অস্ত্র মামলায় ইরফান সেলিমকে অব্যাহতি

অনলাইন ডেস্ক

অস্ত্র মামলায় ইরফান সেলিমকে অব্যাহতি

অস্ত্র মামলায় অব্যাহতি দেয়া হয়েছে ঢাকা-৭ আসনের সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের ছেলে ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) ৩০ নম্বর ওয়ার্ড (বরখাস্ত) কাউন্সিলর ইরফান সেলিমকে।

বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশ অস্ত্র মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন গ্রহণ করে ইরফান সেলিমকে অব্যাহতি দেন।

এর আগে গত ৫ জানুয়ারি ঢাকা মহানগর হাকিম আশেক ইমামের আদালতে অস্ত্র ও মাদক মামলায় ইরফান সেলিমকে অব্যাহতির সুপারিশ করে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দেয় পুলিশ। তবে তার দেহরক্ষী জাহিদুল মোল্লাকে অভিযুক্ত করে পুলিশ এই দুই মামলায় চার্জশিট দিয়েছে।

প্রতিবেদন জমা দেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা চকবাজার থানার পরিদর্শক (অপারেশন) মুহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন।

ওই প্রতিবেদনে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উল্লেখ করেন, ‘ইরফান সেলিমের বিরুদ্ধে করা অস্ত্র মামলার ঘটনাস্থল ২৬ নং চাঁন সর্দার দাদাবাড়ী। এই বাসার মালিক বর্তমান ঢাকা-৭ আসনের সংসদ সদস্য হাজী মোহাম্মদ সেলিম। মামলার আসামি ইরফান সেলিম তার পুত্র। ইরফান সেলিম বর্তমানে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৩০ নম্বর ওয়ার্ডের নির্বাচিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর। মামলার বাদী এজাহার ও জব্দ তালিকায় মামলার ঘটনাস্থল ইরফান সেলিমের ব্যক্তিগত শয়ন কক্ষে উল্লেখ করেন। তবে মামলাটি সরেজমিনে তদন্তকালে সাক্ষ্য প্রমাণে দেখা যায় যে, মামলার ঘটনাস্থলটি ইরফান সেলিমের ব্যক্তিগত শয়ন কক্ষ নয়। সেটি ছিল একটি অতিথি কক্ষ।’

আরও পড়ুন:


ইমরান খানের বিরুদ্ধে আবারও গর্জে উঠলেন মরিয়ম নওয়াজ

ইশরাকের গাড়িবহরে পুলিশি বাধা, ফেরি বন্ধ করায় লঞ্চে নদী পার

জামিন পেলেন বিএনপির ৭৪ নেতাকর্মী

বিচ্ছেদের পর যার প্রেমে হাবুডুবু খাচ্ছেন নেইমার


প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, ‘ইরফান সেলিমের পরিবার একটি রাজনৈতিক পরিবার হওয়ায় ওই অতিথি কক্ষে বিভিন্ন আগন্তুক অতিথি, রাজনৈতিক নেতাকর্মী তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে আসতেন। ইরফান সেলিম দীর্ঘ সময় বিদেশে থেকে পড়ালেখা করেছেন। তিনি ২০১০ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত কানাডায় বিবিএ পড়া শেষ করেছেন। তার রাজনৈতিক ক্যারিয়ার নষ্ট করার জন্য এবং সমাজে তার সম্মান ক্ষুন্ন করাসহ সমাজে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য অসৎ উদ্দেশ্যে কে বা কারা মামলার জব্দকৃত পিস্তলটি অভিযুক্ত ইরফান সেলিমের অতিথি কক্ষে রেখেছেন। ইরফান সেলিমের এলাকায় তার বিরুদ্ধে অবৈধ অস্ত্র বহন বা প্রদর্শন তথা সন্ত্রাসী কার্যকলাপে অংশগ্রহণের কোনো সাক্ষ্য প্রমাণ পাওয়া যায়নি।’

তদন্ত কর্মকর্তা আরও উল্লেখ করেছেন, ‘মামলার জব্দকৃত আলামত পিস্তলের বিষয়ে মামলার বাদী এজাহারে এবং জব্দ তালিকায় কার অস্ত্র এবং কার দেখানো মতে জব্দ হয়েছে তা উল্লেখ করেননি। অস্ত্র মামলার গোপনে ও প্রকাশ্য তদন্তে গৃহীত সাক্ষ্য প্রমাণে অভিযুক্ত ইরফান সেলিমের বিরুদ্ধে অত্র মামলার অপরাধ প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হয় নাই। বিধায় ইরফান সেলিমকে মামলার দায় হতে অব্যাহতি দানের প্রার্থনা করে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করা হলো।’

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ধর্ষণের শিকার নারী-শিশুকে পুনর্বাসনসহ ক্ষতিপূরণ দিতে রুল

অনলাইন ডেস্ক

ধর্ষণের শিকার নারী-শিশুকে পুনর্বাসনসহ ক্ষতিপূরণ দিতে রুল

সারা দেশে ধর্ষণের শিকার নারী ও শিশুদের প্রযোজ্য ক্ষেত্রে (প্রমাণিত হোক বা না হোক) পুনর্বাসনসহ ক্ষতিপূরণ দেওয়ার বিষয়ে একটি নীতিমালা তৈরির নির্দেশ কেন দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

একই সঙ্গে ধর্ষণের শিকার তিনটি শিশুকে (দিনাজপুরের পাবর্তীপুরের একজন, রংপুরের বড়বাড়ি এলাকার চার বছরের এক শিশু এবং খুলনার তেরখাদার নয় বছরের একজনকে) পর্যাপ্ত ক্ষতিপূরণ দিতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না- রুলে তাও জানতে চাওয়া হয়েছে।

জনস্বার্থে করা এক রিট আবেদনের পরিপ্রক্ষিতে আজ বুধবার বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. কামরুল হোসেন মোল্লার হাইকোর্ট বেঞ্চ এই রুল জারি করেন।

সাত দিনের মধ্যে স্বরাষ্ট্র সচিব, মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব, স্বাস্থ্য সচিবসহ ১৫ জনকে এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার আব্দুল হালিম। বিভিন্ন সময় গণমাধ্যমে প্রকাশিত তিনটি ধর্ষণের ঘটনা যুক্ত করে গত ২ জানুয়ারি হাইকোর্টে রিট দায়ের করে চিলড্রেন চ্যারিটি ফাউন্ডেশন নামে একটি সংগঠন।

রিটের আইনজীবী আব্দুল হালিম বলেন, ধর্ষণের মামলায় ৯৭ শতাংশ আসামির খালাস হয়ে যায়। তার মানে ৯৭ শতাংশ কি ধর্ষণ হয়নি? এই খালাসের কারণ হলো রাষ্ট্র যথেষ্ট সাক্ষ্যপ্রমাণ হাজির করতে ব্যর্থ হয়েছে। এর জন্য দায়ভার ভুক্তভোগী কেন নেবে? কেননা তার আত্মমর্যাদা রয়েছে। 


নাসির প্রেমিক না আমার বন্ধু : মডেল মিম

আমার বয়ফ্রেন্ড নিয়ে আমিও মজায় আছি : নাসিরের সাবেক প্রেমিকা

বউ যেন এদিক-ওদিক ভাইগা না যায় : নাসিরের সাবেক প্রেমিকা (ভিডিও)

নাসির-তামিমার জন্য ভালোবাসা ও দোয়া : শবনম ফারিয়া


শিশুটির লেখাপড়া ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। এসব শিশুরা স্কুলে পর্যন্ত যেতে পারছে না। তাহলে সে কোথায় যাবে? এখানেই হলো রাষ্ট্রের দায়িত্ব। সারা পৃথিবীতে ধর্ষণের শিকার ভুক্তভোগীদের পুনর্বাসনের বিধান রয়েছে। ভারতের সুপ্রিম কোর্ট একটি ধর্ষণের ঘটনায় ১০ লাখ রুপি ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে সেটি আমরা নজির হিসেবে দিয়েছি।

‘রংপুরের বড়বাড়ির শিশু মাইশাকে যৌন নিপীড়নের চেষ্টার পর হত্যা করে ডোবায় ফেলেন প্রতিবেশী’, ‘তিন বছরেও স্বাভাবিক হতে পারেনি দিনাজপুরের সেই শিশু’, ‘স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে পুলিশ সদস্য গ্রেপ্তার’- শিরোনামে প্রতিবেদন বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়। ওইসব প্রতিবেদন যুক্ত করে হাইকোর্টে রিটটি দায়ের করা হয়। ওই রিটের শুনানি নিয়ে আদালত আজ বুধবার এ রুল জারি করেন।

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

বাবাকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে ছেলে গ্রেপ্তার

সৈয়দ নোমান, ময়মনসিংহ

বাবাকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে ছেলে গ্রেপ্তার

ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়ায় বাবাকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে সন্তান মো. ফারুককে (৩২) আটক করেছে র‌্যাব-১৪। বুধবার রাত দুইটার দিকে ভালুকা উপজেলার উথুরা ইউনিয়নের চামাদি এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়।

বুধবার বিকেলে র‌্যাব-১৪’র কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এমন তথ্য জানান উপ-অধিনায়ক মেজর মো. ফজলে রাব্বি।

আরও পড়ুন:


আরও পড়ুন: ৩০-৩২ গার্লফ্রেন্ড থাকার পরও আমাকে ভালোবাসত নাসির: তামিমা

প্রতিদিন এক নারী ভালো লাগত না তার


সাংবাদিকদের র‌্যাবের ওই অফিসার আর জানায়, ফুলবাড়িয়া উপজেলার আছিম পাটুলি গ্রামের নূর মোহাম্মদ চাঁন মিয়াকে (৬৮) তার ছেলে মো. ফারুক গত ২১ ফেব্রুয়ারি পাওনা টাকা নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে বাঁশের লাঠি দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। এতে চান মিয়ার মৃত্যু হয়। এরপর থেকেই ছেলে ফারুক পলাতক ছিল।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

তামিমার মায়ের নামে মামলা না করার কারণ জানালেন রাকিব

অনলাইন ডেস্ক

তামিমার মায়ের নামে মামলা না করার কারণ জানালেন রাকিব

অন্যের স্ত্রীকে বিয়ে করার অভিযোগে ক্রিকেটার নাসির হোসেন ও তামিমা সুলতানা তাম্মির বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। কিন্তু তামিমার মাকে এতে জড়ানো হয়নি।

এর কারণ হিসেবে রাকিব বলেন, ‘আমি প্রতিকার চেয়ে নাসির ও তামিমার বিরুদ্ধে মামলা করেছি। মামলায় তামিমার মাকেও আসামি করতাম। মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে তাকে আসামি করিনি। হাজার হলেও আমি তাকে মা বলে ডেকেছি।’

বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) ঢাকা মহানগর হাকিম মোহাম্মদ জসীমের আদালতে তামিমার সাবেক স্বামী রাকিব হাসান বাদী হয়ে এ মামলা করেন। আদালত বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করে আগামী ৩০ মার্চের মধ্যে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

মামলায় অভিযোগ আনা হয়েছে দণ্ডবিধি ৪৯৪/৪৯৭/৪৯৮ ও ৫০০ ধারায়। এ ধারাগুলোর সর্বোচ্চ শাস্তি সাত বছরের কারাদণ্ড।


সিইসি-রেজাউল, নির্বাচন কর্মকর্তা ও অন্য ছয় মেয়রপ্রার্থীর নামে মামলা

প্রতিদিন নতুন নারী লাগত তার, পরতেন ত্রিশ দিনে ৩০ সানগ্লাস

স্ত্রীকে সৌদি পাঠিয়ে ৮ বছরের মেয়েকে নিয়মিত ধর্ষণ করে বাবা

বন্ধুর স্ত্রীর ‘গোপন ভিডিও’ ধারণ, ভয় দেখিয়ে আটমাস ধরে ‘ধর্ষণ’


মামলার অভিযোগে থেকে জানা যায়, ২০১১ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি বাদীর (রাকিব হাসান) সঙ্গে মামলার ১ নম্বর আসামি তামিমা সুলতানার ইসলামী শরীয়ত মোতাবেক ৩ লাখ এক টাকা দেনমোহরে বিয়ে ও রেজিস্ট্রি হয়। বিয়ের পর থেকে তারা স্বামী-স্ত্রী হিসেবে সংসার করতে থাকেন। তোবা হাসান নামে তাদের একটি মেয়ে রয়েছে, যার বর্তমান বয়স ৮ বছর।

মামলা সূত্রে আরও জানা যায়, তামিমা পেশায় একজন কেবিন ক্রু। তিনি সৌদি এয়ারলাইন্সে কর্মরত আছেন। চাকরির সুবাদে ২০২০ সালের ১০ মার্চ সৌদিতে গিয়েছিলেন তিনি। মহামারির কারণে জরুরি অবস্থা সৃষ্টি হলে সেখানেই অবস্থান করেন তামিমা। এ সময় ফোন ও সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে রাকিবের সঙ্গে তার যোগাযোগ হতো।

মামলায় বলা হয়, চলতি বছরের ২৪ ফেব্রুয়ারি তামিমার সঙ্গে ২ নম্বর আসামির (ক্রিকেটার নাসির) কথিত বিয়ের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। পরে তা বাদীর নজরে আসে। বাদী এই ধরনের ছবি দেখে হতবাক হয়ে যান। পরবর্তীতে পত্রিকায় এই বিষয়ে সংবাদ দেখে তিনি ঘটনার বিষয় নিশ্চিত হন। এছাড়া তাদের গায়ে হলুদ ও বিয়ে পরবর্তী সংবর্ধনা অনুষ্ঠান যথাক্রমে ১৭ ও ২০ ফেব্রুয়ারি সম্পন্ন হয়, যা ইতোমধ্যে বিভিন্ন সংবাদে প্রকাশিত হয়েছে।

মামলার অভিযোগে আরও বলা হয়, তামিমা বাদীর সঙ্গে বিয়ের সম্পর্ক চলমান থাকাবস্থায় নাসিরের সঙ্গে বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হন। নাসির বাদীকে ফোন করে জানান, সম্পূর্ণ বিষয়টি সম্পর্কে তিনি অবগত এবং তার নিকট তামিমা আছেন। বাদীর সঙ্গে বিয়ের সম্পর্ক চলমান থাকাবস্থায় তামিমার নাসিরকে বিয়ে করা, যা ধর্মীয় ও রাষ্ট্রীয় আইনে সম্পূর্ণ অবৈধ। আসামির সঙ্গে তিনি অবৈধ বিয়ের সম্পর্ক দেখিয়ে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করেছেন, যা নিকৃষ্ট ব্যভিচার।

অভিযোগে আরও বলা হয়, আসামিদের এরূপ অনৈতিক ও অবৈধ সম্পর্কের কারণে বাদী ও তার শিশুকন্যা মারাত্মকভাবে মানসিক বিপর্যস্ত হয়েছেন। আসামিদের এহেন কার্যকলাপে বাদীর চরমভাবে মানহানি হয়েছে, যা বাদীর জন্য অপূরণীয় ক্ষতি।

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

সাংবাদিক বুরহান গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনাস্থলে পিবিআই

নিজস্ব প্রতিবেদক

সাংবাদিক বুরহান গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনাস্থলে পিবিআই

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজ্জাকির হত্যা মামলাটি গতকাল  পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)- এ হস্তান্তর করা হয়। এর আগে গতকাল সকাল ১১টার দিকে নিহতের বাবা অবসরপ্রাপ্ত প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক নুরুল হুদা ওরফে নোয়াব আলী মাস্টার বাদী হয়ে অজ্ঞাত নামাদের আসামি করে মামলাটি দায়ের করেন।

মামলাটির তদন্তে পিবিআই আজ দুপুরে কোম্পানীগঞ্জের চাপরাশিরহাট বাজারে আওয়ামী লীগের কাদের মির্জা ও মিজানুর রহমানের সমর্থকদের সংঘর্ষের ঘটনাস্থল এবং সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। 

নোয়াখালী পিবিআইয়ের পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান মুন্সীসহ সংস্থার একটি দল আজ দুপুরের দিকে ঘটনাস্থলে যান।


ক্রাইস্টচার্চে পৌঁছেছে টাইগাররা

স্পেনে ঢুকতে অভিবাসীর অভিনব পন্থা

গোয়েন্দাদের ব্যর্থতাতেই ক্যাপিটলে হামলা

মিয়ানমারের ১০৮৬ নাগরিককে ফেরত পাঠালো মালয়েশিয়া


মিজানুর রহমান মুন্সী গণমাধ্যমকে বলেন, দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে তিনিসহ সংস্থার একটি দল ঘটনাস্থলে গেছে। এখানকার লোকজনের সঙ্গে কথা বলে শুক্রবারের ঘটনাটি জানার চেষ্টা করছেন তাঁরা। এ ছাড়া সার্বিক বিষয়ে খোঁজখবর নিচ্ছেন। ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে থানায় গিয়ে তাঁরা মামলার সব কাগজপত্র বুঝে নেবেন।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

সাংবাদিক বুরহান হত্যা মামলা পিবিআইতে হস্তান্তর

আকবর হোসেন সোহাগ, নোয়াখালী

সাংবাদিক বুরহান হত্যা মামলা পিবিআইতে হস্তান্তর

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজ্জাকির হত্যা মামলাটি পিবিআইতে হস্তান্তরের জন্য পুলিশ হেডকোয়াটার্স নির্দেশনা দিয়েছে।

পুলিশ সুপার মো. আলমগীর হোসেন জানান, সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজ্জাকিরের বাবা নুরুল হুদা ওরফে নেয়াব আলী মাস্টারের দায়ের করা মামলাটি পিবিআইতে হস্তান্তরের জন্য পুলিশ হেডকোয়াটার্স নির্দেশনা আজ বিকেলে হাতে পেয়েছে। 

বুধবার সকাল নাগাদ মামলাটি হস্তান্তর করা হবে।

আরও পড়ুন:


প্রতিদিন নতুন নারী লাগত তার, পরতেন ত্রিশ দিনে ৩০ সানগ্লাস

১৭ বছরের কিশোরীর পেটে ৪৮ সেন্টিমিটার লম্বা চুলের দলা

ছোট ভাই মাকে বলল,‘আপুকে পেছনের রুমে নিয়ে গেছে এক ভাইয়া

স্ত্রীকে সৌদি পাঠিয়ে ৮ বছরের মেয়েকে নিয়মিত ধর্ষণ করে বাবা


কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি মীর জাহিদুল হক রনি জানান, সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজ্জাকিরের বাবা চর ফকিরা ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের নেয়াব আলী মাস্টার বাদী হয়ে মঙ্গলবার সকাল ১১টায় কোম্পানীগঞ্জ থানায় অজ্ঞাত আসামীদের নামে মামলা দায়ের করেন।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার বিকেলে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চাপরাশির হাট পূর্ব বাজারে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই বসুরহাট পৌর সভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদলের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় পেশাগত দায়িত্বপালনকালে গুলিবিদ্ধ হন দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার ও অনলাইন পোর্টাল বার্তা বাজারের স্থানীয় প্রতিনিধি বুরহান উদ্দিন মুজ্জাকির। পরদিন শনিবার রাত পৌনে ১১টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর