বিয়ের প্রলোভনে প্রেমিকাকে ধর্ষণ

অনলাইন ডেস্ক

বিয়ের প্রলোভনে প্রেমিকাকে ধর্ষণ

বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রেমিকাকে একাধিকবার ধর্ষণ করেন প্রেমিক মকছুদুল ইসলাম তাহদিল(২৪)। প্রেমিক বিয়ে নিয়ে টালাবাহানা শুরু করলে তরুণীটি মকছুদুলকে বিয়ের জন্য চাপ দেয়। একপর্যায়ে তরুণীকে মুখ না খোলার জন্য নানা রকম ভয়ভীতি দেখানো হয়। 

শনিবার (৩০ জানুয়ারি) রাতে তরুণী ধর্ষণের অভিযোগে থানায় তাহদিলকে একমাত্র আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা নং-৩১ দায়ের করেন।

মামলার এজাহার নামীয় আসামি মকছুদুল ইসলাম তাহদিল জালালাবাদ থানাধীন বাছিরপুর মোল্লাবাড়ী গ্রামের রহিম উদ্দিনের ছেলে। মামলা দায়েরের পর থেকে লাপাত্তা রয়েছে তাহদিল।


শিশুকে ধর্ষণের পর জুতার ফিতা দিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা

বিদেশিদের জন্য সুযোগ, নাগরিকত্ব দেবে আমিরাত

রাজধানীর যেসব এলাকায় মার্কেট বন্ধ থাকবে আজ

পর্দা করে মিডিয়াতে কাজ করা সম্ভব না : সুজানা


 

পুলিশ জানায়, বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গত ২১ জানুয়ারি রাত সাড়ে ১০টার দিকে তাহদিল জালালাবাদ থানাধীন নোয়াগাঁও গ্রামের ওই তরুণীর বাড়িতে যায়। এ সময় তাহদিল ওই তরুণীকে একটি কক্ষে নিয়ে ধর্ষণ করে। শনিবার রাতে ওই তরুণীকে জালালাবাদ থানা পুলিশ সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতে ভর্তি করে।

জালালাবাদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজমুল হুদা খান জানান, তরুণীকে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করা হয়েছে বলে থানায় ভিকটিম বাদী হয়ে অভিযোগ দাখিল করলে পুলিশ মামলা হিসেবে তা নথিভুক্ত করে। মামলার এজাহার নামীয় আসামি একজন। পুলিশ তাকে গ্রেফতার করার জন্য অভিযান চালাচ্ছে। আর নির্যাতিতাকে হাসপাতালের ওসিসিতে ভর্তি করা হয়েছে।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রতিবন্ধী নারীকে বাস থেকে ফেলে দেওয়ার ঘটনায় চালক ও সহকারি গ্রেপ্তার

অনলাইন ডেস্ক

প্রতিবন্ধী নারীকে বাস থেকে ফেলে দেওয়ার ঘটনায় চালক ও সহকারি গ্রেপ্তার

রাজধানীর কেরাণীগঞ্জে বাস ভাড়া দিতে না পারায় বাক প্রতিবন্ধী নারীকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেওয়ার ঘটনায় চালক ও হেলপার কে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব।  এন মল্লিক পরিবহনের চালক ও সহকারিকে গেপ্তার করেছে র্যাব-১০। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন মো. নাহিদ (১৯) ও মো. সবুজ (২৫)।  

আজ মঙ্গলবার (৯ মার্চ) সকালে ওই আসামিদের গ্রেপ্তারের বিষয়টি সংবাদ মাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন র‌্যাব-১০ এর মেজর শাহরিয়ার জিয়াউর রহমান।

মেজর শাহরিয়ার জিয়াউর রহমান আরও বলেন, কেরাণীগঞ্জের কুটিয়ামাড়া এলাকা থেকে রাতে অভিযান চালিয়ে আসামিদের গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় এন মল্লিক পরিবহনের বাসটিও জব্দ করা হয়।

চলন্ত বাস থেকে ওই নারীকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়ার একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে। রোববার (৭ মার্চ) ঢাকা-নবাবগঞ্জ সড়কের রোহিতপুর নামক স্থানে ঘটনাটি ঘটে। ভিডিওতে দেখা যায়, সড়কটিতে চলাচলকারী এন মল্লিক পরিবহনের (ঢাকা মেট্রো-ব-১৩-১৫২১) শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত একটি বাস থেকে হঠাৎ করে এক নারীকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়া হয়।


যে কারণে অভিনয় ছেড়েছিলেন প্রয়াত নায়ক শাহীন আলম

কলকাতায় বহুতল ভবনে ভয়াবহ আগুন, নিহত ৯

নামাজে মুস্তাহাব কাজগুলো কী জেনে নিন

কেয়ামতের দিন যে সূরা বান্দার হয়ে আল্লাহর কাছে সুপারিশ করবে


গাড়ি থেকে ধাক্কা দিয়ে এক নারীকে ফেলে দেয়ার ঘটনা চোখের সামনে দেখে হতবাক হয়ে যায় আশপাশের লোকজন। তারা আঘাতপ্রাপ্ত ওই নারীকে প্রাথমিকভাবে টেনে তুলে তাকে সুস্থ করার চেষ্টা করেন। কথা বলার চেষ্টা করেন ওই নারীর সাথে। আহত ওই নারী ইশারায় জানান, তিনি কথা বলতে পারেন না। পরে তাঁর হাতে একটি কলম দেয়া দেয়া হলে পুরো ঘটনা লিখে জানান তিনি।

ওই নারী লিখেন, ‘এন মল্লিক কোনাখোলা থেকে উঠাইছে, ভাড়া নাই, এন মল্লিক আমার থেকে কোনদিন ভাড়া নেয় না, ওরা ভাড়া চায়, দিতে না পারায় এমন ব্যবহার করেছে।’

আর একটি কাগজে তিনি লিখেন, ‘এখন যাব কি করে, আমার পা দিয়ে হাঁটতে পারছি না ব্যথা। আমারে একটু ব্যথার ওষুধ দিবা, দুই কান ভন ভন করছে, ব্যথা করছে, মাথা ধরছে।’

আরও লিখেন, ‘তার বাড়ি জয়পাড়া ঋষিপাড়া, নিচে লিখেন, ওই হেলপারের নাকি জরিমানা দিতে হবে, আমার ভাড়া নাই তাই। এন মল্লিক ওঠায়ে দিবে জয়পাড়ার গাড়িতে।’

তবে আজ এবিষয়ে র্যাব কুর্মিটোলা সদর দপ্তরে সংবাদ সম্মেলন করে বিস্তারিত জানাবে। এই ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হলে তা জনমনে অসন্তোষের সৃষ্টি করে। 

news24bd.tv আয়শা

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

টেকনাফে বিজিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ২

অনলাইন ডেস্ক

টেকনাফে বিজিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ২

কক্সবাজারের টেকনাফে বর্ডার গার্ড বাংলদেশের (বিজিবি) সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই ইয়াবা ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার (৯ মার্চ) ভোররাতে মাদক উদ্ধার অভিযানে ওই দুইজন নিহত হন বলে দাবি করেছে বিজিবি।

টেকনাফ-২ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এ সময় তিনি বলেন, নিহত ব্যক্তিরা মাদকের চালান পাচারকালে গুলিবিনিময়ে নিহত হন। ঘটনাস্থল থেকে তিন লাখের বেশি পিস ইয়াবাসহ দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। তবে নিহতদের পরিচয় এখনও পাওয়া যায়নি।

আরও পড়ুন


‘সহবাসে’ নিয়ে নতুন সিদ্ধান্ত সায়নীর (ভিডিও)

অতিরিক্ত আইজিপি মাহবুব হোসেনের চুক্তির মেয়াদ বাড়ল

মেসেঞ্জারে আপত্তিকর ছবি পাঠিয়ে কলেজছাত্রীকে অনৈতিক প্রস্তাব

জটিলতা কাটিয়ে অবশেষে বনানী কবরস্থানেই সমাহিত শাহিন আলম


লে. কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খান বলেন, ভোর রাতে একটি মাদকের চালান আসার গোপন সংবাদ আসে। এর ভিত্তিতে বিজিবির একটি দল সেখানে অবস্থান নেন। এসময় কয়েকজন লোক দেখে চ্যালেঞ্জ করলে মাদককারবারি চক্রের সদস্যরা বিজিবিকে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করে। এ সময় বিজিবিও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। পরে মাদক পাচারকারীরা কেওরা বাগানের দিকে পালিয়ে যায়। এ সময় বিপুল পরিমাণ ইয়াবা, দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়।

পরে বিজিবি সদস্যরা ঘটনাস্থল থেকে দুই জনের মরদেহ উদ্ধার করে। গোলাগুলির সময় বিজিবির দুই সদস্য আহত হন।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

মেসেঞ্জারে আপত্তিকর ছবি পাঠিয়ে কলেজছাত্রীকে অনৈতিক প্রস্তাব

অনলাইন ডেস্ক

মেসেঞ্জারে আপত্তিকর ছবি পাঠিয়ে কলেজছাত্রীকে অনৈতিক প্রস্তাব

লক্ষ্মীপুরে এক কলেজছাত্রীর ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে তার আত্মীয়-স্বজনদের মেসেঞ্জারে আপত্তিকর ছবি পাঠিয়ে ওই কলেজছাত্রীকে অনৈতিক প্রস্তাব দিয়েছে একটি প্রতারক চক্র। এছাড়া মোটা অংকের টাকাও দাবি করা হয়েছে ওই ছাত্রীর কাছ থেকে।

এসব ঘটনায় সোমবার সন্ধ্যায় থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন বিব্রত কলেজছাত্রী। অভিযোগে তিনি জানান, গত বছরের ২ ডিসেম্বর তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি হ্যাক হয়ে যায়। ফেসবুকে তার কিছু ব্যক্তিগত ছবি ছিল। ওইসব ছবি দিয়ে নামে-বেনামে আরো কয়েকটি অ্যাকাউন্ট খোলা হয়েছে। এরপর সেসব অ্যাকাউন্ট থেকে ওই ছাত্রীর ব্যক্তিগত ছবি আপত্তিকরভাবে উপস্থাপন করে আত্মীয়-স্বজনদের মেসেঞ্জারে পাঠানো হচ্ছে। একই সঙ্গে হ্যাকার তাকে অনৈতিক কাজে সম্পৃক্ত করতে ও মোটা অংকের টাকা দিতেও চাপ প্রয়োগ করে। এসবে রাজি না হলে ব্যক্তিগত ছবিগুলো ইন্টারনেটে ভাইরাল করার হুমকি দেয়া হয়েছে ওই ছাত্রীকে।

আরও পড়ুন


জটিলতা কাটিয়ে অবশেষে বনানী কবরস্থানেই সমাহিত শাহিন আলম

লিফটে করে ১৩ তলার আগুনের উৎস খুঁজতে উঠাই কাল হল

চাঁদপুরে পরিত্যক্ত ইটভাটায় চাষ হচ্ছে বিদেশি চেরি টমেটো

ভারতের ২ যুদ্ধ জাহাজ ৩ দিনের শুভেচ্ছা সফরে বাংলাদেশে


ভুক্তভোগী ছাত্রী বলেন, ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি উদ্ধারের জন্য আমি হ্যাকারকে অনেকবার মেসেজ পাঠিয়েছি। সে কোনো সাড়া দেয়নি। আমি মানসিকভাবে চরম বিব্রত। আমাকে ও আমার পরিবারকে সামাজিকভাবে হেয় করা হচ্ছে।

লক্ষ্মীপুর মডেল থানার এএসআই পারভিন সুলতানা বলেন, ‘ফেসবুক অ্যাকাউন্ড হ্যাক হওয়ার বিষয়ে ওই ছাত্রীর অভিযোগ পেয়েছি। এটি তদন্ত করে দ্রুত আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

আত্মহত্যার পর স্কুলছাত্রীর আপত্তিকর ভিডিও ফাঁস, যুবক পলাতক

নিজস্ব প্রতিবেদক

আত্মহত্যার পর স্কুলছাত্রীর আপত্তিকর ভিডিও ফাঁস, যুবক পলাতক

রংপুরের বদরগঞ্জে নবম শ্রেণির এক ছাত্রীর আত্মহত্যার ঘটনা নিয়ে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। এ ঘটনায় কোতোয়ালি থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। ৫ জানুয়ারি মেয়েটি আত্মহত্যা করেছে বলে সেখানে উল্লেখ করা হয়েছে।

বিষপানে আত্মহত্যা করে মেয়েটি। তবে সে কি কারণে আত্মহননের পথ বেছে নিলো? সেটির কারণ এখনো জানাতে পারেনি পুলিশ। তবে তার আত্মহত্যার কিছুদিন পর স্থানীয় যুবক হাফিজুর রহমানের (৩০) সঙ্গে তার একটি আপত্তিকর ভিডিও ফাঁস হয়েছে। অভিযুক্ত হাফিজুর বদরগঞ্জ উপজেলার সাবেক ইউপি সদস্য ইউনুছ আলীর ছেলে। 

ভিডিওটি এলাকায় ভাইরাল হয়েছে ১৫ দিন আগে। এর পর থেকে কিশোরীর বিধবা মা বাড়িতে নেই। তিনি কোথায় গেছেন, প্রতিবেশীরা কেউ বলতে পারছেন না।

এদিকে ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত হাফিজুর পলাতক।

স্থানীয় লোকজনের ধারণা, ১৫ বছরের ওই মেয়েটিকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে হাফিজুর রহমান। সংখ্যালঘু পরিবারের মেয়েটিকে ব্ল্যাকমেল করতেই ভিডিওটি ধারণ করা হয়। এ নিয়ে ক্ষোভ-লজ্জায় মেয়েটি আত্মহননের পথ বেছে নিতে পারে। ৪ মিনিট ২৩ সেকেন্ডের ভিডিওটিতে হাফিজুরকে দেখা যায়। অভিযোগ উঠেছে, ওই ভিডিও ধারণ করেছেন বিপুল চন্দ্র (২৬) নামের একজন। বিপুলের সঙ্গে হাফিজুরের বন্ধুত্ব আছে।

স্থানীয় লোকজন জানান, ওই কিশোরীর বাবা মারা গেছেন আট বছর আগে। তিনি দিনমজুরি করে সংসার চালাতেন। তিন বোনের মধ্যে ওই কিশোরী ছোট। বড় দুই বোনের বিয়ে হয়েছে। গত ৫ জানুয়ারি সকালে নিজ বাড়িতে কিশোরীটি বিষ পান করে। মেয়েটিকে বদরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পর সেখানকার চিকিৎসকেরা তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিতে বলেন। রংপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই দিন সন্ধ্যায় সে মারা যায়।


চলন্ত বাস থেকে ফেলে দেওয়া হলো প্রতিবন্ধী নারীকে

অর্থনীতির নতুন পথ সন্ধানের এখনই সময়

৫ বছরে লাশ হয়ে দেশে ফিরেছেন ৪৮৭ নারী শ্রমিক

সন্তানদের নিয়ে রাজনীতি করবেন না : শ্রীলেখা


বদরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসক (আরএমও) নাজমুল হুসাইন বলেন, ‘বিষ পান করলে কিশোরীটিকে আমাদের হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। পরে শুনেছি মেয়েটি সেখানে মারা গেছে।’

সরেজমিনে জানা যায়, ভিডিওটি এলাকায় ভাইরাল হয়েছে ১৫ দিন আগে। এর পর থেকে কিশোরীর বিধবা মা বাড়িতে নেই। তিনি কোথায় গেছেন, প্রতিবেশীরা কেউ তা জানেন না। বাড়িতে তালা ঝুলছে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে এলাকার দুই ব্যক্তি অভিযোগ করেন, হাফিজুর রহমান মেয়েটিকে ব্ল্যাকমেল করায় মেয়েটি আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছে। মেয়েটিকে আত্মহত্যার পথে যে বা যারা ঠেলে দিয়েছে, তদন্ত সাপেক্ষে তাদের বিচার হওয়া উচিত বলে তাঁরা মন্তব্য করেন।

অভিযুক্ত হাফিজুর রহমানের বাবা ইউনুছ আলী বলেন,  ‘আমি ইউপি নির্বাচন করব। প্রতিপক্ষরা আমাকে ও আমার পরিবারকে ঘায়েল করতে আমার ছেলের নামে এমন অপপ্রচার ছড়াচ্ছেন।’ হাফিজুরের খোঁজ জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘চার-পাঁচ দিন ধরে সে বাড়িতে নেই।’

জানা গেছে, মেয়েটি আত্মহনন করার পর এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে বিপুল চন্দ্রের মুঠোফোনে হাফিজুর রহমান ও আত্মহত্যা করা কিশোরীর ভিডিও আছে। তিন যুবক ১৫-১৬ দিন আগে স্থানীয় বাজারে বিপুলকে আটক করে তার মুঠোফোন থেকে মেমোরি কার্ড খুলে নেওয়ার পর এলাকায় ওই ভিডিও ভাইরাল হয়।

স্থানীয় লোকজন জানান, মুঠোফোন থেকে জোর করে মেমোরি কার্ড খুলে নিয়ে ভিডিও ভাইরাল করার ঘটনায় বিপুল চন্দ্র গত ১৮ ফেব্রুয়ারি আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিয়ে তিনি সুস্থ হয়েছেন। 

বিপুলের মা উজালী রায় বলেন, ‘মাথার সমস্যার কারণে আমার ছেলে বিষ পান করেছিল। দুই দিন ধরে সে বাড়িতে নেই। আমার ছেলে কারও ভিডিও ধারণ করেনি।’

বদরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আরিফ আলী বলেন, ‘মেয়েটি রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যাওয়ায় রংপুর কোতোয়ালি থানায় ইউডি মামলা হয়েছে। তবে কেন আত্মহত্যা করেছিল, এ বিষয়ে আমাদের কাছে কোনো তথ্য নেই। ভিডিও ছড়ানোর বিষয়ে আমরা কোনো অভিযোগ পাইনি। পেলে অবশ্যই আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’ 

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ঠাকুরগাঁওয়ে মরিচ ক্ষেত থেকে মরদেহ উদ্ধার

আব্দুল লতিফ লিটু, ঠাকুরগাঁও

ঠাকুরগাঁওয়ে মরিচ ক্ষেত থেকে মরদেহ উদ্ধার

ঠাকুরগাঁও রুহিয়া থানাধীন পাটিয়াডাঙ্গীতে খলিল (৫০) নামে একব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

আজ সকালে সদর উপজেলার রাজাগাঁও ইউনিয়নের পাটিয়াডাঙ্গিতে একটি মরিচ ক্ষেত থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। মৃত খলিল বড়গাঁও ইউনিয়নের মোলানখুড়ী গ্রামের মৃত গফুর আলীর ছেলে।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, খলিল উদ্দিন গতকাল বিকেলে পাটিয়াডাঙ্গী বাজারে যায়। বাসায় ফিরতে দেরি হলে পরিবারের লোকজন অনেক খোঁজাখুঁজি করেন। পরে স্থানীয়ারা রাত ২টায় সময় বাজারের পাশে মরিচ ক্ষেতে মোবাইলফোন ও টাকাসহ খলিলের মরদেহ পরে থাকতে দেখে ৯৯৯ নম্বরে কল করলে রুহিয়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহটি উদ্ধার করে।


চলন্ত বাস থেকে ফেলে দেওয়া হলো প্রতিবন্ধী নারীকে

অর্থনীতির নতুন পথ সন্ধানের এখনই সময়

৫ বছরে লাশ হয়ে দেশে ফিরেছেন ৪৮৭ নারী শ্রমিক

সন্তানদের নিয়ে রাজনীতি করবেন না : শ্রীলেখা


রুহিয়া থানার ওসি চিত্তরঞ্জন রায় জানান, মরদেহটির ময়না তদন্ততের জন্যে মর্গে পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর