বিএনপি নেতারা কি চান, তারাও জানে না: কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক

বিএনপি নেতারা কি চান, তারাও জানে না: কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপির আন্দোলনের লক্ষ্য নির্ধারণ করতেই ১২ বছর চলে গেল। কিন্তু আন্দোলন হবে কোন বছর?  বিএনপি নেতারা কি চান, তা তারাও জানে না। 

মঙ্গলবার সকালে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের আমিনবাজার, সালেহপুর ও নয়ারহাটে তিনটি সেতু নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় সালেহপুর সেতুর চার লেনবিশিষ্ট দ্বিতীয় সেতুর নির্মাণকাজের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। 

তিনি তার সরকারি বাসভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠানে যুক্ত হন। 

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি খালেদা জিয়ার মুক্তির চেয়ে সরকারের অন্ধ সমালোচনা এবং সরকার পতনকেই নিজেদের কৌশল হিসেবে নিয়েছে। জনগণও এখন তাদের উদ্দেশ্য নিয়ে সন্দিহান, দলীয় নেত্রীর মুক্তির জন্য তাদের আগ্রহ যতটা না বেশি, তার চেয়ে বেশি আগ্রহ সরকার বিরোধিতায়।

আওয়ামী লীগ কেন পাল্টাপাল্টি কর্মসূচিতে বিশ্বাসী নয়, জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচি অনুযায়ী আওয়ামী লীগ স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিববর্ষ উপলক্ষে সভা-সমাবেশ, গণসংযোগ ঘোষণা করেছে। এটি কোনো পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি নয়।

তিনি বলেন, কর্মসূচি ঘোষণা দিয়ে বিএনপি নেতারা এখন বলছেন সংগঠনকে গুছিয়ে তার পর আন্দোলনে নামবেন। তাদের এমন অজুহাতেই একযুগ পেরোল। কর্মীরাও হতাশ। গণমাধ্যম এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেই তারা সীমাবদ্ধ। এতে জনগণ এখন বুঝে গেছে বিএনপির আন্দোলনের সক্ষমতা কতটুকু।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিএনপিকে অপরাজনীতি এবং ষড়যন্ত্র ও অপপ্রচারে বিনিয়োগ না করে জনঘনিষ্ঠ ইস্যুতে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান।  বলেন, বিরোধী দল হিসেবে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করুন।

তিনি বিএনপি নেতাদের উদ্দেশে বলেন, খালেদা জিয়া বা তারেক রহমানের কাছে নয়, ক্ষমা যদি চাইতেই হয় তা হলে আগুন সন্ত্রাস আর নেতিবাচক রাজনীতির জন্য জনগণের কাছেই ক্ষমা চাওয়া উচিত।


রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে দেওয়ার বিকল্প নেই: বিশ্লেষক

করোনার টীকা কেন নিবেন?

মোটরসাইকেল কেড়ে নিচ্ছে স্বপ্ন


সেতুমন্ত্রী বলেন, পরিবহনে যতদিন শৃঙ্খলা ফিরে না আসবে, ততদিন যতই উন্নয়নকাজ হোক না কেন তাতে কোনো লাভ হবে না। 

সড়ক ও পরিবহনে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়ে মন্ত্রী বলেন, গুরুত্বপূর্ণ সড়ক-মহাসড়কগুলোতে সৌন্দর্য রক্ষায় অনতিবিলম্বে ব্যানার, ফেস্টুন ও সাইনবোর্ড সরিয়ে ফেলতে হবে।

গুণগতমান বজায় রেখে সড়কের নির্মাণকাজ করার নির্দেশনা দিয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, সড়কে চলমান যেসব কাজ চলছে, সেগুলো বর্ষার আগেই শেষ করতে হবে।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

খালেদা জিয়ার করোনা আক্রান্তের খবর জানে না পরিবার ও দল

নিজস্ব প্রতিবেদক

খালেদা জিয়ার করোনা আক্রান্তের খবর জানে না পরিবার ও দল

বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার করোনা আক্রান্তের খবর জানেনা পরিবার ও দল। তারা বলছেন, খালেদা জিয়ার নমুনাই নেয়া হয়নি। পজিটিভ আসবে কীভাবে? যে পরীক্ষা করা হয়েছিল সেটা রুটিন চেকআপ ছিল।

এর আগে খালেদা জিয়ার করোনা টেস্টের একটি রিপোর্ট ভাইরাল হয়। করোনা টেস্টের রিপোর্ট এসেছে এই প্রতিবেদকের হাতে। সেই রিপোর্টে দেখা যাচ্ছে তিনি করোনা পজিটিভ। আজ রবিবার প্রকাশিত স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের একটি রিপোর্টে এমন তথ্য দাবি করা হয়েছে।

হাতে পাওয়া সেই রিপোর্টে দেখা যায়, গতকাল শনিবার খালেদা জিয়ার করোনার নমুনা নেয়া হয়। আজ রবিবার তার করোনা টেস্টে পজিটিভ আসে। 

তবে খালেদা জিয়ার করোনা পরীক্ষায় পজিটিভ আসার বিষয়টি জানে না বলে দাবি করেছে তার পরিবার ও দল। তারা বলছেন, খালেদা জিয়ার নমুনাই নেয়া হয়নি। পজিটিভ আসবে কীভাবে? যে পরীক্ষা করা হয়েছিল সেটা রুটিন চেকআপ ছিল।

আরও পড়ুন


খালেদা জিয়া করোনা আক্রান্ত কি না তা অফিসিয়ালি জানাবো: ফখরুল

চলছে হেফাজতের সভা, সিদ্ধান্ত হতে পারে মাওলানা মামুনুলের বিষয়ে

করোনা আক্রান্ত খালেদা জিয়া

ফিরোজায় নিঃসঙ্গ খালেদা ফোনেই অসুস্থ নেতাদের খোঁজ নিচ্ছেন


বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের কাছে খালেদা জিয়ার করোনা আক্রান্তের খবরের সত্যতা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ বিষয়ে আমি এখন পর্যন্ত অবগত নই। খালেদা জিয়ার করোনা নেগেটিভ না পজিটিভ তা জেনে অফিসিয়ালি জানাবো।

এ বিষয়ে রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) বলছে, আমরা কারও ব্যক্তিগত তথ্য দিতে পারবো না। যারা আপনাদের তথ্য দিচ্ছে তাদের কাছে থেকে নিশ্চিত হন। আমরা কোন মন্তব্য করবো না।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

খালেদা জিয়া করোনা আক্রান্ত কি না তা অফিসিয়ালি জানাবো: ফখরুল

অনলাইন ডেস্ক

খালেদা জিয়া করোনা আক্রান্ত কি না তা অফিসিয়ালি জানাবো: ফখরুল

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া। তার করোনা টেস্টের রিপোর্ট এসেছে এই প্রতিবেদকের হাতে। সেই রিপোর্টে দেখা যাচ্ছে তিনি করোনা পজিটিভ। আজ রবিবার প্রকাশিত স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের একটি রিপোর্টে এমন তথ্য দাবি করা হয়েছে।

হাতে পাওয়া সেই রিপোর্টে দেখা যায়, গতকাল শনিবার খালেদা জিয়ার করোনার নমুনা নেয়া হয়। আজ রবিবার তার করোনা টেস্টে পজিটিভ আসে।

আরও পড়ুন


মিতা হকও চলে গেলেন

চলছে হেফাজতের সভা, সিদ্ধান্ত হতে পারে মাওলানা মামুনুলের বিষয়ে

করোনা আক্রান্ত খালেদা জিয়া

ফিরোজায় নিঃসঙ্গ খালেদা ফোনেই অসুস্থ নেতাদের খোঁজ নিচ্ছেন


তবে খালেদা জিয়ার করোনা পরীক্ষায় পজিটিভ আসার বিষয়টি জানে না বলে দাবি করেছে তার পরিবার ও দল। তারা বলছেন, খালেদা জিয়ার নমুনাই নেয়া হয়নি। পজিটিভ আসবে কীভাবে? যে পরীক্ষা করা হয়েছিল সেটা রুটিন চেকআপ ছিল।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের কাছে খালেদা জিয়ার করোনা আক্রান্তের খবরের সত্যতা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ বিষয়ে আমি এখন পর্যন্ত অবগত নই। খালেদা জিয়ার করোনা নেগেটিভ না পজিটিভ তা জেনে অফিসিয়ালি জানাবো।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

চলছে হেফাজতের সভা, সিদ্ধান্ত হতে পারে মাওলানা মামুনুলের বিষয়ে

অনলাইন ডেস্ক

চলছে হেফাজতের সভা, সিদ্ধান্ত হতে পারে মাওলানা মামুনুলের বিষয়ে

চট্টগ্রামের হাটহাজারী মাদ্রাসায় চলছে হেফাজত ইসলাম বাংলাদেশের সভা। হেফাজতের আমির ও হাটহাজারী মাদ্রাসার শিক্ষা পরিচালক জুনায়েদ বাবুনগরীর সভাপতিত্বে আজ রোববার বেলা সাড়ে ১১টা থেকে শুরু হয় এই সভা। সভায় ৩৫ জনের মতো কেন্দ্রীয় কমিটির নেতা উপস্থিত রয়েছেন।

কি বিষয়ে এই সভা জানতে চাইলে হেফাজত ইসলামের সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল হক ইসলামাবাদী বলেন, দেশের বিভিন্ন স্থানে নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা হয়েছে। অনেকে গ্রেপ্তার হয়েছেন। এ ছাড়া সংগঠনের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হকের বিষয়ে আলোচনা হবে। তা ছাড়া মাদ্রাসা বন্ধের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে।

আরও পড়ুন


করোনা আক্রান্ত খালেদা জিয়া

ফিরোজায় নিঃসঙ্গ খালেদা ফোনেই অসুস্থ নেতাদের খোঁজ নিচ্ছেন

ভেস্তে গেল পরিকল্পনা, এবারও এসএসসি-এইচএসসি নিয়ে অনিশ্চয়তা

শিল্পী মিতা হকের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক


গত ২৬ থেকে ২৯ মার্চ চট্টগ্রামের হাটহাজারী, পটিয়া, ঢাকা ব্রাহ্মণবাড়িয়া, সিলেটসহ দেশের কয়েকটি স্থানে সহিংসতার ঘটনা ঘটে। এসব ঘটনায় হেফাজত ইসলামের নেতা-কর্মীদের আসামি করে মামলা হয়। এ ছাড়া ৩ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও এলাকায় একটি রিসোর্টে হেফাজত নেতা মামুনুল হককে এক নারীসহ ঘেরাও করে স্থানীয় আওয়ামী লীগের লোকজন। তখন মামুনুল দাবি করেন, ওই নারী তার দ্বিতীয় স্ত্রী।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

করোনা আক্রান্ত খালেদা জিয়া

নিজস্ব প্রতিবেদক

করোনা আক্রান্ত খালেদা জিয়া

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া। তার করোনা টেস্টের রিপোর্ট এসেছে এই প্রতিবেদকের হাতে। সেই রিপোর্টে দেখা যাচ্ছে তিনি করোনা পজিটিভ। আজ রবিবার প্রকাশিত স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের একটি রিপোর্টে এমন তথ্য দাবি করা হয়েছে।

হাতে পাওয়া সেই রিপোর্টে দেখা যায়, গতকাল শনিবার খালেদা জিয়ার করোনার নমুনা নেয়া হয়। আজ রবিবার তার করোনা টেস্টে পজিটিভ আসে। 

রিপোর্টে খালেদা জিয়ার বাসার ঠিকানা দেওয়া হয়েছে গুলশান-২। আইসিডিডিআরবির ডায়াগনস্টিক ল্যাবরেটরিতে খালেদার করোনার নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে বলে রিপোর্টটিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

তবে খালেদা জিয়ার করোনা পরীক্ষায় পজিটিভ আসার বিষয়টি জানে না বলে দাবি করেছে তার পরিবার ও দল। তারা বলছেন, খালেদা জিয়ার নমুনাই নেয়া হয়নি। পজিটিভ আসবে কীভাবে? যে পরীক্ষা করা হয়েছিল সেটা রুটিন চেকআপ ছিল। 

এ বিষয়ে রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) বলছে, আমরা কারও ব্যক্তিগত তথ্য দিতে পারবো না। যারা আপনাদের তথ্য দিচ্ছে তাদের কাছে থেকে নিশ্চিত হন। আমরা কোন মন্তব্য করবো না।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ফিরোজায় নিঃসঙ্গ খালেদা ফোনেই অসুস্থ নেতাদের খোঁজ নিচ্ছেন

অনলাইন ডেস্ক

ফিরোজায় নিঃসঙ্গ খালেদা ফোনেই অসুস্থ নেতাদের খোঁজ নিচ্ছেন

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় সাজাপ্রাপ্ত বেগম খালেদা জিয়া শর্তসাপেক্ষে মুক্তিতে গুলশানের ভাড়া বাড়ি গুলশানের ফিরোজাতে অবস্থান করছেন। করোনা প্রকোপের কারণে সরাসরি দেখা করছেন না কারও সাথে। তবে নিজে অসুস্থ থাকলেও ঠিকই খোঁজখবর নিচ্ছেন নেতাকর্মীদের।

ফোন করে অসুস্থ নেতাদের শরীরিক অবস্থার খোঁজখবর নিচ্ছেন নিজে থেকেই। দলের একাধিক সিনিয়র নেতাদের সঙ্গে কথা বলে এমনটিই জানা গেছে।

জানা গেছে, এই মূহুর্তে বিএনপির বেশ কয়েকজন সিনিয়র নেতা করোনা আক্রান্ত। বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, সেলিমা রহমান, ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আহমেদ আজম খান, ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য গাজী মাজহারুল আনোয়ার, খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির, ডা. ফরহাদ হালিম ডোনার, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী, ড্যাবের সাবেক সভাপতি ডা. এ কে এম আজিজুল হক, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন মিডিয়া কমিটির সদস্য সাংবাদিক আতিকুর রহমান রুমন, অ্যাডভোকেট ফারজানা শারমিন পুতুল প্রমুখ। এদের মধ্যে কেউ বাসায় আবার কেউ হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

আরও পড়ুন


ভেস্তে গেল পরিকল্পনা, এবারও এসএসসি-এইচএসসি নিয়ে অনিশ্চয়তা

শিল্পী মিতা হকের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক

এলপিজি শিল্প: ৩২ হাজার কোটি টাকার বিনিয়োগ ধ্বংসের ষড়যন্ত্র

এবারও বড় বাজেটের ঘোষণায় কাজ করছেন অর্থমন্ত্রী


দলের একাধিক সিনিয়র নেতা সূত্রে জানা গেছে, দলের শীর্ষ পর্যায় থেকে করোনা আক্রান্ত নেতাদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখা হচ্ছে। এছাড়াও এরইমধ্যে বেগম জিয়া নিজে থেকেই কয়েকজন নেতাদের ফোন করে খোঁজ নিয়েছেন। এছাড়াও দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান, মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরও নিয়মিত নেতাদের খোঁজ খবর রাখছেন।

এ বিষয়ে খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক দলের সদস্য ভাইস চেয়ারম্যান ডা. অধ্যাপক এ জেড এম জাহিদ হোসেন বলেন, আমিসহ আমার পরিবারের দুই সদস্য করোনা আক্রান্ত হয়েছি। ইতিমধ্যে ম্যাডাম খোঁজ নিতে ফোন করেছেন। তিনি সিনিয়র নেতাদেরও খোঁজ নিচ্ছেন।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর