চট্টগ্রামে আওয়ামী লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

অনলাইন ডেস্ক

চট্টগ্রামে আওয়ামী লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় এক আওয়ামী লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। গতকাল বুধবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে এ হামলার ঘটনা ঘটে। নিহত আওয়ামী লীগ নেতার নাম বেলাল উদ্দিন (৪৫)। তিনি উপজেলার খাগরিয়া ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ড নেতা।

বেলাল খাগরিয়ার মোহাম্মদ খালীর হাকিম আলী বাপের বাড়ির মৃত আব্দুল করিমের ছেলে। তিনি খাগড়াছড়ির পানছড়ি উপজেলায় ব্যবসা করতেন।

জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরেই খাগরিয়া ইউনিয়নের তৈয়ারপুর এবং নূর মার্কেট এলাকার দুপক্ষের মধ্যে বিরোধ। এমনকি একে অপরের এলাকায় আসা-যাওয়াও বন্ধ ছিল। আধিপত্য বিস্তার নিয়ে হামলা পাল্টা-হামলার ঘটনাও ঘটে।

গতকাল বুধবার রাতে বেলাল উদ্দিন তৈয়ারপুর এলাকায় শ্বশুরবাড়ি গেলে প্রতিপক্ষের লোকজন তাকে একা পেয়ে হামলা করে পিটিয়ে-কুপিয়ে জখম করে।

পরে উদ্ধার করে প্রথমে দোহাজারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও রাত ২টার দিকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে আনা হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।


তামিমার পাসপোর্ট আসল কিনা মুখ খুললেন নাসিরের সাবেক প্রেমিকা

একসাথে রাম চরণ ও কোরিয়ান নায়িকা সুজি!

রাজধানীর যেসব এলাকায় গ্যাস থাকবে না আজ

পিলখানা হত্যা: শহীদদের সমাধিতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা


চমেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) আলাউদ্দিন তালুকদার বলেন, বেলালের শরীরের একাধিক স্থানে কোপানোর চিহ্ন ও জখম রয়েছে।    

তবে এখনও কেউ মামলা করেনি। এ ব্যাপারে আইনগত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে জানান সাতকানিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন।

তিনি বলেন, খাগরিয়া ইউনিয়নে হামলার ঘটনায় একজন নিহত হয়েছেন। হামলার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে একজনকে আটক করা হয়েছে।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

মুন্সীগঞ্জে দুই গ্রামে গোলাগুলি ও সংঘর্ষে দুইজন গুলিবিদ্ধ

অনলাইন ডেস্ক

মুন্সীগঞ্জে দুই গ্রামে গোলাগুলি ও সংঘর্ষে দুইজন গুলিবিদ্ধ

মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার ছোট মোল্লাকান্দি ও খাসকান্দি গ্রামের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে দুইজন গুলিবিদ্ধসহ সাতজন আহত হয়েছেন। দফায় দফায় সংঘর্ষে ব্যাপক ককটেল ও গুলিবর্ষণ হয়েছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

গুলিবিদ্ধ আনোয়ার (২২) ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ও সুজনকে (১৯) মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহত মো. রুবেল (২২) নামে এক যুবককে পুলিশ আটক করেছে বলে জানা গেছে। অপর আহতদের নাম পরিচয় জানা যায়নি। তবে আহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে ধারণা করছে এলাকাবাসী।

জানা গেছে, চর কেওয়ার ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আফসার উদ্দিন ভূঁইয়া ও বর্তমান চেয়ারম্যান আখতারুজ্জামান জীবন গ্রুপের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে।

শুক্রবার (২৩ এপ্রিল) বিকেল থেকে থেমে থেমে বেশ কয়েকটি স্থানে ককটেল বিস্ফোরণ, গোলাগুলি ও বাড়ি ঘর ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে।

মুন্সীগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মিনহাজুল ইসলাম বলেন, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে উপজেলার ছোট মোল্লাকান্দি ও খাসকান্দি গ্রামের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। 

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি) আবু বক্কর সিদ্দিক জানান, ঘটনাস্থলে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন আছে। পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য একজনকে আটক করেছে।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

থানা থেকে পালিয়ে আবারও পুলিশের হাতে ধরা আসামি

অনলাইন ডেস্ক

থানা থেকে পালিয়ে আবারও পুলিশের হাতে ধরা আসামি

মোটরসাইকেল চুরির মামলার আসামী শাহজালাল ইসলাম (৩২)কে আটক করে থানায় নিয়ে আসে রংপুরের পীরগাছা থানা পুলিশ। কিন্তু আটকের পর থানা থেকে পালিয়ে যায় শাহজালাল। 

শুক্রবার (২৩ এপ্রিল) দুপুর ১টার দিকে পীরগাছা থানা থেকে ওই আসামিকে আদালতে পাঠানোর সময় এ ঘটনা ঘটে।

কিন্তু পালিয়েও শেষ রক্ষা হয়নি শাহজালাল ইসলামের। পালানোর তিন ঘন্টা পর আবারও তাকে আটক করে পুলিশ।

পীরগাছা থানা পুলিশ জানায়, শুক্রবার ভোরে পীরগাছা উপজেলার পারুল এলাকা থেকে মোটরসাইকেল চুরির মামলায় শাহজালাল ও শরিফুল নামের দুইজনকে আটক করে পুলিশ। পরে দুপুর ১টার দিকে পীরগাছা থানা থেকে আটকদের জেলহাজতে পাঠানোর জন্য প্রস্তুতি নেওয়া হয়। এ সময় দুই আসামিকে একটি হ্যান্ডকাপ লাগানো হয়। কিন্তু শাহজালালের হাতে থাকা হ্যান্ডকাপটি লুজ থাকায় সবার অজান্তে হ্যান্ডকাপ খুলে পালিয়ে যান তিনি। পরে তিন ঘণ্টা অভিযান চালিয়ে পীরগাছা উপজেলার কদমতলা নামক স্থান থেকে তাকে আটক করা হয়।

পীরগাছা থানার ওসি (তদন্ত) শাহীনুর ইসলাম তালুকদার বলেন, হ্যান্ডকাপ লুজ থাকায় হাত খুলে আসামি শাহজালাল পালিয়ে যায়। পরে তাকে অভিযান চালিয়ে আবার আটক করা হয়েছে।

শাহজালাল ইসলাম রংপুর জেলার পীরগঞ্জ উপজেলার মির্জাপুর গ্রামের ছাইফুল ইসলামের ছেলে।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

কোর্টের হাজতখানায় স্বামীকে ইয়াবা দিতে গিয়ে ধরা স্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

কোর্টের হাজতখানায় স্বামীকে ইয়াবা দিতে গিয়ে ধরা স্ত্রী

দিনাজপুরের পুলিশ কোর্টের হাজতখানায় আনা হয় চুরির মামলার আসামি মিলন রহমান (২৭)কে। সেখানে তার স্ত্রী রুজিনা বেগম রিক্তা স্বামীকে খাবারের সঙ্গে ১৬ পিস ইয়াবা দেওয়ার সময় পুলিশের কাছে গ্রেফতার হন। ঘটনাটি ঘঠেছে বৃহস্পতিবার দিনাজপুরের পুলিশ কোর্টের হাজতখানায়।

পুলিশ জানিয়েছে, হাজতখানায় স্বামীকে শুকনা খাবারের সঙ্গে ইয়াবা দেওয়ার সময় পুলিশের হাতে গ্রেফতান হন রিক্তা।হাজতখানায় ইয়াবা দেওয়ার অভিযোগে পুলিশ বাদী হয়ে মাদক আইনে কোতয়ালি থানায় মামলা দায়ের করেছে  তার বিরুদ্ধে। 

কোতয়ালি থানার ওসি আবু ইমাম জাফর গণমাধ্যমকে জানান, একটি চুরি মামলার আসামি মিলন রহমান (২৭) পুলিশ কোর্টের হাজতখানায় নিয়ে আসা হয়। এ সময় তার স্ত্রী রুজিনা বেগম রিক্তা শুকনা খাবার দেওয়ার জন্য পুলিশের কাছে যান। হাজতখানায় ডিউটিতে থাকা পুলিশ ওই শুকনা খাবার দিতে না চাইলে রুজিনা কোর্ট পুলিশ পরিদর্শক শফিকুল ইসলামের কাছে যান এবং তার স্বামীকে খাবার দেওয়ার জন্য অনুরোধ জানান। এ সময় শুকনা খাবারগুলো যাচাই করতে গিয়ে তার মধ্যে ১৬ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট পাওয়া যাওয়া। 

ওসি আরও জানান, এই ঘটনায় রুজিনাকে ডিবি পুলিশের নিকট হস্তান্তর করা হয়। ডিবি পুলিশের এসআই আলমগীর হোসেন বাদী হয়ে কোতয়ালি থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। রুজিনাকে দুপুর আড়াইটার দিকে সিনিয়ার জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইসলমাইল হোসেনের আদালতে হাজির করা হয়। বিচারক তার জবানবন্দি গ্রহণ করে বিকেল ৪টায় জেলহাজতে প্রেরণ করেন।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

রাজশাহীতে নকল ওষুধ জব্দ, আটক ১

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী

রাজশাহীতে নকল ওষুধ জব্দ, আটক ১

রাজশাহীর চন্দিমা থানা এলাকা থেকে বিপুল পরিমাণ বিভিন্ন কোম্পানীর নকল ওষুধ জব্দ করেছে ডিবি পুলিশ। শুক্রবার রাত ৮টার দিকে পুলিশ এই অভিযান চালায়। দীর্ঘদিন ধরে বাড়িটিতে নকল ওষুধ তৈরি করা হতো।


লকডাউনে শপিংমলে যেতে লাগবে মুভমেন্ট পাস

মালয়েশিয়ায় অবৈধ অভিবাসীদের বৈধ হওয়ার সুযোগ

করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত কমল চট্টগ্রামে

হিরো আলম বললেন, এইটা মরুভূমি না, যমুনা নদীর চর


এ ঘটনায় জড়িত থাকায় পুলিশ আনিস নামের একজনকে আটক করেছে।

পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে আনিস জানিয়েছে, নকল ওষুধগুলো বিভিন্ন উপজেলা পর্যায়ের ফার্মেসিগুলোতে সরবরাহ করতো।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে তিন লাশ, মিলল রক্তাক্ত ধারাল অস্ত্র

অনলাইন ডেস্ক

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে তিন লাশ, মিলল রক্তাক্ত ধারাল অস্ত্র

কক্সবাজারের উখিয়া আশ্রয় শিবিরে স্বামী, স্ত্রী ও শ্যালিকার রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন)।

শুক্রবার (২৩ এপ্রিল) সন্ধ্যায় উখিয়ার বালুর মাঠ ক্যাম্প থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

তারা হলেন- কুতুপালং মেগা ক্যাম্পের ২/ইস্ট ক্যাম্পের ডি-৭ ব্লকের আলী হোসেনের ছেলে নুরুল ইসলাম (৩২), নুরুলের স্ত্রী মরিয়ম বেগম (২৬) ও শ্যালিকা হালিমা খাতুন (২২)।

এ তথ্য নিশ্চিত করে ১৪ এপিবিএন এর অধিনায়ক মো. নাঈমুল হক বলেন, উখিয়ার বালুর মাঠ ক্যাম্প এলাকার একটি ঘর থেকে স্বামী-স্ত্রী ও শ্যালিকার রক্তাক্ত মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।


লকডাউনে শপিংমলে যেতে লাগবে মুভমেন্ট পাস

মালয়েশিয়ায় অবৈধ অভিবাসীদের বৈধ হওয়ার সুযোগ

করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত কমল চট্টগ্রামে

হিরো আলম বললেন, এইটা মরুভূমি না, যমুনা নদীর চর


প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে পারিবারিক কলহের জেরে এ হত্যার ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাস্থল থেকে রক্তাক্ত ধারাল অস্ত্রও উদ্ধার করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে উখিয়ার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহমেদ সঞ্জুর মোরশেদ বলেন, উখিয়ার আশ্রয় শিবিরে একটি হত্যাকাণ্ডের সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে রওনা হয়েছি।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর