রিমান্ডে চাঞ্চল্যকর তথ্য দিলেন ডিজে নেহা

নাঈম আল জিকো

রিমান্ডে চাঞ্চল্যকর তথ্য দিলেন ডিজে নেহা

অতিরিক্ত মদপান করিয়ে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীকে ধর্ষণ ও হত্যার ঘটনায় রিমান্ডে থাকা ডিজে নেহার কাছ থেকে চাঞ্চল্যকর তথ্য পেয়েছে পুলিশ। অশালীন অঙ্গভঙ্গিতে নেচে সমাজের বিত্তবানদের ফাঁসিয়ে অর্থ আদায় করাই ছিল তার পেশা।

তেজগাঁও বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার জানান, নেহার দেয়া তথ্যে নাম আসছে অনেক বড় বড় ব্যবসায়ি, সরকারি কর্মকর্তার। তবে এখনও খোঁজ পাওয়া যায়নি নেহার স্বামির।

ফারজানা জামান ওরফে ডিজে নেহা। দেখে বোঝার উপায় নেই নিম্নমধ্যবিত্ত সাধারণ এক পরিবারের সন্তান নেহা। দামি পোশাক ও প্রসাধনীতে নিজেকে আকর্ষণীয়ভাবে উপস্থাপন করাই ছিল তার প্রধান হাতিয়ার। অশালীন অঙ্গভঙ্গিতে নেচে সমাজের বিত্তবানদের ফাঁসিয়ে অর্থ আদায় করাই ছিল তার পেশা। 

তার প্রতিটি পার্টিতেই দেখা মিলতো অল্প বয়সী নতুন নতুন মুখ। যাদের অধিকাংশ ছিল বিভিন্ন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া তরুণী। পার্টি আয়োজন করে ধনী পরিবারের সন্তানদের দাওয়াত দিয়ে অবাধে মেলামেশার সুযোগ করে দিতেন ডিজে নেহা।


যে তাসবিহ পাঠ করলে অধিক নেকি লাভ ও গোনাহ মাফ হয়

কাজী হায়াতের ছবির সেই পাগলী এখন কোথায়?

‘আমেরিকা-ইসরাইল কৌশলগত অচলাবস্থার সম্মুখীন হয়েছে’

ট্রাম্পের শয্যাসঙ্গী হওয়া ছিল সবচেয়ে বিরক্তিকর, দাবি পর্নতারকার


মূলত ধনী ব্যক্তিদের পকেট কাটতে এসব তরুণীকে টোপ হিসাবে ব্যবহার করা হত। এ ক্ষেত্রে তার হয়ে তরুণ-তরুণীদের একটি চক্রও কাজ করতো বলে জানায় পুলিশ।

পুলিশের এই কর্মকর্তা জানান, তরুণ-তরুণীদের একান্তে মিলিত হওয়ার সুযোগ করে দিতে ঢাকা ও ঢাকার বাইরে একাধিক আবাসিক হোটেল ও রিসোর্টের সঙ্গে নেহার যোগাযোগ ছিল। এসব পার্টিতে মাদক সরবরাহ করত অবৈধ মাদককারবারিরা।

২৮ জানুয়ারি উত্তরার একটি রেস্টুরেন্টে নেহার আয়োজিত মদের পার্টিতে অসুস্থ হয়ে পরলে ওই শিক্ষার্থীকে হাসাপাতালে নেয়া হয়। ৩১ জানুয়ারি ওই শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়। তার পরিবারের অভিযোগ, ওই ছাত্রীকে মদ খাইয়ে ধর্ষণ করা হয়েছিল।

news24bd.tv আয়শা

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

উত্তরা থেকে আগারগাঁও অংশে বসলো মেট্রোরেলের শেষ গার্ডার

প্লাবন রহমান

স্বপ্ন পূরণে আরো একধাপ এগুলো ঢাকার মেট্রোরেল । উত্তরা থেকে আগারগাঁও পযর্ন্ত অংশে বসলো শেষ গার্ডার। যার মাধ্যমে দৃশ্যমাণ হলো প্রায় ১২ কিলোমিটার ভায়াডাক্ট। মেট্রোরেল প্রকল্পের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলছেন- আসছে ডিসেম্বরে চালুর লক্ষ্য নিয়ে এগুচ্ছে মেট্রোরেলের কাজ। তবে-উদ্বোধন আসলেই কবে হবে, চূড়ান্তভাবে ঠিক হবে মে মাসে ট্রায়াল রান শুরুর পর।

