ভালোবাসা দিবসে ফুল চাষিদের ব্যাপক প্রস্তুতি

অনলাইন ডেস্ক

ভালোবাসা দিবসে ফুল চাষিদের ব্যাপক প্রস্তুতি

২২ বছর আগে শুরু করেন গোলাপ চাষ শুরু করেন শাহ আলম। সেই গোলাপ তাকে তৃপ্তির হাসিতে ভাসিয়েছিল। কিন্তু সেই হাসি এতদিন পর করোনা মহামারিতে হারিয়ে গেছে। এক করোনাতেই প্রায় ২০ লাখ টাকা লোকসানে তার এখন পথে বসার উপক্রম।

তিনি জানান, ভারত ও চীন থেকে ফুল এনে ব্যবসা করেন তিনি। বনানী ও সাভারে দোকান। সব মিলিয়ে ফুলের ব্যবসা ভালোই চলছিল। কিন্তু গত পাঁচ মাস সবকিছু বন্ধ থাকায় ব্যবসা লন্ডভন্ড হয়ে গেছে। তিনি আরও জানান, দোকান বন্ধ থাকলেও গত কয়েক মাস ছয় জন কর্মচারীকে ২৪-২৫ হাজার টাকা বেতন দিতে হয়েছে। এখন আর টিকে থাকতে পারছেন না বলে জানান তিনি।

শাহ আলাম বলেন, তিন বিঘা জমিতে ফুলের চাষ করে অনেক অনুষ্ঠানে ফুল নিয়ে অংশ নিয়েছেন। এখন দু-চারটি ব্যক্তিগত পর্যায়ে বিক্রি ছাড়া কোনো বিক্রি নেই। কারণ কোনো অনুষ্ঠানও নেই। তিনি বলেন, এখন নতুন করে ফুল চাষের জন্য জমি উপযোগী করতে নিজের সব সঞ্চয়ের সঙ্গে ধারদেনাও করতে হয়েছে। এত কিছুর পরও সরকারের কোনো সহযোগিতা পাননি তিনি। এখন সামনে ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা দিবসই একমাত্র ভরসা। 

সদুল্লাপুরের মো. আনোয়ার হোসেন জানান, অবস্থা খারাপ বলে চাষিরা বাগানের পাশেই ফুল বিক্রি করছেন। এভাবে সরাসরি বাগান থেকে আগে কখনো ফুল বিক্রি করেননি তারা। বর্গা জমিতে তিনি ফুল চাষ করেন। লকডাউনের পর গরু-ছাগল বিক্রি করেন। বিদেশে অবস্থানরত ভাইয়ের কাছে ঋণ করে আবার ফুল চাষ শুরু করেন।

আরও পড়ুন:


আল জাজিরার অপপ্রচারের নেপথ্যে কারা বের হচ্ছে: কাদের

ডিজে নেহার কথিত সেই খালাতো ভাই কারাগারে

হাসপাতালে ব্যাথায় কাতরাচ্ছে বলাৎকারের শিকার কিশোর

বিতর্কিত ধর্মীয় মন্তব্য করে বাদ পড়লেন অভিনেত্রী


তিনি বলেন, কৃষি কর্মকর্তাদের কাছে সহযোগিতা চেয়ে আবেদন করেও প্রণোদনার কোনো টাকা পাননি। একই অভিযোগ ফুলচাষি মো. মামুন মিয়ার। বর্তমানে তিনি নিজের আর বর্গা মিলিয়ে দেড় বিঘা জমিতে ফুলের চাষ করছেন। তবে মামুন আশায় আছেন এই ভালোবাসা দিবস তার আগের অবস্থা কিছুটা হলেও ফিরিয়ে দিতে পারে। ফুলের বর্তমান বাজার সম্পর্কে শাহবাগ ফুলের বাজারের মার্কেট কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নিউ লাভ লাইন পুষ্পালয়ের মো. জামাল হোসেন বলেন, করোনায় ফুলের ব্যবসায় রীতিমতো ধস নেমেছে। 

সাভারসহ দেশের বিভিন্ন এলাকার চাষিরা এখনো আগের অবস্থায় ফিরে যেতে পারেনি, তাই ফুল কম আসছে। তবে করোনার প্রকোপ কমে যাওয়ায় আগের চেয়ে চাহিদা কিছুটা বেড়েছে বলে জানান তিনি। তবে করোনায় ফুল চাষিদের কোটি কোটি টাকা ক্ষতি হওয়ায় অনেকে ফুল চাষে ফিরতে পারেননি।

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

আবারও স্বর্ণের দরপতন, ৯ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন দাম

অনলাইন ডেস্ক

আবারও স্বর্ণের দরপতন, ৯ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন দাম

বেশ কয়েকদিন থেকেই বড় ধরণের দরপতন লক্ষ্য করা যাচ্ছে স্বর্ণের বাজারে। বিশ্ববাজরে প্রতিদিনই কমছে স্বর্ণের দাম। ফেব্রুয়ারি মাসজুড়ে দাম কমেছে ৫ দশমিক ৯৪ শতাংশ। এরপর চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহেও স্বর্ণের দামে বড় পতন হয়েছে। যার কারণে গত ৯ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন দামে এই ধাতুটির দাম।

গত সপ্তাহজুড়ে স্বর্ণের পাশাপাশি বড় দরপতন হয়েছে দামি দুই ধাতবপণ্য রুপা ও প্লাটিনামের। গত এক সপ্তাহে বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দাম কমেছে ১ দশমিক ৮৮ শতাংশ। রুপার দাম কমেছে ৫ দশমিক ১৭ শতাংশ। আর প্লাটিনামের দাম কমেছে ৪ দশমিক ৯৬ শতাংশ।

এই ভাবে বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দরপতন হতে থাকলে শিগগির দেশের বাজারেও স্বর্ণের দাম আরও কমানো হতে পারে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি (বাজুস) দায়িত্বশীলরা।

এ বিষয়ে বাজুস সাধারণ সম্পাদক দিলীপ কুমার আগরওয়ালা বলেন, বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দাম কমার কারণে ইতোমধ্যে বাংলাদেশে স্বর্ণের দাম কমানো হয়েছে। দেশের বাজারে স্বর্ণের দাম কমানোর পরও আমরা দেখছি, গত কয়েকদিন ধরে বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দাম নিম্নমুখী। বিশ্ববাজারে দাম কমার এই প্রবণতা অব্যাহত থাকলে আমরাও স্বর্ণের দাম কমাবো।

২ মার্চ অনুষ্ঠিত বাজুসের কার্যনির্বাহী কমিটির সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ৩ মার্চ থেকে ভালো মানের অর্থাৎ ২২ ক্যারেটের প্রতি ভরি (১১ দশমিক ৬৬৪ গ্রাম) স্বর্ণের দাম ১ হাজার ৫১৬ টাকা কমিয়ে ৭১ হাজার ১৫১ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

আরও পড়ুন:


রণবীরের সঙ্গে ক্যাটরিনার খোলামেলা ছবি বিশ্বাস হয়নি সালমানের

রানার গ্রুপে চাকরির সুযোগ

‘ভয়ঙ্কর একটি শক্তি’ ভিন্নমতের ওপর নির্যাতন চালাচ্ছে: ফখরুল

দেশের তিন অঞ্চলে বজ্রসহ বৃষ্টির আভাস


পাশাপাশি ২১ ক্যারেটের স্বর্ণ ৬৮ হাজার ১ টাকা, ১৮ ক্যারেটের স্বর্ণ ৫৯ হাজার ২৫২ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির প্রতি ভরি স্বর্ণ ৪৮ হাজার ৯৩১ টাকা করে বিক্রি হচ্ছে।

এর আগে চলতি বছরের ১৩ জানুয়ারি ভরিতে স্বর্ণের দাম ১ হাজার ৯৮৩ টাকা কমানো হয়। সে হিসাবে দুই মাসের মধ্যে দেশের বাজারে ভরিতে স্বর্ণের দাম সাড়ে ৩ হাজার টাকা কমেছে।

স্বর্ণের দাম কমলেও রুপার পূর্বনির্ধারিত দাম বহাল রয়েছে। ক্যাটাগরি অনুযায়ী ২২ ক্যারেটের প্রতি ভরি রুপা বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার ৫১৬ টাকা। ২১ ক্যারেটের রুপার দাম ১ হাজার ৪৩৫ টাকা, ১৮ ক্যারেটের ১ হাজার ২২৫ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির রুপার দাম ৯৩৩ টাকা।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

দুই মাসে রপ্তানি ১০ হাজার মেট্রিক টন আলু

নয়ন বড়ুযা জয়, চট্টগ্রাম

আলু উৎপাদন মৌসুমের শুরুতেই দুই মাসে চট্টগ্রাম বন্দর দিয়ে ১০ হাজার মেট্রিক টন আলু রপ্তানি করা হয়েছে। মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, দুবাই,  আবুধাবিতে আলু ও বাঁধাকপি রপ্তানি করা হচ্ছে। মধ্যপ্রাচ্যের  বিভিন্ন দেশে এসব পণ্যের চাহিদা বেড়েছে বলে জানালেন  রপ্তানিকারকরা। আলু ও বাঁধাকপির নায্য দাম পেয়ে খুশী কৃষকরা। 

চট্টগ্রামসহ সারাদেশে উৎপাদিত আলু ও বাধাকপির কদর বেড়েছে বিশ্ববাজারে। আলু উৎপাদন মৌসুমের শুরুতেই  চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দর দিয়ে রপ্তানি করা  হয়েছে ১০ হাজার  মেট্রিকটনেরও বেশি।একই সাথে রপ্তানি  করা হচ্ছে বাঁধাকপিও।

বিশ্ববাজারে এদেশের  সবজির সুনাম ধরে রাখতে রপ্তানির আগে এসব পণ্য বিষমুক্ত কিনা তা পরীক্ষা-নিরীক্ষাও করা হয়। মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, দুবাইসহ মধ্যপ্রাচ্যের  বিভিন্ন দেশে এসব পণ্যের চাহিদা বেড়েছে বলে জানালেন এই রপ্তানিকারক।


আবাসিক হোটেলে অনৈতিক কর্মকাণ্ড, ধরা ২০ নারী

চুমু দিয়ে নারীদের সব রোগ সারিয়ে দেন ‘চুমুবাবা’

বুবলিকে ধাক্কা দেওয়া গাড়িটি ছিল ব্ল্যাক পেপারে মোড়ানো, ছিল না নম্বর প্লেট

অস্ত্রের মুখে ছাত্রীকে বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণের পর দফায় দফায় ধর্ষণ


তবে চলতি মৌসুমে আলু  ও বাঁধাকপির নায্য দাম পেয়ে খুশি কৃষকরা। 

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের হিসেবে, দেশে ৪০ লাখ টন আলুর চাহিদার বিপরীতে গড়ে প্রায় ৮০ লাখ টন আলু উৎপাদিত হচ্ছে।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

পাঁচটি বিকাশ নম্বরে সেন্ড মানিতে খরচ নেই

অনলাইন ডেস্ক

পাঁচটি বিকাশ নম্বরে সেন্ড মানিতে খরচ নেই

বিকাশ অ্যাপ ও *২৪৭# ডায়াল করে মাসে ২৫ হাজার টাকা পর্যন্ত কোনো খরচ ছাড়াই সেন্ড মানি করা যাবে। এখন থেকে আপনাদেরে পছন্দের পাঁচটি  বিকাশ নম্বরে সেন্ড মানিতে কোনো খরচ ছাড়াই টাকা পাঠাতে পারবেন গ্রাহকরা। 

সাম্প্রতিক এমএফএস লেনদেনের তথ্য বিশ্লেষণে দেখা যায়, প্রায় ৯০ শতাংশ গ্রাহকই মাসে সর্বোচ্চ পাঁচটি নম্বরে গড়ে ২৫ হাজার টাকা পর্যন্ত সেন্ড মানি করে থাকেন। 

বিস্তারিত এই লিংক এ দেখুন- https://www. bkash.com/bn/priyonumber 


 ফেঁসে যাচ্ছেন নাসিরের স্ত্রী তামিমা!

অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ

দেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু- শনাক্তের সর্বশেষ তথ্য

মুরগির দাম বেড়েছে কেজিতে ১০ টাকা


news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

মুরগির দাম বেড়েছে কেজিতে ১০ টাকা

অনলাইন ডেস্ক

মুরগির দাম বেড়েছে কেজিতে ১০ টাকা

গত কয়েক দিন ধরে রাজধানীর বাজার গুলোতে মুরগির দাম বেইয়েই চলছে। গত এক সপ্তাহের ব্যবধানে ব্রয়লার মুরগির দাম কেজিতে বেড়েছে ১০ টাকা। পাকিস্তানি কক মুরগির দাম কেজিতে বেড়েছে ৭০ টাকা পর্যন্ত। এতে বিপাকে পড়েছেন নিম্ন ও মধ্যম আয়ের মানুষরা। 

আজ শুক্রবার রাজধানীর বিভিন্ন বাজারে ঘুরে দেখা দেখা গেছে, খুচরা পর্যায়ে ব্রয়লার মুরগির কেজি বিক্রি হচ্ছে ১৬০ থেকে ১৬৫ টাকা, যা গত সপ্তাহে ছিল ১৫০ থেকে ১৬০ টাকা। আর দুই সপ্তাহ আগে ছিল ১৪০ থেকে ১৪৫ টাকার মধ্যে। অর্থাৎ দুই সপ্তাহের ব্যবধানে ব্রয়লার মুরগির দাম কেজিতে বেড়েছে ২০ টাকা। ব্রয়লার মুরগির থেকেও দ্রুত গতিতে ছুটছে পাকিস্তানি সোনালী বা কক মুরগির দাম।


জিয়ার অবদান অস্বীকার করার অর্থই হল স্বাধীনতাকে অস্বীকার: ফখরুল

সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীকে রাজনীতিতে সুযোগ দিয়েছিলেন জিয়া: কাদের

বসুন্ধরা এলপি গ্যাসের রিটেইলার মিট প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত

খুলনায় বিএনপির অফিস ঘিরে রেখেছে পুলিশ, তীব্র উত্তেজনা


গত সপ্তাহে ২৮০ থেকে ৩০০ টাকা কেজি বিক্রি হওয়া সোনালী মুরগির দাম বেড়ে ৩৫০ থেকে ৩৬০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। আর দুই সপ্তাহ আগে এই মুরগির দাম ছিল ২৩০ থেকে ২৫০ টাকা কেজি। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে সোনালী মুরগির দাম কেজিতে বেড়েছে ৭০ টাকা এবং দুই সপ্তাহের ব্যবধানে বেড়েছে ১২০ টাকা।

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

দেশীয় ব্র্যান্ডের গাড়ি রপ্তানির বিষয়ে কাজ করছে সরকার: শিল্পমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

দেশীয় ব্র্যান্ডের গাড়ি রপ্তানির বিষয়ে কাজ করছে সরকার: শিল্পমন্ত্রী

শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন জানিয়েছেন, দেশীয় ব্র্যান্ডের তৈরি গাড়ি ভবিষ্যতে রপ্তানি করার প্রক্রিয়ার বিষয়ে কাজ করছে সরকার। পাশাপাশি করোনাকালীন সময়েও দেশের উন্নয়নের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (০৪ মার্চ) দুপুরে বৃহস্পতিবার ঢাকার ধামরাইয়ে বালিথা এলাকায় অবস্থিত ইফাদ গ্রুপের প্রতিষ্ঠানের উৎপাদিত বিশ্বমানের লাক্সারী এসি-নন এসি বাসের বডি ও ট্রাকের কেবিনের পন্য উদ্বোধনকালে শিল্পমন্ত্রী আরও বলেন, দেশের মানুষের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে সাশ্রয়ী মূল্যে বিশ্বমানের গাড়ি দেশেই উৎপাদন করা সরকারের মূল লক্ষ্য।


চুমু দিয়ে নারীদের সব রোগ সারিয়ে দেন ‘চুমুবাবা’

বুবলিকে ধাক্কা দেওয়া গাড়িটি ছিল ব্ল্যাক পেপারে মোড়ানো, ছিল না নম্বর প্লেট

অস্ত্রের মুখে ছাত্রীকে বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণের পর দফায় দফায় ধর্ষণ

মেয়েকে তুলে নিয়ে মাকে রাত কাটানোর প্রস্তাব অপহরণকারীর

নাসির বিয়ে করেছেন আপনার খারাপ লাগে কেন?

২০৩০ সালের মধ্যে বাংলাদেশ আঞ্চলিক অটোমোবাইল শিল্প উৎপাদনের কেন্দ্রীয় উন্নতি করা হবে। সেই লক্ষ্যে মন্ত্রণালয় অটোমোবাইল শিল্প বিকাশে নীতিমালা প্রণয়নের উদ্যোগ নিয়েছে।

নীতিমালাটি এই শিল্পের বিকাশ ও উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখবে। সরকারের পাশাপাশি এই শিল্পের সাথে জড়িত সংশ্লিষ্টদের এগিয়ে আসার আহবান জানান তিনি।

ইফাদ গ্রুপের চেয়ারম্যান ইফতেখার আহমেদ টিপুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান, স্থানীয় সাংসদ মুক্তিযোদ্ধা বেনজীর আহমেদসহ অন্যরা।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর