মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৯ | আপডেট ০২ মিনিট আগে

শুনানিতে যেসব প্রশ্নের উত্তর দিলেন জাকারবার্গ

নিউজ টোয়েন্টিফোর ডেস্ক

শুনানিতে যেসব প্রশ্নের উত্তর দিলেন জাকারবার্গ

তথ্য অপব্যবহারের ঘটনায় মার্কিন সিনেটে বেশ কয়েকটি প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা এবং প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গ।সেখানে তাকে সিনেট কমিটির সদস্য রয় ব্লান্ট কয়েকটি প্রশ্ন করেন। সেগুলোর উত্তর দিতে হয় জাকারবার্গকে। 

শুনানিতে রয় ব্লান্টের প্রথম এবং প্রধান প্রশ্ন ছিল, ফেসবুকে লগ ইন না করা অবস্থাতেও ডিভাইসের মাধ্যমে ব্যবহাকারীদের ট্র্যাক করা হয় কিনা?‌

প্রশ্নের উত্তরে জাকারবার্গ বলেন, মাননীয় সিনেটর, আমরা ব্যবহারকারীদের ডিভাইসের সঙ্গে অ্যাকাউন্টের সংযোগ ঘটাই। যাতে ডিভাইসের সঙ্গে ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম ও অন্যান্য প্ল্যাটফর্মের সিঙ্ক থাকে।

ব্লান্ট তাকে আবারও প্রশ্ন করেন, এর মধ্যে কী অফলাইন ডেটাও থাকে? অফলাইনের ডেটা ট্র্যাক করা তো ফেসবুকের জন্য জরুরি কিছু নয়!এতে জাকারবার্গ বলেন, এটা ঠিকভাবে বোঝাতে চাই। আমার টিম পরবর্তীতে আপনাকে বিস্তারিত জানাবে।

এটা আমার কাছে জটিল কিছু মনে হচ্ছে না। আপনি আমার চেয়ে এ বিষয়ে ভালো জানেন। তবে আপনি ব্যাখ্যা করতে পারেন, কেন বিষয়টি এতো জটিল? যারা ফেসবুক ব্যবহার করেন তাদের ডিভাইস কি ট্র্যাক করা হয়? ফেসবুকের সঙ্গে যুক্ত না থাকলেও কি ট্র্যাক করে তথ্য নেওয়া হয়?

এবার জাকারবার্গের জবাব, এই প্রশ্নের উত্তর আমি জানি না।

গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের সিভিল লিবার্টিজ ইউনিয়নের প্রযুক্তি বিষয়ক রিপোর্টার ড্যানিয়াল কান গ্লিমোর বলেছিলেন, সোশ্যাল মিডিয়ায় কোনো অ্যাকাউন্ট না থাকলেও ফেসবুক তার তথ্য নিয়েছে।বিষয়টি সামনে এনে শুনানিতে সিনেটর ডিক ডারবিন জাকারবার্গের কাছে জানতে চান, ‘জাকারবার্গ, আপনি কী আমাদের বলবেন গত রাতে আপনি ওয়াশিংটনের কোন হোটেলে উঠেছিলেন?

এ প্রশ্নের জবাবে জাকারবার্গ বলেন, না। জনসম্মুখে এটা বলা যাবে না।উত্তর শুনে ডারবিন বলেন, এটাই হলো মূল কথা। আপনার গোপনীয়তা রক্ষার অধিকার রয়েছে। আপনার গোপনীয়তা রক্ষার একটা সীমাবদ্ধতাও আছে। 

তাহলে আপনি কিভাবে আধুনিক আমেরিকায় বলছেন, ‘পুরো বিশ্বের মানুষকে এক করবেন?’

সূত্র: ওয়াশিংটন পোস্ট     •      অরিন/নিউজ টোয়েন্টিফোর

মন্তব্য