দ্রুত এগুচ্ছে মেট্রোরেলের কাজ। রাজধানীর আগারগাঁওয়ে মেট্রোরেলের এই গার্ডার বসানোর মধ্য দিয়ে পুরোপুরি যুক্ত হলো উত্তরা থেকে আগারগাঁও অংশ। আর এর মধ্য দিয়ে দৃশ্যমান হলো এই অংশের প্রায় ১২ কিলোমিটার ভায়াডাক্ট।

রোববার সকাল ১১টার দিকে এই অংশের শেষ গার্ডার স্থাপন করা হয়। মেট্রোরেলের উত্তরা থেকে আগারগাও অংশে মোট স্প্যান ৪৬৭টি। যেখানে ডাবল লাইনসহ ১১ দশমিক সাত তিন কিলোমিটার অ্যালাইনমেন্টে ভায়াডাক্ট তৈরি হয়েছে প্রায় সাড়ে ১৪ কিলোমিটার।


গুলি ছুড়ে ইয়েমেনের ক্ষেপণাস্ত্র আকাশেই ধ্বংস করেছে সৌদি

জানা গেল আসল রহস্য, ১৩-১৪ বছরের দুই বোনের সঙ্গেই শরীরিক মেলামেশা ছিল তার

আবাহনীকে ৪-১ গোলে উড়িয়ে দিল বসুন্ধরা কিংস

৬৬ নারীকে ধর্ষণ


উত্তরা থেকে আগারগাঁও অংশে মোট স্টেশন হচ্ছে ৯টি। যার মধ্যে উত্তরায় যে তিনটি স্টেশনকে ঘিরে মেট্রোরেলের ট্রায়াল রান হবে-সেগুলোর কাজ বেশি এগিয়ে। চলতি বছরেই বিজয় দিবসে উদ্বোধনের লক্ষ্য নিয়ে এগুচ্ছে প্রকল্পের কাজ। যাতে আশাবাদী কর্তৃপক্ষ।

আসছে ডিসেম্বরে মেট্রোরেল চালুর ব্যাপারে কর্তৃপক্ষ আশাবাদী হলেও-এখনও অনেক কাজই বাকী। উত্তরা থেকে আগারগাও পযর্ন্ত কাজ বাকী ১৯ ভাগ। আর পুরো উত্তরা থেকে মতিঝিল অংশের কাজ বাকী ৪০ ভাগেরও বেশি। তবে-লক্ষ্য পূরণে দিন-রাত তিন শিফটে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে মেট্রো কর্তৃপক্ষ।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

স্বপ্ন পূরণে আরো একধাপ এগোলো ঢাকার মেট্রোরেল

নিজস্ব প্রতিবেদক

স্বপ্ন পূরণে আরো একধাপ এগোলো ঢাকার মেট্রোরেল। উত্তরা থেকে আগারগাঁও পযর্ন্ত অংশে বসলো শেষ গার্ডার। যার মাধ্যমে দৃশ্যমান হলো প্রায় ১২ কিলোমিটার ভায়াডাক্ট। 

মেট্রোরেল প্রকল্পের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলছেন-আসছে ডিসেম্বরে চালুর লক্ষ্য নিয়ে এগুচ্ছে মেট্রোরেলের কাজ। তবে-উদ্বোধন আসলেই কবে হবে, চূড়ান্তভাবে ঠিক হবে মে মাসে ট্রায়াল রান শুরুর পর। 

দ্রুত এগুচ্ছে মেট্রোরেলের কাজ। রাজধানীর আগারগাঁওয়ে মেট্রোরেলের এই গার্ডার বসানোর মধ্য দিয়ে পুরোপুরি যুক্ত হলো উত্তরা থেকে আগারগাঁও অংশ। আর এর মধ্য দিয়ে দৃশ্যমান হলো এই অংশের প্রায় ১২ কিলোমিটার ভায়াডাক্ট।

আজ সকাল ১১টার দিকে এই অংশের শেষ গার্ডার স্থাপন করা হয়। মেট্রোরেলের উত্তরা থেকে আগারগাও অংশে মোট স্প্যান ৪৬৭টি। যেখানে ডাবল লাইনসহ ১১ দশমিক সাত তিন কিলোমিটার অ্যালাইনমেন্টে ভায়াডাক্ট তৈরি হয়েছে প্রায় সাড়ে ১৪ কিলোমিটার।


জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটক আটকে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

শিক্ষা জাতির উন্নয়নের মূল চাবিকাঠি: প্রধানমন্ত্রী

অসুস্থ মাকে বাঁচাতে ক্রিকেটে ফিরতে চান শাহাদাত

প্রেমিকের আশ্বাসে স্বামীকে তালাক, বিয়ের দাবিতে অনশন!


উত্তরা থেকে আগারগাঁও অংশে মোট স্টেশন হচ্ছে ৯টি। যার মধ্যে উত্তরায় যে তিনটি স্টেশনকে ঘিরে মেট্রোরেলের ট্রায়াল রান হবে-সেগুলোর কাজ বেশি এগিয়ে। চলতি বছরেই বিজয় দিবসে উদ্বোধনের লক্ষ্য নিয়ে এগুচ্ছে প্রকল্পের কাজ। যাতে আশাবাদী কর্তৃপক্ষ।

আসছে ডিসেম্বরে মেট্রোরেল চালুর ব্যাপারে কর্তৃপক্ষ আশাবাদী হলেও-এখনও অনেক কাজই বাকী। উত্তরা থেকে আগারগাও পযর্ন্ত কাজ বাকী ১৯ ভাগ। আর পুরো উত্তরা থেকে মতিঝিল অংশের কাজ বাকী ৪০ ভাগেরও বেশি। তবে-লক্ষ্য পূরনে দিন-রাত তিন শিফটে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে মেট্রো কর্তৃপক্ষ। 

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

দিনাজপুরের লিচু বাগানগুলোয় বেশ ভালো পরিমাণে মুকুল এসেছে

নিজস্ব প্রতিবেদক

বেশ ভালো পরিমাণে মুকুল এসেছে দিনাজপুরের লিচু বাগানগুলোয়। এরইমধ্যে গাছের বাড়তি যত্ন শুরু করেছেন বাগানীরা। এবার বড় প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হলে ভালো ফলনের আশা করছেন তারা। 

কৃষি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ফলন বাড়াতে চাষিদের আধুনিক পরিচর্যার বিষয়ে পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। 

দেশে লিচুর চাহিদার একটি বড় অংশ পূরণ করে দিনাজপুর। প্রতি বছর প্রায় ২৫ হাজার মেট্রিক টন লিচু উৎপাদন হয় এখানে। এবার শীত শেষ হতে না হতেই মুকুল এসেছে গাছগুলোয়। এই অবস্থায় বেশ খুশি চাষিরা। প্রাকৃতিক দুর্যোগ হানা না দিলে বড় লাভের আশা করছেন তারা।

এখন গাছের পরিচর্যায় ব্যস্ত বাগানীরা। ভালো ফলনের আশায় পানি সেচ, কীটনাশক এবং সার প্রয়োগে মনযোগ তাদের।


জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটক আটকে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

শিক্ষা জাতির উন্নয়নের মূল চাবিকাঠি: প্রধানমন্ত্রী

অসুস্থ মাকে বাঁচাতে ক্রিকেটে ফিরতে চান শাহাদাত

প্রেমিকের আশ্বাসে স্বামীকে তালাক, বিয়ের দাবিতে অনশন!


কৃষি কর্মকর্তারা বলছেন এবার কিছুটা আগেই মুকুল এসেছে। এগুলো পরিচর্যায় পরামর্শ দেয়া হচ্ছে কৃষকদের।

দিনাজপুর জেলায় প্রায় সাড়ে ৫ হাজার হেক্টর জমিতে লিচুর বাগান রয়েছে। সবচেয়ে বেশি বাগান আছে সদর ও বিরল উপজেলায়।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

দর্শনার্থী টানছে সূর্যমুখীর আভা

নিজস্ব প্রতিবেদক

হলুদ রংয়ের হাজারো ফুল মুখ করে আছে সূর্যের দিকে। বসন্তে ফসলের ক্ষেতের এমন দৃশ্য টানছে সৌন্দর্য পিপাসুদেরও। এমন দৃশ্য চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে কৃষিগবেষণা কেন্দ্রের বারি-তিন সূর্যমুখী প্রকল্পে। 

চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার পশ্চিম দেওয়ানপুর আঞ্চলিক কৃষি গবেষণা কেন্দ্র এলাকায় সড়কের পাশে ১ একরের বেশি জমিতে সূর্যমুখী ফুলের চাষ করা হয়েছে। সূর্যমুখীর হলুদ আভায় ছেয়ে গেছে পুরো এলাকা। বিস্তীর্ণ মাঠজুড়ে সেই নজরকাড়া দৃশ্য দেখতে বিভিন্ন এলাকা থেকে ছুটে আসছেন মানুষ।


কারওয়ান বাজারের হাসিনা মার্কেটের আগুন নিয়ন্ত্রণে

দিনেদুপুরে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণ

মৌমিতাকে ধর্ষণের আলামত মেলেনি: ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক

দেখে মনে হয়েছে বিসিএস-এর প্রশ্নপত্রের করোনা হয়েছে


সূর্যমুখীর তেল কোলেস্টেরলমুক্ত, ভিটামিন ‘ই’, ভিটামিন ‘কে’ ও মিনারেল সমৃদ্ধ। হৃদরোগ, ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ ও কিডনি রোগীর জন্যও সূর্যমুখীর তেল নিরাপদ। আর চাষও লাভজনক।

বারি তিন খাটো জাতের সূর্যমুখী, এর কান্ডও বেশ শক্ত,ফলে ঝড় ঝঞ্ঝায় ক্ষতি কম হয়।তাই এটিকে চট্টগাম অঞ্চলে চাষউপযোগী হিসেবে শণাক্ত করেছেন কৃষিবিজ্ঞানীরা।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

গাইবান্ধার বিস্তীর্ণ চরাঞ্চলে মিষ্টি কুমড়া

অনলাইন ডেস্ক

গাইবান্ধার বিস্তীর্ণ চরাঞ্চল জুড়ে ​চাষ হয়েছে মিষ্টি কুমড়া। অল্প খরচে বেশি লাভ হওয়ায় মিষ্টি কুমড়ার চাষ বাড়ছে এ অঞ্চলে। অন্য ফসলের পাশাপাশি মিষ্টি কুমড়ার চাষ করে স্বাবলম্বী হয়েছেন এ জেলার কয়েক হাজার কৃষক।

গাইবান্ধার ব্রহ্মপুত্র, যমুনা ও তিস্তা নদীর ১৬৫ চরাঞ্চলের বিস্তীর্ণ বালুচরে এ বছর ব্যাপকভাবে মিষ্টি কুমড়ার চাষ হয়েছে। বন্যার পানি নেমে যাওয়ার পরই  চরাঞ্চলের কৃষকরা মিষ্টি কুমড়ার বীজ বপন করে। পুরো বালুচর জুড়েই শোভা পাচ্ছে মিষ্টি কুমড়ার সবুজ লতা।


অস্ত্রের মুখে ছাত্রীকে বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণের পর দফায় দফায় ধর্ষণ

মেয়েকে তুলে নিয়ে মাকে রাত কাটানোর প্রস্তাব অপহরণকারীর

নাসির বিয়ে করেছেন আপনার খারাপ লাগে কেন?

ঘুমন্ত স্বামীর পুরুষাঙ্গ কাটলেন স্ত্রী


কৃষকরা জানান, মিষ্টি কুমড়া চাষে উৎপাদন খরচ কম। প্রতি কেজি কুমড়া ১৫ থেকে ৩৫ টাকা কেজিতে বিক্রি হয়। আবার ক্ষেত থেকেই কিনে নিয়ে যাচ্ছেন পাইকাররা।

সংশ্লিস্টরা জানান, স্বল্প খরচে বেশি লাভ হওয়ায় এ জেলায় মিষ্টি কুমড়ার আবাদ বাড়ছে। কৃষকদের সব ধরনের সহযোগিতাও করা হচ্ছে।

কৃষি বিভাগের তথ্য মতে, গাইবান্ধার চরাঞ্চলের ৫শ’ হেক্টর জমিতে মিষ্টি কুমড়ার চাষ করেছে চরাঞ্চলের কৃষকরা।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর