একুশে আগস্ট মঞ্চে গ্রেনেড ছোড়েন জঙ্গি ইকবাল

অনলাইন ডেস্ক

একুশে আগস্ট মঞ্চে গ্রেনেড ছোড়েন জঙ্গি ইকবাল

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের সমাবেশে গ্রেনেড হামলার ঘটনায় যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি ইকবাল হোসেন ওরফে ইকবাল ওরফে জাহাঙ্গীর ওরফে সেলিমকে (৪৭) গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। হামলার সময় সরাসরি সমাবেশের মঞ্চ উদ্দেশ্য করে গ্রেনেড নিক্ষেপ করেছিলেন তিনি।

গ্রেনেড হামলার ১৬ বছর এবং আদালতের রায়ের তিন বছর পর মঙ্গলবার ইকবালকে ঢাকার দিয়াবাড়ি থেকে গ্রেফতারের কথা জানানো হয় র্যাবের পক্ষ থেকে।

মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর কারওয়ানবাজারে র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান র‌্যাবের মহাপরিচালক (ডিজি) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন।

গ্রেফতার পলাতক জঙ্গি ইকবালকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব ডিজি বলেন, এইচএসসি পাস ইকবাল স্কুল-কলেজে অধ্যায়নরত অবস্থায় ছাত্রদলের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন। ইকবাল ১৯৯৪ সালে ঝিনাইদহ কেসি কলেজের ছাত্র সংসদে ছাত্রদলের নির্বাচিত শ্রেণি প্রতিনিধি ছিলেন। ১৯৯৫ থেকে ১৯৯৮ সাল পর্যন্ত কর্মজীবী হিসেবে মালয়েশিয়ায় অবস্থান করেন।


আমি কাপুরুষ নই, আমি সিংহী : ফারিয়া শাহরিন

সোহানা সাবার প্রাণপণে চাওয়া‍!

আমার বয়ফ্রেন্ড নিয়ে আমিও মজায় আছি : নাসিরের সাবেক প্রেমিকা

নাসির প্রেমিক না আমার বন্ধু : মডেল মিম


দেশে ফিরে ইকবাল আইএসডি ফোন ও অন্য ব্যবসা শুরু করেন। এসময় সর্বহারা ও স্থানীয় প্রভাবশালীদের সঙ্গে কোন্দলে জড়িয়ে যান। ২০০১ সালে স্থানীয় এক জঙ্গি সদস্যের মাধ্যমে তিনি হরকাতুল জিহাদ বাংলাদেশে (হুজিবি) যোগ দেন। ২০০৩ সালে হুজি নেতা মুফতি হান্নানসহ শীর্ষ নেতাদের সান্নিধ্যে এসে প্রশিক্ষণ নিতে থাকেন। ২০০৪ সালে মুফতি হান্নানের নির্দেশে ঢাকায় আসেন এবং গোপন আস্তানায় অবস্থান করেন।

ইকবাল জবানবন্দির বরাত দিয়ে র্যাব প্রধান বলেন, মুফতি হান্নানের নির্দেশে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় সরাসরি অংশ নেন। মুফতি হান্নান তাকে গ্রেনেড সরবরাহ করেছিল। ইকবাল মঞ্চ লক্ষ্য করে গ্রেনেড ছুড়েছিল।

ঘটনার পর জঙ্গি ইকবালকে গ্রেফতার করতে একাধিক অভিযান পরিচালিত হয় জানিয়ে তিনি বলেন, ২০০৮ সালে তাকে গ্রেফতারে ঝিনাইদহের নিজবাড়ি, গাজীপুর, সাভারসহ বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালায় র‌্যাব। আত্মগোপনে থাকাকালীন ইকবাল নিরাপত্তাকর্মী, শ্রমিক, রিকশা মেকানিক হিসেবে ছদ্মবেশে জীবনযাপন করেন। তাকে গ্রেফতারে ধারাবাহিক অভিযানের একপর্যায়ে প্রবাসে পাড়ি জমান। ২০২০ সালের শেষের দিকে অবৈধ অভিবাসী হিসেবে তাকে দেশে পাঠানো হয়।

এনএসআই এবং র‌্যাবের গোয়েন্দা শাখা জঙ্গি ইকবালের বিষয়ে গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ অব্যাহত রাখে। এরই ধারাবাহিকতায় জঙ্গি ইকবালকে গ্রেফতার করা হয়।

এতো গুরুত্বপূর্ণ একজন আসামি কীভাবে বিদেশে পাড়িড়ি জমান জানতে চাইলে র‌্যাব প্রধান বলেন, আমরা ধারণা করছি ২০০৮ সালে ম্যানুয়াল পাসপোর্টের সুযোগে ভিন্ননামে দেশ ছেড়েছিলেন তিনি। বিদেশে গিয়েও তিনি দু’বার নাম পরিরিবর্তন করেন।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

মাহফিল থেকে ফেরার পথে যুবককে পিটিয়ে হত্যা

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি:

মাহফিল থেকে ফেরার পথে যুবককে পিটিয়ে হত্যা

ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার আমিরাবাড়ি ইউনিয়নের নারায়নপুর গ্রামে বিল্লাল হোসেনকে (২৪) পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মোবাইল চুরির অপবাদে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে। 

জানা যায়, শুক্রবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে উপজেলার আমিরাবাড়ি ইউনিয়নের কাশিগঞ্জ বাজারে ধর্মীয় মাহফিল থেকে ফেরার পথে তাকে হত্যা করা হয়। পরে ৯৯৯ ফোন করলে পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে। উপজেলার আমিরাবাড়ি ইউনিয়নের আবুল কাশেমের ছেলে বিল্লাল হোসেন পেশায় দিন মজুরের কাজ করত। তার তিন বছরের ছেলে ও অন্তসত্ত্বা স্ত্রী রেখে গেছেন।


চরমোনাই মাহফিল থেকে ফেরার পথে দুই নৌকা ডুবি

চুয়াডাঙ্গায় নারীর রহস্যজন মৃত্যু, শাশুড়ি আটক

অতিরিক্ত পাথর বোঝাই ট্রাকের চাপে বেইলী ব্রিজ ভেঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন

অন্য পুরুষের সাথে সম্পর্ক নিয়ে সন্দেহ, স্ত্রীকে খুন


মৃত বিল্লাল হোসেনের পিতা আবুল কাশেম জানান, গত ১০/১৫ দিন আগে আব্দুল কাদের মুন্সির ছেলে রোমানের মোবাইল ফোন চুরি হয়। সে আমার ছেলেকে সন্দেহ করে ঐ শত্রুতার জের ধরে রোমান, ফরিদ, সাদিকুল, নাজমূল তাকে পিটিয়ে হত্যা করে। আমি ছেলে হত্যার বিচার চাই।

ত্রিশাল থানার ওসি মাহমুদুল ইসলাম জানান, মৃত বিল্লাল হোসেনের বিরুদ্ধে থানায় চুরি, মাদক, নারী নির্যাতনের মামলা রয়েছে। মৃত বিল্লাল হোসেনের বোন হাসিনা আক্তার বাদী হয়ে মামলা দায়ের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

শিশু গৃহকর্মী নির্যাতন: চিকিৎসক ও তার স্ত্রীসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে বরিশালে মামলা

রাহাত খান, বরিশাল

শিশু গৃহকর্মী নির্যাতন: চিকিৎসক ও তার স্ত্রীসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে বরিশালে মামলা

ঢাকায় শিশু গৃহকর্মী নিপা বাড়ৈ (১১) নির্যাতনের ঘটনায় গৃহকর্তা ঢাকার জাতীয় পঙ্গু হাসপাতালের অর্থপেডিক্স ও ট্রমা বিশেষজ্ঞ ডা. সিএইএস রবিন, তার স্ত্রী রাখি দাস এবং তাদের সহযোগী বাসু দেবসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে বরিশালে মামলা দায়ের হয়েছে।

শিশুটির চাচা তপন বাড়ৈ বাদী হয়ে আজ শনিবার সকালে শিশু নির্যাতন দমন আইনে বরিশালের উজিরপুর থানায় এই মামলা দায়ের করেন। এই তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন উজিরপুর থানার ওসি জিয়াউল আহসান। মামলার আসামীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানিয়েছেন ওসি।

শিশু নিপা বাড়ৈ (১১) উজিরপুরের জামবাড়ি এলাকার মানসিক প্রতিবন্ধি ননী বাড়ৈর মেয়ে। তার মা ২ বছর আগে অন্যত্র বিয়ে করে। ২ বোন ও এক ভাইয়ের মধ্যে নিপা মেঝ। 

অভাবের সংসারে বেঁচে থাকার জন্য গত ৬ মাস আগে ঢাকার জাতীয় পঙ্গু হাসপাতালের অর্থপেডিক্স ও ট্রমা বিশেষজ্ঞ ডা. সিএইএস রবিনের শ্যামলীর বাসায় গৃহপরিচারিকার কাজ শুরু করে নিপা। এরপর বিভিন্ন সময় চিকিৎকের স্ত্রী রাখি দাস নানা অজুহাতে তার উপর শারীরিক নির্যাতন করতো। কখনও গরম খুতির ছ্যাকা, কখনও ছুরির খোঁচা আবার কখনও দেয়ালে ঠোকা হতো তার মাথা।

আরও পড়ুন:


হত্যাচেষ্টার অভিযোগ এনে আতঙ্কিত বুবলীর থানায় জিডি

আলজাজিরার প্রতিবেদন নিয়ে চিন্তার কিছু নেই: প্রধানমন্ত্রী

কেউ অসুস্থ হয়ে মারা গেলে কি করার আছে?: প্রধানমন্ত্রী

মিছিল থেকে গ্রেপ্তার সাতজনের বিরুদ্ধে পুলিশের ‘হত্যাচেষ্টা’ মামলা


কখনও তার গলা চেপে শ্বাস রোধ করার চেষ্টা করতো গৃহকর্তার স্ত্রী। অব্যাহত নির্যাতনে সে গুরুতর অসুস্থ্য হয়ে পড়লে নির্যাতনকারী লোক মারফত গত (২৪ ফেব্রুয়ারি) বুধবার সন্ধ্যায় তাকে ঢাকা থেকে উজিরপুরের জামবাড়ি তার গ্রামের বাড়ির কাছে একটি দোকানের সামনে ফেলে যায়।

পুলিশ তাকে উদ্ধার করে ওই রাতেই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। পরদিন বৃহস্পতিবার রাতেই তাকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে যাওয়ার চেস্টা করে তার স্বজনরা। কিন্তু শিশুটি অসুস্থ্য থাকায় চিকিৎসকরা তাকে ছাড়পত্র দিতে রাজী হচ্ছিলেন না। শুক্রবার ভোররাতে শিশুটিকে নিয়ে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে লাপাত্তা হয় তার স্বজনরা।

এ ঘটনায় শুক্রবার সকাল ১১টায় উজিরপুর থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করেন উজিরপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. মো. শামসুদ্দোহা তৌহিদ। নিখোঁজের ২৩ ঘন্টা পর আজ শনিবার ভোর ৪টার দিকে পাশবর্তী আগৈলঝাড়া উপজেলার আশোয়ার গ্রামের জনৈক বিমলের বাড়ি থেকে তাকে উদ্ধার করে পুলিশ। পরে নিপাকে পুলিশ হেফাজতে নিয়ে এই মামলা রুজু করে পুলিশ।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

পিতার স্পর্শকাতর স্থান চেপে ধরল ছেলে, বাবার মৃত্যু

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি:

পিতার স্পর্শকাতর স্থান চেপে ধরল ছেলে, বাবার মৃত্যু

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার রানীহাটি ইউনিয়নের রামচন্দ্রপুর হাট এলাকায় বখাটে ছেলে সুজনের (২৫) হাতে পিতা তরিকুল ইসলাম (৫৫) খুন হয়েছেন। নিহত তরিকুল ইসলাম হচ্ছেন একই এলাকার মৃত আহসান আলীর ছেলে। 

ঘটনাটি ঘটেছে আজ শনিবার বিকেল ৩টার দিকে তরিকুল ইসলামের নিজ বাড়িতে। পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে। 


চরমোনাই মাহফিল থেকে ফেরার পথে দুই নৌকা ডুবি

চুয়াডাঙ্গায় নারীর রহস্যজন মৃত্যু, শাশুড়ি আটক

অতিরিক্ত পাথর বোঝাই ট্রাকের চাপে বেইলী ব্রিজ ভেঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন

অন্য পুরুষের সাথে সম্পর্ক নিয়ে সন্দেহ, স্ত্রীকে খুন


স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, তরিকুল ইসলামের বখাটে ছেলে সুজন তার পিতা তরিকুল ইসলামের কাছে ট্রলি কেনার জন্য টাকা চাইলে তিনি টাকা দিতে অপারগতা স্বীকার করেন। এ নিয়ে বিকেল ৩টার দিকে সুজন তার পিতার সাথে বচসায় জড়িয়ে পড়ে। একপর্যায়ে সুজন তার পিতার স্পর্শকাতর স্থান চেপে ধরলে তরিকুল অজ্ঞান হয়ে পড়েন। 

এ সময় তাকে পানি পান করানো হলে তিনি মুত্যুকোলে ঢলে পড়েন। খবর পেয়ে সদর মডেল থানা পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করে। সদর মডেল থানার ওসি মো. মোজাফ্ফর হোসেন মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পাওয়া গেলে মৃত্যুর কারণ জানা যাবে। তবে সুজন পলাতক রয়েছে।

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

দুই বোনের সঙ্গে এক প্রেমিকের শারীরিক সম্পর্ক অতঃপর...

অনলাইন ডেস্ক

দুই বোনের সঙ্গে এক প্রেমিকের শারীরিক সম্পর্ক অতঃপর...

প্রতীকী ছবি

দুই বোনের প্রেমিক ছিলেন একজন। পরবর্তীতে প্রেমিকের প্রতরণার বিষয়টি বুঝতে পেরে দুই বোন আত্মহত্যা করে। রংপুরে খালাতো দুই বোনের আত্মহত্যার তিন বছর পর প্রকৃত রহস্য উদঘাটন করেছে পিবিআই (পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন)।

পিবিআই-এর তদন্তে জানা যায়, খালাতো দুই বোন সাদিয়া জান্নাতি ও লৎফুন্নাহার খাতুনের সঙ্গে প্রতিবেশী মেরাজুল নামের এক যুবকের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বিয়ের প্রলোভন দিয়ে দুজনের সঙ্গেই শারীরিক সম্পর্ক করেন মেরাজুল। পরে প্রতারণার বিষয়টি বুজতে পেরে একই সঙ্গে বিষপান করে আত্মহত্যা করে জান্নাতি ও লুৎফুন্নাহার। এ ঘটনায় মেরাজুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করেছে পিবিআই।


চরমোনাই মাহফিল থেকে ফেরার পথে দুই নৌকা ডুবি

চুয়াডাঙ্গায় নারীর রহস্যজন মৃত্যু, শাশুড়ি আটক

অতিরিক্ত পাথর বোঝাই ট্রাকের চাপে বেইলী ব্রিজ ভেঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন

অন্য পুরুষের সাথে সম্পর্ক নিয়ে সন্দেহ, স্ত্রীকে খুন


পিবিআই রংপুরের পুলিশ সুপার জাকির হোসেন জানান, ওই ঘটনায় মেরাজুল ইসলাম নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) তিনি আদালতের কাছে দোষ স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছেন। জবানবন্দিতে ত্রিভূজ প্রেমের করুণ পরিণতির এ ঘটনা উঠে আসে।

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

পুলিশের অভিযানে সাত চোরাই মোটরসাইকেলসহ চার জন গ্রেপ্তার

শেখ সফিউদ্দিন জিন্নাহ্, গাজীপুর

পুলিশের অভিযানে সাত চোরাই মোটরসাইকেলসহ চার জন গ্রেপ্তার

গাজীপুরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে পুলিশ সতটি চোরাই মটারসাইকেল উদ্ধার করেছে। এসময় চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে আইনশৃঙ্খলাবাহিনী। 

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো, ঢাকার আশুলিয়া থানার উত্তর গাজীর চট এলাকার সামু মিয়ার ছেলে দূর্জয় ওরফে সুজন (২৮), লক্ষীপুরের রায়পুর থানার মধ্য কেরুয়া এলাকার ইলয়াস ওরফে জহির আলমের ছেলে মো. হারুন অর রশিদ (৩৫), তার ভাই মো. আল আমিন (৩০) এবং নরসিংদীর রায়পুর থানার হাসনাবাদ এলাকার মো. হেলাল মিয়ার ছেলে মো. রাজীব (২০)।


 

৮ মাসের মধ্যে স্বর্ণের দাম সর্বনিম্ন

‘নিষেধাজ্ঞা না তুললে আইএইএ’র ক্যামেরা খুলে ফেলা হবে’

পানির নিচের অভিজ্ঞতা শেয়ার করলেন টাইটানিকের সেই নায়িকা

কে এই রূপবতী তুলসী, যার গানের ভিউ ১০ কোটি ছাড়ালো (ভিডিও)


গাজীপুর জিএমপি কোনাবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ আবু সিদ্দিক জানান, ২২ ফেব্রুয়ারি কোনাবাড়ি বিসিক এলাকায় একটি মোটরসাইকেল চুরির মামলার তদন্ত করতে গিয়ে গত তিনদিন অভিযান চালিয়ে থানার উপ-পরিদর্শক মোঃ শাখাওয়াত ইমতিয়াজ চারজনকে গ্রেপ্তার করে। 

পরে তাদের দেয়া তথ্যমতে গাজীপুরের কাশিমপুর, কালিয়াকৈর, শ্রীপুর, ঢাকার আশুলিয়া, ময়মনসিংহের ভালুকা ও ফুলবাড়িয়া এলাকায় অভিযান চালানো হয় এবং তাদের হেফাজত থেকে সাতটি চোরাই মোটর সাইকেল উদ্ধার করা হয়।

news24bd.tv/আয়শা
 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর