মৃত্যু যন্ত্রণা থেকে বাঁচার দোয়া
মৃত্যু যন্ত্রণা থেকে বাঁচার দোয়া

মৃত্যু যন্ত্রণা থেকে বাঁচার দোয়া

অনলাইন ডেস্ক

‘শেষ ভালো যার, সব ভালো তার’- বহুকাল আগে থেকেই এ প্রবাদ বাক্য প্রচলিত রয়েছে সমাজে। হ্যাঁ, কোনো ব্যক্তির শেষ কাজটি যদি ভালো হয় তবে সে ব্যক্তি সফল। কেননা কাজের শেষেই মানুষ ফলাফল লাভ করে। মহান সৃষ্টিকর্তা আল্লাহ তায়ালা বলেছেন- ‘কুল্লু নাফসিন জাইকাতুল মউত’- অর্থাৎ, প্রত্যেক প্রাণীকেই মৃত্যুর স্বাদ গ্রহণ করতে হবে।

আর দুনিয়াতে সবচেয়ে কষ্টদায়ক হচ্ছে মৃত্যু। কারো আপন জনের মৃত্যুতে স্বজনের বিয়োগ ব্যাথাই নয় বরং মৃত্যুবরণকারী ব্যক্তিও প্রচণ্ড শারীরিক কষ্টের সম্মুখীন হন।  

মহান আল্লাহর সবচেয়ে প্রিয় রাসূল (সা:) কে মৃত্যুর স্বাদ নিতে হয়েছিলো। যখন তিনি মৃত্যু যন্ত্রণায় আক্রান্ত তখন তিনি বলতেন, “লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ, লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ, ইন্না লিল মাওতি লা সাকারাত, লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ। ” -অর্থাৎ: নিশ্চয়ই মৃত্যু যন্ত্রণা বড়ই তীব্র এবং বড়ই কঠিন!

মুমিন মুসলমানের অন্তরের চুড়ান্ত চাওয়া-পাওয়া হলো ভালো ও উত্তম মৃত্যু লাভ করা। আর প্রত্যেকের উচিত ভালো ও সুন্দর ঈমানি মৃত্যু কামনা করা। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ভালো ও সুন্দর মৃত্যুর জন্য কখনো এ দোয়া করতে ভুলতেন না। আর তাহলো-

اَللَّهُمَّ أَحْسِنْ عَاقِبَتَنَا فِيْ الْأُمُورِ كُلِّهَا، وَأجِرْنَا مِنْ خِزْيِ الدُّنْيَا وَعَذَابِ الآخِرَةِ

উচ্চারণ : ‘আল্লাহুম্মা আহসিন আক্বিবাতানা ফিল উমুরি কুল্লিহা ওয়া আঝিরনা মিন খিযয়িদ দুনইয়া ওয়া আজাবিল আখিরাহ। ’

অর্থ : ‘হে আল্লাহ! আমাদের সব কাজের শেষ ফল সুন্দর করুন এবং আমাদেরকে দুনিয়ার লাঞ্ছনা ও কবরের আজাব থেকে মুক্ত রাখুন। ’ (মুসনাদে আহমদ)


অভাব দুর হবে, বাড়বে ধন-সম্পদ যে আমলে

সংবাদ উপস্থাপনায় ও নাটকে রূপান্তরিত দুই নারী

করোনার ভ্যাকসিন গ্রহণে বাধা নেই ইসলামে

কমেন্টের কারণ নিয়ে যা বললেন কবীর চৌধুরী তন্ময়


তবে ভালো মৃত্যু সম্ভব কিনা সে প্রসঙ্গে একটি হাদিস আছে। হযরত বারা বিন আযিব (রা.) হতে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, মুমিন বান্দাহর যখন মরন ঘনিয়ে আসে, তখন তার নিকট ফেরেশতা উত্তম আকৃতিতে সুগন্ধিতে সুরভিত হয়ে আসে। মুমিনের রূহ কবজ করার জন্য তার পার্শে উপবেশন করে। আর দু’জন ফেরেশতা জান্নাত হতে একটি সুগন্ধিপূর্ণ পাত্র নিয়ে তার কাছে উপস্থিত হয়। তারপর উক্ত ফেরেশতাদ্বয় রূহ সমাভিব্যাহারে জান্নাতের দিকে গমন করে।

তবে ভালো মৃত্যু হওয়ার জন্য আল্লাহর বান্দাকে ইমানের সঙ্গে নেক আমল অবশ্যই করতে হবে। বান্দা যদি আল্লাহরাব্বুল আলামিনের সান্নিধ্য লাভ করতে পারে, আল্লাহতায়ালা অবশ্যই তার বান্দার মৃত্যু সহজ করে দেবেন।

হাদিসে এসেছে, নেক বান্দারই মৃত্যু আল্লাহ রাব্বুল আলামিন খুব সহজ করে দেবেন। এমনভাবে মৃত্যু হবে মনে হবে যেন, একটি কলস থেকে পানি যেভাবে গড়িয়ে পড়ে যায়, ঠিক তেমনি সহজভাবে তার দেহ থেকে রূহ বের হয়ে যাবে।

আবদুল্লাহ ইবনে আব্বাস (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসুলুল্লাহ (সা.) তাঁদের যেমন কোরআনের সুরা শিক্ষা দিতেন, তেমনি এই দোয়াও শিক্ষা দিতেন। তিনি বলতেন, বলো, হে আল্লাহ! আমরা আপনার নিকট আশ্রয় প্রার্থনা করছি দোজখের আজাব থেকে, আর আমরা আপনার নিকট আশ্রয় চাচ্ছি কবরের আজাব থেকে, আপনার নিকট আশ্রয় প্রার্থনা করছি দাজ্জালের ফিতনা থেকে এবং আপনার নিকট আশ্রয় প্রার্থনা করছি জীবন ও মৃত্যুর ফিতনা থেকে।

দোয়াটি হলো: ‘আল্লাহুম্মা ইন্না নাউজুবিকা মিন আজাবি জাহান্নামা, ওয়া আউজুবিকা মিন আজাবিল কবরি, ওয়া আউজুবিকা মিন ফিতনাতিল মাসিহিদ দাজ্জালি, ওয়া আউজুবিকা মিন ফিতনাতিল মাহইয়া ওয়াল মামাতি। ’

অর্থ : ‘হে আল্লাহ! আমরা আপনার নিকট আশ্রয় প্রার্থনা করছি দোজখের আজাব থেকে, আর আমরা আপনার নিকট আশ্রয় চাচ্ছি কবরের আজাব থেকে, আপনার কাছে আশ্রয় প্রার্থনা করছি দাজ্জালের ফিতনা থেকে এবং আপনার কাছে আশ্রয় প্রার্থনা করছি জীবন ও মৃত্যুর ফিতনা থেকে। ’

news24bd.tv/আলী