কৃষিতে নতুন প্রযুক্তি ও জাত আবিস্কারের বিকল্প নেই: প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

কৃষিতে নতুন প্রযুক্তি ও জাত আবিস্কারের বিকল্প নেই: প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, কৃষি উৎপাদন বাড়াতে নতুন নতুন প্রযুক্তি ও জাত আবিস্কারের বিকল্প নেই। এজন্য গবেষণা অধিকতর গুরুত্বপূর্ণ। তাই আমরা গবেষকদের প্রণোদনা দিতে চাই। প্রণোদনা দেয়ার উপায় বাতলে দিতে কৃষি বিজ্ঞানীদের আহ্বান জানাচ্ছি।

বৃহস্পতিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিল প্রকাশিত ‘১০০ কৃষি প্রযুক্তি এটলাস’ এর প্রকাশনা উৎসবে এসব কথা বলেন তিনি। বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত উৎসবে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হন প্রধানমন্ত্রী।

দেশ নেত্রী বলেন, আমাদের দেশ কৃষি নির্ভর। আমাদের অর্থনীতি কৃষি নির্ভর। আমরা এ কৃষিকে গুরুত্ব দিচ্ছি। কৃষিকে যান্ত্রিকীকরণের জন্য কৃষককে যন্ত্রপাতি দিয়েছি। ৭০ হাজার যন্ত্রপাতি কৃষকদের দেয়া হয়েছে। বিশাল অংকের টাকাও দিয়েছি। যখন যা প্রয়োজন দিয়েছি, কৃষি ও কৃষকের জন্য যা লাগবে দিব।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা ১৯৯৬ সালে ক্ষমতায় আসার পরই কৃষির উন্নয়নে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছি।  যার কারণে ১৯৯৮ সালে প্রথম খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করে। কৃষিক্ষেত্রের উন্নয়ন জাতির পিতাই শুরু করেছিলেন। বাংলাদেশের অর্থনীতি কৃষি নির্ভর-সেটি বঙ্গবন্ধু উপলদ্ধি করতেন বলে তিনি কৃষিতে বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছেন।  তিনি কৃষিবিদদের প্রথম শ্রেণির মর্যাদা দিয়েছিলেন। 

বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা বলেন, ‘নতুন নতুন কৃষি পণ্য উৎপাদন, প্রক্রিয়াকরণ ও বাজারজাত করে নিজেদের বাজার ধরে রাখতে হবে। দেশের চাহিদা পূরণ করে বাইরেও রফতানি করতে হবে। এজন্য স্বল্পখরচে বেশি ফলদায়ক পণ্য আবিস্কার ও চাষাবাদে মনোযোগী হতে হবে। এজন্য গবেষণাটা বেশি গুরুত্বপূর্ণ। গবেষণা বাড়াতে বিজ্ঞানীদের প্রণোদনা দিতে চাই। এজন্য আমি উপায় খুঁজেছি, পাইনি। আপনারা এ বিষয়ে পরামর্শ দেবেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, খাদ্য নিরাপত্তার জন্য কৃষি গুরুত্বপূর্ণ। আপনাদের (বিজ্ঞানী) উদ্ভাবনের জন্য ধন্যবাদ। আপনাদের উদ্ভাবনের অতিগুরুত্বপূর্ণ ১০০টি জাত নিয়ে এটলাস প্রকাশ করেছেন, একটা ভালো উদ্যোগ। এটি ভবিষ্যতের জন্য কাজে লাগবে। অন্যরা উপকার পাবে।

আরও পড়ুন:


ফের ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল সিকিম

তারেক রহমানের দুই বছরের কারাদণ্ড

কাশ্মীরে আবারও গোলাগুলিতে ভারতীয় সেনা নিহত

নিয়োগ দেবে টিভিএস অটো


এ সময় তার সরকারের কৃষি উন্নয়নের ফিরিস্তি তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আজকের কৃষিক্ষেত্রে যে উন্নয়ন, তার শুরুটা জাতির পিতাই করে গেছেন। বীজ তিনিই বপন করেছেন। আমরা ১৯৯৬ ক্ষমতায় এসেও সে কাজ চলমান রেখেছি। এখনও সে কাজ করে যাচ্ছি। কৃষির উন্নয়নে নানা আইন, অর্থ বরাদ্দ, গবেষণাগার ও কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় করেছি।

জাতির পিতা বলেছেন, আমার মাটি এত উর্বর সেখানে বীজ পড়লেই গাছ হয়, ফল হয়। এই যায়গার মানুষ কেনো না খেয়ে থাকবে? আমিও বলেছি, কোনো এলাকায় কোন ফল ভালো হয়, এর একটা ম্যাপিং প্ল্যান দরকার। এখানে অল্প খরচে একেক এলাকায় একেক ফল ভালো হতে পারে। অল্পখরচে অধিক লাভবান হবো, এমন কিছু পণ্য গবেষণা করে বের করতে হবে। সংশ্লিষ্ট এলকার মাটির উর্বরতা, পানির সরবরাহ, আবহাওয়া ও জলবায়ু পরিবেশ বিবেচনায় একটা ভালো গবেষণা করে পরিকল্পনা করা দরকার।

তিনি আরও বলেন, করোনায় ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন শ্রেণীর মানুষকে আমরা সাহায্য দিয়েছি। এ ক্ষেত্রে কৃষিকে গুরুত্ব দিচ্ছি। এই করোনায় কৃষক যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হয়, সেজন্য দলীয় কর্মীদের নির্দেশ দিয়ে ধান কাটিয়ে বাড়িতে তোলারও ব্যবস্থা করেছি। আমাদের আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ সারাদেশে কৃষকের পাশে দাঁড়িয়েছে।

কৃষিমন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাকের সভাপতিত্বে এতে স্বগত বক্তব্য দেন কৃষি সচিব মেসবাউল ইসলাম, আরও বক্তব্য দেন কৃষি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মতিয়া চৌধুরী, সফল কৃষক রফিকুল ইসলাম। উপস্থিত ছিলেন মৎস ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ভারতের ২ যুদ্ধ জাহাজ ৩ দিনের শুভেচ্ছা সফরে বাংলাদেশে

অনলাইন ডেস্ক

ভারতের ২ যুদ্ধ জাহাজ ৩ দিনের শুভেচ্ছা সফরে বাংলাদেশে

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী এবং স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে তিনদিনের শুভেচ্ছা সফরে বাংলাদেশে এসেছে ভারতীয় নৌবাহিনীর দু’টি যুদ্ধজাহাজ ‘কুলিশ’(INS KULISH) ও ‘সুমেধা’ (INS SUMEDHA)।

সোমবার (০৮ মার্চ) মোংলা বন্দরে এসে পৌঁছেছে এই দুই জাহাজ। এ সময় বাংলাদেশ নৌবাহিনীর সুসজ্জিত বাদক দল ঐতিহ্যবাহী রীতিতে ব্যান্ড পরিবেশন করে জাহাজ দু’টিকে অভিবাদন জানায়।
  
অধিনায়ক বানৌজা মংলা জাহাজ দু’টির অধিনায়কদের স্বাগত জানান। এ সময় বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনের প্রতিনিধিসহ বাংলাদেশ নৌবাহিনীর উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সফরকালে ভারতীয় নৌবাহিনীর উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা কমডোর মহাদেব গোর্বধন রাজু ও জাহাজ দু’টির অধিনায়কবৃন্দ টুঙ্গিপাড়াস্থ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর সমাধি সৌধে শ্রদ্ধা নিবেদন এবং বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ রুহুল আমিনের সমাধিস্থলে পুষ্পস্তবক অর্পণ করবেন।  

তারা কমান্ডার খুলনা নেভাল এরিয়া এবং কমান্ডার ফ্লোটিলা ওয়েস্ট এর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ এবং ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণকারী বীর মুক্তিযোদ্ধাসহ নৌ কমান্ডোগণদের সাথে কুশল বিনিময় করবেন।

আরও পড়ুন


মাওলানা মামুনুল হককে খাওয়াতে প্রস্তুত আছি: নিক্সন

লাশ দাফনে বাধা, শাহীনের লাশ নিয়ে কবরস্থানে অসহায় ছেলের অপেক্ষা

স্নাতক পাসে সুপার স্টার গ্রুপে চাকরির সুযোগ

দেশের ৪ অঞ্চলে বজ্রসহ বৃষ্টির সম্ভাবনা


এর আগে, সফরকারী জাহাজ দু’টি বাংলাদেশের জলসীমায় এসে পৌঁছালে বানৌজা গোমতী তাদেরকে স্বাগত জানায়। ১৮ জন কর্মকর্তা ও ১৬০ জন নাবিকসহ INS KULISH এর নেতৃত্বে আছেন কমান্ডার সঞ্জীব অগ্নিহোত্রি (Commander Sanjeev Agnihotri) এবং ২০ জন কর্মকর্তা ও ১৩০ জন নাবিকসহ INS SUMEDHA এর নেতৃত্বে রয়েছেন কমান্ডার গৌরব দুর্গাপাল (Commander Gourav Durgapal)। সফরের অংশ হিসেবে জাহাজের কর্মকর্তা ও নাবিকগণ নৌবাহিনীর জাহাজ/ঘাঁটিসহ মোংলা ও খুলনার বিভিন্ন দর্শনীয় স্থান পরিদর্শন করবেন।

জাহাজ দু’টির এই শুভেচ্ছা সফর বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার পারস্পরিক বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ককে আরও সুদৃঢ় করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

তিনদিনের শুভেচ্ছা সফর শেষে জাহাজ দু’টি আগামী ১০ মার্চ ২০২১ বাংলাদেশ ত্যাগ করবে।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

‘অর্জন ধরে রাখতে নারীর লড়াইটা চালিয়ে যাওয়া জরুরি’

অনলাইন ডেস্ক

‘অর্জন ধরে রাখতে নারীর লড়াইটা চালিয়ে যাওয়া জরুরি’

আন্তর্জাতিক নারী দিবসে বাংলাদেশ প্রতিদিন ও নিউজ টোয়েন্টিফোরের আয়োজনে গোলটেবিল বৈঠকে বক্তারা

গ্রামীণ অবকাঠামোতে যেমন নারীর অবদান আছে তেমনি শহরেও পুরুষের সমানতালে তারা সবক্ষেত্রে এগিয়ে গেছে। বিদেশে গিয়ে নারীরা দেশে রেমিট্যান্স পাঠাচ্ছে। সব ক্ষেত্রে নারীরা কাজ করছেন। নারীদের আরও সামনে এগিয়ে নিতে নারীবান্ধব মানসিকতা ও নারীবান্ধব নীতি প্রণয়ন করতে হবে। কারণ নারীরা এগিয়ে গেলে সমাজও এগিয়ে যাবে। নারীর অবস্থা পরিবর্তনের লড়াই জন্ম থেকে জন্মান্তরের লড়াই। নারীর পরিবর্তনের লড়াইয়ের লক্ষ্য পূরণ হলেও এ লড়াই অব্যহত রাখতে হবে। কারণ অর্জন ধরে রাখতে নারীর লড়াইটা চালিয়ে যাওয়া জরুরি।   

আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে 'পরিবর্তনের লড়াইয়ে নারী' শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে বক্তারা এসব কথা বলেন।  আজ সোমবার বিকেলে এ গোলটেবিল বৈঠকের আয়োজন করে বাংলাদেশ প্রতিদিন ও বেসরকারি স্যাটেলাইট চ্যানেল নিউজ টোয়েন্টিফোর। নিউজ টোয়েন্টিফোরের চিফ নিউজ এডিটর শাহনাজ মুন্নীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তারা আরও বলেন, বিশ্বে নারী ক্ষমতায়নে বাংলাদেশ রোল মডেল। করোনা মোকাবেলায় বাংলাদেশ সাফল্য দেখিয়েছে। নারীর আরও বেশি করে রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ক্ষমতায়ন জরুরি।


সমালোচনা আমাদের কাজের সফলতা : কবীর চৌধুরী তন্ময়

পাবনায় থাকছেন শাকিব খান

সাধ্যের মধ্যে ৮ জিবি র‍্যামের রেডমি ফোন

কমেন্টের কারণ নিয়ে যা বললেন কবীর চৌধুরী তন্ময়


অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন বাংলাদেশ প্রতিদিন সম্পাদক ও নিউজ টোয়েন্টিফোরের সিইও নঈম নিজাম। বৈঠকে নারীদের বিভিন্ন ক্ষেত্রে লড়াই ও অনগ্রসর নারীদের সামনে এগিয়ে যাওয়ার বিষয়ে কথা বলেন সাবেক সংসদ সদস্য অ্যাড. নূরজাহান মুক্তা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রিমিনোলজি বিভাগের চেয়্যারম্যান ড. খন্দকার ফারজানা রহমান, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক ডা. জাহানারা আরজু, শিক্ষক ও গবেষক আরিফা রহমান রুমা, ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রহিমা আক্তার লাকী, নারী অধিকার কর্মী মাহফুজা মালা, নিরাপত্তা বিশ্লেষক মেজর (অ.) নাসির উদ্দিন আহমদ, ইউনাইটেড হাসপাতালের কমিউনিকেশন অ্যান্ড বিজনেস ডেভেলপমেন্টের পরিচালক ডা. শাগুফা আনোয়ার, ক্রীড়া সংগঠক ও ব্যবসায়ী নাফিসা কামাল, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গীত বিভাগের শিক্ষক ও সঙ্গীতশিল্পী অনিমা রায়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পুষ্টিবিজ্ঞান ইন্সটিটিউটের সহকারী অধ্যাপক ড. সুমাইয়া মামুন সিমরান, মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেডের হেড অব নেটওয়ার্ক এক্সপেনশনের সেলিনা আলম ও অভিনেত্রী মৌটুসী বিশ্বাস। অনুষ্ঠান শেষে সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে সমাপনী বক্তৃতা দেন কালের কণ্ঠের সম্পাদক ও কথাশিল্পী ইমদাদুল হক মিলন।  

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্লাস্টিক শিল্পে সরকারের বিশেষ নজর

অনলাইন ডেস্ক

প্লাস্টিক শিল্পে সরকারের বিশেষ নজর

ইউরোপ, আমেরিকা, ভারতসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে প্লাস্টিক পণ্য রফতানি করে বাংলাদেশ। এ জন্য তৈরি পোশাকের মতো এই খাতটিতেও নজর দিচ্ছে সরকার। এরই মধ্যে এই পল্লীর জন্য ৫০ একরের জমি বরাদ্দ দিয়েছে সরকার। এখানে গড়ে তোলা হবে পরিকল্পিত প্লাস্টিক পল্লী।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, বাংলাদেশে ৫ হাজারের বেশি ছোট বড় প্লাস্টিক কারখানা আছে। যেখানে  কর্মসংস্থান হয় প্রায় ১২ লাখ মানুষের। এ খাত থেকে সরকার প্রায় সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা রাজস্ব পাচ্ছে।

পণ্য বহুমুখীকরণের অংশ হিসেবে এই খাতের ওপর সরকারের বিশেষ নজর সম্পর্কে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি গণমাধ্যমকে বলেছেন, ‘পণ্য বহুমুখীকরণের অংশ হিসেবে প্লাস্টিক খাতের সম্ভাবনা কাজে লাগাতে সবরকম সহায়তা করতে সরকার প্রস্তুত।’


আরও পড়ুনঃ


সমালোচনা আমাদের কাজের সফলতা : কবীর চৌধুরী তন্ময়

পাবনায় থাকছেন শাকিব খান

সাধ্যের মধ্যে ৮ জিবি র‍্যামের রেডমি ফোন

কমেন্টের কারণ নিয়ে যা বললেন কবীর চৌধুরী তন্ময়


তবে অর্থনীতিবিদদের পরামর্শ প্লাস্টিকের উৎপাদন ও ব্যবহার বাড়লে পরিবেশের ক্ষতির যে আশঙ্কা রয়েছে, তা ঠেকানোর ব্যাপারেও চিন্তা করতে হবে।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

পুলিশের সাথে সংঘর্ষের ঘটনায় যুবদলের ৮ জন রিমান্ডে

অনলাইন ডেস্ক

পুলিশের সাথে সংঘর্ষের ঘটনায় যুবদলের ৮ জন রিমান্ডে

জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে পুলিশ ও ছাত্রদলের সংঘর্ষের ঘটনায় করা শাহবাগ থানায় করা মামলায় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবদল সভাপতি রফিকুল আলম মজনুসহ আট জনের দুই দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত।

সোমবার (৮ মার্চ) ঢাকা মহানগর হাকিম মামুনুর রশীদ শুনানি শেষে এ আদেশ দেন। রিমান্ডে নেয়া অপর আসামিরা হলেন খালেক টিপু, রাসেল, দিল গনি, শহিদুল ইসলাম, মোশাররফ, আবুল কাশেম ও ওয়াহিদ।

সংঘর্ষের ঘটনায় গত রোববার শাহবাগ থানার উপপরিদর্শক পলাশ শাহা বাদী হয়ে ৪৮ আসামির নাম উল্লেখসহ ২০০/২৫০ জন আসামির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

সোমবার মামলার আসামিদের আদালতে হাজির করা হয়। এরপর মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা শাহবাগ থানার উপপরিদর্শক মো. আব্দুল্লাহ প্রত্যেক আসামির দশ দিন করে রিমান্ড চেয়ে আবেদন করেন। অন্যদিকে আসামি পক্ষের আইনজীবীরা রিমান্ড বাতিল ও জামিন চেয়ে আবেদন করেন।


আরও পড়ুনঃ


সমালোচনা আমাদের কাজের সফলতা : কবীর চৌধুরী তন্ময়

পাবনায় থাকছেন শাকিব খান

সাধ্যের মধ্যে ৮ জিবি র‍্যামের রেডমি ফোন

কমেন্টের কারণ নিয়ে যা বললেন কবীর চৌধুরী তন্ময়


এ সময় রাষ্ট্রপক্ষ রিমান্ডের পক্ষে শুনানি করেন। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত প্রত্যেকের দুই দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এর আগে গত ৫ মার্চ মজনুসহ আটজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

রাস্তায় ময়লা ফেললে সেই ময়লা বাসায় পৌঁছে দেয়া হবে : মেয়র আতিক

নিজস্ব প্রতিবেদক

রাস্তায় ময়লা ফেললে সেই ময়লা বাসায় পৌঁছে দেয়া হবে : মেয়র আতিক

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছেন, রাস্তায় যে ময়লা ফেলবে, সেই ময়লা তাদের বাসায় পৌঁছে দেওয়া হবে।

বিস্তারিত আসছে...


পশ্চিমবঙ্গের কাছে পর্যাপ্ত পানি থাকবে তখন তিস্তা চুক্তি: মমতা

যে দোয়া পড়লে বিশ্ব নবীর সঙ্গে জান্নাতে যাওয়া যাবে!

খুলনায় সওজ কার্যালয় ঘেরাও কর্মসূচি, ক্ষোভ

৭ই মার্চের অনুষ্ঠান থেকে বেড়িয়ে গেলেন অথিতিরা


news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর