যে কাজে আগের ছোট-বড় গোনাহ ক্ষমা করেন আল্লাহ

অনলাইন ডেস্ক

যে কাজে আগের ছোট-বড় গোনাহ ক্ষমা করেন আল্লাহ

আল্লাহ তার বান্দাদের জন্য যে কত উদার সে কথা হয়তোবা ভাষায় প্রকাশ করা কঠিন। প্রতিটি ক্ষেত্রে আল্লাহ তার বান্দাদের জন্য সুযোগ রেখে দিয়েছেন। সকল অপরাধের ক্ষমার জন্য শুধু ভাল মনে আল্লাহ’র চাইতে হবে। তাহলেই আল্লাহ দিতে প্রস্তুত। 

আল্লাহ তাআলা বলেন, ‘যারা কুফরি করেছে (হে রাসুল!) আপনি তাদের বলে দিন, যদি তারা এর থেকে বিরত হয় তাহলে অতিতে যা হয়েছে সব ক্ষমা করে দেয়া হবে। আর যদি তা পুনরায় করে তবে পূর্ববর্তীদের (ব্যাপারে আল্লাহর) রীতি তো গত হয়েছে।’ (সূরা আনফাল : আয়াত ৩৮)

হজরত আবু সাঈদ আল-খুদরি রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে বলতে শুনেছেন- বান্দা যখন উত্তমরূপে ইসলাম গ্রহণ করেন, আল্লাহ তাআলা তার আগের সব গোনাহ ক্ষমা করে দেন। এরপর শুরু হয় প্রতিদান; একটি সৎকাজের বিনিময় দশ গুণ থেকে সাত শত গুণ পর্যন্ত। আর একটি মন্দ কাজের বিনিময়ে ঠিক তার সমপরিমাণ মন্দ প্রতিফল দেয়া হয় (এর বেশি নয়)। অবশ্য আল্লাহ যদি ক্ষমা করে দেন তবে সেটা ভিন্ন কথা।’ (বুখারি)

কুরআনুল কারিমের উল্লেখিত আয়াত এবং হাদিসের বর্ণনা থেকে এ বিষয়টি সুস্পষ্ট যে, কোন কাজে মহান আল্লাহ তাআলা বান্দার আগের সব গোনাহ শর্তহীনভাবে ক্ষমা করে দেন। কুরআন-সুন্নাহর এ ঘোষণা অমুসলিমদের জন্য; যখন তারা নিজ নিজ ধর্ম ত্যাগ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন।

বিখ্যাত সাহাবি হজরত আমর ইবনুল আস রাদিয়াল্লাহু আনহুর ইসলাম গ্রহণের ঘটনায় এ বিষয়টি সুস্পষ্টভাবে বর্ণিত হয়েছে। তিনি নিজেই তা বর্ণনা করেন - আমি রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের কাছে উপস্থিত হয়ে অনুরোধ করলাম; হে আল্লাহর রাসুল! সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম। আপনার ডান হাত বাড়িয়ে দেন। আমি বায়আত গ্রহণ করতে চাই। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তাঁর ডান হাত বাড়িয়ে দেন। তিনি বলেন, (তখন) আমি আমার হাত টেনে নিলাম।

(রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বললেন, হে আমর, কী ব্যাপার? (অর্থাৎ তোমার হাত সরিয়ে নিলে কেন?)
তিনি বলেন, আমি বললাম- তার (বাইয়াত গ্রহণের) আগে আমার একটি শর্ত আছে। তিনি জিজ্ঞাসা করলেন- কী শর্ত? আমি বললাম, আল্লাহ যেন আমার সব গোনাহ ক্ষমা করে দেন।

আরও পড়ুন:


লালমনিরহাটে নৌকার নির্বাচনী কার্যালয়ে অগ্নিসংযোগ

ইউএস বাংলার ফ্লাইটে ৭ কেজি স্বর্ণ (ভিডিও)

‘এভাবেই আগলে রাখিস’, নিষাদের জন্মদিনে শাওন

হেফাজত নেতাকে পেছন থেকে ছুরি মেরে পালাল দুর্বৃত্তরা

তিনি বললেন, আমর! তুমি কি জান না যে-
ইসলাম (গ্রহণ করলে) আগের সব অন্যায়/গোনাহ মিটিয়ে দেয়?
হিজরত (করলে) আগের সব গোনাহসমূহ মিটিয়ে দেয়? এবং
হজ আগের সব গোনাহ মিটিয়ে দেয়?’ (মুসলিম)

কুরআন ও হাদিসের আলোকে এ কথা সুস্পষ্ট যে, ইসলাম গ্রহণ করলে, কুফরি থেকে বিরত থাকলে, নাস্তিকতা ছেড়ে দিলে কিংবা শিরকসহ অন্যান্য সব ছোট-বড় গোনাহ আল্লাহ তাআলা ক্ষমা করে দেবেন। ইমাম নববি রাহমাতুল্লাহি আলাইহি বলেন- হজরত আমর ইবনুল আস কর্তৃক বর্ণিত হাদিস থেকে এ কথা সুস্পষ্ট যে, ইসলাম গ্রহণ, হিজরত করা এবং হজের মাহাত্ম্য ও মর্যাদা ফুটে উঠেছে। আর এর প্রত্যেকটি কাজেই মহান আল্লাহ তাআলা বান্দার জীবনের ছোট-বড় সব গোনাহ ক্ষমা করে দেন।’ (শরহে মুসলিম)

আল্লাহ তাআলা সব মানুষকে ইসলামের উপর পরিপূর্ণ বিশ্বাস স্থাপনের তাওফিক দান করুন। কুফরি থেকে ফিরে থাকার তাওফিক দান করুন। শিরক করা থেকে বিরত থাকার তাওফিক দান করুন। হাদিসের উপর আমল করে গোনাহ মুক্ত জীবন লাভ করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

news24bd.tv আহমেদ

পরবর্তী খবর

বৃহস্পতিবার সৌদি আরবে ঈদ

অনলাইন ডেস্ক

বৃহস্পতিবার সৌদি আরবে ঈদ

মধ্যপ্রাচ্যর দেশ সৌদি আরবে আজ  ছিলো মঙ্গলবার ২৯ রমজান। সৌদির আকাশে আজ পবিত্র শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। চাঁদ দেখা না যাওয়ায় আগামীকাল বুধবার ৩০ রমজান পূর্ণ হবে। অর্থাৎ ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবে আগামী বৃহস্পতিবার।

উল্লেখ্য, সৌদি আরবে গত ১৩ এপ্রিল রমজান শুরু হয়। নতুন চাঁদ দেখার ওপর ভিত্তি করে আরবি মাস শুরু হয়। সেক্ষেত্রে একটি মাস ২৯ দিন না ৩০ দিন হবে তা নির্ধারিত হয়।

এদিকে বাংলাদেশে পবিত্র ঈদুল ফিতরের তারিখ নির্ধারণে আগামীকাল বুধবার বৈঠকে বসবে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটি। বৈঠকে ১৪৪২ হিজরি সনের শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখার সংবাদ পর্যালোচনা ও এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বায়তুল মোকাররম সভাকক্ষে সন্ধ্যা সাতটায় এ বৈঠক হবে। আজ মঙ্গলবার ইসলামিক ফাউন্ডেশনের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

news24bd.tv/আলী 

পরবর্তী খবর

ইন্দোনেশিয়া-মালয়েশিয়াই ঈদ বৃহস্পতিবার

অনলাইন ডেস্ক

ইন্দোনেশিয়া-মালয়েশিয়াই ঈদ বৃহস্পতিবার

ফাইল ছবি

ইন্দোনেশিয়া ও মালয়েশিয়ায় পবিত্র শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। আজ সেখানে ছিল ২৯ রমজান। চাঁদ দেখা না যাওয়ায় আগামীকাল বুধবার ৩০ রমজান পূর্ণ হবে। অর্থাৎ ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবে আগামী বৃহস্পতিবার।

উল্লেখ্য, সৌদি আরবে গত ১৩ এপ্রিল রমজান শুরু হয়। নতুন চাঁদ দেখার ওপর ভিত্তি করে আরবি মাস শুরু হয়। সেক্ষেত্রে একটি মাস ২৯ দিন না ৩০ দিন হবে তা নির্ধারিত হয়।

এদিকে বাংলাদেশে পবিত্র ঈদুল ফিতরের তারিখ নির্ধারণে আগামীকাল বুধবার বৈঠকে বসবে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটি। বৈঠকে ১৪৪২ হিজরি সনের শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখার সংবাদ পর্যালোচনা ও এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বায়তুল মোকাররম সভাকক্ষে সন্ধ্যা সাতটায় এ বৈঠক হবে। আজ মঙ্গলবার ইসলামিক ফাউন্ডেশনের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

news24bd.tv/আলী 

পরবর্তী খবর

চাঁদ দেখা নিয়ে সৌদি সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশনা

অনলাইন ডেস্ক

চাঁদ দেখা নিয়ে সৌদি সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশনা

মধ্যপ্রাচ্যর দেশ সৌদি আরবে আজ মঙ্গলবার ২৯ রমজান। চন্দ্র মাস হিসেবে রমজান মাসও ২৯ দিন হওয়ার সম্ভাবনা রাখে। তাই সৌদিতে বসবাসরত সব মুসলিমকে ২৯ রমজানের সন্ধ্যাবেলা নতুন চাঁদ দেখার নির্দেশনা দিয়েছে দেশটির সুপ্রিম কোর্ট। 

কোর্টের এক বিবৃতিতে মঙ্গলবার (১১ মে) সন্ধায় শাওয়ালের চাঁদ দেখতে বলা হয়েছে। কেউ নতুন চাঁদ দেখলে তা সুপ্রিম কোর্টে জানানোর অনুরোধ করা হয়েছে। 

বিবৃতিতে, কেউ খালি চোখে বা দূরবীক্ষণ যন্ত্রের সাহায্যে নতুন চাঁদ দেখলে নিকটস্থ আদালতে জানাতে ও তার সাক্ষ্য নিবন্ধন করতে বলা হয়। অথবা নিকটস্থ আদালতে পৌঁছাতে সহায়তার জন্য কোনো প্রতিষ্ঠানে জানাতে বলা হয়।

উল্লেখ্য, সৌদি আরবে গত ১৩ এপ্রিল রমজান শুরু হয়। নতুন চাঁদ দেখার ওপর ভিত্তি করে আরবি মাস শুরু হয়। সেক্ষেত্রে একটি মাস ২৯ দিন না ৩০ দিন হবে তা নির্ধারিত হয়।

 

news24bd.tv/আলী  

পরবর্তী খবর

সৌদিতে ঈদ বৃহস্পতিবার!

অনলাইন ডেস্ক

সৌদিতে ঈদ বৃহস্পতিবার!

মধ্যপ্রাচ্যর দেশ সৌদি আরবে এবার পবিত্র রমজান হবে ৩০ টি। সেক্ষেত্রে আগামী ১৩ মে পবিত্র ঈদুল ফিতর পালিত হবে। সৌদি কাউন্সিল অব সিনিয়র স্কলারস এবং রয়েল কোর্টের উপদেষ্টা শেখ আব্দুল্লাহ বিন সুলেইমান আল মানেয়া এ কথা জানিয়েছেন।

শেখ আব্দুল্লাহর বরাত দিয়ে খবর প্রকাশ করে  গালফ নিউজ ও আল শোরোক। তারা বলছে, জ্যোতির্বিদ্যার গণনার মাধ্যমে এই তারিখ বের করা হয়েছে। এর ফলে আগামী ১৩ মে ঈদুল ফিতর পালিত হবে।

এই প্রথম সৌদি আরব জ্যোতির্বিদ্যার প্রযুক্তি ব্যবহার ইসলামিক ক্যালেন্ডারে তারিখ ঘোষণা করলো। আরবি মাস চাঁদ দেখার ওপর ভিত্তি করে নির্ধারিত হয়। কিন্তু সৌদি আরব সেই অবস্থান থেকে অনেকটা সরে এসেছে। তবে রমজানের শেষে নতুন চাঁদ দেখলে মানুষজনকে জানানোর আহ্বান জানিয়েছেন আল মানেয়া।

আল ম্যানিয়া বলেন, রমজান ১৩ এপ্রিল শুরু হয়েছে, এটি বুধবার ১২ মে পর্যন্ত চলবে। রোজা ৩০টি হবে। এর কারণ মঙ্গলবার ৯টা ৫৯ মিনিটে শাওয়াল (চাঁদের) জন্মরাত এবং মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টা ৫১ মিনিটে সূর্য অস্ত যায়, এর ১৩ মিনিট আগে ৬টা ৩৮ মিনিটে চাঁদ ডুবে যায়। এই কারণে মঙ্গলবার চাঁদ দেখা অসম্ভব।

উল্লেখ্য, সৌদি আরবে গত ১৩ এপ্রিল রমজান শুরু হয়। নতুন চাঁদ দেখার ওপর ভিত্তি করে আরবি মাস শুরু হয়। সেক্ষেত্রে একটি মাস ২৯ দিন না ৩০ দিন হবে তা নির্ধারিত হয়।

এদিকে বাংলাদেশে পবিত্র ঈদুল ফিতরের তারিখ নির্ধারণে আগামীকাল বুধবার বৈঠকে বসবে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটি। বৈঠকে ১৪৪২ হিজরি সনের শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখার সংবাদ পর্যালোচনা ও এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বায়তুল মোকাররম সভাকক্ষে সন্ধ্যা সাতটায় এ বৈঠক হবে। আজ মঙ্গলবার ইসলামিক ফাউন্ডেশনের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

news24bd.tv/আলী 

পরবর্তী খবর

ফিতরা দেয়ার গুরুত্ব ও ফজিলত

অনলাইন ডেস্ক

ফিতরা দেয়ার গুরুত্ব ও ফজিলত

রহমত, বরকত, মাগফেরাত ও নাজাতের মাস রমজানের রোজা পালন শেষে গরিবের মুখে হাসি ফোটানোর অন্যতম মাধ্যম সাদকাতুল ফিতর। ঈদুল ফিতরের আগেই এ সাদকায়ে ফিতর দেয়া জরুরি। ফিতরা বা সাদকাতুল ফিতর হলো সেই নির্ধারিত সাদকা, যা ঈদের নামাজের আগে অসহায় গরিব-দুঃখীদের দিতে হয়। এটিকে জাকাতুল ফিতরও বলা হয়। 

ঈদের দিন সকালেও যদি করো কাছে নিসাব পরিমাণ সম্পদ- সাড়ে ৭ ভরি সোনা বা সাড়ে ৫২ ভরি রুপা বা সমমূল্যের ব্যবসাপণ্য থাকে তবে তাকে তাঁর নিজের ও পরিবারের ছোট–বড় সবার পক্ষ থেকে ফিতরা আদায় করা ওয়াজিব।

 সাদকায়ে ফিতর আদায় করা মুমিনের জন্য আল্লাহ কর্তৃক অত্যাবশ্যকীয় বিধান ৷

- হাদিসের ভাষ্য অনুযায়ী- 'তুহরাতুল্লিস সায়িম' অর্থাৎ একমাস সিয়াম সাধনায় মুমিনের অনাকাঙ্খিত ত্রুটি-বিচ্যুতির কাফফারা হলো সাদকায়ে ফিতর।

ফিতরা আদায়ের ফজিলত

- হজরত ইবনে ওমর রাদিয়াল্লাহু আনহু বলেন, ‘রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম মুসলিমদের স্বাধীন ও ক্রীতদাস পুরুষ ও নারী এবং ছোট ও বড় সবার জন্য এক সা’ (প্রায় সাড়ে ৩ কেজি) খেজুর বা যব খাদ্য (আদায়) ফরজ করেছেন। (বুখারি, মুসলিম)

- সাকদায়ে ফিতর দ্বারা কুরআনুল কারিমে পরিশুদ্ধ হওয়ার কথা বুঝানো হয়েছে। আল্লাহ তাআলা বলেন-'নিশ্চয় সাফল্য লাভ করবে সে, যে পরিশুদ্ধ হয় ৷' (সুরা আলা : আয়াত ১৪) মুফাসসিরিনের কেরামের মতে, এ পরিশুদ্ধ দ্বারা সাদকায়ে ফিতরকে উদ্দেশ্য করা হয়েছে। অর্থাৎ যারা সাদকায়ে ফিতর আদায় করবেন তারাই লাভ করবেন সফলতা।


ঝুম বৃষ্টিতে ভিজলো রাজধানী

নদীতে ভেসে এল ৪০টির বেশি লাশ

ইসরায়েলের বিমান হামলায় হামাসের কমান্ডার নিহত


- হজরত আবদুল্লাহ ইবনে আব্বাস রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাদাক্বাতুল ফিতরকে অপরিহার্য করেছেন, অনর্থক অশালীন কথা ও কাজে রোজার যে ক্ষতি হয়েছে তা পূরণের জন্য এবং নিঃস্ব লোকের আহার যোগানোর জন্য।' (আবু দাউদ)

- হজরত জারির রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, রামজানের রোজা সাদকাতুল ফিতর আদায় করার পূর্ব পর্যন্ত আসমান-জমিনের মাঝে ঝুলন্ত থাকে।' (তারগিব ওয়াত তারহিব)

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর