বাদাম বিক্রেতা লতা রায়ের দায়িত্ব নিলেন এমপি নূর

আব্দুর রশিদ শাহ, নীলফামারী

বাদাম বিক্রেতা লতা রায়ের দায়িত্ব নিলেন এমপি নূর

সংসারে অভাব অনটন থাকায় ১৮ বছরের লতা রায় এখন বাদাম বিক্রিতা। মেধাবী এই মেয়েটি এবার বিজ্ঞান বিভাগ থেকে এইচএসসি পাস করেছে এ-প্লাস পেয়ে।

নীলফামারী সরকারি কলেজের ছাত্রী লতা। তার প্রচণ্ড মাথার ব্যথা, যন্ত্রণা। অর্থের অভাবে নিজের চিকিৎসাও করাতে পারছে না লতা। লতার বয়স যখন সাড়ে ৪ বছর তখন তার মা ভানুমতি রায় মারা যান। বাবা জগন্দ্র রায় দ্বিতীয় বিয়ে করেন। সেই ঘরে রয়েছে হিমন রায় নামের ১৫ বছরের ছেলে। সংসারে অভাব অনটন থাকায় এখন লতা রায়ের বাবা ঢাকায় ইটভাটায় শ্রমিকের কাজ করছেন।

নীলফামারী সদরের গোড়গ্রাম ইউনিয়নের ডারারপাড় নিজপাড়া গ্রামের মেয়ে লতা রায় বিমাতার সংসারে অত্যাচার সহ্য করে থাকতে হচ্ছে। জীবনের স্বপ্ন সে একজন চিকিৎসক হবে। তাই নিজের ভবিষ্যত গড়তে প্রাইভেট পড়িয়ে নিজের লেখপড়ার অর্থ জুগিয়েছিল এতোদিন। বিজ্ঞান বিভাগ থেকে এইচএসসিতে এ-প্লাস পেয়ে সে মেডিকেল কলেজে ভর্তির জন্য আবেদন করেছে। আগামী এপ্রিল মাসেই মেডিকেলে সুযোগ পাওয়ার লিখিত পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে লতা রায়। কিন্তু বাবার অভাবী সংসারে অর্থ জোগাতে লতা রায় রাস্তায় নেমেছিল বাদাম বিক্রি করতে। লোক চক্ষুর আড়ালে বাদাম বিক্রিতে নেমে তাকে পরিধান করতে হয় বোরখা।

লতা রায় জানান, বিশ্বাস, আশা ও ভালোবাসা জীবনের প্রধান বৈশিষ্ট্য। বিশ্বাসী, আশাবাদী, ভালোবাসায় পরিপূর্ণ মানুষ ব্যর্থ হয় না এবং হতাশাগ্রস্তও হয় না। হতাশা আসে ব্যর্থতার গ্লানি থেকে। সাধারণত মানুষ প্রাপ্তিতে তৃপ্ত ও অপ্রাপ্তিতে অতৃপ্ত হয়। তাৎক্ষণিক লাভ-ক্ষতিকে মানুষ সফলতা ও ব্যর্থতার মানদণ্ড মনে করে এবং সেভাবেই প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে। তাই আমি নিজের লেখাপড়ার খরচ যোগাতে বাদাম বিক্রি করতে রাস্তায় নামতে বাধ্য হই। নীলফামারী শহরে এসে দুই থেকে তিন কেজি বাদাম বিক্রি করতাম। যা লাভ হতো তা খারাপ ছিল না। এভাবে নিজেকে তৈরি করছিল লতা আগামীদিনে মেডিকেল কলেজে ভর্তি হয়ে ডাক্তার  হবার স্বপ্নে অর্থের যোগান।

লতা রায়ের বাদাম বিক্রির বিষয় সহ তার পারিবারিক অবস্থা স্থানীয় সাংবাদিকরা জানতে পেরে বিষয়টি অবগত করা হয় নীলফামারী সদর আসনের সংসদ সদস্য সাবেক সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নুরকে। 

তিনি ঢাকায় থাকায় বিষয়টি সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওয়াদুদ রহমান, ও জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক ইসরাত জাহান পল্লবী, আওয়ামী লীগের গোড়গ্রাম ইউনিনের চেয়ারম্যান রেয়াজুল ইসলাম ,সভাপতি জাহিদ হাসান খান আলী, সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম  আজ রোববার বিকেলে লতার বাড়ি পাঠান। সেখানে আসাদুজ্জামান নুর মোবাইলে লতার সঙ্গে মোবাইলে কথা বলেন এবং তার মাথা ব্যথার চিকিৎসা সহ লেখাপড়ার দায়িত্ব গ্রহণ করেন। তাৎক্ষণিকভাবে আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয় লতা রায়কে।


ময়মনসিংহে করোনা সচেতনতায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা

করোনা আক্রান্ত রুহুল আলম চৌধুরী আইসিইউতে

১৭ মার্চ সারা দেশে মার্কেট-দোকান বন্ধের ঘোষণা

কোরআনের ২৬ আয়াত পরিবর্তনে রিট


 

দ্রুততার সঙ্গে লতা রায়ের এমন দায়দায়িত্ব গ্রহণ করা প্রসঙ্গে লতা বলেন, এর আগে স্থানীয়ভাবে আমাকে এসএসসির ফরম ফিলাম টাকা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান দিয়েছিলেন। এইচএসসির ফরম পূরণ করেছি ঠাকুর মার বয়স্ক ভাতার টাকা দিয়ে। তাছাড়া মানুষ মানুষের জন্য ফান্ডশন আমাকে সাহায্য করে আসছে। বিভিন্ন বন্ধু বান্ধাব আমাকে সাহায্য করেন। এখন আমাদের এমপি আসাদুজ্জাান নুর আমার সকল দায় দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন। আপনারা আমার জন্য প্রার্থনা করবেন আমি যেন মেডিকেল কলেজে ভর্তির সুযোগ পেয়ে একজন চিকিৎসক হতে পারি। এলাকার গরীব দুঃখি মানুষের চিকিৎসা সেবা দিতে পারব।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

ঝালকাঠিতে ড্রেজার মালিককে জরিমানা

ঝালকাঠি প্রতিনিধি :

ঝালকাঠিতে ড্রেজার মালিককে জরিমানা

ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার খয়রাবাদ নদী থেকে ড্রেজার দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে মো. শাকিল হাওলাদার নামে এক ব্যক্তিকে ৮০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. সাখাওয়াত হোসেন এই জরিমানা করেন।

উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, খয়রাবাদ নদীর ঘোপেরহাট এলাকায় রোববার (৯ মে) দুপুরে ড্রেজার দিয়ে অবৈধভাবে নদী থেকে বালু উত্তোলন করছিলেন কিছু লোক। খবর পেয়ে সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. সাখাওয়াত হোসেন সেখানে গিয়ে একটি ড্রেজার জব্দ করেন। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে একটি ড্রেজারের মালিক মো. শাকিল হাওলাদারকে ৮০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। দুপুরেই জরিমানার টাকা আদায় করা হয়েছে।

সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. সাখাওয়াত হোসেন বলেন, অবৈধভাবে বালু উত্তোলন বন্ধে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা হচ্ছে। এটা অব্যাহত থাকবে।

news24bd.tv / কামরুল  

পরবর্তী খবর

সমুদ্রসৈকতে ভেসে আসল ১০ ফুট দৈর্ঘ্যের মৃত ডলফিন

অনলাইন ডেস্ক

সমুদ্রসৈকতে ভেসে আসল ১০ ফুট দৈর্ঘ্যের মৃত ডলফিন

পটুয়াখালীর কুয়াকাটা সমুদ্রসৈকতে এবার ভেসে এসেছে ১০ ফুট দৈর্ঘ্যের একটি মৃত ডলফিন। আজ রোববার (৯ মে) বেলা ১১টার দিকে কুয়াকাটার লেম্বুর বনসংলগ্ন সমুদ্রসৈকতে মৃত ডলফিনটি দেখতে পান স্থানীয়রা। 

পটুয়াখালী জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোল্লা এমদাদুল্লাহ বলেন, ঘটনাস্থলে মৎস্য বিভাগের কর্মকর্তাদের পাঠানো হয়েছে। কী কারণে মাছটি মারা গেছে সেটি নিশ্চিত হওয়ার জন্য পোস্টমর্টেম করার চেষ্টা করা হবে। তবে যদি অবস্থা বেশি খারাপ হয় তাহলে ডলফিনটি মাটিচাপা দেয়া হবে।

বাংলাদেশ বন বিভাগের বন্যপ্রাণী ও জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ কর্মকর্তা জোহরা মিলা বলেন, বন বিভাগের সহযোগিতায় বন্যপ্রাণীবিষয়ক আন্তর্জাতিক সংস্থা ওয়াইল্ডলাইফ কনজারভেশন সোসাইটির (ডব্লিউসিএস) জরিপে দেখা যায়, বাংলাদেশের নদী ও সমুদ্রসীমায় সাত প্রজাতির ডলফিনের আবাস রয়েছে। 

ডলফিন রক্ষায় জেলে স্থানীয়দের সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা আইন ২০১২ অনুযায়ী ডলফিন হত্যা করলে সর্বোচ্চ তিন বছরের কারাদণ্ড অথবা তিন লাখ টাকা পর্যন্ত জরিমানা অথবা উভয়দণ্ডের বিধান রয়েছে।

news24bd.tv / কামরুল  

পরবর্তী খবর

ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ভিজিএফ-এর কার্ড দেয়ার কথা বলে টাকা নেয়ার অভিযোগ

রফিকুল আলম, চাঁপাইনবাবগঞ্জ

ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ভিজিএফ-এর কার্ড দেয়ার কথা বলে টাকা নেয়ার অভিযোগ

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার মোবারকপুর ইউপি চেয়ারম্যান তোহিদুর রহমান মিঞার বিরুদ্ধে ভিজিএফ কার্ডধারীদের কাছ থেকে অগ্রিম ২৫০ টাকা করে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। তবে এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন চেয়ারম্যান তোহিদুর রহমান মিঞা।

জানা গেছে, পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে উপজেলার মোবারকপুর ইউনিয়নে ২ হাজার ৩’শ ৫টি অসহায় পরিবারের জন্য ৪ ৫০ টাকা হারে ১০ লাখ ৩৭ হাজার ২৫০ টাকা ও অতিদরিদ্র ৫’শ পরিবারের জন্য ৫’শ টাকা হারে ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়। কিন্তু এ ইউনিয়নের শিকারপুর ও দাইপুখুরিয়া গ্রামের প্রায় ৭’শ পরিবারের কাছ থেকে অগ্রিম ২ শত ৫০ টাকা করে ইউপি চেয়ারম্যান তৌহিদুর রহমান মিঞার নাম করে আদায় করেছেন তার সহকারি দাইপুখুরিয়া গ্রামের আবু বক্করের ছেলে একরামুল হক। একই সঙ্গে তিনি ওই পরিবারগুলোর পরিচয়পত্রের ফটোকপিতে সিরিয়াল নম্বর উল্লেখ করে দেন।

আরও পড়ুন


বরিশালে ৪০০ অসহায় পরিবারের মাঝে সেনাবাহিনীর ত্রাণ বিতরণ

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে গাছ কাটা ও অবকাঠামো নির্মাণ বন্ধে হাইকোর্টে রিট

নওগাঁয় অসহায় কৃষকের ধান কেটে ঘরে তুলে দিল শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা

করোনামুক্ত খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা কিছুটা উন্নতি: ফখরুল


আজ রোববার সকালে মোবারকপুর ইউনিয়নের শিকারপুর ও দাইপুখুরিয়া গ্রামের প্রায় শতাধিক ভুক্তভোগী নারী ইউপি চত্বরে ভিজিএফের টাকা নেয়ার জন্য জড়ো হন। এ সময় ভূক্তভোগী নারীদের উপস্থিতি টের পেয়ে ইউপি চেয়ারম্যান ও একরামুল হক সটকে পড়েন। ওই নারীরা আরও জানান, যদি ভিজিএফের টাকা না পাওয়া যায়, তাহলে আদায় করা টাকাগুলো তাদের ফেরত দেয়া হোক।

এ বিষয়ে একরামুল হকের সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন রিসিভ না করায় তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে মোবারকপুর ইউপি চেয়ারম্যান তৌহিদুর রহমান মিঞা অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, তিনি কোন টাকা নেননি এবং কেউ টাকা নিয়েছে কিনা এব্যাপারে তিনি কিছু বলতে পারবেন না। এদিকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাকিব আল-রাব্বি বলেন, জরুরী ভিত্তিতে ট্যাগ অফিসারকে সাথে নিয়ে বিষয়টি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

news24bd.tv আহমেদ

পরবর্তী খবর

বরিশালে ৪০০ অসহায় পরিবারের মাঝে সেনাবাহিনীর ত্রাণ বিতরণ

রাহাত খান, বরিশাল

বরিশালে ৪০০ অসহায় পরিবারের মাঝে সেনাবাহিনীর ত্রাণ বিতরণ

বরিশালের শেখ হাসিনা সেনা নিবাসের পক্ষ থেকে করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ ৪শত অসহায়-দুঃস্থ পরিবারের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

রোববার ১০টায় বাকেরগঞ্জ উপজেলার দেউলী বিলকিস জাহান টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড বিএম কলেজ মাঠে স্বাস্থ্যবিধি মেনে এই অসহায় দুঃস্থ পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করা হয়।

৬ পদাতিক ব্রিগেডের ব্যবস্থাপনায় এবং ৬২ ইস্ট বেঙ্গলের আয়োজনে ৬ পদাতিক ব্রিগেডের কমান্ডার এই ত্রাণ বিতরণ করেন। এ সময় শেখ হাসিনা সেনা নিবাসের অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন


সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে গাছ কাটা ও অবকাঠামো নির্মাণ বন্ধে হাইকোর্টে রিট

নওগাঁয় অসহায় কৃষকের ধান কেটে ঘরে তুলে দিল শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা

করোনামুক্ত খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা কিছুটা উন্নতি: ফখরুল

যে যেখানে আছে, সেখানে থেকেই ঈদ উদযাপনের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর


এর আগেও বরিশাল বিভাগের বিভিন্ন স্থানে শেখ হাসিনা সেনা নিবাসের পক্ষ থেকে একইভাবে দুঃস্থদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হয়। আগামীতে এই সহায়তা কার্যক্রম অব্যহত রাখার কথা জানিয়েছেন সেনা বাহিনীর কর্মকর্তারা।

news24bd.tv আহমেদ

পরবর্তী খবর

পাহাড়ে দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে সেনাবাহিনীর খাদ্য সহায়তা

ফাতেমা জান্নাত মুমু, রাঙামাটি:

পাহাড়ে দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে সেনাবাহিনীর খাদ্য সহায়তা

পার্বত্যাঞ্চলের করোনায় কর্মহীন মানুষকে খাদ্য সহায়তা দিয়েছে সেনাবাহিনী। রবিবার খাগড়াছড়ি সেনা রিজিয়নের উদ্যোগে ও খাগড়াছড়ি সদর জোনের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হয়। 

এ সময় খাগড়াছড়ি সদর উপজেলার প্রায় ২২০ পরিবারকে এ দেওয়া হয়। এসময় খাগড়াছড়ি সেনা সদর জোনের উপ-অধিনায়ক মেজর মো. সুলতান মাহমুদ শেখ, ক্যাপ্টেন সাফিন আল সাইফ পলক উপস্থিত ছিলেন।

সহায়তার মধ্যে ছিল প্রতি পরিবারকে ১০ কেজি চাল, এক কেজি ডাল, এক লিটার তৈল, ৫ কেজি লবণ, এক কেজি চিনি, একটি সাবানসহ বিভিন্ন দ্রব্যসামগ্রী। এছাড়া করোনাভাইরাস প্রতিরোধে মাস্ক বিতরণ করা হয়।

শুধু তাই নয় করোনা মহামারী শুরুর পর থেকেই দেশের সংকটময় মুহূর্তে পার্বত্যাঞ্চলের জনসাধারণের সেবায় এগিয়ে আসে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। করোনা মহামারী ও দেশের সংকটাপন্ন অবস্থা শেষ না হওয়া পর্যন্ত দেশের মানুষের সহায়তায় এ মানবিক কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে বলে জানায় সেনাবাহিনী।

news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর