সাংবাদিককে গাছে বেঁধে নির্যাতন

অনলাইন ডেস্ক

সাংবাদিককে গাছে বেঁধে নির্যাতন

তাহিরপুরে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের ছবি তোলায় সাংবাদিককে গাছে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। মারধরের পর তাকে গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখা হয়। এমন দৃশ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। নির্যাতনের শিকার ওই সাংবাদিকের নাম কামাল হোসেন রাফি। তিনি তাহিরপুর উপজেলা প্রেস ক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক এবং দৈনিক সংবাদ ও দৈনিক শুভ প্রতিদিনের উপজেলা প্রতিনিধি।

জানা যায়, গতকাল দুপুরে যাদুকাটা নদীর তীর কেটে অবৈধভাবে বালু-পাথর উত্তোলন করা হচ্ছিল। এ ঘটনার ছবি তুলতে যান সাংবাদিক কামাল হোসেন রাফি। ছবি তুলতে দেখে নদীতীর কাটার সঙ্গে জড়িতরা তাকে মারধর করে। পরে স্থানীয় ঘাগটিয়া চকবাজারে গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখে। ভাইরাল ১ মিনিট ৩৯ সেকেন্ডের ওই ভিডিওতে দেখা যায়, মারধরের পর সাংবাদিক কামাল হোসেনকে গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখা হয়েছে। তার মুখমন্ডলে আঘাতের চিহ্ন। চারপাশ ঘিরে রেখেছে লোকজন। একপর্যায়ে তার বাঁধন খুলে দেওয়া হয়। তবে হামলাকারীদের বিস্তারিত পরিচয় জানা যায়নি। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, হামলাকারীরা যাদুকাটা নদীতে অবৈধভাবে পাড় কেটে বালু-পাথর উত্তোলনের সঙ্গে জড়িত। তাদের অভিযোগ, চক্রটির কারণে যাদুকাটা নদী ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। জনসম্মুখে সাংবাদিককে গাছের সঙ্গে বেঁধে মারধর করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:


সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে আ.লীগ নেতা গ্রেপ্তার

৭ নায়ক ৭ নির্মাতার ১ ছবি

ধর্ষিতাকে লাখ টাকা জরিমানা, আ.লীগ নেতা জেলে

রাজধানীতে ফের ধর্ষণের পর শিক্ষার্থীর মৃত্যু


 

পরে আমরা তাকে উদ্ধার করে তাহিরপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসি। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।  নির্যাতনের শিকার সাংবাদিক কামাল হোসেন জানান, যাদুকাটা নদীতে প্রতিদিন প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে শত শত শ্রমিক অবৈধভাবে বালু ও পাথর উত্তোলন করে। সোমবার সকালে যাদুকাটা নদী থেকে বালু পাথর উত্তোলনের ছবি তুলতে গেলে স্থানীয় শ্রমিকরা তাকে বাধা দেয়। একপর্যায়ে ক্যামেরা, মোবাইল ফোন এবং মোটরসাইকেল ছিনিয়ে নিয়ে একটি গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন করে। যাদুকাটা নদী থেকে অবৈধভাবে বালু-পাথর উত্তোলনের সঙ্গে জড়িত সিন্ডিকেটের সদস্যরা তাকে নির্যাতন করেছে। তার মাথা, কপাল এবং চোখে অনবরত আঘাত করতে থাকে।

তাহিরপুর থানার ওসির দায়িত্বে থাকা এসআই দীপঙ্কর জানান, ঘটনা শুনেছি। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

এদিকে, যাদুকাটা নদী থেকে বালু-পাথর উত্তোলন অবৈধ উল্লেখ করে তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পদ্মাসন সিংহ জানান, ঘটনাটি আমরা শুনেছি। খুবই গুরুতর ঘটনা ঘটে গেছে। আমরা এর সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিচ্ছি। নির্যাতনের শিকার সাংবাদিক মামলা করলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ব্যবস্থা নেবে।

সূত্র- বিডি প্রতিদিন

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

বড় ভাইয়ের দায়ের কোপে প্রাণ গেল ছোট ভাইয়ের

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

বড় ভাইয়ের দায়ের কোপে প্রাণ গেল ছোট ভাইয়ের

জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে সাতক্ষীরার পাটকেলঘাটা থানার কুমিরা ইউনিয়নে ছোট ভাইকে কুপিয়ে হত্যা করেছে বড় ভাই। রোববার (৭ মার্চ) রাত ৯টার দিকে জগনন্দকাটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। 

নিহতের নাম মোস্তফা মল্লিক (৩৫)। তিনি জগনন্দকাটি গ্রামের মজিদ মল্লিকের ছেলে এবং পাটকেলঘাটা বাজারের একটি মাইক্রো গ্যারেজের মিস্ত্রি।

কুমিরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান জানান, আপন দুই ভাইয়ের মধ্যে ঝগড়া হয়। বড় ভাই শাহজাহান মল্লিক দা দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে ছোট ভাই মোস্তফা মল্লিককে। পরে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি মারা যান।


পশ্চিমবঙ্গের কাছে পর্যাপ্ত পানি থাকবে তখন তিস্তা চুক্তি: মমতা

যে দোয়া পড়লে বিশ্ব নবীর সঙ্গে জান্নাতে যাওয়া যাবে!

খুলনায় সওজ কার্যালয় ঘেরাও কর্মসূচি, ক্ষোভ

৭ই মার্চের অনুষ্ঠান থেকে বেড়িয়ে গেলেন অথিতিরা


পাটকেলঘাটা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী ওয়াহিদ মুর্শেদ জানান, জমি নিয়ে দুই ভাইয়ের মধ্যে বিরোধ চলছিল। বড় ভাই কুপিয়ে ছোট ভাইকে হত্যা করেছে। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী মারুফা আক্তার বাদী হয়ে বড় ভাই শাহজাহান মল্লিক, তার স্ত্রী নাহার মল্লিক ও স্থানীয় বাবুল বিশ্বাসসহ অজ্ঞাত আরও পাঁচজনকে আসামি করে থানায় একটি হত্যা মামলা করেছেন। আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চালানো হচ্ছে।

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

যশোরে ইউপি সদস্যকে গুলি করে হত্যা করেছে সন্ত্রসীরা

অনলাইন ডেস্ক

যশোরে ইউপি সদস্যকে গুলি করে হত্যা করেছে সন্ত্রসীরা

যশোরের অভয়নগরে নূর আলী ওরফে নূর আলী মেম্বার (৫০) নামে এক ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্যকে গুলি করে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। এ সময় তার ছেলে ইব্রাহিমও (১৬) গুলিবিদ্ধ হয়েছে। নিহত নূর আলী উপজেলার শুভরাড়া ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য।

রোববার (৭ মার্চ) রাত ৮টার দিকে শুভরাড়া ইউনিয়নের শুভরাড়া গ্রামের বাবুরহাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। 


পশ্চিমবঙ্গের কাছে পর্যাপ্ত পানি থাকবে তখন তিস্তা চুক্তি: মমতা

যে দোয়া পড়লে বিশ্ব নবীর সঙ্গে জান্নাতে যাওয়া যাবে!

খুলনায় সওজ কার্যালয় ঘেরাও কর্মসূচি, ক্ষোভ

৭ই মার্চের অনুষ্ঠান থেকে বেড়িয়ে গেলেন অথিতিরা


অভয়নগর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি (তদন্ত) মিলন কুমার মণ্ডল জানান, রোববার অভয়নগর থানা পুলিশের ৭ মার্চের আনন্দ উদযাপন অনুষ্ঠান শেষে সন্ধ্যার পর মোটরসাইকেল যোগে নিজ বাড়ি ফিরছিলেন নূর আলী ও তার ছেলে। শুভরাড়া ইউনিয়নের বাববুরহাট এলাকায় পৌঁছলে সন্ত্রাসীরা কাছ থেকে তাদের গুলি করেন। মাথায় গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান নূর আলী। তার ছেলে ইব্রাহিমের পায়ে গুলিবিদ্ধ হয়।

ইব্রাহিমকে হাসপাতালে ভর্তির জন্য পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনার রহস্য উদ্ঘাটনে পুলিশ কাজ করছে।

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ছাত্রকে পিটিয়ে মাদ্রাসার কক্ষে আটক, প্রধান শিক্ষক গ্রেপ্তার

অনলাইন ডেস্ক

ছাত্রকে পিটিয়ে মাদ্রাসার কক্ষে আটক, প্রধান শিক্ষক গ্রেপ্তার

পড়া না পারায় এক শিক্ষক তাঁর শিশুছাত্রকে বাঁশের টুকরো দিয়ে পিটিয়ে জখম করেছে। গতকাল শনিবার বিকেলে ফেনীর সোনাগাজী উপজেলায় উপজেলার কুঠিরহাট জামেয়া ইসলামিয়া দারুল উলুম মাদ্রাসায় এ ঘটনা ঘটে।

পরে মাদ্রাসাটির প্রধান শিক্ষক মো. ইসমাইল হোসেনকে (২৮) গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, ওই শিশুর নাম আসাদ উল্যাহ (৯)। সে চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র। শিশুটির মা ফাতেমা আক্তার বাদী হয়ে মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষককে আসামি করে সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা করেন। সেই মামলায় অভিযুক্ত ইসমাইল হোসেনকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

পুলিশ, পরিবার ও মামলা সূত্রে জানা যায়, জামেয়া ইসলামিয়া দারুল উলুম কুঠিরহাট মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক মো. ইসমাইল হোসেন গতকাল বিকেলে পড়া না পারায় মাদ্রাসার চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র আসাদ উল্যাহকে বাঁশের টুকরো দিয়ে পিটিয়ে জখম করেন। পরে মাদ্রাসার একটি কক্ষে আটকে রাখেন। সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে মাদ্রাসার এক শিক্ষার্থীর মাধ্যমে খবর পেয়ে আসাদ উল্যাহর মামা মো. সুমন স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য ওমর ফারুকসহ এলাকাবাসীর সহযোগিতায় শিশুটিকে উদ্ধার করেন। পরে কুঠিরহাট বাজারে একটি ক্লিনিকে শিশুটিকে চিকিৎসা দেওয়া হয়।


দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়াসহ বজ্রবৃষ্টির আশঙ্কা, সতর্ক সংকেত জারি

সন্ত্রাসীদের গুলিতে মাথার খুলি উড়ে গেল ইউপি সদস্যের

নারীকে ধর্ষণের পর ইয়াবা দিয়ে ধরিরে দেয় ছাত্রলীগ নেতা

চট্টগ্রামে ছাত্রলীগের দুগ্রুপের সংঘর্ষে একজন নিহত


শিশুটির মা ফাতেমা আক্তার অভিযোগ করেন, শিক্ষক ইসমাইল হোসেন পিটিয়ে তাঁর ছেলের বাঁ পা ও হাতের কবজি জখম ও রক্তাক্ত করেছেন। এ ছাড়া তাঁর ছেলের শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম হয়েছে। ওই শিক্ষকের বিচার দাবি করেন তিনি।

কয়েক দিন আগে চার শিশুকে একইভাবে পিটিয়ে আহত করা হলে বিষয়টি স্থানীয়ভাবে মীমাংসা করা হয়েছে বলে জানান মাদ্রাসা পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি নুরুল আলম। এ ঘটনাও সমাধান করে দেবেন বলে ওই ছাত্রের অভিভাবকদের বলেন তিনি।

ঘটনার ব্যাপারে সোনাগাজী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাজেদুল ইসলাম বলেন, গ্রেপ্তার ওই শিক্ষককে আজ রোববার দুপুরে আদালতে হাজির করা হবে।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

চট্টগ্রামে ছাত্রলীগের দুগ্রুপের সংঘর্ষে একজন নিহত

অনলাইন ডেস্ক

চট্টগ্রামে ছাত্রলীগের দুগ্রুপের সংঘর্ষে একজন নিহত

আধিপত্য বিস্তার নিয়ে চট্টগ্রামের বায়েজীদে ছাত্রলীগের দুগ্রুপের সংঘর্ষে ইমন নামে এক ছাত্রলীগকর্মী নিহত হয়েছেন।

বায়েজিদ থানার ওসি পিটন সরকার এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

বিস্তারিত আসছে...

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

সন্ত্রাসীদের গুলিতে মাথার খুলি উড়ে গেল ইউপি সদস্যের

রিপন হোসেন, যশোর

সন্ত্রাসীদের গুলিতে মাথার খুলি উড়ে গেল ইউপি সদস্যের

যশোরের অভয়নগরে নূর আলি (৫০) নামে এক ইউপি সদস্যকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। এ সময় তাঁর ছেলে ইব্রাহিম (১৬) গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়।

রোববার (৭ মার্চ) রাত আনুমানিক ৮টার সময় সন্ত্রাসীদের গুলিতে তার ‍মৃত্যু হয়।

নিহত নূর আলি উপজেলার শুভরাড়া ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের সদস্য ছিলেন। আহত ইব্রাহিমকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।


রাঙামাটিতে বিজিবি-বিএসএফের পতাকা বৈঠক

৭৫০ মে.টন কয়লা নিয়ে জাহাজ ডুবি, শুরু হয়নি উদ্ধার কাজ

মোবাইলে পরিচয়, দেখা করতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার কিশোরী

নোয়াখালীতে স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা: স্বামী আটক


ঘটনাস্থলে উপস্থিত অভয়নগর থানার ওসি (তদন্ত) মিলন কুমার মন্ডল মুঠোফোনে জানান, অভয়নগর থানা পুলিশের ৭ মার্চের আনন্দ উদযাপন অনুষ্ঠান শেষে সন্ধ্যার পর মোটরসাইকেলযোগে নিজ বাড়ি ফিরছিলেন নূর আলি ও তাঁর ছেলে। শুভরাড়া ইউনিয়নের বাববুরহাট নামকস্থানে পৌঁছালে অজ্ঞাত সন্ত্রাসীরা খুব কাছ থেকে গুলি ছোড়ে। গুলিতে নূর আলির মাথার খুলি উড়ে যায় এবং ঘটনাস্থলে তাঁর মৃত্যু হয়। এ সময় নূর আলির ছেলে মোটরসাইকেল চালক ইব্রাহিমের পায়ে গুলি লাগে। তাকে হাসপাতালে ভর্তির জন্য পাঠানো হয়েছে।

তিনি আরও জানান, এই হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটনে পুলিশ কাজ শুরু করেছে।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর