প্রতারণার যত কৌশল অভিনেত্রী স্বর্ণার!
প্রতারণার যত কৌশল অভিনেত্রী স্বর্ণার!

প্রতারণার যত কৌশল অভিনেত্রী স্বর্ণার!

অনলাইন ডেস্ক

প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ আত্মসাৎ, ব্ল্যাকমেইলের অভিযোগে মডেল ও অভিনেত্রী রোমানা ইসলাম স্বর্ণাকে গ্রেপ্তার করেছে মোহাম্মদপুর থানা পুলিশ।   রোমানা ইসলাম স্বর্ণা খাবারের মাধ্যমে চেতনানাশক ওষুধ খাইয়ে অজ্ঞান করে আপত্তিকর ছবি তোলার অভিযোগ করেছেন সৌদি প্রবাসী ব্যবসায়ী কামরুল হাসান। বৃহস্পতিবার (১১ মার্চ) এ অভিযোগ করেন কামরুল হাসান।

কামরুল হাসান বলেন, আমার খালাতো ভাইয়ের মাধ্যমে রোমানা ইসলাম স্বর্ণার সঙ্গে পরিচয় হয়।

এরপর ফেসবুকে সম্পর্ক। একপর্যায়ে স্বর্ণা আমাকে বলে সে অসহায়। ছেলের পড়াশুনার খরচ চালানোর মত টাকা নেই। মিডিয়াতে কাজ কর্ম হয় না। সব মিলে সে খারাপ অবস্থায় আছে। এমন পরিস্থিতিতে সে আমাকে একটা উবারে চালানোর জন্য গাড়ি কিনে দিতে বললে আমি ১৮ লক্ষ টাকা দিয়ে গাড়ি কিনে দিই।

তিনি বলেন, গাড়ি কিনে দেওয়ার পর স্বর্ণা আমাকে বলে তার ছেলের যাতায়াতের জন্য একটা মোটরসাইকেল দরকার। আমি সে টাকাটাও দেই এবং বলে আমাকে আস্তে আস্তে দেবে। এরপর আমাকে দুএকবার ২০-৩০ হাজার টাকা রিটার্ন করে আমার সঙ্গে ভালো সম্পর্ক স্থাপন করে।  

কামরুল বলেন, স্বর্ণা লালমাটিয়াতে তার এক আত্মীয়ের  একটি ফ্ল্যাট আছে বলে জানায়। যেটি অল্প মূল্য পাওয়া যাবে বলে সে আমাকে জানায়।   তার কথায় বিশ্বাস করে আমি তাকে ১ কোটি ৯০ লক্ষ টাকা দেই।

সৌদি আরব থেকে দেশে আসলে সে আমাকে ওদের বাসায় যাওয়ার দাওয়াত দিলে আমি ওই বাসায় যায়। বাসায় যাওয়ার পরে একপর্যায়ে সে আমাকে আটকে রাখে। খাবারের মাধ্যমে চেতনাশক ওষুধ খাইয়ে অজ্ঞান করে ফেলে। এরপর আমি সেন্সলেস হয়ে যায়। পরে আমাকে নগ্ন করে আমার খারাপ খারাপ ছবি তোলে এবং আমার স্ট্যাম্প নেয়। এরপর সে আমাকে বিয়ে করতে বাধ্য করে। বিয়ে না করলে এসব ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেয়। সম্মানহানির ভয়ে স্বর্ণাকে আমি বিয়ে করতে বাধ্য হই।

news24bd.tv

এ বিষয়ে মোহাম্মদপুর থানার ওসি আব্দুল লতিফ বলেন, সৌদি প্রবাসী সাবেক স্বামীর মামলায় রোমানা ইসলাম স্বর্ণাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শুক্রবার তাকে আদালতে পাঠানো হবে।

মোহাম্মদপুর জোনের অতিরিক্ত উপকমিশনার (এডিসি) মৃত্যুঞ্জয় দে সজল মামলার বাদীর বরাত দিয়ে বলেন, ‘২০১৯ সালের মার্চ মাসে তাদের বিয়ে হয়। সে সময় স্বর্ণা কাবিননামায় বিধবা বলে দাবি করেছিলেন। কিন্তু তার সংসার রয়েছে। চলতি বছরের শুরুর দিকে জুয়েলকে ডিভোর্স দেওয়া হয়েছে বলে স্বর্ণা তাকে জানান। তারপর জুয়েল দেশে ফিরে আসেন ফেব্রুয়ারি মাসে। কোনো উপায় না দেখে তিনি আজ মামলা করেছেন। ’


অভাব দুর হবে, বাড়বে ধন-সম্পদ যে আমলে

সূরা কাহাফ তিলাওয়াতে রয়েছে বিশেষ ফজিলত

করোনার ভ্যাকসিন গ্রহণে বাধা নেই ইসলামে

নামাজে মনোযোগী হওয়ার কৌশল


এডিসি আরো বলেন, ‘মামলা করার আগে জুয়েল ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের বিবাহ ও তালাক শাখায় যান। কিন্তু সেখানে গিয়ে জানতে পারেন, তার নামে কোনো তালাকনামা পৌঁছায়নি তখনও। এ ছাড়া স্বর্ণাও কোনো কাগজপত্র দেখাতে পারেননি বলে জুয়েল আমাকে জানিয়েছেন। জুয়েল মামলার এজাহারে তাদের ফেসবুক ও হোয়াটসঅ্যাপের কথোপকথন ও নানা বিষয়ের প্রমাণ দেখিয়েছেন। ’

news24bd.tv

পুলিশ জানিয়েছে, ২০১৮ সালে সৌদি প্রবাসী কামরুল হাসানের সঙ্গে স্বর্ণার পরিচয় হয়। পরে ফেসবুকে কথোপকথন। ২০১৯ সালের মার্চে বিয়ে করেন তারা। বিয়ের পর কামরুল সৌদি আরবে চলে যান। গাড়ি, ব্যবসা, ফ্ল্যাট কেনাসহ নানা অজুহাতে তার কাছ থেকে এক কোটি ৪৮ লাখ ৬০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেন স্বর্ণা। সম্প্রতি ওই ব্যক্তি দেশে আসেন এবং স্বর্ণার বাসায় যান। এ সময় স্বর্ণা জানিয়ে দেন, তাকে অনেক আগেই তিনি তালাক দিয়েছেন। এ নিয়ে বাড়াবাড়ি করলে হত্যার হুমকি দেওয়া হয় কামরুলকে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার স্বর্ণার বিরুদ্ধে কামরুল মোহাম্মদপুর থানায় মামলা করেন। সন্ধ্যায় লালমাটিয়ার একটি বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

মডেলিংয়ের মাধ্যমে ২০০৬ সালে শোবিজে নাম লেখান রোমানা স্বর্ণা। ২০১৫ সালে তন্ময় তানসেনের ‘পদ্ম পাতার জল’ এবং ২০১৬ সালে একই পরিচালকের ‘রান আউট’ সিনেমায় অভিনয় করেন তিনি।

news24bd.tv/আলী