মুক্তিযুদ্ধের জন্য নিবেদিতপ্রাণ এক সংগঠক শরীফ নুরুল আম্বিয়া

মুক্তিযুদ্ধের জন্য নিবেদিতপ্রাণ এক সংগঠক শরীফ নুরুল আম্বিয়া

Other

আজ অগ্নিঝরা মার্চের চতুর্থ দিন। ১৯৭১ সালের এই মাসে দেশের নানা প্রান্তে চলে বাঙালীকে সংগঠিত করে তোলার কাজ। কারণ দিন যতই যাচ্ছিল এক দফার দাবি অর্থাৎ স্বাধীনতার আকাঙ্খার তীব্রতা ততই বৃদ্ধি পাচ্ছিল। এসময় যারা নিবেদিতপ্রাণ হয়ে কাজ করেছেন বাঙালির স্বাধীনতার জন্য তাদেরই একজন শরীফ নুরুল আম্বিয়া।

নিউজ টোয়োন্টফোরের কাছে সেসময়ের স্মৃতিচারণ করেন মুক্তিযুদ্ধের এ সংগঠক।  

৪মার্চ ১৯৭১ দেশব্যাপী লাগাতার হরতালের তৃতীয় দিন। তবে এই দিন হরতাল ছিল আট ঘণ্টার। দ্রোহ-ক্ষোভে বঞ্চিত শোষিত বাঙালি তখন ক্রমেই ফুঁসে উঠছিল ঔপনিবেশিক পাকিস্তানি শাসক-শোষকদের বিরুদ্ধে। সারাদেশ ছিলো বাঙালির মিছিলে মিছিলে ঝাঁঝাল স্লোগানে মুখরিত।

news24bd.tv

সারা দেশের বিভিন্নপ্রান্তে তখন চলছিলো মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণের প্রস্তুতি। বসেছিলেন না পাকিস্তানী বাহিনীও। কারফিউ দিয়েও সামরিক জান্তারা সাহসী বীর বাঙালিদের ঘরে আটকে রাখতে না পেরে গোপনে আটতে থাকে নির্মম ও নিষ্ঠুরভাবে বাঙালী নিধনের পরিকল্পনা।


বিতর নামাজে দোয়া কুনুতের গুরুত্ব, উচ্চারণ ও অনুবাদ

নামাজের মধ্যে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ওয়াজিব ১৪টি কাজ

এইচ টি ইমামের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শোক

এইচ টি ইমাম আর নেই


 

মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক শরীফ নুরুল আম্বিয়া জানান কার্যত ৪ মার্চ পূর্ব বাংলায় ইয়াহিয়া-ভুট্টো নয়, চলছিল শেখ মুজিবের শাসন। বিস্তারিত না জানালেও ৭ মার্চেই আগেই বঙ্গবন্ধু বুঝিয়ে দিয়েছিলো আসছে অসহযোগ আন্দোলনের ডাক।

এসময় পূর্ব বাংলার ছাত্র সমাজও ছিলো বদ্ধ পরিকর লাল সবুজের পতাকা অর্জনের লড়াইয়ের জন্য।

বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রামে ছাত্র জনতার জীবনের ভয় তুচ্ছ করে ঝাঁপিয়ে পড়ার কথা আবারো স্মরণ করলেন অকুতোভয় এই মুক্তিযোদ্ধা।

news24bd.tv আয়শা