কমেন্টের কারণ নিয়ে যা বললেন কবীর চৌধুরী তন্ময়
কমেন্টের কারণ নিয়ে যা বললেন কবীর চৌধুরী তন্ময়

কমেন্টের কারণ নিয়ে যা বললেন কবীর চৌধুরী তন্ময়

নিজস্ব প্রতিবেদক

হঠাৎ করেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তুমুল আলোচনা একজন ব্যক্তি। জাতীয় অনলাইন নিউজ পোর্টালগুলির সকল রাজনৈতিক নিউজের মন্তব্যর ঘরে দেখা যাচ্ছে একজনকে কমেন্ট করতে। যে কমেন্টে আবার পড়ছে হাজার হাজার লাইক।   ট্রল হচ্ছে তার এই কমেন্ট নিয়ে।

কিন্তু  নিরবতা ভেঙ্গে কমেন্টকারি সেই কবীর চৌধুরী তন্ময় এবার জানিয়েছেন কমেন্ট করার কারণ। এ বিষয়ে বিস্তারিত এ মাসে জানাবেন বলেও জানান তন্ময়।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফেসবুকে তন্ময় এক স্ট্যাটাসে জানান,

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন থাকাটা (অতি) জরুরী। বাতিলের পক্ষে আমি নই। আমাদের একটি বিশেষ কাজের অংশ থেকে আমাদের কিছু তিক্ত অভিজ্ঞতা আমরা খুব শীঘ্রই তুলে ধরবো। আমাদের যাচাই বাচাই চলছে। কিছু তথ্য প্রমাণ আপনাদের সামনে তুলে ধরবো। শ্রেণি, পেশা, বয়স, রাজনৈতিক দর্শন এবং নিছক মজার জায়গা থেকে একটিগোষ্ঠী বা মহল কি করতে পারে-আশাকরি অনেকেরই কিছু না কিছু অভিজ্ঞতা আছে।   তবে একটা কাজ করা যেতে পারে যেমন, দেশের বিজ্ঞ সাংবাদিক, অনলাইন অ্যাক্টিভস্ট, ব্লগারদের নিয়ে দীর্ঘ আলোচনার মাধ্যমে অপপ্রয়োগের বিষয়গুলো চিহ্নিত করা এবং গ্রেফতার ও জামিনের বিষয়গুলো নিয়ে এই আইনের ধারাগুলোতে কি সংযোজন বা সংশোধন করা যায়-আলোচনা হতে পারে।

এদিকে এই স্ট্যাটাস সিদ্ধার্থ দে নামক একজন মন্তব্য করেন, দাদা সব ঠিক আছে, তবে আপনি ভেরিফাইড আইডি থেকে জাতীয় নিউজফিডগুলোতে যে ধরনের মন্তব্য করেন সেটা দেখে আমি হতবাক..

তার প্রতি উত্তরে তন্ময় মন্তব্য করেন, এগুলোর বিস্তারিত তথ্য প্রমাণসহ জানতে পারবেন এ মাসেই।

news24bd.tv

কে এই কবীর চৌধুরী তন্ময় :
বাংলাদেশ অনলাইন অ্যাক্টিভিষ্ট ফোরাম (বোয়াফ) এর প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি  তিনি। ইতিহাস-ঐতিহ্য আর শিল্প-সংস্কৃতির কুমিল্লা শহরের ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের পাশে অবস্থিত চম্পক নগরে ১৯৮২ সালের ২০ জুলাই জন্ম গ্রহণ করেন। কবীর চৌধুরী তন্ময় মানবতাবিরোধী অপরাধীদের বিচারের দাবিতে রাজধানীর শাহবাগ গণজাগরণ মঞ্চের আন্দোলনে স্বক্রিয় ভূমিকা পালন করেন। বিভিন্ন ব্লগে লেখালেখি, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও প্রগতিশীল বিভিন্ন আন্দোলন-সংগ্রামে মাঠে-ময়দানে দেখা যায়। সাংবাদিকতার পাশাপাশি দেশীয় ও আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে তিনি নিয়মিত কলাম লিখছেন। মুক্তিযুদ্ধ বিষয় নিয়ে গবেষণা করছেন। লিখেছেন বেশ কয়েকটি বইও। তিনি জাতীয় দৈনিক ও অনলাইনগুলোতে নিয়মিত কলাম লিখছেন।  


অভাব দুর হবে, বাড়বে ধন-সম্পদ যে আমলে

সূরা কাহাফ তিলাওয়াতে রয়েছে বিশেষ ফজিলত

করোনার ভ্যাকসিন গ্রহণে বাধা নেই ইসলামে

নামাজে মনোযোগী হওয়ার কৌশল


বাবা এম এ খালেক চৌধুরী মহান মুক্তিযুদ্ধে পাকিস্তানী হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে অস্ত্র হাতে যুদ্ধ করেন। বড় কাকা সুজত আলী চৌধুরী স্বাধীনতাবিরোধী রাজাকার বাহিনীর হাতে নির্মমভাবে শহীদ হন, যাঁর মরদেহ তিঁনি ও তার পরিবার আজও খুঁজে পায়নি।

খুব ছোটকাল থেকেই সামাজিক সংগঠক, পাঠাগার স্থাপন ও ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে প্রগতিশীল মিছিলে নিজেকে স্বক্রীয় রাখেন। কুমিল্লা জেলা ছাত্রলীগের (কবির-মিঠু/লিয়াকত-বাবু) মাধ্যমে ছাত্র রাজনীতি শুরু করেন। তথাকথিত তত্ত্ববধায়ক সরকার ছাত্রলীগের রাজনীতি নিষিদ্ধের ষড়যন্ত্র করলে তখন ছাত্ররাজনীতি টিকিয়ে রাখার জন্য জেলা ছাত্রলীগের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ দিয়ে ছাত্রকল্যাণ পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে মাঠের রাজনীতিতেও স্বক্রীয় ভূমিকা পালন করেন।

২০১৩ সালে গণজাগরণ মঞ্চের প্রগতিশীল ও জাতি পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ, মুক্তিযোদ্ধা, মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস এবং স্বাধীনতার পক্ষে একঝাঁক ব্লগার, লেখক, গবেষক, সাংবাদিক ও অনলাইন অ্যাক্টিভিষ্টদের নিয়ে গঠিত বাংলাদেশ অনলাইন অ্যাক্টিভিষ্ট ফোরাম (বোয়াফ)-এর প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন।

পাশাপাশি উল্লেখযোগ্য- সম্মিলিত সংগ্রাম পরিষদ (৬৫টি সংগঠন নিয়ে সন্ত্রাস-জঙ্গি নির্মূল কমিটি) এর সমন্বয়ক, কুমিল্লা নাগরিক ঐক্য পরিষদ-এর সভাপতি, আলোকিত প্রতিবন্ধি-কেন্দ্রীয় কমিটি’র উপদেষ্টা, বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতি-কেন্দ্রীয় কমিটি’র উপদেষ্টা, এফবিসিসিআই’র (জেনারেল বডি) সদস্য, সস্প্রীতি বাংলাদেশ-এর সদস্য, রেডক্রিসেন্ট সোসাইটি’র সদস্য, বাংলাদেশ-ভারত সৈত্রী সমিতি’র আজীবন সদস্য-সহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতি সংগঠনের সাথে জড়িত আছেন।

স্ত্রী নাজমা আক্তার রোজী অবসরে গবেষণা, লেখালেখি করলেও পেশা ব্যবসা। স্কুলে পড়ুয়া একমাত্র কণ্যা তাশফিয়া কবীর তাসনীম নিয়ে তার পারিবারিক বলয়। বর্তমানে ঢাকায় স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন।

news24bd.tv/আলী