ঢাকায় আজ যেখানে যাবেন না

অনলাইন ডেস্ক

ঢাকায় আজ যেখানে যাবেন না

দিনের শুরুতেই পরিকল্পনা করে রেখেছেন এখানে যাবেন, সেখানে যাবেন। পরিকল্পনা মতই নির্দিষ্ট স্থানে ঠিকই গেলেন, কিন্তু গিয়ে দেখলেন তা বন্ধ। তখন মেজাজটা যে কত খারাপ হয় সেটা আর বলার ভাষা থাকে না। তাই জেনে নিন রাজধানীতে আজ শুক্রবার যে সব দর্শনীয় স্থান, এলাকা এবং মার্কেটগুলো বন্ধ থাকবে।

বন্ধ থাকবে যেসব এলাকা:
বাংলাবাজার, পাটুয়াটুলী, ফরাশগঞ্জ, শ্যামবাজার, জুরাইন, করিমউল্লাহবাগ, পোস্তগোলা, শ্যামপুর, মীরহাজীরবাগ, দোলাইপাড়, টিপু সুলতান রোড, ধূপখোলা, গেণ্ডারিয়া, দয়াগঞ্জ, স্বামীবাগ, ধোলাইখাল, জয়কালী মন্দির, যাত্রাবাড়ীর দক্ষিণ-পশ্চিম অংশ, ওয়ারী, আহসান মঞ্জিল, লালবাগ, কোতোয়ালী থানা, বংশাল, নবাবপুর, সদরঘাট, তাঁতীবাজার, লক্ষ্মীবাজার, শাঁখারী বাজার, চাঁনখারপুল, গুলিস্থানের দক্ষিণ অংশ।

বন্ধ থাকবে যেসব মার্কেট:

আজিমপুর সুপার মার্কেট, গুলিস্তান হকার্স মার্কেট, ফরাশগঞ্জ টিম্বার মার্কেট, শ্যামবাজার পাইকারি দোকান, সামাদ সুপার মার্কেট, রহমানিয়া সুপার মার্কেট, ইদ্রিস সুপার মার্কেট, দয়াগঞ্জ বাজার, ধূপখোলা মাঠ বাজার, চক বাজার, বাবু বাজার, নয়া বাজার, কাপ্তান বাজার, রাজধানী সুপার মার্কেট, দয়াগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন মার্কেট, ইসলামপুর কাপড়ের দোকান, ছোট কাঁটরা, বড় কাঁটারা হোলসেল মার্কেট, শারিফ ম্যানসন, ফুলবাড়িয়া মার্কেট, সান্দ্রা সুপার মার্কেট।


অভাব দুর হবে, বাড়বে ধন-সম্পদ যে আমলে

সূরা কাহাফ তিলাওয়াতে রয়েছে বিশেষ ফজিলত

করোনার ভ্যাকসিন গ্রহণে বাধা নেই ইসলামে

নামাজে মনোযোগী হওয়ার কৌশল


 

বন্ধ থাকবে যেসব দর্শনীয় স্থান:

সামরিক যাদুঘর: এটি বিজয় সরণিতে অবস্থিত। প্রতিদিন সকাল ১০টা ৩০ মিনিট থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত খোলা থাকে। বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার সাপ্তাহিক বন্ধ।

জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি যাদুঘর, আগারগাঁও: বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটির জন্য বন্ধ থাকে।  শনিবার থেকে বুধবার প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত খোলা থাকে। প্রবেশমূল্য জনপ্রতি ৫টাকা। এছাড়াও শনিবার এবং রোববার সন্ধ্যা ৬টা থেকে ১০ টাকার টিকেটের বিনিময়ে টেলিস্কোপে আকাশ পর্যবেক্ষণ করা যায়।

শিশু একাডেমী জাদুঘর: শুক্রবার ও শনিবার সাপ্তাহিক ছুটি। রোববার থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ৯ থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত খোলা থাকে।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

হেফাজতের সহকারী মহাসচিব গ্রেফতার

অনলাইন ডেস্ক

হেফাজতের সহকারী মহাসচিব গ্রেফতার

হেফাজতে ইসলামের সহকারী মহাসচিব এবং বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা জালালুদ্দীন আহমাদকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ।

শনিবার (১৭ এপ্রিল) দুপুরে তার নিজ বাসা মোহাম্মদপুর থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ডিবির যুগ্ম কমিশনার মো. মাহবুব আলম গণমাধ্যমকে বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে নাশকতা এবং হেফাজতের পুরনো মামলায় জালাল উদ্দিনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ নিয়ে হেফাজতের ৭ নেতাকে গ্রেপ্তার করেছে ডিবি।

news24bd.tv/আলী/

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

হেফাজতের কেন্দ্রীয় যুগ্ম-মহাসচিব গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক

হেফাজতের কেন্দ্রীয় যুগ্ম-মহাসচিব গ্রেফতার

হেফাজতের কেন্দ্রীয় যুগ্ম-মহাসচিব ও ঢাকা মহানগরীর সভাপতি জুনায়েদ আল হাবিবকে কিছুক্ষণ আগে বারিধারা মাদরাসা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

তাকে গ্রেফতারের এর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা বিভাগের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (প্রধান) এ কে এম হাফিজ আক্তার।

news24bd.tv/আলী/কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ছাত্রীকে অপহরণের পর বিয়ে, কারাগারে শিক্ষক

অনলাইন ডেস্ক

ছাত্রীকে অপহরণের পর বিয়ে, কারাগারে শিক্ষক

হিন্দু সম্প্রদায়ের এক কলেজছাত্রীকে ‘অপহরণের পর ধর্মান্তরিত করে বিয়ে’ করার অভিযোগে সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার এক মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এদিকে একটি সূত্র জানায়, এটি প্রধান শিক্ষক শামীম আহমেদের চতুর্থ বিয়ে। এ ঘটনায় তাকে স্কুল থেকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে।

শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) খুলনা জেলার ডুমুরিয়া এলাকা থেকে শামীম আহমেদকে গ্রেফতার করা হয়।  শামীম আহমেদ শ্যামনগর উপজেলার নুরনগরের আলী আহসান গাজীর ছেলে।

গত ৩ এপ্রিল প্রধান শিক্ষক শামীম আহমেদ কাটুনিয়া রাজবাড়ি ডিগ্রি কলেজের এইচএসসি ১ম বর্ষের এক শিক্ষার্থীকে অপহরণ করে।৭ই এপ্রিল ফেসবুকে প্রধান শিক্ষক শামীম আহমেদ ও ওই কলেজ ছাত্রীকে খুলনার এক নোটারি পাবলিকের কার্যালয়ে বসে ধর্মান্তরিত হওয়া ও বিয়ে সংক্রান্ত নন-জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর করছেন এমন ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে।

ওই রাতেই মেয়েটির বাবা শামীম আহমেদ এর বিরুদ্ধে শ্যামনগর থানায় মেয়েকে অপহরণ ও ধর্মান্তরিত করার অভিযোগে মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে খুলনার ডুমুরিয়া থেকে শামীম আহমেদকে গ্রেপ্তার ও অপহৃত কলেজ ছাত্রীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার দুপুরে শ্যামনগর থানায় সাংবাদিকদের বিফ্রিংকালে কালিগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ এমএম মোহাইমেনুর রশিদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

কাগজে মৃত আওয়াল ৯ বছর ঘুরেও জীবিত হতে পারেননি!

অনলাইন ডেস্ক

কাগজে মৃত আওয়াল ৯ বছর ঘুরেও জীবিত হতে পারেননি!

সাংবাদিক আব্দুল আওয়ালের বয়স এখন ৩১। কিন্ত গত ৯ বছর ধরে আব্দুল আওয়াল যে এখনও জীবিত সেটিই প্রমাণ করতে ঘুরতে হচ্ছে সরকারের এই দপ্তর থেকে ওই দপ্তরে। আব্দুল আওয়ালের জীবনের দুর্বিষহ দিনের শুরু ২০১২ সালের ভোটার তালিকা হালনাগাদ থেকে। সেই সময়ের ভোটার তালিকা হালনাগাদে আব্দুল আওয়ালকে মৃত উল্লেখ করা হয়। সেই থেকে  চাকরির আবেদনের পাশাপাশি সরকারি সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত হয়েছেন আব্দুল আওয়াল। এমনকি জাতীয় পরিচয়পত্রের জন্য করোনার টিকা পর্যন্ত দিতে পারেননি তিনি। এ নিয়ে খুবই দুর্বিষহ দিন অতিবাহিত করছেন তিনি।

আব্দুল আওয়াল নেত্রকোণার মদন পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের মৃত ফজলুর রহমানের ছেলে। তিনি ঢাকা থেকে প্রকাশিত একটি পত্রিকার প্রতিনিধি ও মদন উপজেলার করোনা বিষয়ক কমিটির সমন্বয়ক।

আওয়াল আক্ষেপ করে বলেন, নিজেকে জীবিত প্রমাণ করতে গত ৯ বছর ধরে আবেদন করে উপজেলার নির্বাচন অফিসে ঘুরছি। নির্বাচন অফিসাররা আশ্বাস দিলেও এখনও জীবিত হতে পারলাম না। আমি জানি না কবে জীবিত হতে পারব। 

২০১৪ সালে পৌরসভার মেয়রের কাছ থেকে আমি যে জীবিত আছি এ বিষয়ে একটি প্রত্যয়ন নিয়ে কোনোভাবে সাধারণ কাজ কর্ম করছি।

তিনি বলেন, আমি সরকারি আবেদনসহ কোনো ধরনের আবেদন করতে পারছি না। আমার সরকারি চাকরির বয়স শেষ হয়ে গেছে। আমার বাড়িটি খারিজ করা একান্ত প্রয়োজন। কিন্তু কিছুই করতে পারছি না। আমি আজ সমাজে জীবিত থাকলেও কাগজে মৃত আছি।

এ প্রসঙ্গে উপজেলা নির্বাচন অফিসার মো. হামিদ ইকবাল বলেন, ২০১২ সালে ভোটার তালিকা হালনাগাদের সময় তথ্য সংগ্রহকারী সাংবাদিক আওয়ালকে হয়তো মৃত উল্লেখ করেছেন। বিষয়টি খুবই দুঃখজনক।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

মাওলানা জুবায়ের আহমেদ গ্রেফতার

অনলাইন ডেস্ক

মাওলানা জুবায়ের আহমেদ গ্রেফতার

২০১৩ সালের শাপলা চত্বরে হেফাজতের অগ্নিসংযোগ ও হত্যাকাণ্ডের ঘটনার মামলায় গ্রেফতার করা হয়েছে হেফাজত ইসলামের ঢাকা মহানগর সহ-সভাপতি মাওলানা জুবায়ের আহমেদকে। শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) বিকেলে লালবাগের বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ।

ডিএমপির যুগ্ম কমিশনার (ডিবি) মাহবুব আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

 ২০১৩ সালে মতিঝিলের শাপলা চত্বরে হেফাজতের অগ্নিসংযোগ ও হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় হওয়া মামলায় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি আরও একটি মামলার আসামি। 

উল্লেখ্য, মাওলানা জুবায়েরসহ এখন পর্যন্ত হেফাজতের কেন্দ্রীয় সাতজন নেতাকে গ্রেফতার করা হলো। এর বাইরে বিভিন্ন জেলা-উপজেলা থেকেও শতাধিক নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর