে যে নারী মদের আড্ডায় বসে সে ভালো হতে পারে না: কাদের মির্জা

সরকার দলীয় সংসদ সদস্য একরাম চৌধুরী ও তার পরিবারের কড়া সমালোচনা করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই আবদুল কাদের মির্জা।  

বসুরহাট পৌরসভার মেয়র কাদের মির্জা একরাম চৌধুরীর স্ত্রী কবিরহাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শিউলী একরামের সমালোচনা করে বলেন, পরপুরুষের সঙ্গে যে নারী মদের আড্ডায় বসে, সেই ছবি আবার ফেসবুকে ভাইরাল হয়, সে কখনও ভালো হতে পারে না।  

কাদের মির্জা বুধবার সন্ধ্যায় বসুরহাট সরকারি মুজিব কলেজ মাঠে কোম্পানীগঞ্জ নাগরিক সমাজ আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন। 

আরও পড়ুন


ওবায়দুল কাদের ও মির্জা কাদেরকে এবার চ্যালেঞ্জ ছড়ে দিল ভাগিনা

অনুশীলনে যায়নি সাকিব

আইপিএল ইতিহাসের সবচেয়ে দামী খেলোয়াড় হতে যাচ্ছেন স্টার্ক!

এমপি পাপুলের চার বছরের সাজা কুয়েতের আদালতে


তিনি বলেন, একরাম চৌধুরী টেলিভিশন লাইভে বলেছেন– আমি নাকি অসুস্থ, আমার নাকি চিকিৎসার প্রয়োজন। আমি বলব– আমার নয়, তার (একরাম চৌধুরী) চিকিৎসার প্রয়োজন। 

কাদের মির্জা একরাম চৌধুরীর ছেলের সমালোচনা করে বলেন, আমরা একরাম চৌধুরীর মতো নই যে, নিজের সন্তানের হাতে অস্ত্র তুলে দেব। যেদিন আমার সন্তান অস্ত্র হাতে নেবে, সেদিন যেন আমার মৃত্যু হয়। তিনি একরাম চৌধুরীর ছেলেকে উদ্দেশ্য করে বলেন, তোমার বাবা আমার ছোট, তুমি আমার ছেলের মতো।  তোমার বাবার মুখের কথা– তুমি বিদেশ থেকে উচ্চশিক্ষিত, চেহারাও ভালো, তুমি তোমার অস্ত্র ফেলে দিয়ে শান্তির রাজনীতিতে এসো। কথা দিলাম আমরা তোমাকে সহযোগিতা করব। 

তিনি বলেন, একরাম চৌধুরী আমার গ্যাসফিল্ডের নামটা পর্যন্ত নিয়ে গেছে। গ্যাস পাওয়া গেছে কোম্পানীগঞ্জের শাহজাদপুরে; আর নাম দেওয়া হয়েছে কবিরহাটের সুন্দলপুরে। এসব বললে তিনি (ওবায়দুল কাদের) নাকি অসুস্থ, অসুস্থ হলে অপশক্তির কাছে মাথানত করেন কীভাবে? মন্ত্রীর (ওবায়দুল কাদের) কাছে লোকজন কোনো অভিযোগ নিয়ে যেতে পারে না উল্লেখ করে কাদের মির্জা বলেন, একরাম চৌধুরীর চামচারা সবসময় মন্ত্রীকে ঘিরে রাখে।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহাবউদ্দিনের সভাপতিত্বে ও মহিলা আওয়ামী লীগের নেত্রী ফরিদা ইয়াছমিন মুক্তা এবং নাজমা বেগম শিপার সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা খিজির হায়াত খান, সাধারণ সম্পাদক নুরনবী চৌধুরী প্রমুখ। 

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

এটা গ্রহণযোগ্য হবে না: ফখরুল

অনলাইন ডেস্ক

এটা গ্রহণযোগ্য হবে না: ফখরুল

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘আমি আগে বলেছি, এদেশের মানুষ জামুকার সিদ্ধান্ত কখনোই মেনে নেবে না। এটা গ্রহণযোগ্য হবে না। জিয়াউর রহমানের অবদানকে কেউ খাটো করে দেখাতে চাইলে খাটো করে দেখাতে পারবে না। এই খেতাব তো তিনি অর্জন করেছেন। এটা কারো দয়ায় পাওয়া নয়। যুদ্ধ করেছেন উনি এবং সেটা উনি পেয়েছেন, স্বাধীনতার ঘোষণা করেছেন, উনি সেটা অর্জন করেছেন। সুতরাং এটা নিয়ে আমরা মনে করি যে, জিয়াউর রহমানের কোনো রকমের কোনো ক্ষতি তারা করতে পারবে না।’

আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় দেশে ফিরে হযরত শাহ জালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের টার্মিনালে সাংবাদিকদের কাছে তিনি এই মন্তব্য করেন।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘সেখানে (সিঙ্গাপুর) বিদেশিদের টিকা দেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। আমরা এখানে এসে দেখব কি অবস্থা। রেজিস্ট্রেশন করে তখন চেষ্টা করব।


গণধর্ষণের চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে কলেজছাত্রীর গায়ে আগুন

বাবার সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে রাতধর ধর্ষণের শিকার মেয়ে

৩০-৩২ গার্লফ্রেন্ড থাকার পরও আমাকে ভালোবাসত নাসির: তামিমা

আমার সব প্রশ্নের জবাব ইসলামে পেয়েছি: কানাডিয়ান নারী


শরীরের অবস্থা কেমন প্রশ্ন করা হলে ফখরুল বলেন, ভালো না। আমি অসুস্থ, এখনো সুস্থ নই। সিঙ্গাপুরে ১৪ দিন কোয়ারেন্টিরে থেকে তারপরে ডাক্তারদের সঙ্গে দেখা করে সব পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে ফিরছি।’

সদ্য প্রয়াত সাংবাদিক সৈয়দ আবুল মকসুদ ও বাংলাদেশ ব্যংকের সাবেক গভর্নর খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘সৈয়দ আবুল মকসুদ আমার ব্যক্তিগত বন্ধু ছিলেন। আমি অত্যন্ত মর্মাহত হয়েছি তার মৃত্যু সংবাদে। খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ সাহেব নিঃসন্দেহে এই দেশের একজন মানুষ যাকে বলা যেতে পারে যে, এ ম্যান অব ইন্ট্রিগ্রেটি, ম্যান অনেস্টি এন্ড ডিগনেটি। ব্যাংকিং সেক্টারে তিনি একজন দিকপাল ছিলেন। দুই জনের মৃত্যুতে জাতি দুই জন অত্যন্ত যোগ্য মানুষকে হারালো।’

সন্ধ্যায় ৬টায় বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে মির্জা ফখরুল স্ত্রী রাহাত আরা বেগমকে নিয়ে দেশে ফেরেন। বিমানবন্দরের টার্মিনালের হুইল চেয়ারে করে গাড়ির কাছে আসেন এবং হুইল চেয়ারে বসেই তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন। গত ৩০ জানুয়ারি স্ত্রীকে নিয়ে চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুর যান বিএনপি মহাসচিব। সেখানে ফারার পার্ক হসপিটালে তার চিকিৎসা হয়।

২০১৫ সালে কারাবন্দী অবস্থায় ঘাড়ে ইন্টারন্যাল ক্যারোটিভ আর্টারিতে ব্লক ধরা পড়লে সিঙ্গাপুরে তার চিকিৎসা করেছিলেন ফখরুল। প্রতিবছরই ফলোআপ করতে তাকে সিঙ্গাপুর যেতে হয়। সর্বশেষ ২০১৯ সালের ৪ অক্টোবর তিনি সিঙ্গাপুর যান।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ঘুণে ধরা সমাজ বিনির্মাণ করতে পারে যুব সমাজ: এমপি মোশাররফ

অনলাইন ডেস্ক

ঘুণে ধরা সমাজ বিনির্মাণ করতে পারে যুব সমাজ: এমপি মোশাররফ

বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) আসনের সংসদ সদস্য মোশাররফ হোসেন বলেছেন, যুব সমাজের সব উদ্যোগকে স্বাগত জানাই। কারণ তারা বিপথে না গিয়ে খেলাধুলায় মনোযোগ দিয়েছে। আর এই যুব সমাজই পারে ঘুণে ধরা সমাজ বিনির্মাণ করতে।

মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) বিকালে কাহালুর কালাই ইউনিয়নের পাঁচগ্রাম হাইস্কুল মাঠে ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

এর আগে, এমপি মোশারফ মাঠের চলমান কাজের আগ্রগতি পরিদর্শন এবং মসজিদের প্রাচীর উদ্বোধন করেন। এসময় মসজিদ কমিটি এমপিকে ধন্যবাদ জানান।


প্রতিদিন নতুন নারী লাগত তার, পরতেন ত্রিশ দিনে ৩০ সানগ্লাস

১৭ বছরের কিশোরীর পেটে ৪৮ সেন্টিমিটার লম্বা চুলের দলা

ছোট ভাই মাকে বলল,‘আপুকে পেছনের রুমে নিয়ে গেছে এক ভাইয়া

স্ত্রীকে সৌদি পাঠিয়ে ৮ বছরের মেয়েকে নিয়মিত ধর্ষণ করে বাবা

৬৬ নারীকে ধর্ষণ করেছে এক ‌‘ডেলিভারি বয়’


পাঁচগ্রাম ব্যাডমিন্টন ক্লাব আয়োজিত এ পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন কালাই ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান আবু তাহের সরদার হান্নান, গণমাধ্যমকর্মী আরাফাত আলী, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা ও চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী রুবেল হোসেন, সাবেক চেয়ারম্যান জাহেদুর রহমান, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা ও চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী শামীম খন্দকার, ইউনিয়ন বিএনপি নেতা ও চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী শাহাজাহান আলী, চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী জহুরুল ইসলাম, সাবেক ইউপি সদস্য শহিদুল ইসলাম।

ইউপি সদস্য মুজিবুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন পাইকড় ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান মিঠু চৌধুরী, কালাই ইউনিয়ন বিএনপির আহ্বায়ক জিল্লুর রহমান খান মিন্টু, ইউনিয়ন বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক আ. সবুর খান, হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক মোস্তফা, মৌলভী শিক্ষক আলীম, পাঁচগ্রাম ব্যাডমিন্টন ক্লাবের সভাপতি আলমগীর, সাধারণ সম্পাদক তৌফিক ও সিনিয়র সহসভাপতি শাহাদত সরকার সোহান, দফতর সম্পাদক আরিফসহ আওয়ামী লীগ ও বিএনপির নেতাকর্মীরা।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

স্কুল খোলার উস্কানি দেশকে মহামারীর দিকে নেওয়ার ষড়যন্ত্র: আমু

অনলাইন ডেস্ক

স্কুল খোলার উস্কানি দেশকে মহামারীর দিকে নেওয়ার ষড়যন্ত্র: আমু

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সমন্বয়ক ও মুখপাত্র আমির হোসেন আমু বলেছেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাহসী ও সুদূরপ্রসারী নেতৃত্বের কারণে করোনা সংকট উত্তরণের পথে আজ বাংলাদেশ। সকল প্রতিকূলতা উপেক্ষা করে দেশকে যখন তিনি উন্নয়ন আর অগ্রযাত্রার পথে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন, সাধারণ মানুষের আশা-আকাঙ্ক্ষা বাস্তবায়ন করছেন, স্কুল-কলেজ খুলে দেওয়ার মতো পরিবেশ সৃষ্টি হচ্ছে, তখনই আবার ষড়যন্ত্রকারীরা মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে, বিভিন্ন ইস্যুতে উস্কানী দিচ্ছে।

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষ্যে কেন্দ্রীয় ১৪ দলের ভার্চুয়াল আলোচনাসভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

আরও পড়ুন:


স্ত্রীকে সৌদি পাঠিয়ে ৮ বছরের মেয়েকে নিয়মিত ধর্ষণ করে বাবা

বন্ধুর স্ত্রীর ‘গোপন ভিডিও’ ধারণ, ভয় দেখিয়ে আটমাস ধরে ‘ধর্ষণ’

কুমিল্লাগামী বাসে দরজা-জানালা বন্ধ করে তরুণীকে ধর্ষণ!

কলাইক্ষেতে নারীর অর্ধনগ্ন মরদেহ, পাশে পাজামা-ছাতা-স্যান্ডেল


আমির হোসেন আমু বলেন, করোনা সংকটকালে স্কুল-কলেজ খুলে দেওয়ার জন্য যারা উস্কানি দিচ্ছে, ছাত্রসমাজের তো নয়-ই তারা দেশ ও জাতির শত্রু। ওই ষড়যন্ত্রকারীরা দেশকে একটি ভয়াবহ মহামারীর দিকে নিয়ে যাওয়ার অপচেষ্টা চালাচ্ছে।

বিএনপির উদ্দেশ্যে আমির হোসেন আমু বলেন, পায়ের নীচে মাটি না থাকলে আন্তর্জাতিক বলয়ের সাথে হাত মিলিয়ে দেশীয় ভিত কাঁপানো যায় না। আওয়ামী লীগ সরকারের শিকড় অনেক গভীরে।

আওয়ামী লীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক  মৃনাল কান্তি দাসের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন- আওয়ামী লীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য, কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি,  জাতীয় পার্টি জেপির সাধারণ সম্পাদক শেখ শহীদুল ইসলাম, বাংলাদেশের  ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদের সাধারণ সম্পাদক শিরিন আক্তার, তরিকত ফেডারেশনের চেয়ারম্যান নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী, বাংলাদেশ গণ আজাদী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট এস কে সিকদার, গণতন্ত্রী পার্টি র সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদাত হোসেন, কমিউনিস্ট কেন্দ্রের আহবায়ক ডা. ওয়াজেদ আলী খানসহ ১৪ দলের নেতারা।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

নতুন কৌশলে মাঠে কাদের মির্জা

নিজস্ব প্রতিবেদক

নতুন কৌশলে মাঠে কাদের মির্জা

কেন্দ্রের নির্দেশে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের সব সাংগঠনিক কার্যক্রম স্থগিত আছে। 

আজ সকালে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ এইচ এম খায়রুল আনম চৌধুরী স্বাক্ষরিত একটি চিঠিতে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা, পৌরসভা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের সব সাংগঠনিক কার্যক্রম স্থগিতের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হয়। 

যাতে বলা হয়েছে সংগঠনের ঊর্ধ্বতন নেতৃবৃন্দ ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক ওই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

চিঠিতে পুনরায় আদেশ না দেওয়া পর্যন্ত কেন্দ্রের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী জাতীয় দিবস ও জাতীয় কর্মসূচি ছাড়া কোনো ধরনের সভা-সমাবেশ থেকে বিরত থাকার জন্য সব পর্যায়ের নেতা-কর্মীদের প্রতি অনুরোধ জানানো হয়েছে। চিঠিতে সাম্প্রতিক সময়ের অস্থিতিশীল পরিস্থিতি এড়াতে সব কর্মসূচি বাদ দিয়ে সহনশীল আচরণ বজায় রাখার জন্য আহ্বান জানান জেলা সভাপতি।

এ অবস্থায় নতুন কৌশলে বসুরহাটের মাঠ গরম রাখার চেষ্টা করছেন বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা। তিনি আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক ও সেতুমন্ত্রীর ছোট ভাই।

কৌশলের অংশ হিসেবে আজ সকাল ৯টার দিকে তিনি পৌরসভার লোকজন ও কয়েকজন দলীয় কর্মীকে নিয়ে পৌর এলাকায় করোনাভাইরাসের টিকা গ্রহণে উদ্বুদ্ধকরণ ও সচেতনতামূলক প্রচারণা চালান। তাঁর সঙ্গে থাকা এক ব্যক্তি হ্যান্ডমাইকে টিকা নেওয়ার ঘোষণা প্রচার করেন। এই আয়োজন কাদের মির্জার একাধিক অনুসারী ফেসবুকে লাইভ প্রচার করেন।


ক্রাইস্টচার্চে পৌঁছেছে টাইগাররা

স্পেনে ঢুকতে অভিবাসীর অভিনব পন্থা

গোয়েন্দাদের ব্যর্থতাতেই ক্যাপিটলে হামলা

মিয়ানমারের ১০৮৬ নাগরিককে ফেরত পাঠালো মালয়েশিয়া


ফেসবুকে লাইভ প্রচার করা ওই ভিডিওতে দেখা যায়, প্রচারণার একপর্যায়ে কাদের মির্জা তাঁর এক অনুসারী দলীয় কর্মীকে ডেকে বলছেন, ‘আজ তুমি গিয়ে শক্ত হয়ে অফিসে বসে থাকবে।’ এ কথা বলার পাশাপাশি কাদের মির্জা ওই কর্মীকে আরও কিছু নির্দেশনা দেন। এই কথাগুলো স্পষ্ট নয়।

সাংগঠনিক কার্যক্রম স্থগিত প্রসঙ্গে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ এইচ এম খায়রুল আনম চৌধুরী বলেন, কেন্দ্রের নির্দেশনা অনুসারে সাংগঠনিক কার্যক্রম স্থগিত আছে। এ সময় কোম্পানীগঞ্জ আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের কোনো পর্যায়ের নেতা সভা-সমাবেশ, এমনকি ফেসবুক লাইভে এসে বক্তৃতা ও বিবৃতি প্রচার করতে পারবেন না। কেউ যদি তা করেন, তাঁর বিরুদ্ধে কঠোর সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

নোয়াখালীতে কাদের মির্জার সেই মঞ্চ গুটিয়ে নিলেন

আকবর হোসেন সোহাগ, নোয়াখালী

নোয়াখালীতে কাদের মির্জার সেই মঞ্চ গুটিয়ে নিলেন

অবশেষে মঞ্চটি গুটিয়ে নিলেন বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা। এ মঞ্চেই গত প্রায় দেড় মাস ধরে সত্য বচন গেয়েছিলেন তিনি। মঙ্গলবার রাত ৯টা থেকে মঞ্চ সরানোর কার্যক্রম শুরু হয়। 

মঞ্চ সরানোর সময় আবদুল কাদের মির্জা কিছু সময় স্বশরীরে উপস্থিত ছিলেন। পরে ঘটনাস্থলে যান কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুপ্রভাত চাকমা ও ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জাহিদুল হক রনি উপস্থিত ছিলেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আবদুল কাদের মির্জা বসুরহাট পৌরসভার নির্বাচনের পর থেকেই কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ের সামনে শহরের রূপালি চত্তরে বাঁশের খুটি পুঁতে ও কাঠ দিয়ে মঞ্চ তৈরি করে এখানে তার নানা কর্মকান্ড পরিচালনা করে আসছেন।


ভাইরাল পাকিস্তানি ‘স্ট্রবিরিয়ানি’

যুক্তরাজ্য মুরগির মাংস খেয়ে মৃত ৫, অসুস্থ কয়েকশ

জাতিসংঘের গাড়িবহরে হামলা, ইতালির রাষ্ট্রদূতসহ নিহত তিন

স্কুলের খাদ্য তালিকা থেকে মাংস বাদ দিয়ে বিপাকে মেয়র


অন্তত দেড় মাস ধরে এ মঞ্চে তিনি দলীয় নেতাকর্মীদের নামের সঙ্গে অনিয়ম-দুর্নীতিসহ নানা অভিযোগের তকমা মাখেন। অবশেষে মঙ্গলবার রাতে ওই মঞ্চটি তিনি সরিয়ে নেন। 

এ বিষয়ে তার মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তিনি ফোন ধরেননি। পরে কথা হয় কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জাহিদুল হক রনির সঙ্গে। তিনি জানান, আবদুল কাদের মির্জাকে তার মঞ্চ সরিয়ে নিতে বলা হলেও তিনি তা নেননি। 

প্রশাসন মঞ্চের কাছ থেকে সরে গেলে তিনি পুনরায় সেখানে কর্মসূচি করার চেষ্টা করেন। এক পর্যায়ে রাত ৯টার দিকে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার সহকারী কমিশনার সুপ্রভাত চাকমাসহ পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে তিনি মঞ্চটি সরিয়ে নেন। 

news24bd.tv আয়শা

মন্তব্য

পরবর্তী খবর