‘ককটেল পার্টি’ থেকে ফিরে তিনজনের মৃত্যু, অসুস্থ্য আরও কয়েকজন
Breaking News
‘ককটেল পার্টি’ থেকে ফিরে তিনজনের মৃত্যু, অসুস্থ্য আরও কয়েকজন

‘ককটেল পার্টি’ থেকে ফিরে তিনজনের মৃত্যু, অসুস্থ্য আরও কয়েকজন

Other

দেশের একটি শীর্ষস্থানীয় বিজ্ঞাপনী সেবা দানকারী ব্যবসায়িক গ্রুপের একদল কর্মী গাজীপুরের একটি রিসোর্ট থেকে ঘুরে আসার পর বেশ কয়েকজন অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। তাদের মধ্যে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

আর ওই রিসোর্টের নাম সারাহ বলে জানা গেছে।

এশিয়াটিক এর অঙ্গ প্রতিষ্ঠান ফোর থট পিআর নামে একটি পাবলিক রিলেশন এজেন্সির অন্তত তিন ডজন কর্মী গত শুক্রবার গাজীপুরের সারা রিসোর্টে গিয়েছিলেন অবকাশ যাপনে।

সেখান থেকে ফেরার পথেই তাদের মধ্যে অসুস্থতা দেখা দেয়। আর অসুস্থ হয়ে পড়া এমন কর্মীদের রাজধানীর বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এদের মধ্যে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে।

জানা গেছে, সারাহ রিসোর্টের ১৭টি কক্ষ ২ দিনের জন্য সাড়ে ৭ লাখ টাকায় ভাড়া নেওয়া হয়। ২৯ জানুয়ারি রাতে তারা রিসোর্টে আয়োজন করে একটি পার্টির। আর ওই পার্টিতে ছিলো মদ্যপানের আয়োজনও।

তবে রিসোর্ট কর্তৃপক্ষ জানায়, তাদের মদ সরবরাহের কোনো নিয়ম নেই।

২৮ জানুয়ারি দুপুরে বেসরকারি ওই কোম্পানীর ৪৩ জন কর্মী সারাহ রিসোর্টে যান। ২ দিন সেখানে থাকার পর ৩০ জানুয়ারি দুপুরে লন্ডন এক্সপ্রেস পরিবহনের একটি বাসে করে তারা ঢাকায় ফেরেন।

আরও পড়ুন:


সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে আ.লীগ নেতা গ্রেপ্তার

৭ নায়ক ৭ নির্মাতার ১ ছবি

ধর্ষিতাকে লাখ টাকা জরিমানা, আ.লীগ নেতা জেলে

রাজধানীতে ফের ধর্ষণের পর শিক্ষার্থীর মৃত্যু


 

সিসিটিভির ফুটেজেও তাদের সুস্থ অবস্থায় গাড়িতে উঠতে দেখা যায়।

ঘটনার দিন উপস্থিত একজন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বলেন, ২৯ তারিখ রাতে তাদের একটি ককটেল পার্টি হয়। সেখানে সবাই মদ্যপান করেন। সেখান থেকেই ঘটনার সূত্রপাত।

ওই কর্মী আরও বলেন, খাওয়ার পর অনুভব করি গলা জ্বালা করছে। পরে জানতে পারি এটা ককটেল করা হয়েছে। বুক
জ্বালাপোড়া আছে। এখনো আমরা নিজেরে নিয়ে ব্যস্ত আছি। অন্যদের খবর নেওয়া হয়নি। ঘটনার একটি দন পর ৩১ জানুয়ারি বাসায় অসুস্থ্য হয়ে পড়লে ২ জনকে ভর্তি করা হয় রাজধানির সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে। সেখানেই তারা মারা যান। একই ঘটনায় অসুস্থ অবস্থায় রাজধানীর ইউনিভার্সেল হাসপাতালে আইসিউতে লাইফ সাপোর্টে রয়েছেন রাজিউর নামের একজন। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

গাজীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার একেএম জহিরুল ইসলাম বলেন, সারাহ রিসোর্টের ঘটনায় এ পর্যন্ত তিনজন মারা গেছেন। তাদের মধ্যে শিহাব জহির রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে এবং কায়সার আহমেদ বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালে মারা যান রোববার সকালে। আর সোমবার সকালে উত্তরার ক্রিসেণ্ট হাসপাতালে শরীফ জামান নামে আরেকজনের মৃত্যু হয় বলে ঢাকা মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার মো. শহীদুল্লাহ জানান।

গাজীপুরের শ্রীপুর থানার ওসি মো. ইমাম হোসেন জানান, যারা অসুস্থ হয়ে পড়েছেন, তাদের মধ্যে তিনজন রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে, একজন আয়েশা মেমোরিয়ালে এবং একজন ইবনে সিনা হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন বলে তারা খবর পেয়েছেন।

ওসি আরও বলেন, ইউনাইটেড হাসপাতালে যারা ভর্তি হয়েছে, তাদের ক্ষেত্রে অসুস্থতার কারণ অ্যালকোহল লেখা হয়েছে।

আর কাফরুল থানার ওসি সেলিমুজ্জামান বলেছেন, শিহাব জহিরের মৃত্যুর কারণ হিসেবে হাসপাতালের খাতায় বিষক্রিয়া লেখা হয়েছে। শিহাবের মৃতদেহ ময়মনসিংহে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে, আর কায়সারের মৃতদেহ ইতোমধ্যে ঠাকুরগাঁওয়ে পাঠানো হয়েছে বলে ওই কোম্পানির একজন কর্মী জানিয়েছেন। যিনি নিজেও অসুস্থ হয়ে একটি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। রিসোর্টে কী ঘটেছিল জানতে চাইলে সে বিষয়ে তিনি বিস্তারিত কথা বলতে রাজি হননি। শুধু বলেছেন, শুক্রবার তারা নিজেরাই ব্যক্তিগতভাবে আয়োজন করে সারা রিসোর্টে গিয়েছিলেন। কয়েক বছর পর পর তারা এরকম আয়োজন করেন। ঢাকায় ফেরার পথে গাড়িতেই তারা অসুস্থ হয়ে পড়েন।

তবে সারাহ রিসোর্টের ম্যানেজার ইসমাইল হোসেন বলেন, রিসোর্টে বেড়াতে আসা ওই কোম্পানীর লোকজন ফেরার সময়
ঠিকঠাকভাবেই যান। যা আমাদের সিসি ক্যামেরায় দেখা গেছে। তবে কেন কি কারণে এমন ঘটনা ঘটেছে তার বিস্তারিত জানাতে পারেননি রিসোর্টের ম্যানেজার।

এদিকে পুলিশ মৃত্যুর আসল কারণ অনুসন্ধানে তদন্ত করছে বলে জানায় শ্রীপুর থানার ওসি।

news24bd.tv তৌহিদ

;