মোটু(ম্যারাডোনা) বিছানা নোংরা করে মরবে : ব্যক্তিগত চিকিৎসক
Breaking News
মোটু(ম্যারাডোনা) বিছানা নোংরা করে মরবে :  ব্যক্তিগত চিকিৎসক

মোটু(ম্যারাডোনা) বিছানা নোংরা করে মরবে : ব্যক্তিগত চিকিৎসক

অনলাইন ডেস্ক

কিংবদন্তি আর্জেন্টাইন ফুটবল ঈশ্বর ডিয়েগো ম্যারাডোনা পৃথিবী ছেড়ে না ফেরার দেশে পাড়ি জমান গত বছরের ২৫ ডিসেম্বর। মাত্র ৬০ ‍বছর বয়সে কোটি ফুটবলভক্তকে কাঁদিয়ে অন্য পারের বাসিন্দা হলেন বাঁ পায়ে অসংখ্য মুহূর্তের জন্ম দেওয়া এই ফুটবল ঈশ্বর। মৃত্যুর সময় তিনি কোনো অবহেলার শিকার হয়েছিলেন কিনা তা নিয়েও তদন্ত চলছে। যার মাঝেই খবর এলো তারই  দীর্ঘদিনের চিকিৎসক লিওপোলদো লুকের একটি ম্যাসেজের স্ক্রিনসর্ট।

যেখানে সে বলছে মোটু(ম্যারাডোনা) বিছানা নোংরা করে মরবে! এমন বিস্পোরক খবর দিয়েছে আর্জেন্টাইন সংবাদমাধ্যম 'ইনফোবে'।  

ম্যারাডোনার মৃত্যুমহূর্তে তার দীর্ঘদিনের চিকিৎসক লিওপোলদো লুক এবং মনোবিদ অগাস্তিনো কোসাচভ এর মেসেজ চালাচালির কিছু স্ক্রিনশটে এমন তথ্যই দেখা যায়। যেখানে তারা অসুস্থ ম্যারাডোনার হার্ট অ্যাটাক নিয়ে আলাপ করছেন।

গত ২৫ নভেম্বর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ঘুমের মাঝেই মারা যান ম্যারাডোনা। সেদিন সকালে ম্যারাডোনাকে নিয়ে লুক ও কোসাচভের মধ্যে মেসেজ চালাচালি হয়। মিডিয়ায় ম্যারাডোনার স্বাস্থ্যের অবনতির খবর দেখে লুক তখন তার এক সহকর্মীর সঙ্গে যোগাযোগ করেন। মেসেজে লুক লেখেন, 'আমি রাস্তায় আছি। মনে হচ্ছে (ম্যারাডোনা) মারা গেছে। না, আমি বাজি ধরতে পারি, মারাই গেছে। সান আন্দ্রেজ দিয়ে, যে পথ দিয়ে আমরা সাধারণত আসি, তোমাকে সে পথ দিয়েই আসতে হবে। '


পড়াশোনা করবেন প্রভা!

সু চিকে না ছাড়লে ব্যবস্থা নেবে যুক্তরাষ্ট্র

নতুন বসন্তে শবনম ফারিয়া

শিক্ষার্থীকে ‘অধিক মাত্রায়’ মদপানের পর ধর্ষণ ও হত্যা


 

এরপর লুককে তার পরিচিত একজন ম্যারাডোনার মৃত্যু সংবাদের স্ক্রিনশট পাঠায়। সেই স্ক্রিনশট দেখে লুক লেখেন, 'হ্যাঁ, মনে হচ্ছে তার হার্ট অ্যাটাক হয়েছে। মোটু বিছানা নোংরা করে মরবে। কী হয়েছে কে জানে! আমি সেখানে যাচ্ছি। ' 

এরপরেই মনোবিদ কোসাচভ তাকে লেখেন, 'জরুরি চিকিৎসক দল তাকে (ম্যারাডোনা) বাঁচানোর চেষ্টা করছে। আমরা এটা ১০-১৫ মিনিট ধরে করছি। অ্যাম্বুলেন্স এখনো আসেনি। এখানে এসেই দেখেছি তার শরীর ঠান্ডা। তার চেতনা ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করেছি। শরীরের তাপমাত্রা কিছুটা ফিরেছিল। এখন ওরা সঙ্গে আছে। তারা আমাকে কিছু জানাচ্ছে না। আমি বের হয়ে এসেছি। '

কোসাচভের মেসেজের জবাবে লুক লেখেন, 'ওরা আমার ওপর রেগে আছে কিনা জানাও। আর দুশ্চিন্তা করো না, শান্ত থাক। যেটা হওয়ার কথা, সেটা হবেই। তিনি খুবই জটিল রোগী ছিলেন। যা হওয়ার হবে। যখন যে পরিস্থিতি আসে, তখন সেটা সামাল দেব। অগাস্টিন, চিন্তা নেই, তার (ম্যারাডোনা) পরিবার তো সব জানে। ' 

প্রসঙ্গত, ম্যারাডোনার দুই মেয়ে দালমা ও জিয়ান্নিনা এর আগে বাবার চিকিৎসায় অবহেলার অভিযোগ তুলেছিলেন। তবে তার মৃত্যুর পর ময়নাতদন্ত রিপোর্টে বলা হয়, ঘুমের মাঝে হার্ট অ্যাটাকে ম্যারাডোনা মারা গেছেন।

news24bd.tv/আলী

;