সচেতনতা বাড়াতে ব্যতিক্রমী প্রচারণায় পুলিশ

বেলাল রিজভী, মাদারীপুর:

সচেতনতা বাড়াতে ব্যতিক্রমী প্রচারণায় পুলিশ

জঙ্গিবাদ, মাদকের ক্ষতিকর প্রভাব, নারী ও শিশু নির্যাতন, শিশুশ্রম, বাল্যবিয়ে, ইভটিজিং, গুজব ও ৯৯৯-এর সেবা সম্পর্কে সাধারণ মানুষকে আরও সচেতন করতে ব্যতিক্রমী প্রচারণা চালাচ্ছে মাদারীপুর জেলা পুলিশ। প্রতি শুক্রবার জুম্মার নামাজের আগে জেলার মসজিদগুলোয় পুলিশের পক্ষ থেকে এ সচেতনতামূলক প্রচারণা চালানো হচ্ছে। 

ইতিমধ্যে গত দুই সপ্তাহে দুই শতাধিক মসজিদে একযোগে ভিন্ন রকম এই তৎপরতা চালিয়েছে পুলিশ। প্রতিটি মসজিদের দেয়ালে সাঁটানো হয়েছে সচেতনতামূলক স্টিকার। এর ফলে জেলায় সমসাময়িক অপরাধের সংখ্যা কমে আসছে বলে দাবি পুলিশর।

শুক্রবার পুলিশ কর্মকর্তারা মসজিদে নামাজ পড়তে আসা মুসল্লিদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা আপনাদের সন্তানদের সময় দিন। তারা কি করছে কোথায় যাচ্ছে, কাদের সাথে মেলামেশা করছে। বিষয়গুলো নজর দিন। সন্দেহ কিছু মনে হলেই পুলিশকে অবহিত করুণ।’

পুলিশ কর্মকর্তার আরও বলেন, ‘মাদক হচ্ছে বর্তমান সমাজের বড় হুমকি স্বরূপ। মাদকাসক্ত হওয়া থেকেই আসতে আসতে ছেলেরা পা রাখে অন্ধকার জগতে। তারা ইভটিজিং, ছিনতাই, খুন, জঙ্গিবাদের মতো বড় বড় অপরাধ জড়িয়ে পড়ে।’

মুসল্লিদের অনুরোধ করে পুলিশ কর্মকর্তারা বলেন, আপনারা চাকরি, ব্যবসা বাণিজ্য যা কিছুই করুণ, সন্ধ্যার পরে বাহিরে চায়ের আড্ডা না দিয়ে নিজের পরিবারের সাথে সময় দিন। নিজের সন্তানের খেয়াল রাখুন। এতে যেমন অর্থের অপচয় কমে যাবে, আবার নিজের পরিবারের মধ্যে মায়া-মমতার বন্ধন দৃঢ় হবে।


অভিনেতা ফারুকের রক্তে ইনফেকশন ধরা

আইরিশদের শেষ ম্যাচেও হারালো উদীয়মান টাইগারা

চাঁদ দেখা যায়নি, শবে বরাত ২৯ মার্চ

১৭ মার্চ সারা দেশে মার্কেট-দোকান বন্ধের ঘোষণা


জেলা পুলিশের সূত্র জানায়, ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি হাবিবুর রহমানের নির্দেশনায় মাদারীপুরের ৫টি থানায় বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। সামাজিক অবক্ষয় প্রতিরোধে করণীয় বিষয়গুলো নিয়ে জনসাধারণের মধ্যে সচেতনতামূলক প্রচারণা অংশ হিসেবে মসজিদগুলোয় প্রচারণা নেমেছে পুলিশ। প্রতিটি থানার দায়িত্বরত পরিদর্শক, উপপরিদর্শক, সহকারী উপপরিদর্শক ও বিট পুলিশের দায়িত্বে থাকা পুলিশ সদস্যরা মসজিদে গিয়ে প্রচারণা চালাচ্ছে। তা ছাড়াও লোকজনকে সাইবার ক্রাইম ও জব সম্পর্কে ধারণা দেয়া হচ্ছে। যাতে তারা এ ধরণের অপরাধ শনাক্তসহ নিজেদের এ ধরণের অপরাধের সাথে যুক্ত হওয়া থেকে রক্ষা করতে পারে। এছাড়াও বর্তমানে পুলিশের আধুনিক সেবা ৯৯৯-এর ব্যবহার সম্পর্কেও অবগত করে যাচ্ছে।

মাদারীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও প্রশাসন) আব্দুল হান্নান বলেন, ‘পুলিশ সুপারের মোহাম্মদ মাহবুব হাসানের নেতৃত্বে আমরা পাঁচটি থানার ৬৭টি বিট কার্যালয়ের অধীনে ৬৭টি মসজিদসহ দুই শতাধিক মসজিদে বক্তব্য ও প্রচারণা চালায় পুলিশ সদস্যরা। বক্তব্যে সর্বপ্রকার পুলিশি সেবা যেমন মামলা, জিডি, পুলিশ ক্লিয়ারেন্স, সকল প্রকার ভেরিফিকেশনের জন্য দালাল কিংবা পুলিশ সদস্যদের সাথে কোন প্রকার অর্থনৈতিক লেনদেন না করতে নির্দেশ প্রদান করা হয়। 

একই সাথে সামাজিক সকল অপরাধ নির্মূলে পুলিশকে সহায়তা করতে সকলের প্রতি আহ্বান জানানো হয়। মসজিদে মুসল্লিদের যোগাযোগের জন্য জাতীয়  জরুরি সেবা ৯৯৯, বিট অফিসার, অফিসার ইনচার্জ, সার্কেল এএসপি, এডিশনাল এসপি এবং পুলিশ সুপারের মোবাইল নম্বর সরবরাহ করা হয় এবং মসজিদে দেয়ালে স্টিকার সাঁটানো হয়।

এ বিষয়ে জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহবুব হাসান বলেন, ‘বিভিন্ন সামাজিক বিষয় নিয়ে আমরা বর্তমানে মসজিদ ভিত্তিক প্রচারণার কাজ শুরু করেছি।  পর্যাক্রমে আমরা এ কাজগুলো মন্দির, গীর্জা, স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা, হাট-বাজার পর্যন্ত বিস্তৃত করবো। আমরা সমাজের প্রতিটি নাগরিকের সহযোগিতা কামনা করছি।’

news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

৩ হাজার যাত্রী নিয়ে শিমুলিয়া ঘাট ছাড়লো ফেরি

নিজস্ব প্রতিবেদক

৩ হাজার যাত্রী নিয়ে শিমুলিয়া ঘাট ছাড়লো ফেরি

তিন হাজার যাত্রী এবং দুইটি অ্যাম্বুলেন্স নিয়ে শিমুলিয়া ঘাট ছাড়লো ফেরি যমুনা। সোমবার (১০ মে) সকাল ১০টার দিকে ২ নং ঘাট ছেড়ে যায় ফেরিটি।

শিমুলিয়া ঘাটের সহকারী ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) ফয়সাল আহম্মেদ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। 

তিনি বলেন, রাত থেকে ফেরি চলাচল বন্ধ ছিলো। তবে অরিরিক্ত যাত্রীর চাপে সকাল ১০টার দিকে দুইটি অ্যাম্বুলেন্স ও ৩ হাজার যাত্রী নিয়ে ফেরি যমুনা বাংলাবান্ধা ঘাটের উদ্দেশে ছেড়ে গেছে।

এ নিয়ে এ পর্যন্ত শিমুলিয়া থেকে আজ দুটি ফেরি ছেড়ে গেল। এর আগে সকাল সাড়ে ৬টার দিকে একই ঘাট থেকে আরেকটি ডাম্প ফেরি ছেড়ে যায়।

আজ ভোর থেকেই দক্ষিণবঙ্গগামী মানুষের উপচেপড়া ভিড় দেখা গেছে মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাটে। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে সেই ভিড় বাড়তে থাকে।


পাটুরিয়া ফেরিঘাটে আজও ঘরমুখী মানুষের ঢল

শিমুলিয়া ঘাটে জনস্রোত, ফেরির অপেক্ষায় হাজারো মানুষ

মমতার মন্ত্রিসভায় শপথ নেবেন ৪৩ জন, নাম আছে ৬ মুসলিমের

সোনাহাট স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানি ৬ দিন বন্ধ


গণপরিবহণ বন্ধ, রাস্তায় বিজিবি ও পুলিশের টহল থাকার পরও হাজার হাজার মানুষ বিভিন্নভাবে ঘাটে আসছে। ঘাট এলাকায় রীতিমতো তিল ধারণের ঠাঁই নেই। গত কয়েকদিন শুধু তিন নম্বর ফেরি ঘাট এলাকায় ভিড় থাকলেও আজ সবগুলো ফেরি ঘাটে উপচেপড়া ভিড় লক্ষ করা গেছে।

শিমুলিয়া ফেরি ঘাটে দায়িত্বরত ট্রাফিক পুলিশের পরিদর্শক (টিআই) হিলাল উদ্দিন বলেন, ‘বিপুল যাত্রীর চাপে কোনো পরিকল্পনাই ঠিক রাখা যাচ্ছে না। কোনোভাবে ঠেকানো যাচ্ছে না জনস্রোত।’

# শিমুলিয়া ঘাটে জনস্রোত, ফেরির অপেক্ষায় হাজারো মানুষ

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

পাটুরিয়া ফেরিঘাটে আজও ঘরমুখী মানুষের ঢল

নিজস্ব প্রতিবেদক

পাটুরিয়া ফেরিঘাটে আজও ঘরমুখী মানুষের ঢল

ঘরমুখো মানুষের উপচেপড়া ভিড় এখন মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ফেরিঘাটে। আজ ভোরের আলো ফুটতেই মানুষের ঢল নেমেছে। ঠাসাঠাসি করে ফেরিতে পার হচ্ছে মানুষ।

সকাল সোয়া ৮টার দিকে দুটি অ্যাম্বুলেন্স, কয়েকটি ছোট গাড়ি এবং যাত্রী নিয়ে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ঘাটের উদ্দেশে ছেড়ে গেছে।

সকাল পৌনে নয়টার দিকে শাপলা শালুক নামে যাত্রী বোঝাই করে অনুরূপভাবে আরও একটি ফেরি ছেড়ে যায়। দৌলতদিয়া থেকেও দুটি ফেরি পাটুরিয়া ঘাটে আসতে দেখা গেছে।


ঈদের রাতের ফজিলত

মমতার মন্ত্রিসভায় শপথ নেবেন ৪৩ জন, নাম আছে ৬ মুসলিমের

সোনাহাট স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানি ৬ দিন বন্ধ

জিহাদী বইসহ উল্লাপাড়া জামায়াতের আমির গ্রেপ্তার


শিবালয় থানার ওসি মোহাম্মদ ফিরোজ কবীর বলেন, ফেরি চলাচল বন্ধ থাকলেও নির্দেশনা অনুযায়ী মরদেহ ও রোগী বহনকারী গাড়ি পার করা হচ্ছে। পাশাপাশি যাত্রী ও ছোটগাড়িও পার হচ্ছে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

শিমুলিয়া ঘাটে জনস্রোত, ফেরির অপেক্ষায় হাজারো মানুষ

অনলাইন ডেস্ক

শিমুলিয়া ঘাটে জনস্রোত, ফেরির অপেক্ষায় হাজারো মানুষ

দক্ষিণবঙ্গগামী মানুষের উপচে পড়া ভিড় মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাটে। আজ সোমবার ভোর থেকেই ঘাটে বাড়তে থাকে শিকড়ের টানে বাড়ি ফিরতে থাকা মানুষের ঢল। করোনাকালীন সময়ে এই জনস্রোত ঠেকাতে প্রশাসনের কোন পদক্ষেপই কাজে লাগছে না।

ঘাট এলাকায় রীতিমতো তিল ধারণের ঠাঁই নেই। গণপরিবহণ বন্ধ, রাস্তায় বিজিবি ও পুলিশের টহল থাকার পরও হাজার হাজার মানুষ বিভিন্নভাবে ঘাটে আসছে।

গত কয়েকদিন শুধু তিন নম্বর ফেরি ঘাট এলাকায় ভিড় থাকলেও আজ সবগুলো ফেরি ঘাটে উপচেপড়া ভিড় লক্ষ করা গেছে।

সোমবার সকাল ৬টার পর কয়েকটি অ্যাম্বুলেন্স এবং কয়েক হাজার যাত্রী নিয়ে একটি ফেরি বাংলাবাজার ঘাটের উদ্দেশে শিমুলিয়া ছেড়ে গেছে। ঘাট এলাকায় এখনও কয়েক হাজার যাত্রী অপেক্ষামান।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহণ করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) শিমুলিয়া ঘাট ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) মোহাম্মদ ফয়সাল বলেন, ‘সকালে যাত্রীদের চাপ বাড়ে শিমুলিয়া ঘাটে। সকাল ৬টার কিছু পরে কয়েকটি অ্যাম্বুলেন্স এবং কয়েক হাজার যাত্রী নিয়ে একটি ড্যাম ফেরি বাংলাবাজার ঘাটের উদ্দেশে ছেড়ে গেছে। ঘাট এলাকায় এখনও কয়েক হাজার যাত্রী অপেক্ষামান।’


আরও পড়ুনঃ


ট্রিও মান্ডিলি: এক আধুনিক রূপকথার গল্প

নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও যাত্রী নিয়ে শিমুলিয়াঘাট ছাড়লো ফেরি

শত বছরের পুরনো বিয়ের রীতি ভাঙলেন ‘হার্ডকোর ফেমিনিস্ট’ যুবক

করোনা ঠেকাতে বিজেপি নেতার গোমূত্র পান, দিলেন পরামর্শও (ভিডিও)


এছাড়া ঘাট এলাকায় অপেক্ষমান রয়েছে কয়েকশ’ যানবাহন। যাদের ব্যক্তিগত গাড়ি রয়েছে তাদের অনেকেই যমুনা সেতু পাড়ি দিয়ে দক্ষিণবঙ্গের দিকে যাত্রা করছেন।

news24bd.tv / নকিব

পরবর্তী খবর

ইফতারি না পাঠানোয় বউ-শ্বশুরকে খাটের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন

নিজস্ব প্রতিবেদক

ইফতারি না পাঠানোয় বউ-শ্বশুরকে খাটের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন

শ্বশুরবাড়ি থেকে ইফতারি না পাঠানোয় বউ ও শ্বশুরকে খাটের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে মামুন মিয়া (২৬) নামের এক জামাই ও তার পরিবারের লোকজনের বিরুদ্ধে। সিলেট ওসমানীনগর উপজেলার সাদিপুর ইউপির চরসম্মানপুর গ্রামে গতকাল সকালে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় নির্যাতিত গৃহবধূর বাবা উপজেলার সাদিপুর ইউপির দক্ষিণ কালনিচর গ্রামের মৃত কুটি মিয়ার ছেলে বৃদ্ধ আব্দুস সহিদ (৬০) বাদী হয়ে ওসমানীনগর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন।

গৃহবধূর বাবার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ওসমানীনগর উপজেলার সাদিপুর ইউপির চরসম্মানপুর গ্রামের আমির আলীর ছেলে মামুন মিয়ার সঙ্গে প্রায় এক বছর আগে একই ইউপির দক্ষিণ কালনিচর গ্রামের আব্দুস সহিদের মেয়ে জায়দা বেগমের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে স্বামী মামুনসহ তার পরিবারের লোকজন গৃহবধূ জায়দাকে নির্যাতন করে আসছেন। এ বিষয়ে একাধিকবার সালিশ বৈঠকে মীমাংসা হয়।

পরে রোববার (৯ মে) সকাল ৯টার দিকে শ্বশুরবাড়ির ইফতারি ও জামাকাপড় না আসায় গৃহবধূ জায়দাকে তার স্বামী মামুনসহ পরিবারের লোকজন রশি দিয়ে খাটের সঙ্গে বেঁধে অমানবিক নির্যাতন করে।

বিষয়টি ভুক্তভোগীর বাবা আবদুস সহিদ জানতে পেরে মেয়ের বাড়ি চরসম্মানপুর যান। সেখানে আব্দুস সহিদকে বিভিন্ন ভাষায় গালমন্দ করে আব্দুস সহিদকেও চড়থাপ্পড় মারেন জামাই মামুন মিয়ার বাবা আমির আলী। এ সময় সেখান থেকে পালিয়ে এসে জায়দার বাবা আব্দুস সহিদ মেয়েকে উদ্ধারসহ ঘটনার সুষ্ঠু বিচারের জন্য ওসমানীনগর থানায় রোববার বিকেলে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

গৃহবধূ জায়দার ভাই আব্দুল তাহিদ বলেন, ‘আমার বোনকে তার স্বামী মামুনসহ তাদের পরিবারের লোকজন ইফতারির জন্য রশি দিয়ে বেঁধে নির্যাতন করেছে। খবর শুনে আমার পিতা বোনের বাড়িতে গেলে আমার বাবাকেও তারা মারপিট করে। এ ঘটনার আমি সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি।’

সদিপুর ২ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য স্বপন মিয়া ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, তার ওয়ার্ডের চরসম্মানপুর গ্রামের স্বামী ও তার পরিবার কর্তৃক ইফতারির জন্য গৃহবধূকে নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে বলে জানতে পারেন।


ঈদের রাতের ফজিলত

মমতার মন্ত্রিসভায় শপথ নেবেন ৪৩ জন, নাম আছে ৬ মুসলিমের

সোনাহাট স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানি ৬ দিন বন্ধ

জিহাদী বইসহ উল্লাপাড়া জামায়াতের আমির গ্রেপ্তার


ওসমানীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শ্যামল বণিক ইফতারির জন্য গৃহবধূ নির্যাতনের ঘটনার একটি লিখিত অভিযোগ গ্রহণের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, ঘটনাটি তদন্তের জন্য একজন এসআইকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। সত্যতা পেলে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

জিহাদী বইসহ উল্লাপাড়া জামায়াতের আমির গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক

জিহাদী বইসহ উল্লাপাড়া জামায়াতের আমির গ্রেপ্তার

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া জামায়াতের আমির শাহজাহান আলী জিহাদীকে (৫৫) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল রাত সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার বোয়ালিয়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার শাহজাহান আলী জিহাদী উল্লাপাড়া পৌর এলাকায় ঘোষগাঁতী মহল্লার বাসিন্দা।

উল্লাপাড়া মডেল থানার ওসি দীপক কুমার দাশ জানান, রোববার উপজেলার বেশ কয়েকটি গ্রামে গোপন বৈঠকে অংশ নেন শাহজাহান আলী। সবশেষ গভীর রাতে উলিপুর এলাকায় বৈঠক শেষে বাড়ি ফিরছিলেন তিনি। খবর পেয়ে বোয়ালিয়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে জিহাদী বই উদ্ধার করা হয়েছে।


ঈদের রাতের ফজিলত

মমতার মন্ত্রিসভায় শপথ নেবেন ৪৩ জন, নাম আছে ৬ মুসলিমের

সোনাহাট স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানি ৬ দিন বন্ধ

১০ মে, ইতিহাসের এই দিনে


তিনি বলেন, শাহজাহান আলীর বিরুদ্ধে নাশকতা ও সরকারি কাজে বাধাদানের অভিযোগে একাধিক মামলা রয়েছে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর