মোটরসাইকেল কেড়ে নিচ্ছে স্বপ্ন
মোটরসাইকেল কেড়ে নিচ্ছে স্বপ্ন

ফাইল ছবি

মোটরসাইকেল কেড়ে নিচ্ছে স্বপ্ন

Other

মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় বছরে স্থায়ীভাবে পঙ্গু হচ্ছেন ১ হাজার ২শ মানুষ। আর ৬ মাস থেকে দেড় বছর পর্যন্ত অস্থায়ী পঙ্গুত্বের সংখ্যা দশ হাজারের বেশি। বেসরকারি এক সংস্থার তথ্য বলছে, গেল জানুয়ারিতে রাজধানীসহ সারাদেশে ১৫৯ টি মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন ১৬৮ জন।  

সড়কে শৃঙ্খলা না মানা ও বেপরোয়া গতির কারণে দিন দিন বাড়ছে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা।

স্বল্প সময়ে গন্তব্যে পৌঁছার দ্রুততম মাধ্যম বাহন মোটরসাইকেল হলেও, চার চাকার বাহনের তুলনায় দুই চাকার এই যানে ঝুঁকি ৩০গুণ বেশি।


লেওয়ানডোস্কি ম্যাজিকে ক্লাব বিশ্বকাপের ফাইনালে বায়ার্ন

ছোট বেলায় গ্যারেজকে ল্যাবরেটরি বানান জেফ বেজোস

প্রতিরাতে মদ পার্টি আয়োজন করত নেহা

আগামী সপ্তাহেই মা হচ্ছেন কারিনা!


গোপালগঞ্জের ১৯ বছর বয়সি কিশোর মাহমুদুল। বেপরোয়া গতিতে মোটর সাইকেল চালাতে গিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হন তিনি ও তার ভগ্নিপতি। প্রাণে বেঁচে গেলেও ভগ্নিপতি হারিয়েছেন এক পা আর মাহমুদুল ছয় মাস ধরে শয্যাসায়ী রাজধানীর পঙ্গু হাসপাতালে।

একই অবস্থা নোয়াখালীর মারুফের। মোটরসাইকেলে রাইড শেয়ার করে ৭ জনের সংসার চলে তার আয়ে। ঘরে ৫ মাসের অন্তসত্তা স্ত্রী। মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় এখন দিশেহারা। তাদেরমত একই অবস্থা এই হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা বেশির ভাগ রোগীর।

বেসরকারি সংস্থার পরিসংখ্যান বলছে, গেল মাসে ১৫৯ টি মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় মারা গেছেন ১৬৮ জন। যা দুর্ঘটনায় মোট নিহতের ৩৪ দশমিক ৭১ শতাংশ। আর মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার হার ৩৭ দশমিক ২৩ শতাংশ। আর জাতীয় পঙ্গু হাসপাতালের হিসেব অনুযায়ী গেল বছর মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় অন্তত ১৮ হাজার মানুষ চিকিৎসা নিয়েছেন। যার মধ্যে হাত-পা হারানো রোগীর সংখ্যা অন্তত ১২শ।


বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মোটরযান কেনা সহজলভ্য হওয়ায় চাহিদার সঙ্গে বাড়ছে দুর্ঘটনাও।

news24bd.tv/আলী

;