দুই আওয়ামী লীগ নেতাকে বহিষ্কার করলেন কাদের মির্জা

অনলাইন ডেস্ক

দুই আওয়ামী লীগ নেতাকে বহিষ্কার করলেন কাদের মির্জা

ওয়ার্কিং কমিটির সভা ডেকে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা খিজির হায়াত খান ও সাধারণ সম্পাদক নুর নবী চৌধুরীকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই আবদুল কাদের মির্জা বৃহস্পতিবার উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে সভায় এ সিদ্ধান্ত নেন।

এদিকে বহিষ্কারের ব্যাপারে ক্ষোভ প্রকাশ করেন খিজির হায়াত খান ও নুর নবী চৌধুরী।

তারা বলেছেন, কাদের মির্জা কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের কোনো পদে নেই। তিনি এ ধরনের কোনো সভা আহ্বান করতে পারেন না।

আরও পড়ুন:


ধর্মীয় পরিচয় গোপন করে তরুণীকে বিয়ে, অতঃপর যা ঘটল

ছাত্রদল নেতার কাণ্ড, স্ত্রী-সন্তানের কথা গোপন রেখে কিশোরীর সঙ্গে ‌‘প্রেম ও ধর্ষণ’

ধর্ম পরিচয় গোপন রেখে ধর্ষণ, ভিডিও দেখিয়ে ৫ বার ধর্ষণ

স্বামীকে খাবারের সঙ্গে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে পরকীয়া, প্রেমিক ধরা

পরকীয়া প্রেমিকের হারিয়ে যাওয়া ফোনে স্বামী হত্যার রহস্য ফাঁস


তাঁর সিদ্ধান্ত সম্পূর্ণ অবৈধ দাবি করে তারা বলেন, তাঁরা তাঁদের পদেই আছেন। কাদের মির্জার সিদ্ধান্তে কারও বিভ্রান্ত হওয়ার সুযোগ নেই। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ এইচ এম খায়রুল আনম চৌধুরীও এ কথা বলেছেন।

ব্যাপারটি জানতে আবদুল কাদের মির্জার মুঠোফোনে বৃহস্পতিবার রাত আটটার দিকে একাধিকবার ফোন দিলেও তিনি ধরেননি।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার বিকেল তিনটার দিকে উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে ওয়ার্কিং কমিটির সভা ডাকেন আবদুল কাদের মির্জা। নির্ধারিত সময়ের কিছুক্ষণ পরই বৈঠক শুরু হয়। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি ইস্কান্দার হায়দার চৌধুরী। ওই সভা পরিচালনা করেন যুগ্ম সম্পাদক মো. ইউনুছ।

দলীয় সূত্র জানায়, সভায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা খিজির হায়াত খান ও সাধারণ সম্পাদক নুর নবী চৌধুরী অনুপস্থিত ছিলেন। সভায় সর্বসম্মতিতে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতিকে অপসারণ করে তাঁর স্থলে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি করা হয় ইস্কান্দার হায়দার চৌধুরীকে। ওই সভায় ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক করা হয় মো. ইউনুছকে।

বীর মুক্তিযোদ্ধা খিজির হায়াত খান বলেন, দলের ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকের কোনো চিঠি তিনি পাননি। তবে শুনেছেন, কাদের মির্জা ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠক ডেকে তাঁকে এবং সাধারণ সম্পাদককে বাদ দিয়ে নতুন দুজনকে দায়িত্ব দিয়েছেন। এ সিদ্ধান্ত নেওয়ার অধিকার তাঁর (কাদের মির্জা) নেই। কারণ, তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের কোনো পদেই নেই।

এ ব্যাপারে জেলা আওয়ামী লীগের নেতাদের সঙ্গে তাঁর কথা হয়েছে বলে জানান খিজির হায়াত খান।

তিনি বলেন, তাঁরা বলেছেন, কাদের মির্জার সিদ্ধান্ত অবৈধ। তাঁরা তাঁদের পদেই আছেন। শুধু তা–ই নয়, কাদের মির্জা গত কয়েক দিনের মধ্যে পৌর আওয়ামী লীগসহ সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ে যেসব পরিবর্তন করেছেন, সেগুলোও অবৈধ। পূর্বে যাঁরা যে যে পদে ছিলেন, তাঁরা ওই পদেই থাকবেন।

আর নুর নবী চৌধুরী বলেন, কাদের মির্জা দলের কে? তাঁকে উপজেলা আওয়ামী লীগের ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠক ডাকার ক্ষমতা কে দিয়েছে? তাঁরা সম্মেলনের মধ্য দিয়ে দলের দায়িত্ব পেয়েছেন। কেউ ইচ্ছা করলেই বাদ দিতে পারবেন না। কাদের মির্জার ডাকা ওই বৈঠকে তাঁর অনুগত হাতেগোনা কিছু নেতা ছাড়া বেশির ভাগ সদস্য অনুপস্থিত ছিলেন বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

তবে কাদের মির্জার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী হওয়া ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ইস্কান্দার হায়দার চৌধুরী বৃহস্পতিবার রাতে মুঠোফোনে বলেন, কাদের মির্জা যা করেছেন, তা বৈধ। কেউ যদি কাজ না করেন, তাহলে তাঁকে সরিয়ে জ্যেষ্ঠ যিনি তাঁকে দায়িত্ব দেওয়া যায়। তিনি জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন।

এদিকে কাদের মির্জার এসব সিদ্ধান্ত নেওয়ার কোনো ক্ষমতা নেই বলে জানিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ এইচ এম খায়রুল আনম চৌধুরী। বৃহস্পতিবার রাতে তিনি এ কথা বলেন। তিনি বলেন, জেলা থেকে তাঁর (কাদের মির্জা) নেওয়া সব সিদ্ধান্ত বাতিল করে দেওয়া হবে।

এদিকে বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের অনুমোদন ব্যতীত সংগঠনের কোনো শাখার (ইউনিট, ওয়ার্ড, ইউনিয়ন, পৌর, থানা, উপজেলা, জেলা ও মহানগর) কমিটি বিলুপ্ত না করার নির্দেশ দেওয়া হয়। 

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

খুলনায় বিএনপির সমাবেশ ঘিরে টেনশন বাড়ছে

সামছুজ্জামান শাহীন, খুলনা

খুলনায় বিএনপির সমাবেশ ঘিরে টেনশন বাড়ছে

দেশে অবাধ সুষ্ঠু গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের দাবিতে আজ (শনিবার) দুপুরে খুলনায় বিএনপি’র সমাবেশ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। তবে এখনও পর্যন্ত সমাবেশস্থলের অনুমতি না দিয়ে দলীয় কার্যালয়ের ভিতরে সভা-সমাবেশ করার কথা বলছে পুলিশ। এছাড়া শুক্রবার রাত থেকেই পুলিশের একটি টিম কেডি ঘোষ রোডে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়েছে।

ফায়ার সার্ভিসের একটি টিমকেও সেখানে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। নগরীর শিববাড়ি মোড়সহ আরও কয়েকটি স্থানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এদিকে যে কোন মূল্যে সমাবেশ বাস্তবায়নের পক্ষে অনঢ় রয়েছে বিএনপি নেতারা। সমাবেশস্থলের কোন অনমুতি না পেলে শেষ পর্যন্ত দলীয় কার্যালয়ের সামনের সড়কেই সমাবেশ করা হবে জানানো হয়েছে। 

বিএনপির কেন্দ্রিয় নেতারা ঢাকা থেকে রওয়ানা দিয়ে খুলনার পথে রয়েছেন। রাতে বিভিন্ন হোটেলে পুলিশ অভিযান চালাতে পারে এ কারণে আগেভাগে কোনো সিনিয়র নেতা খুলনায় অবস্থান করেননি। 


নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে কে?

মার্কিন গোয়েন্দা রিপোর্টে উঠে এল খাসোগি হত্যার গোপন তথ্য

নামাজে মনোযোগী হওয়ার কৌশল

অভাব দুর হবে, বাড়বে ধন-সম্পদ যে আমলে


খুলনা মহানগর বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম বলেন, মহাসমাবেশ কখনো ইনডোরে হয় না। আমাদের অবস্থান সুদৃঢ় থাকবে ও চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করেই সমাবেশ বাস্তবায়ন করবো। সমাবেশে কেন্দ্রিয় ভাইস চেয়ারম্যান ব্যারিষ্টার শাহজাহান ওমর, শামসুজ্জামান দুদু, অ্যাডভোকেট নিতাই রায় চৌধুরী, যুগ্ম সম্পাদক মোয়াজ্জেম হোসেন আলালসহ ছয়টি সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি’র মেয়র প্রার্থীরা উপস্থিত থাকবেন। 

এদিকে সমাবেশের আগ মুহূর্তে শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে খুলনা জেলার ১৮টি রুটে বাস চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। জেলা বাস-মিনিবাস-কোচ মালিক সমিতির যুগ্ম সম্পাদক আনোয়ার হোসেন সোনা জানান, বিএনপির সমাবেশকে কেন্দ্র করে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হতে পারে এজন্য শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে শনিবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টা শহরের কোনো পরিবহন ছেড়ে যাবে না এবং কোনো পরিবহন শহরে প্রবেশ করবে না।

news24bd.tv/আয়শা

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

সিংহের গর্জন করে বাঘের মতো মরতে চাই: কাদের মির্জা

অনলাইন ডেস্ক

সিংহের গর্জন করে বাঘের মতো মরতে চাই: কাদের মির্জা

নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা বলেছেন, সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যার ন্যায়বিচার না হলে, বিচারের নামে জজ মিয়া নাটক করা হলে, আমার কর্মীদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করা না হলে। 

আমার আটক চার নেতাকর্মীকে মুক্তি দেয়া না হলে কোম্পানীগঞ্জে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি হবে। আর এর দায়ভার নোয়াখালী জেলার ডিসি, এসপি, কোম্পানীগঞ্জের ইউএনও এবং কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসিকে নিতে হবে।

এ সময় তিনি সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যাকাণ্ডের ন্যায়বিচারের স্বার্থে জুডিশিয়াল তদন্তের দাবি জানিয়ে বলেন, শিয়ালের মতো মৃত্যু চাই না। সিংহের গর্জন করে বাঘের মতো মরতে চাই।

শুক্রবার বিকালে বসুরহাট পৌরসভা মিলনায়তনে করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন নিয়ে জনসচেতনতামূলক সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। 


তামিমার পাসপোর্ট ও ডিভোর্স পেপারের ঠিকানা ভুয়া!

কারাবন্দি অবস্থায় লেখক মুশতাক মৃত্যুতে যা বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বগুড়ায় সকাল ও দুপুরের সড়ক দুর্ঘটনায় ঝরল ৬ প্রাণ

যা দেখে নাসিরকে ভালোবেসেছিলেন তামিমা


কাদের মির্জা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা পেয়ে দলীয় কর্মকাণ্ড স্থগিত থাকায় করোনা ভ্যাকসিন জনসচেতনতামূলক সমাবেশ করছি। 

এ সময় তিনি উপস্থিত দলীয় বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীদের স্বাক্ষর গ্রহণ করেন। স্বাক্ষর গ্রহণ শেষে তিনি বলেন, বাড়ি বাড়ি গিয়ে করোনা ভ্যাকসিন গ্রহণের জন্য জনগণকে উদ্বুদ্ধ করবেন। আর আমি যে যে ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন দিয়েছি সেসব প্রার্থীর পক্ষে ভোট চাইবেন। 

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

বনানীতে বিএনপির মশাল মিছিল, পুলিশের ধাওয়া

নিজস্ব প্রতিবেদক

বনানীতে বিএনপির মশাল মিছিল, পুলিশের ধাওয়া

রাজধানীর বনানীতে বিএনপি ও এর অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা মশাল মিছিল করেছে।  লেখক মুশতাক আহমদের কারাবন্দি অবস্থায় মৃত্যু, জিয়াউর রহমানের রাষ্ট্রীয় খেতাব বাতিলের সিদ্ধান্ত এবং বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে পরোয়ানার প্রতিবাদে এ মশাল মিছিল করা হয়।

দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর নেতৃত্বে শুক্রবার সন্ধ্যায় এ মিছিলট করা হয়। ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের উদ্যোগে এই মশাল মিছিল করা হয়।

সন্ধ্যায় মিছিলটি বের হলে পুলিশ ধাওয়া দিয়ে ছত্রভঙ্গ করে দিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন রিজভী। তিনি জানান, ধাওয়া দিয়ে বিএনপি নেতা আবদুল হকসহ তাদের কয়েকজনকে পুলিশ আটক করেছে।

মশাল মিছিলে অংশ নেন ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সহ-সাধারণ সম্পাদক তারিকুল ইসলাম তেনজিং, বিএনপি নেতা এএফএম খালেদ, ফজলুর রহমান মন্টু, শিমুল হোসেন ফারুক, স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা সুমন হোসেন, জিল্লুর রহমান রুপকসহ শতাধিক নেতাকর্মীরা।


নাসিরের স্ত্রীকে ‘জাতীয় ভাবী’ আখ্যা দিয়ে সুবাহ'র স্ট্যাটাস

বিএনপির সমাবেশ ঘিরে খুলনায় পরিবহন চলাচল বন্ধ

১৩৮ বছরের পুরনো পরিত্যক্ত আদালত ভবনে চলে বিচার কাজ

নাইজেরিয়ায় হোস্টেল থেকে কয়েকশ ছাত্রীকে অপহরণ


রিজভীর অভিযোগ, সন্ধ্যায় বনানী বাজারের সামনে থেকে তারা একটি মশাল মিছিল বের করেন। মিছিলটি কামাল আতাতুর্ক অ্যাভিনিউ প্রধান সড়কে উঠে কাকলীর দিকে গেলে পেছন থেকে ধাওয়া দেয় পুলিশ। এ সময় পুলিশ লাঠিপেটা করে মিছিলটি ছত্রভঙ্গ করে দেয়। পরে সেখান থেকে বিএনপি নেতা আবদুল হকসহ কয়েকজনকে আটক করে।

মিছিলে পুলিশের অতর্কিত হামলা ও নেতাকর্মীদের আটকের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিএনপির এই সিনিয়র নেতা।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

সমাবেশে জাফরুল্লাহ

মুশতাকের হত্যাকারী সরকার ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী

অনলাইন ডেস্ক

মুশতাকের হত্যাকারী সরকার ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী

লেখক মুশতাক আহমেদকে হত্যা করা হয়েছে বলে মন্তব্য করে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, তার হত্যাকারী হলো সরকার ও তার আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন হইলো সরকারি বাহিনীর একটি অধ্যাদেশ। এই সিকিউরিটি আইনের সাথে যারা জড়িত তারা প্রত্যেকে এই হত্যার সাথে জড়িত।’

শুক্রবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে রাজধানীর শাহবাগে লেখক মুশতাক আহমেদের গায়েবানা জানাজা পূর্ববর্তী সমাবেশে তিনি আরও বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর হত্যা যেমন মর্মান্তিক, আমি মনে করি মুশতাকের হত্যাও তেমনি মর্মান্তিক। শুধু বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার করলেই হবে না, এই হত্যার জন্য যারা দায়ী এমনকি যদি আপনারও দায় থাকে, তাহলে আপনাকেও দায় নিয়ে ক্ষমা চাইতে হবে জনগণের কাছে।’


অস্ত্রের মুখে ছাত্রীকে বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণের পর দফায় দফায় ধর্ষণ

মেয়েকে তুলে নিয়ে মাকে রাত কাটানোর প্রস্তাব অপহরণকারীর

নাসির বিয়ে করেছেন আপনার খারাপ লাগে কেন?

ঘুমন্ত স্বামীর পুরুষাঙ্গ কাটলেন স্ত্রী


জাফরুল্লাহ বলেন, ‘আজকে বিচারপতিদের দায়িত্ব পরিষ্কারভাবে বলা যে ডিজিটাল সিকিউরিটি আইন নাগরিকের মৌলিক অধিকারের পরিপন্থী। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যদি বেঁচে থাকতে চান, তাহলে এই আইনকে কবর দিয়ে দেন। আমি যদি আপনার বিরুদ্ধে মানহানিকর কিছু বলি তাহলে আপনাকেই মানহানির মামলা করতে হবে, কোনো পুলিশ কনস্টেবলকে দিয়ে নয়। ডিজিটাল অ্যাক্ট দিয়ে কোনো সরকার টিকে থাকতে পারে না।’

বিচারপতিদের উদ্দেশে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের এই ট্রাস্টি আরও বলেন, ‘আপনাদেরও দ্বায়িত্ব আছে, আমরা আশা করছি আগামী সপ্তাহে আপনারা উন্মোচন করবেন, মুশতাক হত্যার জন্য দায়ী কারা।’

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে সবখানেই বিএনপির বিপুল বিজয় হবে: দুলু

নাসিম উদ্দীন নাসিম, নাটোর

নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে সবখানেই বিএনপির বিপুল বিজয় হবে: দুলু

বিএনপির সাংগঠণিক সম্পাদক সাবেক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট এম রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু বলেছেন, দেশের সব নির্বাচন অবাধ ও নিরপেক্ষ হলে নাটোর জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনের মতো বিএনপি সমর্থিত প্রার্থীদের বিপুল বিজয় হবে। 

শুক্রবার সকাল ১১টার দিকে নাটোর জেলা বিএনপির পক্ষ থেকে জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য পরিষদ (বিএনপি) প্যানেলের সভাপতি সাধারণ সম্পাদকসহ বিজয়ী ৮ জনকে সংবর্ধনা দেয়ার সময় তিনি এ সব কথা বলেন। 

এসময় তিনি আরও বলেন, সরকার ও নির্বাচন কমিশন চুরি ডাকাতি ছিনতাই করে বিএনপির বিজয় ছিনিয়ে নিচ্ছে। 

এর আগে নাটোর জেলা জাতীয়তাবাদী শ্রমিকদলের সাধারণ সম্পাদক মরহুম কে এম কামাল হোসেনের ১ম মৃত্যু বাষিকী উপলক্ষে আলোচনা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখার সময় দুলু মরহুম কামাল হোসেনের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে আরো বলেন, দেশের বিরাজমান পরিস্থিতিতে গণতান্ত্রিক আন্দোলনে দেশের আইনজীবীদের ঐক্যবদ্ধ ভূমিকা সময়ের দাবি।

আরও পড়ুন:


কার প্রেমে হাবুডুবু খাচ্ছেন শ্রাবন্তী, নাম ফাঁস করলেন নিজেই

বন্যপ্রাণীর মিঠাপানির চাহিদা মেটাতে সুন্দরবনে পুকুর খনন শুরু

গাড়িচাপা দিয়ে ‘হত্যাচেষ্টা’র অভিযোগ নায়িকা বুবলীর

কারাগারে লেখক মুশতাককে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে: মির্জা ফখরুল


আইনজীবীরাই ছাত্র জনতাকে ঐক্যবদ্ধ করে আন্দোলনের মাধ্যমে দেশের গণতন্ত্রকে পুনঃপ্রতিষ্ঠা করবেন। তবেই কামাল হোসেনের মত সারা দেশে যারা এই সরকারের নির্যাতনে তিলে তিলে শেষ হয়ে মৃত্যু বরণ করেছে তাদের আত্মা শান্তি পাবে।

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন, শ্রমিক দল কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও পাবনা জেলা শ্রমিক দল সাধারণ সম্পাদক আব্দুল গফুর, নাটোর জেলা বিএনপির আহবায়ক আমিনুল হক, সদস্য সচিব রহিম নেওয়াজ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বাচ্চু, জেলা শ্রমিক দলের সভাপতি আবু রায়হান ভুলু নাটোর সদর থানা বিএনপির আহবায়ক রফিকুল ইসলাম ও বিএনপি নেতা নজরুল ইসলামসহ দলের নেতৃবৃন্দ।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর