হাসপাতালে ব্যাথায় কাতরাচ্ছে বলাৎকারের শিকার কিশোর

অনলাইন ডেস্ক

হাসপাতালে ব্যাথায় কাতরাচ্ছে বলাৎকারের শিকার কিশোর

বগুড়ায় ১৩ বছরের এক কিশোরকে বলাৎকার করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। গত বুধবার (১০ ফেব্রুয়ারি) জেলার আদমদীঘি উপজেলায় ঘটে।

এ ঘটনায় জড়িত আনিছুর খান (৩৯) পলাতক বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ওই কিশোর বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।


কোভিডে টরন্টোয় বন্দুক সন্ত্রাস বেড়েছে, বাংলাদেশিদের সতর্কতার পরামর্শ

ইসলামে নাম ব্যঙ্গ করার পরিণাম কী?

সূরা তাওবায় কেন ‘বিসমিল্লাহ’ নেই, কি বিষয়ে সূরাটি নাযিল

কুরআন শরিফ ছিড়ে গেলে ইসলামের নির্দেশনা কি?

যে কারণে দোয়া কবুল হয় না


শুক্রবার (১২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে আদমদীঘি থানা-পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ওই কিশোর আদমদীঘি স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ে ৮ম শ্রেণিতে পড়াশোনা করে। গত বুধবার বিকেলে সে প্রাইভেট পড়তে যায়। কিন্তু প্রাইভেট পড়া না হওয়ায় আব্দুল করিমের শ্যালক ছায়ের আলী খানের ছেলে দুই সন্তানের জনক আনিছুর রহমান খান ওই কিশোরকে কৌশলে করিমের চাতালের পাশে নিয়ে যায়। চাতালের পাশে কলাবাগানে নিয়ে তাকে বলাৎকার করে। পরে সে অসুস্থ হলে তার পরিবার প্রথমে আদমদীঘি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সেখান অবস্থার অবনতি হলে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়। সেখানে সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
 
শুক্রবার দুপুরে ওই কিশোরের মা ও বাবা জানান, শিশুটির লজ্জাস্থানসহ গলায় প্রচণ্ড ব্যাথা অনুভব করছে। ছেলের চিকিৎসা নিয়ে ব্যস্ত থাকায় এখনও মামলা দায়ের করা হয়নি।

এদিকে, ঘটনাটি জানাজানি হলে লম্পট আনিছুর রহমান পালিয়ে যায়। তার বিরুদ্ধে নানা অসামাজিক কর্মকাণ্ডের অভিযোগও রয়েছে বলে গ্রামবাসি সূত্রে জানা গেছে।

বগুড়ার আদমদীঘি থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আলমাস হোসেন জানান, এখন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পাওয়া গেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

চট্টগ্রামে বলাৎকারের ঘটনায় মাদ্রাসা শিক্ষক আটক

অনলাইন ডেস্ক

চট্টগ্রামে বলাৎকারের ঘটনায় মাদ্রাসা শিক্ষক আটক

চট্টগ্রামে বলাৎকারের ঘটনায় এক মাদ্রাসা শিক্ষককে আটক করেছে পুলিশ। তিনি চট্টগ্রামের মুরাদপুর রহমানিয়া মাদ্রাসায় শিক্ষক বলে জানা গেছে।

বিস্তারিত আসছে...

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

বাড়িতে একা পেয়ে মেয়েকে ধর্ষণ করল বাবা!

শাকিলা ইসলাম জুঁই, সাতক্ষীরা:

বাড়িতে একা পেয়ে মেয়েকে ধর্ষণ করল বাবা!

সাতক্ষীরার পাটকেলঘাটায় মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে সৎ বাবাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আজ বৃহস্পতিবার (৪ মার্চ) সকালে জুসখোলা গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃত রফিকুল ইসলাম (৪০) তালা উপজেলার সরুলিয়া ইউনিয়নের জুসখোলা গ্রামের তবারক সরদারের ছেলে। তিনি পেশায় একজন ইটভাটা শ্রমিক।

পাটকেলঘাটা থানার অফিসার ইনচার্জ কাজী ওয়াহিদ মুর্শেদ নিউজ টোয়েন্টিফোরকে জানান, ১২ বছর আগে রফিকুল ইসলামের সঙ্গে তার স্ত্রীর ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়। পরে আবার বিবাহ করেন। সেই পক্ষের দুটি কন্যা সন্তান রয়েছে। একটি কন্যা সন্তান পাবনাতে কাজ করে। অন্য ১২ বছর বসয়ী ছোট মেয়েটি ঢাকায় কাজ করে। গত কয়েক সপ্তাহ ধরে সে বাড়িতে এসেছে। 

গত ২১ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় মেয়েটিকে বাড়িতে একা পেয়ে ধর্ষণ করে সৎ বাবা। পরে মেয়েটি ঘটনাটি মাকে জানালে তার মা বাদী হয়ে থানায় বাবার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করেন। এ ঘটনায় সকালে রফিকুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। 


ছেলের প্রেমিকাকে রাত জেগে পাহারা দিলেন বাবা

পানি পানে আসা কিশোরীকে ধর্ষণের পর হত্যা ও মাটিচাপা

কালো পোশাকে নতুন এক জয়া

সৌদি যাত্রীর ছোট ব্যাগ থেকে মিলল ৫ কেজি স্বর্ণ


news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

রাঙামাটিতে অজ্ঞাত যুবকের লাশ উদ্ধার

ফাতেমা জান্নাত মুমু, চট্টগ্রাম

রাঙামাটিতে অজ্ঞাত যুবকের লাশ উদ্ধার

রাঙমাটির লংগদু উপজেলার ভাসমান অবস্থায় এক অজ্ঞাত যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার দুপুরে লংগদু উপজেলার সেনা ক্যাম্প কোয়ার্টারের পাশে কাপ্তাই হ্রদে ভাসমান অবস্থায় তার লাশ পাওয়া যায়। তবে তাৎক্ষনিক তার নাম পরিচয় পাওয়া যায়নি।

রাঙামাটির লংগদু থানার কর্মকর্তা ওসি মো. আরিফুল ইসলাম জানান, স্থানীয়রা কাপ্তাই হ্রদে ভাসমান অবস্থা লাশটি দেখতে পেয়ে থানায় খবর দেয়। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে পাঠায়।


বুবলিকে ধাক্কা দেওয়া গাড়িটি ছিল ব্ল্যাক পেপারে মোড়ানো, ছিল না নম্বর প্লেট

অস্ত্রের মুখে ছাত্রীকে বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণের পর দফায় দফায় ধর্ষণ

মেয়েকে তুলে নিয়ে মাকে রাত কাটানোর প্রস্তাব অপহরণকারীর

নাসির বিয়ে করেছেন আপনার খারাপ লাগে কেন?


ওই যুবকের গায়ে ছিল সবুজ রঙের চেক শার্ট, কালো জিনসের প্যান্ট। এ ব্যাপারে মামলা হয়নি। তার পরিবারের কোনো খবর পাওয়া যায়নি। তবে পুলিশ ঘটনা তদন্ত করে দেখছে।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ছেলের প্রেমিকাকে রাত জেগে পাহারা দিলেন বাবা

অনলাইন ডেস্ক

ছেলের প্রেমিকাকে রাত জেগে পাহারা দিলেন বাবা

ছেলের প্রেমিকা বিয়ের জন্য বাড়িতে করেছে অনশন।  হুমকি দিয়ে বলেছেন বিয়ে না হলে আত্মহত্যা করবেন তিনি। আতঙ্কে প্রেমিকের পুরো পরিবার। প্রেমিকার অবস্থানের খবর পেয়ে আত্মগোপনে চলে গেছে প্রেমিক আকাশ।

এই অবস্থায় যে কোনো সময় প্রেমিকা আত্মহত্যা করতে পারে। আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে ফেঁসে যেতে পারে প্রেমিক ও তার পরিবারের সদস্যরা। এই ভয়ে ছেলের প্রেমিকা দুই রাত পাহারা দিলেন বাবা। 

ঘরে না তোললেও বাড়ির আঙ্গিনায় ছেলের প্রেমিকাকে রাত জেগে পাহারা দিয়েছেন বাবা। এমনটিই ঘটেছে মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার ছাতিয়ান গ্রামের হাওড়াপাড়ায়। প্রেমিকা পাশ্ববর্তী গ্রামের মেয়ে ও স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী।


পানি পানে আসা কিশোরীকে ধর্ষণের পর হত্যা ও মাটিচাপা

কালো পোশাকে নতুন এক জয়া

সৌদি যাত্রীর ছোট ব্যাগ থেকে মিলল ৫ কেজি স্বর্ণ

মুশতাকের ‘মৃত্যু স্বাভাবিক’ বলছে তদন্ত কমিটি


স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত দুই রাত জেগে ওই মেয়েটিকে পাহারা দিয়েছেন প্রেমিক আকাশের বাবা জহুরুল ইসলাম। সর্বশেষ গত রাতে এ নিয়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় গ্রামে। প্রেমিক জানিয়ে দেন, দীর্ঘদিনের সম্পর্ক তাদের। বিয়ে করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রেমিক আকাশ এই সম্পর্ক গড়েছে। কিশোরী মেয়েটির সর্বস্ব লুটে নিয়ে এখন বিয়ের নামে সময় ক্ষেপন করছে। বৈঠকে স্থানীয়রা আশ্বস্ত করেছেন আকাশ ফিরে এলেই এর সঠিক সমাধান করা হবে। নতুবা আইনানুগ সহযোগিতা পাবে এই মেয়েটি।

গাংনী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বজলুর রহমান জানান, বিষয়টি সমাধানের জন্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধিকে বলা হয়েছে। এরপরও সমাধান না হলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি।

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

হাজতিকে বিষাক্ত ইনজেকশন এবং বৈদ্যুতিক শক দিয়ে হত্যার চেষ্টা

নয়ন বড়ুয়া জয়

চট্টগ্রাম কারাগারে এক হাজতিকে বৈদ্যুতিক শক ও বিষাক্ত ইনজেকশন দিয়ে হত্যা চেষ্টা করা হয়েছে বলে অভিযোগ অভিযোগ পরিবারের। এ ঘটনায় চট্টগ্রাম জেল সুপার ও ব্যবসায়ী রতন কান্তি নাথসহ চার জনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করা হয়।

এদিকে প্রতারণা মামলা থেকে মঙ্গলবার জামিন পেলেও চট্টগ্রাম মেডিকেলে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে হাজতি রূপম কান্তি নাথ। তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন থাকলেও কারা কর্তৃপক্ষ তা অস্বীকার করছে। 

চট্টগ্রাম কারাগারে রূপম কান্তি নাথ নামে এক হাজতিকে বৈদ্যুতিক শক ও বিষাক্ত ইনজেকশন পুশ করে হত্যাচেষ্টার অভিযোগে সম্প্রতি  আদালতে মামলা  করেছে ভুক্তভোগীর স্ত্রী ঝর্ণা রানী দেবী। এ মামলায়  জেল সুপার,ব্যবসায়ী রতন কান্তি নাথসহ চারজনকে আসামি করা হয়েছে। 

রুপমের স্ত্রী জানান, ২০১৮ সালে রূপমের বিরুদ্ধে প্রতারণা মামলা করেন ব্যবসায়ী রতন। কিছুদিন জামিনে থাকলেও ২০২০ সালের ডিসেম্বরে আবারো গ্রেফতার হন রূপম। ইচ্ছার বিরুদ্ধে সম্মতি আদায় করতে না পারায় কারা কর্তৃপক্ষ ও বাদিপক্ষের যোগসাজশেই এই হত্যাচেষ্টা করা হয়েছে এমন দাবিও তার । 


শামীম ওসমানের ‘খেলা হবে’ ভারতীয় নেতাদের মুখে মুখে

জামালপুরে নারীর সঙ্গে ভিডিও ফাঁস হওয়া সেই ডিসির বেতন কমল

‘পরমাণু সমঝোতার একমাত্র পথ নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার’

এইচ টি ইমামের জানাজা ও দাফনের সময়


বাদীর আইনজীবি জানান, গেল ২৫ ফেব্রুয়ারি কারা কর্তৃপক্ষ রূপমকে অসুস্থ অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেলে ভর্তি করলে অমানবিক নির্যাতনের ঘটনা জানতে পারেন তার স্ত্রী। বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিকেলে মৃত্যুর সাথে যুদ্ধ করছেন রূপম। তবে মঙ্গলবার অসুস্থতার কারণে রূপমকে জামিন দেন  আদালত। তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের শাস্তি চান আইনজ্ঞরা।

ভুলন লাল ভৌমিক,বাদীর আইনজীবী বলেন, তাকে ইলেকট্রিক শক দেওয়া হয়েছে। শারীরিক নির্যাতন করা হয়েছে। দুটি বিষাক্ত ইনজেকশন পুশ করে তাকে হত্যা চষ্টো করা হয়েছে। 

কারা কর্তৃপক্ষ যদি বল প্রয়োগ করে তাকে নির্যাতন  করে এবং তদন্তের মাধ্যমে যদি এটা প্রমাণ হয় তবে নিশ্চয়ই এর শাস্তি হওয়া উচিৎ বলে মনে করেন, চট্টগ্রাম মহানগরের পিপি মো : ফখরুদ্দিন চৌধুরী। 

অবশ্য রুপমকে নির্যাতনের বিষয়টি পুরোপুরি অস্বীকার করেছে কারা কর্তৃপক্ষ। কারাগারে  হাজতিকে নির্যাতনের ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি চান রুপমের পরিবার । 

news24bd.tv আয়শা

মন্তব্য

পরবর্তী খবর