উত্তাল মিয়ানমারে জান্তা বিরোধী গণবিক্ষোভে গুলি, মৃত্যুর মুখে এক নারী

চন্দ্রানী চন্দ্রা

মিয়ানমারে অভ্যুত্থান বিরোধী বিক্ষোভের মধ্যেই অং সান সু চি-র দল ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসি-এনএলডি-এর সদর দফতরে অভিযান চালিয়েছে সেনাবাহিনী। এদিকে সেনা অভ্যুত্থান বিরোধী আন্দোলনে পুলিশ ও বিক্ষোভকারীদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষের সময় গুলি চালানোর অভিযোগ উঠেছে পুলিশের বিরুদ্ধে। আহত হয়েছেন অন্তত ৪ বিক্ষোভকারী। এরমধ্যে গুরুতর আহত এক নারীর অবস্থা আশঙ্কাজনক। 

মিয়ানমারের ইয়াঙ্গুনে অং সান সু চির ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্র্যাসির এনএলডি সদরদপ্তরে অভিযান চালিয়েছে সামরিক বাহিনী। কার্যালয়ে ভাঙ্গচুর চালিয়ে সবকিছু নস্ট করেছে বলে অভিযোগ করেছে এনএলডি। 

দেশজুড়ে রাত্রিকালীন কারফিউর মধ্যে মঙ্গলবার রাতে দরজা ভেঙ্গে এনএলডি-র সদর দফতরে প্রবেশ করে সেনাসদস্যরা। এসময় দলটির কোনও নেতাকর্মী সেখানে ছিলেন না। এনএলডি তাদের ফেসবুক পেজে লিখেছে, সামরিক স্বৈরাচার সাড়ে ৯টার দিকে এনএলডি সদর দফতরে তল্লাশি ও তছনছ করেছে। 

এদিকে, বিধিনিষেধ সত্ত্বেও বিক্ষোভ অব্যাহত রেখেছে আন্দোলনকারীরা। দেশটির ২য় বৃহত্তম শহর মান্দালায়ে কারফিউ উপেক্ষা করে বিক্ষোভ করেছে হাজার হাজার মানুষ। বুধবার ভোরে সরকারি চাকুরেদের একটি বড় উল্লেখযোগ্য অংশ রাজধানী নেপিদোতে সমবেত হয় বলে স্থানীয় গণমাধ্যম খবর দিয়েছে। প্রথমদিকে শান্ত থাকলেও ক্রমেই বেপরোয়া হয়ে উঠছে দেশটির পুলিশ।


মোশাররফ করিম ‘বাংলাদেশের শাহরুখ খান’: আনন্দবাজার

গাড়িতে উঠিয়ে দরজা বন্ধ করে ধর্ষণ

বরিশালে করোনার টিকা কেন্দ্রে ভিড় বেড়েছে

রায় শুনে কাঁদলেন দীপনের স্ত্রী

দীপন হত্যায় ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত কে এই মেজর জিয়া?


"আমাদের দেশ গণতন্ত্রের উত্তরণ দিকে যাচ্ছিল। আমরা এই সেনা শাসনের সম্পূর্ণ বিরুদ্ধে।"

"আমাদের ভোট প্রত্যাখ্যান করেছে তারা, এটি সম্পূর্ণ অন্যায়। আমরা আশা করি তারা আমাদের নেতাদের মুক্তি দেবে এবং একটি বাস্তব গণতন্ত্র বাস্তবায়ন করবে।"

মিয়ানমারের সামরিক অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে গিয়ে গুরুতর আহত এক  নারীর অবস্থা আশঙ্কাজনক। মঙ্গলবার নেপিদোতে সেনা অভ্যুত্থানবিরোধী আন্দোলনে পুলিশ ও বিক্ষোভকারীদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। বিক্ষোভকারীদের লক্ষ্য করে গুলি চালানোর অভিযোগ উঠেছে পুলিশের বিরুদ্ধে। 

জাতীয় নির্বাচনের পর গত ১ ফেব্রুয়ারি পাল্টামেন্ট বসার ঠিক আগেই জয়ী দলের নেতা অং সান সুচিসহ দলের সংসদ সদস্যদের গ্রেপ্তার করে, সামরিক শাসন জারি করে জান্তা সরকার। গত সপ্তাহের ওই অভ্যুত্থানের পর থেকে সু চি-কে আর জনসম্মুখে দেখা যায়নি।

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ক্যাপিটল হিলে হামলার ঘটনায় মোট গ্রেপ্তার ২৮০

অনলাইন ডেস্ক

গেল ৬ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের পার্লামেন্ট ভবন ক্যাপিটল হিলে হামলার ঘটনায় এখন পর্যন্ত ২৮০ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

এছাড়া ঘটনার সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে তিন শতাধিক ব্যক্তির বিরুদ্ধে মার্কিন বিচার বিভাগ অভিযোগ দায়ের করেছে বলে জানিয়েছেন নির্বাহী ডেপুটি এটর্নি জেনারেল জন কারলিন। 

শুক্রবার তিনি জানান, দোষীদের বিরুদ্ধে অভিযোগের ভিত্তিতে জোর পদক্ষেপে তদন্ত পরিচালিত হচ্ছে এবং তাদেরকে কঠোর বিচারের আওতায় আনা হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি। 

এর আগে ক্যাপিটল পুলিশ প্রধান জানিয়েছিলেন, সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থকরা, ক্যাপিটল হিল ভবন উড়িয়ে দেয়ার পরিকল্পনা করেছিলো। 


কারওয়ান বাজারের হাসিনা মার্কেটের আগুন নিয়ন্ত্রণে

দিনেদুপুরে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণ

মৌমিতাকে ধর্ষণের আলামত মেলেনি: ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক

দেখে মনে হয়েছে বিসিএস-এর প্রশ্নপত্রের করোনা হয়েছে


এছাড়া ট্রাম্পের সমর্থক ছাড়াও বেশকটি কট্টর ডানপন্থী সংগঠনের সদস্যদের বিরুদ্ধেও গোয়েন্দা সংস্থা তদন্ত পরিচালনা করছে বলে জানিয়েছে পুলিশ বিভাগ।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

আমাজন বনভূমিতে অবৈধভাবে প্লট করে বিক্রি

অনলাইন ডেস্ক

ব্রাজিলের অংশে আমাজন বনের জমিতে অবৈধভাবে প্লট করে ফেসবুকে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে বিক্রি করা হচ্ছে। শুক্রবার বিবিসির এক  প্রতিবেদনে এমন তথ্য উঠে আসে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের এই সাইটটিতে শ্রেণিভূক্ত বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে একটি স্বার্থান্বেষী মহল এটি করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। 


দুই পৌরসভায় নির্বাচন কাল, কেন্দ্রে পৌঁছেছে ভোটের সরঞ্জাম

হত্যাচেষ্টার অভিযোগ এনে আতঙ্কিত বুবলীর থানায় জিডি

চুয়াডাঙ্গায় প্রতিপক্ষের হামলায় ট্রাকচালক গুলিবিদ্ধ

পিতার স্পর্শকাতর স্থান চেপে ধরল ছেলে, বাবার মৃত্যু


এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সঠিক পদক্ষেপ কামনা করেছে, এখানকার  আদিবাসী সম্প্রদায়গুলো। দাবি করে, এভাবে বনাঞ্চল চলে গেলে ভবিষ্যতে এর কোন অস্তিত্ব থাকবে না। 

এ বিষয়ে পরিবেশ আন্দোলনকারীরা বলছেন, সরকার এ নিয়ে কোন ভ্রুক্ষেপ করছে না। তবে ফেসুবকের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, তারা স্থানীয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কাজ করতে প্রস্তুত। যদিও  এ ধরণের বাণিজ্য বন্ধে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ এখনো কোন পদক্ষেপ নেয়নি।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ব্যাপক সংঘর্ষে রণক্ষেত্র মিয়ানমার

অনলাইন ডেস্ক

সামরিক সমর্থক, বিরোধী আর পুলিশের ত্রিমুখি সংঘর্ষে রণক্ষেত্রে পরিণত হয়ে উঠছে মিয়ানমারের রাজপথ। অভিযোগ উঠেছে, অং সান সু চিকে অজ্ঞাত স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। 

এদিকে দেশটির ওপর আন্তর্জাতিক চাপের মাঝে, এবার মিয়ানমারের সামরিক অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে দাঁড়ালেন জাতিসংঘে নিযুক্ত দেশটির রাষ্ট্রদূত। চিরদিনের জন্য দেশটিতে সেনা অভ্যুত্থান বন্ধসহ, সর্বোচ্চ কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে। 

টিয়ারগ্যাস, পুলিশের গুলি আর দফায় দফায় হামলায় উত্তপ্ত মিয়ানমার পরিস্থিতি। শনিবার সকাল থেকেই জান্তাবিরোধী বিক্ষোভ দমনে পুলিশের কঠোর অবস্থান ছিল মিয়ানমারের প্রধান শহরগুলোতে। তবে সবকিছুকে উপেক্ষা করে মুখমুখি অবস্থানে বিক্ষোভকারীরা। ঘটছে সংঘর্ষ। অভিযোগ উঠছে, সেনাবাহিনীর পক্ষে রাজপথে নেমে ছুরিসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা করছে জান্তাপন্থিরাও।   

অভ্যুত্থানেকারীদের ওপর অব্যাহত রয়েছে আন্তর্জাতিক চাপ, দেওয়া হচ্ছে নতুন নিষেধাজ্ঞা। এমন অবস্থায় শুক্রবার জাতিসংঘের বিশেষ বৈঠকে সেনাশাসনের বিরুদ্ধে বক্তব্য দেন জাতিসংঘে নিযুক্ত দেশটির রাষ্ট্রদূত কিয়াও মোয়ে তুন। 

জান্তাশাসকদের বিদায় করতে  সর্বোচ্চ কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানান, এছাড়া জাতিসংঘের সব সদস্য রাষ্ট্রকে অভ্যুত্থানের নিন্দা জানিয়ে, প্রকাশ্যে বিবৃতিতে দেওয়ার তাগিদ দেন তিনি। 


দুই পৌরসভায় নির্বাচন কাল, কেন্দ্রে পৌঁছেছে ভোটের সরঞ্জাম

হত্যাচেষ্টার অভিযোগ এনে আতঙ্কিত বুবলীর থানায় জিডি

চুয়াডাঙ্গায় প্রতিপক্ষের হামলায় ট্রাকচালক গুলিবিদ্ধ

পিতার স্পর্শকাতর স্থান চেপে ধরল ছেলে, বাবার মৃত্যু


আমরা মিয়ানমারের গণতান্ত্রিক সরকারের জন্য লড়াই অব্যাহত রাখব, সামরিক জান্তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় যে কোনও ব্যবস্থা নিন , দেশটির জনগণের নিরাপত্তা ও সুরক্ষা প্রদান করুন।      

মিয়ানমারের গণতন্ত্রপন্থি নেত্রী অং সান সু চিকে তার নেপিডোর বাড়ি থেকে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে বলে অভিযোগ করছেন তার দলের নেতারা। সু চির সঙ্গে আইনজীবীদের দেখা করার অনুমতিও দেওয়া হচ্ছেনা।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

টিকা নেয়ার পরও করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন কুয়েতের অভিনেতা

অনলাইন ডেস্ক

টিকা নেয়ার পরও করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন কুয়েতের অভিনেতা

করোনাভাইরাসের টিকার প্রথম ডোজ গ্রহণের কয়েকদিন পরেই মারা গেলেও কুয়েতের অভিনেতা মিশারি আল-বালাম। তার পরিবার থেকে এ খবর নিশ্চিত করা হয়েছে।

গত শনিবার থেকে তিনি কুয়েতের জাবের আল-আহমাদ আল-জাবের আস-সাবা হাসপাতলের ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে ভর্তি ছিলেন। শেষ পর্যন্ত বৃহস্পতিবার তিনি মারা যান।

৪৮ বছর বয়সী অভিনেতা মিশারি গত ১১ ফেব্রুয়ারি সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও শেয়ার করেন যাতে দেখা যায় ফাইজার-বায়োনটেকের টিকার প্রথম ডোজ গ্রহণ করছেন তিনি এবং তার ফলোয়ারদেরকেও টিকা নিতে আহ্বান জানাচ্ছেন।

ফাইজারের টিকা নেয়ার পরেও তিনি করোনা আক্রান্ত হয়েছেন এবং তার স্বাস্থ্যের অবস্থা দিন দিন অবনতি হতে থাকে। পরে ১৭ ফেব্রুয়ারি তিনি ইনস্টাগ্রামে দেয়া আলাদা একটি পোস্টে জানান, ফাইজারের টিকা নেয়ার পরেও তার স্বাস্থ্যের এই অবনতি ঘটেছে।


৭৬ জন সৌদি নাগরিকের উপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা

গাড়িতে অগ্নিকান্ড, রেকর্ড সংখ্যক গাড়ি উঠিয়ে নিচ্ছে হুন্দাই

সানি লিওনের জায়গা নিলেন আবিরা! (ভিডিও)

অন্য পুরুষের সাথে সম্পর্ক নিয়ে সন্দেহ, স্ত্রীকে খুন


চলতি মাসের প্রথম দিকে অন্য একটি রিপোর্টে বলা হয়েছে, ফাইজার ও মডার্নার টিকা গ্রহণের পর আমেরিকায় ৪০ ব্যক্তির মধ্যে নতুন ধরনের ‘ইমিউন ডিসঅর্ডার’ দেখা দিয়েছে যা রক্তে আক্রমণ করছে। এই ৪০ জনের মধ্যে এক রোগী মারা গেছেন।

১৯৯১ সালে  মিশারি আল-বালাম অভিনয়ের ক্যারিয়ার শুরু করেন এবং ৫৬টি মঞ্চ নাটক ও সিরিজে অভিনয় করেছেন তিনি।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

৭৬ জন সৌদি নাগরিকের উপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা

অনলাইন ডেস্ক

৭৬ জন সৌদি নাগরিকের উপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা

সৌদি আরবের সাবেক এক কর্মকর্তা ও রাজকীয় একটি বাহিনীর ওপর আর্থিক নিষেধাজ্ঞার পাশাপাশি দেশটির ৭৬ নাগরিকের ওপর ভিসা নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। সাংবাদিক জামাল খাসোগি হত্যার ঘটনার সূত্র ধরে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

খাসোগি হত্যায় সৌদি যুবরাজ অনুমোদন দিয়েছিলেন বলে মার্কিন গোয়েন্দা প্রতিবেদন প্রকাশিত হওয়ার পরদিনই রিয়াদের বিরুদ্ধে এ পদক্ষেপ নিল ওয়াশিংটন ।

গোয়েন্দা প্রতিবেদনে মোহাম্মদ বিন সালমানকে ভিন্নমতাবলম্বী সাংবাদিক খুনে দায়ী করা হলেও শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্র সরাসরি তার ওপর কোনো নিষেধাজ্ঞা দেয়নি।


বস্তিবাসীকে না জানিয়েই ভ্যাকসিনের ট্রায়াল

গাড়িতে অগ্নিকান্ড, রেকর্ড সংখ্যক গাড়ি উঠিয়ে নিচ্ছে হুন্দাই

সানি লিওনের জায়গা নিলেন আবিরা! (ভিডিও)

৭ সন্তান নিতে স্বেচ্ছায় দেড় লাখ ডলার জরিমানা গুনলেন চীনা দম্পতি


মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্থনি ব্লিংকিন বলেন, যুক্তরাষ্ট্র সাংবাদিক জামাল খাসোগির নামে একটি আইন প্রণয়ন করেছে। যার নাম দেওয়া হয়েছে, খাসোগি আইন। যেসব বিদেশি ভিন্নমতাবলম্বীদের হুমকি দেবে বা সাংবাদিক এবং তাদের পরিবারকে হয়রানি করবে; এই আইনের অধীন তারা যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করতে পারবেন না।

এই আইনে ৭৬ জন সৌদি নাগরিককে কালো তালিকাভুক্ত করা হয়েছে।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর