করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়েই চলছে কানাডাতে

অনলাইন ডেস্ক

করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়েই চলছে কানাডাতে

কানাডার বিভিন্ন প্রদেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমবর্ধমান হারে বেড়েই চলছে। যদিও সরকার কঠোরভাবে করোনা প্রতিরোধে দিকনির্দেশনার পাশাপাশি প্রতিরোধমূলক কর্মসূচিতে নাগরিকদের ভ্যাকসিন দেওয়াও শুরু করেছে। তারপরও মৃতের সংখ্যা বিশ হাজার সাতশ ছাড়িয়ে গেছে। অন্যদিকে করোনা নিয়ন্ত্রণে সরকার ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে হিমশিম খেতে হচ্ছে।

ইতোমধ্যে কানাডায় বিদেশ থেকে আসা যাত্রীদের বিমানবন্দরে বাধ্যতামূলক কোভিড টেষ্ট করতে হবে। ফলাফল না পাওয়া পর্যন্ত সরকার কর্তৃক নির্দিষ্ট করে দেয়া হোটেলে কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।

কোয়ারেন্টিনে থাকতে জনপ্রতি ২ হাজার ডলারের বেশি ব্যয় হবে বলে সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। এই ব্যয় যাত্রীদের নিজেদের বহন করতে হবে বলে ফেডারেল পরিবহন মন্ত্রী ওমর আলঘাবরা জানিয়েছেন। 

কানাডা সরকার কঠোরভাবে করোনা প্রতিরোধে বিভিন্ন পদক্ষেপের অংশ হিসেবেই ওই কোয়ারেন্টিন কার্যক্রম। 

অন্যদিকে সমস্ত কানাডায় এখন ভ্যাকসিনের স্বল্পতা দেখা দিয়েছে। তার প্রধান কারণ ফাইজার কোম্পানি কানাডায় প্রয়োজনের চাইতে অর্ধেক ভ্যাকসিন সরবরাহ করছে। যদিও কানাডা সকল দেশের আগে ফাইজার থেকে ভ্যাকসিন সুরক্ষিত করছিল। 


যে কারণে দোয়া কবুল হয় না

দুনিয়ার শ্রেষ্ঠ ‌জুমার দিনে ‘সূরা কাহাফ’ তেলাওয়াতের ফজিলত

দুনিয়ার শ্রেষ্ঠ ‌`জুমার’ দিনে যা করবেন

প্রতিদিন সকালে যে দোয়া পড়তেন বিশ্বনবি


এখন ফাইজার সেই পরিমান ভ্যাকসিন সরবরাহ করতে না পারায় কানাডার বিভিন্ন প্রভিন্সে ভ্যাকসিনের স্বল্পতা দেখা দিয়েছে।

এরই মধ্য কানাডায় উৎপাদিত নতুন করোনা ভাইরাস ভ্যাকসিন প্রথমবারের মতো ক্লিনিকাল ট্রায়াল শুরু করেছে। সংস্থার প্রধান নির্বাহী ব্র্যাড সোরেসন বলেছেন, কানাডায় ডিজাইন করা ও তৈরি করা টিকা প্রথমবারের মতো টরোন্টোর এক ক্লিনিকে ৬০ জন স্বেচ্ছাসেবককে তিনটি করে শট দেওয়া হয়েছে। 

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, কানাডায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৮ লাখ ৪ হাজার ২৬০ জন। মৃত্যুবরণ করেছেন ২০ হাজার ৭ শত ৬৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৭ লাখ ৩৮ হাজার ৭শত ৬৬ জন।

news24bd.tv/আয়শা

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

কারাগারে লেখক মুশতাকের মৃত্যুর ঘটনায় টরন্টো সংস্কৃতিকর্মীদের প্রতিবাদ

লায়লা নুসরাত, কানাডা

কারাগারে লেখক মুশতাকের মৃত্যুর ঘটনায় টরন্টো সংস্কৃতিকর্মীদের প্রতিবাদ

বাংলাদেশের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামালায় কারাবন্দী লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন টরন্টোর লেখক, সাংবাদিক, সংস্কৃতি ও চলচ্চিত্র কর্মীরা।

এক বিবৃতিতে তাঁরা বলেন, রাষ্ট্রীয় হেফাজতে থাকা অবস্থায় এই হত্যার দায় সরকারকেই নিতে হবে। বিবৃতিতে অবিলম্বে এই কুখ্যাত, দমন ও নিপীড়নমূলক ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল করে এই আইনের অপব্যবহার করে আটক সকল বন্দীদের দ্রুত মুক্তি চাই।

আরও পড়ুন:


কানাডা ইমিগ্রেশনের মনগড়া তথ্য দিয়ে প্রতারণা, সতর্কতার পরামর্শ

চিরযুবক শাহিদ, সাবেক প্রেমিকার শুভেচ্ছাবার্তা

বগুড়ায় বাস-ট্রাক-টেম্পুর ত্রিমুখী সংঘর্ষে নিহত ৪

চট্টগ্রামে সূর্যমুখী ফুলের হাসি দেখতে ভীড় করছেন দর্শনার্থীরা


বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেন, এনায়েত করিম বাবুল,শওগাত আলী সাগর,সোলাইমান তালুত রবিন, আজিমউদ্দিন আহমেদ,ফয়েজ নুর ময়না,জগলুল আজিম রানা,আরিফ হোসেন বনি,মনিস রফিক,মিনারা বেগম,পারভেজ চৌধুরী প্রমূখ।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

কানাডা ইমিগ্রেশনের মনগড়া তথ্য দিয়ে প্রতারণা, সতর্কতার পরামর্শ

অনলাইন ডেস্ক

কানাডা ইমিগ্রেশনের মনগড়া তথ্য দিয়ে প্রতারণা, সতর্কতার পরামর্শ

মনগড়া, ভূয়া তথ্য দিয়ে কানাডায় ইমিগ্রেশনের নামে সাধারণ মানুষকে প্রতারিত করছে একটি চক্র। ওয়ার্ক পারমিট, স্টুডেন্ট ভিসা, চাকুরি পাইয়ে দেয়া বা ইমিগ্রেশন করিয়ে দেয়ার কথা বলে এরা সাধারণ মানুষকে প্রলুব্দ করে বলে চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছেন কানাডার ইমিগ্রেশন বিষয়ক তিন বিশেষজ্ঞ।

তারা জনসাধারণকে প্রতারণার হাত থেকে বাঁচাতে ইমিগ্রেশন বিষয়ে সঠিত তথ্য তুলে ধরার তাগিদ দিয়ে বলেন, ইমিগ্রেশনের সুযোগ সুবিধা সংক্রান্ত সংবাদ পরিবেশনের ক্ষেত্রে গণমাধ্যমের আরো সতর্কতা অবলম্বন করা দরকার।

কানাডার বাংলা পত্রিকা ’নতুনদেশ’ এর প্রধান সম্পাদক ‘শওগাত আলী সাগরের সঞ্চালানায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সম্প্রচারিত ‘শওগাত আলী সাগর লাইভে’ তারা এই মত দেন। স্থানীয় সময় বুধবার রাতে ‘কানাডা ইমিগ্রেশনের মিথগুলো’ শিরোনামে এই আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।
  
ভুল তথ্য কিংবা বিকৃত তথ্যের মাধ্যমে কানাডায় ইমিগ্রেশনের নামে প্রতারণার নানা চিত্র তুলে ধরে আলোচনা করেন এডুকেশন কনসাল্টিং এজেন্ট কায়েসুর রহমান, ইউটিউব ভিডিও কন্টেন্ট ক্রিয়েটর ও সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং বিশেষজ্ঞ  সিদ্দিকুর রহমান এবং ইমিগ্রেশন নিউজ২৪ ডটকম এর সম্পাদক ও প্রকাশক উজ্জল দাশ।

আলোচনাকালে বক্তারা কানাডায় ইমিগ্রেশনের যে কোনো তথ্যের জন্য কানাডা সরকারের  অফিসিয়াল ওয়েবসাইটের  (https://www.canada.ca/en/services/immigration-citizenship.html) উপর  নির্ভর করার পরামর্শ দেন। একই সঙ্গে তারা কানাডা সরকারের অনুমোদিত বা লাইসেন্সপ্রাপ্ত  নয় এমন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে ইমিগ্রেশন বিষয়ক কোনো সেবা না নেয়ার পরামর্শ দেন।

আলোচনায় অংশ নিয়ে এডুকেশন কনসাল্টিং এজেন্ট কায়েসুর রহমান বলেন, সন্তানদের কানাডায় ভর্তি করা হলেই বাবা মা কানাডায় চলে এসে কাজ শুরু করতে পারেন এমনকি ইমিগ্রেশন পেয়ে যাবেন- এমন একটি কথা বাংলাদেশের প্রচার পেয়েছে। এটি মিথ্যা তথ্য। বিদেশি শিক্ষার্থীরা কানাডায় পড়াশোনা শেষ করে নির্দিষ্ট শর্তাবলী পূরণ করা সাপেক্ষে ইমিগ্রেশনের জন্য আবেদন করতে পারেন। কিন্তু কোনো শিক্ষার্থীর বাবা মা এসে কাজ করার জন্য ওয়ার্ক পারমিট পান না।

তিনি বলেন, অল্পবয়সী শিক্ষার্থীদের বাবা- মা একজনকে ভিসা দেয়া হয় সন্তানের সঙ্গে থাকার জন্য এবং তিনি এখানে ভিজিটর হিসেবেই অবস্থান করেন। কানাডায় শিক্ষার্থী হিসেবে আসতে আগ্রহীদের আগেভাগে প্রয়োজনীয় হোম ওয়ার্ক করার পরামর্শ দিয়ে কায়েসুর রহমান বলেন, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্রভর্তির বিভিন্ন নিয়মাবলী আছে, ভিসার জন্য আলাদা শর্তাবলী আছে। এগুলো সম্পর্কে যথাযথ উৎস থেকে তথ্য সংগ্রহ না করলে প্রতারিত হওয়ার আশংকা থাকবে।

ইউটিউব ভিডিও কন্টেন্ট ক্রিয়েটর ও সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং বিশেষজ্ঞ  সিদ্দিকুর রহমান ওয়ার্ক পারমিট এবং কানাডায় কাজ পাইয়ে দেয়ার নামে প্রতারণার নানা চিত্র তুলে ধরে বলেন, কোনো কোম্পানি বা প্রতিষ্ঠান চাইলেই বিদেশ থেকে কর্মী নিয়ে আসতে পারে না। ‘কানাডায় পাওয়া যাচ্ছে না’- এটি প্রমাণ করতে পারার পরই সরকার বিদেশ থেকে লোক আনার অনুমতি দেয়। কাজেই যারা ওয়ার্ক পারমিট দেয়ার কথা বলে বা ওয়ার্ক পারমিট পাইয়ে  দেয়- তারা আসলে ভূয়া কাগজ দিয়ে প্রতারণা করে। তাদের ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে। নিজের ইউটিউব চ্যানেলের অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরে সিদ্দিকুর রহমান বলেন, বাংলাদেশসহ দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোয়ই এই ওয়ার্ক পারমিটের কথা শোনা যায়।

কানাডায় ইমিগ্রেশনের অনেকগুলো খাত আছে বলে উল্লেখ করে সিদ্দিকুর রহমান বলেন, ইমিগ্রেশনের শর্তাবলী এবং নিজের যোগ্যতা মিলিয়েই ইমিগ্রেশনের চেষ্টা করা উচিৎ।

ইমিগ্রেশননিউজ ২৪ ডটকমের সম্পাদক ও প্রকাশক  উজ্জল দাশ বলেন,  মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে কাজ করতে যাওয়ার সাথে অনেকে কানাডায় ইমিগ্রেশনকে মিলিয়ে ফেলেন। কোনো দালাল বা আইনজীবী, ইমিগ্রেশন কনসালট্যান্ট কাউকে কানাডায় ভিসা বা ইমিগ্রেশন করিয়ে দিতে পারেনা- এটি অনেকেই বিবেচনায় রাখেন না। ফলে প্রতারণার সুযোগ তৈরি হয়।

আরও পড়ুন:


চিরযুবক শাহিদ, সাবেক প্রেমিকার শুভেচ্ছাবার্তা

বগুড়ায় বাস-ট্রাক-টেম্পুর ত্রিমুখী সংঘর্ষে নিহত ৪

চট্টগ্রামে সূর্যমুখী ফুলের হাসি দেখতে ভীড় করছেন দর্শনার্থীরা

দীর্ঘ সময় পর রং তুলির আঁচরে ১১ বন্ধুর চিত্র প্রদর্শনী


গণমাধ্যম, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এবং ইউটিউবে কানাডা ইমিগ্রেশনের খবর বা তথ্য পরিবেশনে অনেক সময় মূল তথ্য পাশ কাটিয়ে বাড়তি তথ্য বা ভুল ব্যাখ্যা যোগ করে দেয়া হয়। এতে মানুষের মনে বিভ্রান্তি তৈরি হয় এবং প্রতারকরা এই সুযোগটি কাজে লাগায়।

উজ্জল দাস ইমিগ্রেশন সংক্রান্ত সংবাদ এবং বিজ্ঞাপন  প্রচার বা প্রকাশের ক্ষেত্রে বাড়তি সতর্কতা অবলম্বনের  জন্য গণমাধ্যমের প্রতি আহ্বান জানান।

নতুনদেশ এর প্রধান সম্পাদক শওগাত আলী সাগর বলেন,কানাডয় ইমিগ্রেশনের ব্যাপারে বাংলাদেশের মানুষের মধ্যে আগ্রহ বাড়ছে।এটিকে কাজে লাগিয়ে প্রতারক চক্র সক্রিয় হয়ে উঠেছে। তিনি বলেন, কানাডার প্রতি বাংলাদেশের মানুষের আগ্রহকে  আমরা ইতিবাচক হিসেবে দেখি। আমরা চাই বাংলাদেশ থেকে আরো বেশি ইমিগ্র্যান্ট এবং শিক্ষার্থী কানাডায় আসুক। সেই কারনেই প্রতারনা এবং ভুল প্রচারনার বিরুদ্ধে আমাদের কথা বলতে হবে।  

সাংবাদিক শওগাত আলী সাগর বলেন, বিশ্বায়নের এই যুগে তথ্য যাচাই বাচাই করা মোটেও কঠিন কোনো কাজ না। গণমাধ্যমের জন্য সেটি আরো সহজ। পত্রিকাগুলো এখন প্রবাস থেকে অনেক ফ্রিল্যান্সারদের লেখা প্রকাশ করে। সেই সব লেখার তথ্যের বিশেষ করে ইমিগ্রেশন সংক্রান্ত লেখার তথ্যের যথার্থতা সম্পর্কে  বাড়তি  মনোযোগ না দিলে ইমিগ্রেশনকে ঘিরে গড়ে ওঠা প্রতারক চক্র সুবিধা নিতে পারে বলে তিনি সতর্ক করে দেন।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

আবুধাবিতে অস্ত্র প্রদর্শনিতে অংশ নিল বাংলাদেশ নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজ

অনলাইন ডেস্ক

আবুধাবিতে অস্ত্র প্রদর্শনিতে অংশ নিল বাংলাদেশ নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজ

সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাজধানী আবুধাবিতে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ৫ দিনব্যাপী অস্ত্র প্রদর্শনী। ৯শ’ প্রদর্শনকারীর অংশগ্রহণে রোববার মধ্যপ্রাচ্যের বৃহত্তম অস্ত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন আবুধাবির ক্রাউন প্রিন্স শেখ মোহাম্মদ বিন জায়েদ আল নাহিয়ান। 

দ্বি-বার্ষিক এই ইন্টারন্যাশনাল ডিফেন্স এক্সিবিশন অ্যান্ড কনফারেন্স করোনাভাইরাস সংক্রমণের পর আমিরাতের প্রথম সরাসরি অনুষ্ঠিত বৃহৎ অনুষ্ঠান। সাঁজোয়া যান থেকে ব্যালিস্টিক মিসাইল পর্যন্ত সর্বাধুনিক অস্ত্রশস্ত্র ও যুদ্ধ সরঞ্জাম প্রদর্শন করা হচ্ছে। ৭০ হাজার অংশগ্রহণকারী এ প্রদর্শনীতে অংশ নেন।


কার সাথে কার পরকিয়া তা চিন্তা করে মাথা নষ্ট করবেন না : আঁখি আলমগীর

নাসির প্রেমিক না আমার বন্ধু : মডেল মিম

আমার বয়ফ্রেন্ড নিয়ে আমিও মজায় আছি : নাসিরের সাবেক প্রেমিকা

তামিমার সাবেক স্বামীকে বাটপার বলছে মিম


 

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সংযুক্ত আরব আমিরাত জানায়, দক্ষিণ আফ্রিকার ড্রোন থেকে সার্বিয়ার কামান পর্যন্ত বিভিন্ন অস্ত্র আমিরাতের সামরিক বাহিনীকে সরবরাহের জন্য দেশটি এক দশমিক তিন ছয় বিলিয়ন ডলারের অস্ত্রচুক্তি সম্পন্ন করেছে।

প্রদর্শনীতে অতিথি হিসেবে অংশ নেন বাংলাদেশ নৌবাহিনীর প্রধান এবং প্রদর্শিত হচ্ছে বাংলাদেশ নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজ ‘প্রত্যয়’। আন্তর্জাতিক অস্ত্র প্রদর্শনী চলবে ২৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

সুদানে শান্তিরক্ষায় কঠোর পরিশ্রমের স্বীকৃতি পেলেন মাসুক মিয়া

নিজস্ব প্রতিবেদক

সুদানে শান্তিরক্ষায় কঠোর পরিশ্রমের স্বীকৃতি পেলেন মাসুক মিয়া

সুদানের দারফুরে শান্তিরক্ষায় ‘কঠোর পরিশ্রম’ আর ‘অসাধারণ কর্মদক্ষতার’ জন্য ‘প্রশংসা সনদ’ পেলেন সেখানে বাংলাদেশ ফর্মড পুলিশ ইউনিটে অপারেশন অফিসার হিসেবে কর্মরত অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাসুক মিয়া, পিপিএম।

আজ (২৫ ফেব্রুয়ারি) দারফুরে এলফেশার সুপার ক্যাম্পের বঙ্গবন্ধু ক্যাম্পে তার কাছে এই সনদ হস্তান্তর করেন সুদানে নিযুক্ত জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনের ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কমিশনার ড. সুলতান আজম তিমুরি।

মাসুক মিয়া ২০১৯ সালের ২৫ মে সুদানের দারফুরে শান্তিরক্ষা মিশনে যোগদানের পর নিয়ালা সুপার ক্যাম্পের নিরাপত্তা প্রদান এবং সফলভাবে সুদান সরকারের কাছে ক্যাম্প হস্তান্তর করেন। কুটুম টিম সাইটের ফাতাবর্ন আইডিপি ক্যাম্পে বাস্তুচ্যুত মানুষকে নিরাপত্তা প্রদান করে প্রশংসা কুড়ান। এরপর এলফেশার সুপার ক্যাম্পের নিরাপত্তা প্রদান ছাড়াও করোনাকালীন সময়ে জাতিসংঘের কোভিড-১৯ গাইডলাইন মেনে দক্ষতার সাথে অপারেশনাল কার্যক্রম পরিচালনাসহ জাতিসংঘ হেডকোয়ার্টাস থেকে আগত বিভিন্ন ভিআইপিদের এসকর্ট প্রদান করেন।


গণধর্ষণের চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে কলেজছাত্রীর গায়ে আগুন

বাবার সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে রাতধর ধর্ষণের শিকার মেয়ে

৩০-৩২ গার্লফ্রেন্ড থাকার পরও আমাকে ভালোবাসত নাসির: তামিমা

আমার সব প্রশ্নের জবাব ইসলামে পেয়েছি: কানাডিয়ান নারী


সুদানে শান্তিরক্ষায় বিশেষ অবদানের জন্য এ মাসের শুরুতে ‘জাতিসংঘ শান্তি পদকে’ ভূষিত হয়েছেন বাংলাদেশ পুলিশের এই কর্মকর্তা। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সাবেক এই শিক্ষার্থী সুদানে শান্তিরক্ষা মিশনে সফলভাবে দায়িত্বপালন শেষে আগামী মাসের ১১ তারিখ দেশে ফিরবেন।

মাসুক মিয়া নিউজ টোয়েন্টিফোরকে জানান, ‘সুদানের দারফুরে জাতিসংঘ এবং আফ্রিকান ইউনিয়ন যৌথভাবে শান্তিরক্ষায় কাজ করছে। বাংলাদেশ ফর্মড পুলিশ ইউনিটের একজন সদস্য হিসেবে এই মিশনে কাজ করার সৌভাগ্য হয় আমার। দায়িত্ব পালনকালে শান্তিরক্ষার পাশাপাশি বাংলাদেশ পুলিশের ইতিবাচক ইমেজ তৈরি হয় এমন কাজ করার চেষ্টা করেছি যার স্বীকৃতি হিসেবে আমাকে এই ‘প্রশংসা সনদ’ দেওয়া হয়েছে।’

প্রশংসা সনদ পাওয়ার দিনটিকে অত্যন্ত আনন্দের দিন উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‌‌একজন শান্তিরক্ষী হিসেবে মিশনে অনেক প্রতিকূল পরিবেশে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করতে হয়েছে। এই সনদ প্রাপ্তি আমার সকল কষ্ট ভুলিয়ে দিয়েছে। এরকম ‘প্রশংসা সনদ’ মিশনে কর্মরত অন্যদেরও কাজের ক্ষেত্রে অনেক বেশি উৎসাহ যোগাবে বলে মনে করি।'

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

লেবানন বিএনপির ভার্চুয়াল সভা অনুষ্ঠিত

অনলাইন ডেস্ক

লেবানন বিএনপির ভার্চুয়াল সভা অনুষ্ঠিত

লেবানন বিএনপির কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক কমিটির উদ্যোগে ভার্চুয়াল সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় প্রধান আহ্বায়ক আমীর হোসেন কলিমের সভাপিতত্বে ও সাবেক সভাপতি নজরুল ইসলাম মজুমদার এবং আহ্বায়ক সদস্য আমিনুল ইসলাম আইমানের যৌথভাবে সঞ্চালনা করেন।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা, সাবেক চিপ হুইপ জয়নাল আবেদীন ফারুক। বিশেষ অতিথি ছিলেন অনুষ্ঠানের প্রধান বক্তা বিএনপির সাবেক সংসদ সদস্য ড. নিলুফার চৌধুরী মনি, বিএনপির সহ-জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল, শ্রমিক দলের সভাপতি আনোয়ার হোসেন, চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক এস এম সাইফুল আলম, ঢাকা জেলা ছাত্রদলের সহ-সভাপতি রুবেল তালুকদার প্রমুখ।

আরও পড়ুন:


বিয়ে করতে রাজি না হওয়ায় কেটে ফেলা হল কিষানীর তিন হাজার গাছ

তামিমার পাসপোর্ট আসল কিনা মুখ খুললেন নাসিরের সাবেক প্রেমিকা

একসাথে রাম চরণ ও কোরিয়ান নায়িকা সুজি!

রাজধানীর যেসব এলাকায় গ্যাস থাকবে না আজ


এছাড়া সভামঞ্চে উপস্থিত ছিলেন লেবানন বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুল কাদের ভূইয়া, সদস্য সচিব হাবিবুর রহমান হাবিব, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মুজিবল হক মুজিব, আহ্বায়ক সদস্য জাকির হোসেন জাকির, আবুবক্কর সিদ্দিক, আরমান হোসেন আমান, জসিম উদ্দীন, উপদেষ্টা সদস্য মনির হোসেন সরকার, লেবানন মহিলা দলের সভাপতি সুলতানা নুরসহ অনেকে।

এতে আরও অংশ নেন  বিএনপির লেবানন আহ্বায়ক কমিটির সব সদস্যসহ বিভিন্ন দেশের প্রবাসী নেতারা। 

প্রধান অতিথির বক্তবে জয়নাল আবেদিন ফারুক লেবানন বিএনপির নেতাদের ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করতে আহ্বান করেন। জিয়াউর রহমানের বীর উত্তম খেতাব বাতিলের প্রস্তাবে সরকারের তীব্র সমালোচনা করেন। এছাড়া বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানান বক্তারা।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর