মোবাইলে পরিচয়, দেখা করতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার কিশোরী
মোবাইলে পরিচয়, দেখা করতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার কিশোরী

মোবাইলে পরিচয়, দেখা করতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার কিশোরী

Other

ঠাকুরগাঁওয়ে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ১৫ বছর বয়সী এক তরুণীকে গণধর্ষণ করার আভিযোগ পাওয়া গেছে। রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারি) রাতে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের ভগদগাজী মুরগীর ফার্ম এর পাশে একটি আম বাগানে এ গণধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

গণধর্ষণের ঘটনায় ওই তরুণীর মা বাদী হয়ে ঠাকুরগাঁও সদর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন।  

এ মামলায় চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গ্রেপ্তাররা হলেন- রাণীশংকৈল উপজেলার উত্তর মহেশপুর গ্রামের আব্দুল জলিলের ছেলে বাবুল (১৯), একই এলাকার খলিলুর রহমানের ছেলে সোহেল রানা (২০), নুনতোর বাবুপাড়া গ্রামের শামসুদ্দীনের ছেলে রমজান আলী (১৯), ঝাড়বাড়ি মোহাম্মদপুর গ্রামের মোসলেম উদ্দীনের ছেলে পইদুল ইসলাম (২২)।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, এক মাস আগে ওই তরুণীর সাথে বাবু ওরফে বাবুলের মোবাইলে পরিচয় হয় এবং প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

পরে শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে তরুণী খালার বাসায় খাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে কাশিয়াডাঙ্গা ব্রিজে বাবুলের
সঙ্গে দেখা করতে যায়।

সেখানে আগে থেকে অপেক্ষারত বাবুল ও তার সহযোগী সোহেল সহ অপরিচিত ৪-৫ জন ওই তরুণী ও তার সাথে থাকা ভাতিজিকে অপহরণ করে নিয়ে যায়।


প্রতিদিন নতুন নারী লাগত তার, পরতেন ত্রিশ দিনে ৩০ সানগ্লাস

১৭ বছরের কিশোরীর পেটে ৪৮ সেন্টিমিটার লম্বা চুলের দলা

ছোট ভাই মাকে বলল,‘আপুকে পেছনের রুমে নিয়ে গেছে এক ভাইয়া

স্ত্রীকে সৌদি পাঠিয়ে ৮ বছরের মেয়েকে নিয়মিত ধর্ষণ করে বাবা

৬৬ নারীকে ধর্ষণ করেছে এক ‌‘ডেলিভারি বয়’


ভগদগাজী মুরগীর ফার্মে ওই তরুণীর ভাতিজিকে আটকে রেখে পাশের আম বাগানে বাবু ওরফে বাবুল ও তার সহযোগী সোহেল সহ অন্যরা ধর্ষণ করে।

ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি তানভিরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, অভিযোগ পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

মামলার তদন্ত চলছে, অন্য আসামিদের গ্রেপ্তার করতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

;