রাজশাহীতে আমের বাম্পার ফলনের আশা

কাজী শাহেদ, রাজশাহী

নানা ফুলের সঙ্গে সৌরভ ছড়াচ্ছে আমের মুকুল। আমের মুকুলের মিষ্টি ঘ্রাণে মৌ মৌ করছে প্রকৃতি। প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হলে ও সময়মতো গাছ পরিচর্যা করা হলে এবার আমের বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা দেখছেন ফল গবেষণা কেন্দ্র।

ফাগুনের মৃদু হাওয়ায় গাছে গাছে দোল খাচ্ছে আমের মুকুল। বাগানজুড়ে ফুটন্ত মুকুলের এই শোভা আশা জাগিয়েছে কৃষক মনে। কারণ ধানের পরই আমের উপর বেশি ভরসা রাজশাহী অঞ্চলের চাষিদের।

আমের মুকুলের মনকাড়া ঘ্রাণ মাতোয়ারা করেছে মানুষকে। রাজশাহী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, নাটোর ও নওগাঁর বাগানগুলোর গাছে মুকুল আসা শুরু হয়েছে। গাছের পুরো মুকুল ফুটতে আরও কয়েক সপ্তাহ লাগবে বলে জানিয়েছেন ফল গবেষকরা।


আবাসিক হোটেলে অনৈতিক কর্মকাণ্ড, ধরা ২০ নারী

চুমু দিয়ে নারীদের সব রোগ সারিয়ে দেন ‘চুমুবাবা’

বুবলিকে ধাক্কা দেওয়া গাড়িটি ছিল ব্ল্যাক পেপারে মোড়ানো, ছিল না নম্বর প্লেট

অস্ত্রের মুখে ছাত্রীকে বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণের পর দফায় দফায় ধর্ষণ

মেয়েকে তুলে নিয়ে মাকে রাত কাটানোর প্রস্তাব অপহরণকারীর

নাসির বিয়ে করেছেন আপনার খারাপ লাগে কেন?


আমের জন্য এখন আর, অফ ইয়ার বা অন ইয়ার নেই। গাছের পরিচর্যা করার কারণে প্রতি বছরই আমের ভালো ফলন পাওয়া যাচ্ছে। কৃষি বিভাগের পরামর্শে বাগান মালিকরাও পরিচর্যার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

ফল গবেষকের মতে, আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় এবার রাজশাহী অঞ্চলে আমের বাম্পার ফলন হবে। গতবছর ঘূর্ণিঝড় আম্ফান ও করোনার প্রভাবে যে ক্ষতি হয়েছিল, এবার তা পুষিয়ে ওঠা সম্ভব হবে।

রাজশাহী অঞ্চলের চার জেলায় এবার আমচাষ হচ্ছে প্রায় ৮২ হাজার হেক্টর জমিতে। আর উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৭ লাখ ৭৫ হাজার ৭০০ মেট্রিক টন।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

লকডাউনের কোন প্রভাব নেই রাজধানীতে

আরেফিন শাকিল

লকডাউনের কোন প্রভাব নেই রাজধানীতে

লকডাউনের কোন প্রভাব নেই রাজধানীতে। প্রথম ধাপের লকডাউনের শেষদিনে সড়কে ১০ গুণ যানবাহন বেড়েছে বলে জানান পুলিশ। বাস না চলায় ট্রাক, কারে নির্বিঘ্নে ঢাকায় আসা-যা্ওয়া করতে পারছে মানুষ। অপ্রয়োজনীয় পরিবহন আর মানুষ নিয়ন্ত্রণে সড়কে নেই প্রশাসনের কড়াকড়ি।  

লকডাউনের অষ্টম দিনে স্বাভাবিক দিনের ব্যস্ততা বিজয় স্মরণীতে।

রাস্তায় বের হ্ওয়া বেশিরভাগ মানুষ বেসরকারী অফিসের কর্মজীবি। জীবন আর জীবিকার তাগিদে সব আতঙ্ক আর উৎকন্ঠা মাড়িয়ে তাদের বের হতে হয়েছে সড়কে। জীবন যাদের আরো কঠিন নিম্ন আয়ের সেসব মানুষের পুলিশের মামলা পরোয়া না করেই সিএনজি, রিকশা কিংবা মটরসাইকেল নিয়ে যাত্রী পরিবহন করছেন দেদারছে। ফলে, দিনে দিনে লকডাউন হয়ে পড়েছে আরো অকার্যকর।

ঢিলেঢালা লকডাউনে বাস ছাড়া সড়কে চলছে সব পরিবহন। এ সুযোগে পিকআপ আর ভাড়াই চালিত কারে ঢাকায় আসছেন কিংবা জেলা সদরে যাচ্ছেন বহু মানুষ।

রাস্তায় অতিরিক্ত যানবাহন নিয়ন্ত্রণে আগের মতো নেই প্রশাসনের কড়াকড়ি। কয়েকটি সড়কে পুলিশের তল্লাশী চৌকি থাকলেও তা ছিলো রুটিন মাফিক। মটরসাইকেলে যাত্রী পরিবহন করায় এসময় কয়েকজনকে জরিমানা করা হয়।

এদিকে, নানা উদ্যোগের পরও দেশের বিভিন্ন স্থানে লকডাউনে মানুষকে ঘরবন্দী রাখতে পুলিশ।  কাজের সন্ধানে ছুটে চলা মানুষগুলোকে আটকাতে পারছে না কোনো বাধা। প্রধান সড়কগুলোতে পুলিশের শক্ত অবস্থান থাকলেও গলিপথে চলছে গণপরিবহন ছাড়া সবই। হাটবাজারে নেই সর্বাত্মক লকডাউনের কোনও চিত্র। দেদারছে চলছে বেচা-বিক্রি।  

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

হুইপ শামসুলের অরাজকতা, এখনো ধরা পড়েনি ব্যাংকার আত্মহত্যায় জড়িতরা

আলী তালুকদার

ক্যাসিনোকাণ্ডে অভিযুক্ত চট্টগ্রাম ১২ আসনের সংসদ সদস্য, হুইপ শামসুল হক চৌধুরীর অবৈধ সম্পদের তদন্ত করছে দুর্নীতি দমন কমিশন-দুদক। দুদকের একটি প্রভাবশালী সূত্র জানিয়েছে, তদন্ত প্রায় শেষ পর্যায়ে। শিগগিরই হুইপ শামসুলকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করা হতে পারে। এদিকে, ১২ দিন পার হলেও এখনও গ্রেপ্তার হয়নি চট্টগ্রামের ব্যাংক কর্মকর্তা মোর্শেদ চৌধুরীর আত্মহত্যার প্ররোচনাকারীরা। এ নিয়ে ক্ষোভ ও হতাশা প্রকাশ করেন ব্যাংকারের বিধবা স্ত্রী।

দেশের মানুষের কাছ থেকে এখনো কাসিনোকাণ্ডের স্মৃতি মুছে যায়নি। ক্ষমতার অপব্যবহার করে একদল মানুষ কিভাবে অবৈধ জুয়া, মদ ও নারী খেলায় মত্ত হয়েছিলো তা উঠে এসেছিলো প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় চালানো সেই কাসিনো বিরোধী সেই অভিযানে। সেই অভিযান চলাকালে দুর্নীতি দমন কমিশন কাসিনোর সাথে যুক্ত দুই শতাধিক ব্যক্তির তালিকা তৈরি করে।

সেই তালিকায় অভিযুক্ত হন চট্টগ্রামের সকল অপকর্মের সাথে প্রায়ই যার নাম উঠে আসে সেই হুইপ চট্টগ্রাম-১২ আসনের সংসদ সদস্য শামসুল হক চৌধুরী। ক্ষুব্ধ শামসুল সেই অভিযানের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে সরকারের কড়া সমালোচনা করেন। জুয়া পরিচালনাকারী ক্লাব চালানোর পক্ষে জোড়ালো অবস্থান নেন।

সে সময় শামসুল হক বলেন, কোন প্রশাসন কি তাদের পাঁচ টাকা বেতন দেয়? তাহলে তারা খেলে কিভাবে। টাকাটা কিভাবে আসে সরকার কি তাদের টাকা দেয়।

তবে নানা তৎপরতা চালানো পরেও দুদক তাকে ছাড়েনি। নিউজ টোয়েন্টিফোরের সাথে আলাপকালে দুদকের একটি সূত্র জানায়, হুইপ শামসুলের বিরুদ্ধে জ্ঞাত আয় বহির্ভূত অর্জন ও কাসিনোকাণ্ডে জড়িত থাকার তদন্ত অব্যাহত আছে। খুব শিগগিরিই তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করবে দুদক।

দুদক পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেন বলেন, হুইপ শামসুলের বিরুদ্ধে অনুসন্ধান চলমান আছে। কাসিনোকাণ্ডের সময় তার নাম আসায় দুদক তার বিষয়ে সকল অনুসন্ধান চলমান রেখেছে।

দুদক জানায়, চট্টগাম আবহনী ক্লাব থেকে শামসুল হক বিগত বছরগুলোতে শত শত কোটি টাকা আয় করেছেন অবৈধভাবে। বিভিন্ন ক্লাবে জুয়ার আসর বসানোতে অগ্রনী ভূমিকা ছিল তার। এছাড়া অবৈধভাবে বিভিন্ন জনের জায়গা জমি ও মসজিদ দখলের অভিযোগ আছে তার বিরুদ্ধে।

আরও পড়ুন


মান্নার উঠে আসার গল্প নিয়ে ইমরানের কণ্ঠে নতুন গান (ভিডিও)

আলেম-ওলামা নয়, তাণ্ডবের সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে: কাদের

করোনা মুক্ত আবুল হায়াত পুরোপুরি সুস্থ্য

সহিংসতায় জড়িত হেফাজতের কাউকেই ছাড়া হবে না: নানক


এদিকে ব্যাংক কর্মকর্তা মোরশেদ চৌধুরীর আত্মহত্যার ঘটনায় ১২ দিন পার হলেও কোন আসামী গ্রেপ্তায় হয়নি। ভিকটিমের স্ত্রী ইশরাত জাহানের অভিযোগ হুইপ শাসসুল হকের সুযোগ্য পুত্র চট্টগ্রামের সকল অপকর্মের সাথে যার নাম হরহামেশায় উঠে আসে সেই শারুন এই ঘটনার পেছনে মূল ইন্ধন দাতা। তার নির্দেশেই আসামি জাবেদ ইকবাল, পারভেজ ইকবাল, নাইমুদ্দিন সাকিব ও শহিদুল হক চৌধুরী রাসেল ব্যাংকার মোরশেদকে আত্মহত্যা করতে বাধ্য করেন।

ব্যাংকার মোরশেদের স্ত্রী বলেন. ওরা যদি উধাও হয়ে গিয়ে পরবর্তীতে আমাদের বিরুদ্ধে কোন ক্ষতি করতে পারে। আমাদের নিরাপত্তা তাহলে কে দেখবে।

এদিকে চট্টগ্রামের গোয়েন্দা পুলিশ বলছে, আসামিদের শিগগিরিই গ্রেপ্তার করা হবে। তবে চট্টগ্রাম নাগরিক সমাজের অভিমত শারুন গং রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে এখনো আসামিদের ধরা ছোঁয়ার বাইরে রেখেছে। এদের গ্রেপ্তার করে পুলিশকে নিরপেক্ষতার পরিচয় দিতে হবে বলেও অভিমত তাদের।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

২২ এপ্রিল থেকে ব্যবসা চালু করতে চায় দোকান মালিক সমিতি

নিজস্ব প্রতিবেদক

আগামী ২২ এপ্রিল থেকে আবারো ব্যবসা প্রতিষ্ঠান চালু করতে চায় বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতি। 

আজ দুপুরে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এই দাবি জানান সমিতির সভাপতি মো. হেলাল উদ্দিন। তিনি জানান, শ্রমিক কর্মচারীদের ২ মাসের বেতন ও উৎসব ভাতা প্রদানে প্রয়োজন সাড়ে ৯৬ হাজার কোটি টাকা। 

এ অবস্থায় আহবান জানান, ঈদের আগেই ৪৮ হাজার কোটি টাকা ঋণ প্রণোদনা হিসেবে দেয়ার। এসব দাবি বাস্তবায়নে প্রধানন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন সমিতির নেতারা। বলেন, দাবি বাস্তবায়ন না হলে মালিক ও কর্মচারীরা চরম আর্থিক সঙ্কটে পড়বে। এ অবস্থায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে জীবিকা রক্ষা করতে চায়, দোকান মালিকরা।

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

মামুনুল হককে গ্রেফতারের পর পুলিশের ব্রিফিং এর ভিডিও দেখুন

অনলাইন ডেস্ক

মামুনুল হককে গ্রেফতারের পর ব্রিফিং করেছে পুলিশ। সেখান থেকে লাইভে যুক্ত ছিলেন মৌ খন্দকার সেই ভিডিও দেখুন-

 

 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

করোনা বাধা হয়নি পদ্মাসেতুর কাজে, আগামী মার্চেই উদ্বোধনের আশা

প্লাবন রহমান

দেশব্যাপী করোনার ভয়াবহ বাস্তবতার মধ্যেও ভালভাবে এগুচ্ছে পদ্মা সেতু প্রকল্পের কাজ। প্রকল্পের প্রায় ৭০ ভাগ কর্মকর্তা-কর্মচারী করোনা ভ্যাকসিন নিয়েছেন। বাকীরা ভ্যাকসিন নেয়ার প্রক্রিয়ায় আছেন। 

করোনা বাধা হবে না বলেই আশা করছেন প্রকল্প পরিচালক। আর সেতু সচিবের আশা-২০২২ সালের মার্চেই উদ্বোধনের জন্য প্রস্তুত হবে পদ্মা সেতু। 

করোনা সঙ্গে বন্যা। দুই ধাক্কা সামলে দেশের অন্যতম সফল মেগা প্রকল্প পদ্মা সেতু। সব জটিলতা কাটিয়ে চলছে শেষ সময়ের কর্মযজ্ঞ- অপেক্ষা শুধু উদ্বোধনের।

আরও পড়ুন:


ইলিয়াস আলী গুম নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য মির্জা আব্বাসের

বাংলাদেশকে করোনার ৬০ লাখ ডোজ টিকা দিতে চীনের সিনোফার্ম : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

চট্টগ্রামে পুলিশ-শ্রমিক সংঘর্ষে নিহত বেড়ে ৫

দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়ে আজও ১০১ জনের মৃত্যু


করোনার শুরু থেকে এমন স্বাস্থ্যবিধি মেনেই চলছে কাজ। করোনা টেস্ট-কোয়ারেন্টিন-আলাদা স্বাস্থ্যসেবা ব্যবস্থার মধ্য দিয়েই এখন দৃশ্যমান স্বপ্নের সেতুর ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার। ভ্যাকসিনের আওতায় এসেছেন প্রকল্পের প্রায় ৭০ ভাগ কর্মকর্তা-কর্মচারী।

এরই মধ্যে মূল সেতুতে ৪ কিলোমিটারের বেশি রোড স্ল্যাব বসে গেছে। রোড স্ল্যাবের ওপর বসবে ৪ ইঞ্চি উচ্চতার পিচ। যা আসবে ইংল্যান্ড থেকে।

মূল সেতুর কাজ ৯৩ ভাগ শেষ। তবে নদী শাসনে কিছুটা পিছিয়ে- কাজ শেষ হয়েছে ৮২ ভাগ। প্রকল্প সংশ্লিষ্টদের আশা-২০২২ এর জুনের আগেই শেষ হবে প্রকল্পের কাজ।

২০২১ সালের জুনেই শেষ হওয়ার কথা ছিল পদ্মা সেতু প্রকল্পের মেয়াদ। কিন্তু করোনা-বন্যার কারণে বেড়েছে প্রকল্পের মেয়াদ। এখন নতুন লক্ষ্য ২০২২ সালের জুন। সংশ্লিষ্টদের আশা-তার আগেই যানবাহন চলাচলের উপযোগী হবে স্বপ্নের সেতু।

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর