স্বামী পালালেও ২০ কেজি গাঁজা নিয়ে স্ত্রী ধরা

অনলাইন ডেস্ক

স্বামী পালালেও ২০ কেজি গাঁজা নিয়ে স্ত্রী ধরা

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় মাসদাইর মাহাবুবের বাসায় অভিযান চালিয়ে ২০ কেজি গাঁজা ও নগদ ৪৮ হাজার টাকাসহ সোনিয়াকে (২২) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ সময় তার হেফাজত থেকে মাদক ব্যবসার কাজে ব্যবহৃত একটি প্রাইভেটকার উদ্ধার করে পুলিশ।

শুক্রবার (৫ ফেব্রুয়ারি) ফতুল্লার মাসদাইর শেরে বাংলা লিংক রোডের ছায়া বীথি এলাকায় এ অভিযানকালে সোনিয়ার স্বামী মাহাবুব পালিয়ে যায়।

গ্রেপ্তারকৃত সোনিয়া নাটোর জেলার সিংড়া থানার চাদপুর গ্রামের মাহাবুবের স্ত্রী। তিনি ফতুল্লার মাসদাইর শেরেবাংলা লিংক রোডের আল আমীন মসজিদের উল্টো-পাশে একটি বাড়িতে ভাড়া থাকে।


কাশ্মির হবে স্বাধীন: ইমরান খান

গোনাহ ক্ষমা হয় যে দোয়ায়

আয়-রোজগারে বরকত লাভের উপায়

যেমন আছে সু চি


পুলিশ জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শুক্রবার ভোরে ফতুল্লা থানার ওসি আসলাম হোসেনের নেতৃত্বে মাসদাইর মাহাবুবের বাসায় অভিযান চালায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মাহাবুব পালিয়ে যেতে সক্ষম হলেও তার স্ত্রী সোনিয়াকে আটক করে পুলিশ। পরে তার স্বীকারোক্তি মতে শোয়ার কক্ষ থেকে কয়েকটি প্যাকেটে মোড়ানো সাড়ে ১৬ কেজি গাঁজা ও তার দেখানো মতে প্রাইভেটকারের ভেতর থেকে প্যাকেটে মোড়ানো সাড়ে ৩ কেজি সব মিলিয়ে ২০ কেজি গাঁজা উদ্ধার করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে মাদক বিক্রির নগদ ৪৮ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।

ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম হোসেন জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মাসদাইরে অভিযান চালিয়ে ২০ কেজি গাঁজা, একটি প্রাইভেটকার ও নগদ ৪৮ হাজার টাকাসহ সোনিয়া নামক এক মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ ঘটনায় মাদক আইনে সোনিয়া ও তার স্বামী মাহাবুবের বিরুদ্ধে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা করা হয়েছে।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

মামুনুলের পক্ষে স্ট্যাটাস দিয়ে চাকরি-বাসা দুটোই হারালেন তিনি

অনলাইন ডেস্ক

মামুনুলের পক্ষে স্ট্যাটাস দিয়ে চাকরি-বাসা দুটোই হারালেন তিনি

হেফাজতে ইসলামের নেতা মামুনুল হকের পক্ষে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে চাকরি হারালেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স জামে মসজিদের ইমাম মুর্শিদুল ইসলাম। ঘটনাটি ঘটে বগুড়ার ধুনটে।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ও মসজিদ কমিটির সভাপতি হাসানুল হাছিব স্বাক্ষরিত পত্রে চাকরি থেকে অব্যাহতি দেওয়ার বিষয়টি আজ মঙ্গলবার দুপুরের দিকে ওই ইমামকে জানানো হয়।

ইমাম মুর্শিদুল ইসলাম উপজেলার এলাঙ্গী ইউনিয়নের রাঙ্গামাটি গ্রামের গোলাম রহমানের ছেলে।

মুর্শিদুল ইসলাম প্রায় ১২ বছর ধরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জামে মসজিদে ইমামতি করছেন।

এই সূত্রে তিনি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সরকারি কোয়ার্টারে পরিবার নিয়ে বসবাস করতেন।

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে রয়্যাল রিসোর্টে ৩ এপ্রিল হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হককে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়। ওই দিনই ইমাম মুর্শিদুল ইসলাম তাঁর নিজের ফেসবুক আইডিতে মামুনুল হকের পক্ষে পোস্ট দেন। বিষয়টি মসজিদ পরিচালনা কমিটির লোকজন ও সরকারি দলের নেতা-কর্মীদের নজরে আসে। পরে বিষয়টি নিয়ে উত্তেজনা দেখা দেওয়ায় পরিস্থিতি মোকাবিলায় ওই দিনই মসজিদ কমিটির পক্ষ থেকে ইমামকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

পরে এ নিয়ে গত রোববার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও), মসজিদ কমিটির সব সদস্য, স্থানীয় মুসল্লি ও সরকারি দলের স্থানীয় নেতা-কর্মীরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বৈঠকে বসেন। ওই বৈঠকে সর্বসম্মতিক্রমে ইমাম মুর্শিদুল ইসলামকে চাকরিচ্যুত করা হয়।


মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে বেধড়ক পিটুনির ১মিনিট ৩২ সেকেন্ডের ভিডিও ভাইরাল

ডাক্তার-পুলিশের এমন আচরণ অনাকাঙ্ক্ষিত: হাইকোর্ট

একদিনে করোনা শনাক্ত ৪৫৫৯

২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ৯১ জন


মুর্শিদুল ইসলাম বলেন, ‘হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হককে হেনস্তা করার দৃশ্য দেখে সইতে পারছিলাম না। তাই মামুনুল হকের পক্ষে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছিলাম। সেই স্ট্যাটাসে সরকারবিরোধী কোনো কথা ছিল না।

পরবর্তী সময়ে ভুল বুঝতে পেরে ফেসবুক থেকে সেই স্ট্যাটাস মুছে ফেলে মসজিদ কমিটির সদস্যদের কাছে ক্ষমা চেয়েছিলেন বলে জানান তিনি। 

ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা হাসানুল হাছিব বলেন, মসজিদ কমিটির সদস্য, উপজেলা প্রশাসন ও সরকারি দলের নেতা-কর্মীদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মুর্শিদুল ইসলামকে চাকরি থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে তাঁকে সরকারি বাসা ছেড়ে দিতে বলা হয়েছে।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ভাড়া না দিতে পারায় সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে বের করে দিল মালিক, রাতে গণধর্ষণের শিকার নারী

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর

ভাড়া না দিতে পারায় সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে বের করে দিল মালিক, রাতে গণধর্ষণের শিকার নারী

গাজীপুরের শ্রীপুরে নারী পোশাক শ্রমিককে গণধর্ষণের অভিযোগে সুলতান উদ্দিন নামে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গেল গভীর রাতে তাকে উপজেলার তেলিহাটির মুলাইদ এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এছাড়াও ধর্ষণের শিকার ওই নারী পোশাক শ্রমিক আরো তিনজনের নাম উল্লেখ থানায় ধর্ষণ মামলা করেছেন।

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খোন্দকার ইমাম হোসেন জানান, ওই নারী পোশাক শ্রমিক মুলাইদ এলাকায় একটি বাড়িতে ভাড়া থাকতেন। পরে ভাড়া না দিতে পারায়, ওই বাড়িওয়ালা তাকে ১৮ এপ্রিল সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে বের করে দেয়। পরে রাতে থাকার সন্ধানে সড়কে একা ঘুরতে থাকলে স্থানীয় মিজান উদ্দিনসহ চারজন তাকে তুলে নিয়ে যায়।


মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে বেধড়ক পিটুনির ১মিনিট ৩২ সেকেন্ডের ভিডিও ভাইরাল

ডাক্তার-পুলিশের এমন আচরণ অনাকাঙ্ক্ষিত: হাইকোর্ট

একদিনে করোনা শনাক্ত ৪৫৫৯

২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ৯১ জন


পরে মিজান উদ্দিনের বাড়িতে ওই নারী পোশাক শ্রমিককে পালাক্রমে গণধর্ষণ করেন তারা। এ ঘটনায় মামলা হওয়ার পর অভিযান চালিয়ে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বাকী আসামিদের গ্রেপ্তারেও অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান তিনি।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ময়মনসিংহে ব্যবসায়ী-পুলিশ ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া

ইউএনও ও পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ

সৈয়দ নোমান, ময়মনসিংহ

ময়মনসিংহে ব্যবসায়ী-পুলিশ ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া

ময়মনসিংহের মুক্তাগাছায় ব্যবসায়ীদের সাথে পুলিশের সাথে ব্যবসায়ীদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে লকডাউনে কড়াকড়ি নির্দেশনা বাস্তবায়ন করতে গেলে ব্যবসায়ীদের সাথে এই সংঘর্ষ হয়।

মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলা শহরের বড় মসজিদের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল মনসুর লকডাউনে স্থানীয় বড় মসজিদ মার্কেটে গিয়ে সব ধরনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করতে নির্দেশ দেন। এ সময় তার সঙ্গে দোকানদারদের বাক-বিতণ্ডার ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে থানা থেকে অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। তখন দোকান ফেলে ব্যবসায়ীরা রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ করতে থাকে। এসময় পুলিশ চড়াও হলে ব্যবসায়ীদের সাথে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পরে বিক্ষোব্ধ ব্যবসায়ীরা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকে। এক পর্যায়ে ব্যবসায়ীদের ইট-পাটকেল নিক্ষেপে পিছু হটে পুলিশ। পরে ব্যবসায়ীরা বড় মসজিদের সামনে অবস্থান নেয়।


মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে বেধড়ক পিটুনির ১মিনিট ৩২ সেকেন্ডের ভিডিও ভাইরাল

ডাক্তার-পুলিশের এমন আচরণ অনাকাঙ্ক্ষিত: হাইকোর্ট

একদিনে করোনা শনাক্ত ৪৫৫৯

২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ৯১ জন


তবে ঘটনার বিষয় অস্বীকার করে মুক্তাগাছা থানার ওসি মোহাম্মদ দুলাল আকন্দ বলেন, ‘সরকারের নির্দেশনা পালনে পুলিশ কাজ করে যাচ্ছে। বড় মসজিদের সামনে ব্যবাসয়ীদের লকডাউন সম্পর্কে বুঝানো হয়েছে। এর পর তারা ব্যবসায়ীদের বুঝিয়ে থানায় চলে যান। কোনো ধরনের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেনি।’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল মনসুর বলেন, ‘সরকারের নিয়মিত ডিউটি পালন করতে বড় মসজিদ মার্কেটে যাওয়া হয়। এ সময় লকডাউন ও স্বাস্থ্যবিধি সম্পর্কে ব্যবসায়ীদের বোঝানো হয়। এরপর কী ঘটনা ঘটেছে এটা তার জানা নেই।’

তবে একাধিক ব্যবসায়ী নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, চলতি লকডাউনে প্রশাসনের পক্ষ থেকে যখন যার যেভাবে যেমন ইচ্ছা তথন সেভাবেই তারা নানা কথা বলছেন। সে জন্য ছোট ছোট দোকানদার ও ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের মাঝে বিভিন্ন ধরনের ক্ষোভ রয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে দোকান খোলা রেখে বেঁচে থাকার জন্যই ব্যবসা বাণিজ্য চালু রাখতে চান বলে তারা জানান।

news24bd.tv তৌহিদ 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

তরুণীকে ধর্ষণ এবং অন্তঃসত্ত্বা হলে গর্ভপাতের অভিযোগ ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে

অনলাইন ডেস্ক

তরুণীকে ধর্ষণ এবং অন্তঃসত্ত্বা হলে গর্ভপাতের অভিযোগ ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে

বিয়ের আশ্বাস দিয়ে এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে বরিশাল মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি জসিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে।

ওই তরুণী গতকাল সোমবার রাতে জসিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে বিমানবন্দর থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন বলে নিশ্চিত করেন বরিশাল নগর পুলিশের বিমানবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কমলেশ হালদার।

তিনি আজ মঙ্গলবার দুপুরে বলেন, ওই তরুণী ছাত্রলীগের নেতা জসিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযোগটি প্রাথমিকভাবে তদন্ত করা হচ্ছে। সত্যতা পেলে মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করা হবে।

তবে মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি জসিম উদ্দিন অভিযোগটিকে মিথ্যা দাবি করেন।


মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে বেধড়ক পিটুনির ১মিনিট ৩২ সেকেন্ডের ভিডিও ভাইরাল

ডাক্তার-পুলিশের এমন আচরণ অনাকাঙ্ক্ষিত: হাইকোর্ট

একদিনে করোনা শনাক্ত ৪৫৫৯

২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ৯১ জন


তিনি বলেন, ওই তরুণী তাঁর আত্মীয়। তিনি গত রোববার বিয়ে করেছেন। এরপরই অজ্ঞাত কারণে ওই তরুণী তাঁর বিরুদ্ধে ধর্ষণের মিথ্যা অভিযোগ তুলেছেন। জসিমের দাবি, রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ তাঁকে ফাঁসাতে ওই তরুণীকে দিয়ে মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করিয়েছে।

লিখিত অভিযোগে তরুণী উল্লেখ করেছেন, ২০১৯ সালের ১০ সেপ্টেম্বর জসিম উদ্দিন তাঁর বাসায় ঢুকে তাঁকে ধর্ষণ করেন। এরপর বিয়ের আশ্বাস দিয়ে ঘুরতে যাওয়ার কথা বলে বিভিন্ন জায়গায় নিয়ে গিয়ে জসিম তাঁকে একাধিকবার ধর্ষণ করেন। একপর্যায়ে তরুণী অন্তঃসত্ত্বা হলে তাঁকে গর্ভপাতের ওষুধ খাওয়ানো হয় এবং নগরের সদর হাসপাতালে নিয়ে গর্ভপাত করানো হয়।

এরপর তিনি জসিম উদ্দিনকে বিয়ের জন্য চাপ দিলে গত ৫ মার্চ জসিম দুদিনের মধ্যে তাঁকে বিয়ে করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। তবে পরে জসিম তরুণীকে জানিয়ে দেন, তিনি বিবাহিত। তাঁকে (তরুণী) বিয়ে করা সম্ভব নয়।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রবাসীর স্ত্রীকে শ্বশুরবাড়িতেই ধর্ষণের পর হত্যা

অনলাইন ডেস্ক

প্রবাসীর স্ত্রীকে শ্বশুরবাড়িতেই ধর্ষণের পর হত্যা

সাউথ আফ্রিকা প্রবাসীর স্ত্রীকে শ্বশুরবাড়িতে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ উঠেছে। সোমবার রাতে টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার ১৩নং বাঁশতৈল ইউনিয়নের একটি বাড়ি থেকে দুই হাত পেছনে বাঁধা ও ফাঁসিতে ঝুলন্ত অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বাড়ির  আশপাশের লোকজন তার লাশ ঝুলন্ত অবস্থায় দেখে পুলিশকে খবর দেন। রাতে মির্জাপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে।

ঘটনার পর থেকেই বাড়ির লোকজন পলাতক রয়েছে বলে জানা গেছে।

ওই গৃহবধূর পিতা জানান, মেয়ের জামাই সাউথ আফ্রিকায় থাকায় বাড়ির লোকজনদের দেখাশোনার জন্য তার মেয়ে শ্বশুরবাড়িতেই বেশিরভাগ সময় থাকতো। রোজার কয়েক দিন আগে তার মেয়ে শ্বশুরবাড়ি থেকে তাদের বাড়িতে বেড়াতে আসে। দুই দিন আগে আবার শ্বশুরবাড়ি চলে যায়।

তিনি অভিযোগ করেন, তার মেয়ের নুনাসের জামাই বিভিন্ন সময় তার মেয়েকে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। আমার মেয়ে আমাকে সব ঘটনা মোবাইল ফোনে কয়েক দিন আগে জানায়। নুনাসের জামাইয়ের কুপ্রস্তাবের কথা আমার মেয়ের মোবাইলে রেকর্ডিং করা আছে বলে আমাদের জানিয়েছিল। আমার মেয়েকে ধর্ষণ করার পর হত্যা করা হয়েছে।

তিনি জানান, সোমবার রাতে পরিকল্পিতভাবে তার মেয়েকে খুন করে ওড়না দিয়ে দুই হাত পিছনে বেঁধে লাশ ফাঁসিতে ঝুলিয়ে রাখে।

এ ব্যাপারে মির্জাপুর থানার ওসি মো.রিজাউল হক বলেন, দুই হাত ওড়না দিয়ে পেঁচানো অবস্থায় গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের পর আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর