শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ সহ ১২ দফা সুপারিশ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের

অনলাইন ডেস্ক

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ সহ ১২ দফা সুপারিশ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের

করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যু ঊর্ধ্বমুখী হওয়ায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ১২ দফা সুপারিশ করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখাসহ  ১২ দফা সুপারিশ করেছে  স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

মঙ্গলবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মিনি কনফারেন্স রুমে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের সভাপতিত্বে কভিড-১৯ প্রতিরোধ ও বর্তমানে করণীয় সম্পর্কে জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় ১২টি প্রস্তাব গৃহীত হয়।

১২টি প্রস্তাব হলো-

১. সম্ভব হলে কমপ্লিট লকডাউনে যেতে হবে। সম্ভব না হলে ইকোনমিক ব্যালান্স রেখে যেকোনো জনসমাগম বন্ধ করতে হবে।

২. কাঁচাবাজার, পাবলিক ট্রান্সপোর্ট, শপিংমল, মসজিদ, রাজনৈতিক সমাগম, ভোট অনুষ্ঠান, ওয়াজ মাহফিল, পবিত্র রমজান মাসের ইফতার মাহফিল ইত্যাদি অনুষ্ঠান সীমিত করতে হবে।

৩. শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান যেগুলো বন্ধ আছে সেগুলো বন্ধ রাখতে হবে। অন্যান্য কার্যক্রম সীমিত রাখতে হবে।

৪. যেকোনো পাবলিক পরীক্ষা (বিসিএস, এসএসমি, এইচএসসি, মাদরাসা, দখিলসহ অন্যান্য) বন্ধ রাখতে হবে।

৫. কভিড পজিটিভ রোগীদের আইসোলেশন জোরদার করা।

৬. যারা রোগীদের কন্ট্রাকে আসবে তাদের কঠোর কোয়ারেন্টিনে রাখা।

৭. বিদেশ থেকে বা প্রবাসী যারা আসবেন তাদের ১৪ দিনের কঠোর কেয়ারেন্টিনে রাখা এবং এ ব্যাপারে সামরিক বাহিনীর সহায়তা নেওয়া।

৮. আগামী ঈদের ছুটি কমিয়ে আনা।

৯. স্বাস্থ্যবিধি মানার বিষয়ে আইন প্রয়োজনে জোরদার করা।

১০. পোর্ট অব এন্ট্রিতে জনবল বাড়ানো ও মনিটরিং জোরদার করা।

১১. সব ধরনের সভা ভার্চুয়াল করা।

১২. পর্যটন এলাকায় চলাচল সীমিত করা।


দুবাইয়ে বঙ্গবন্ধুর ছবি প্রদর্শন স্থগিত

বাংলাদেশ ফুটবল দলে করোনায় আঘাত

সফরে এসে বাংলাদেশকে যে উপহার দেবেন মোদি

ঢাকা মেডিকেলের আইসিইউতে আগুন, নিহত ৩জন


প্রস্তাবনার বিষয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মুখপাত্র এবং রোগনিয়ন্ত্রণ শাখার পরিচালক অধ্যাপক ডা. নজমুল ইসলাম বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করে জানান, প্রস্তাবগুলো এর মধ্যে মন্ত্রণালয়ে এবং মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে পাঠানো হয়েছে। সরকারের পরবর্তী সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে কাজ করবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

দক্ষিণ কোরিয়ো রাষ্ট্রদূতের আইইউবি’র ক্যাম্পাস পরিদর্শন

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

দক্ষিণ কোরিয়ো রাষ্ট্রদূতের আইইউবি’র ক্যাম্পাস পরিদর্শন

বাংলাদেশে নিযুক্ত দক্ষিণ দক্ষিণ কোরিয়ো রাষ্ট্রদূত লি জ্যাং-কেন ১৭ জুন বৃহস্পতিবার রাজধানীর বসুন্ধরায় ইনডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ (আইইউবি) পরিদর্শন করেছেন। এ সময় তিনি আইইউবি'র উপাচার্য তানভীর হাসান, পিএইচডি এর সাথে বৈঠক করেন। দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক বজায় রেখে আগামী দিনগুলোতে বিভিন্ন ইস্যুতে আইইউবি’র সাথে যৌথভাবে কাজ করতে রাষ্ট্রদূত লি আশা প্রকাশ করেন। 

তিনি একাডেমিক এবং সাংস্কৃতিক সম্পর্ক আরও জোরদার করতে আইইউবিতে কোরিয়ান ভাষা শিক্ষা কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করতে কোরিয়া শিক্ষক পাঠানো সহ কোরিয়ো সেন্টার স্থাপন করার বিষয়ে আলোচনা করেন। এ সময় উপাচার্য তানভীর হাসান আইইউবি’র লক্ষ্য ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার কথা তুলে ধরেন। 

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন কোরিয়ো সংস্কৃতি বিষয়ক বিশেষজ্ঞ, বিশিষ্ট নির্মাতা, চলচ্চিত্র গবেষক ও আইইউবির মিডিয়া অ্যান্ড কমিউনিকেশন বিভাগের অধ্যাপক জাকির হোসেন রাজু সহ আইইউবি’র উপ -উপাচার্য অধ্যাপক নিয়াজ আহমেদ খান, ট্রেজারার খন্দকার ইফতেখার হায়দার, রেজিস্ট্রার বিগ্রেডিয়ার জেনারেল (অব.) আনোয়ারুল ইসলাম প্রমুখ। 

এরপর তিনি মিডিয়া অ্যান্ড কমিউনিকেশন বিভাগের ‘ব্রডকাস্ট জার্নালিজম (টিভি) ল্যাব’ এবং ‘অডিও ভিজ্যুয়াল পোস্ট প্রোডাকশন ল্যাব’ পরিদর্শন করেন। 

আইইউবি’র লেকচার থিয়েটারে আইইউবি কোরিয়ান ক্লাব (কে-ক্লাব) -এর উদ্যোগে একটি আলোচনা ও কালচারাল অনুষ্ঠানে অংশ নেন। আলোচনায় ফুটে উঠে ২০১৬ সাল থেকে অধ্যাপক রাজু তাঁর শিক্ষার্থীদের ‘কোরিয়ান সিনেমা অ্যাান্ড সোসাইটি’ বিষয়ে পড়ান। 

সারা পৃথিবীতে অল্পকিছু নামকরা বিশ্ববিদ্যালয়ে কোরিয়ো সংস্কৃতি নিয়ে পাঠদান করা হয় তারমধ্যে আইইউবি একটি যা অধ্যাপক রাজুর নেতৃত্বেই পড়ানো হয়। বাংলাদেশ-কোরিয়া সাংস্কৃতিক সম্পর্ক উন্নয়নে অধ্যাপক রাজুর গুরুত্বপুর্ণ অবদানের জন্য কোরিয়ো রাষ্ট্রদূত লি তাকে ধন্যবাদ জানান। স্কুল অব লিবারেল আর্টস অ্যান্ড সোশ্যাল সায়েন্সেস এর ডিন অধ্যাপক তৈয়েবুর রহমান সহ  মিডিয়া অ্যান্ড কমিউনিকেশন বিভাগের প্রভাষক ও কে-ক্লাবের সমন্বয়ক রাইয়ানা রহমান এ সময় উপস্থিত ছিলেন। 

আরও পড়ুন:


দুর্লভ আবাসিক পাখি ‘জল ময়ূর’

কাপুরুষোচিত হামলা চালিয়ে ইসরাইলি সেনাদের মনোবল চাঙ্গা হবে না: হামাস

বিবস্ত্র করা ছবি তুলে ফাঁদে ফেলে প্রবাসীর স্ত্রী, মামলায় আ.লীগ নেতাও আসামি

‘নিখিলকে আগেই বলেছিলাম, নুসরাত তোমাকে ঠকাবে’


news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

শিক্ষার্থীরা টিকা নেওয়ার পর খোলা হবে বিশ্ববিদ্যালয়: শিক্ষামন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

শিক্ষার্থীরা টিকা নেওয়ার পর খোলা হবে বিশ্ববিদ্যালয়: শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি জানিয়েছেন, টিকা দেওয়ার পর শিক্ষার্থীদের সরাসরি উপস্থিতিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষাকার্যক্রম শুরু হবে। আজ বৃহস্পতিবার স্পিকার জাতীয় সংসদের অধিবেশনে এ সংক্রান্ত প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ কথা জানান।


আরও পড়ুন

আবু ত্ব-হাকে খুঁজে বের করার দাবিতে সমাবেশ

ক্লাবে ঢুকে মদ না পেয়ে তারা ভাংচুর চালায় : ক্লাব কর্তৃপক্ষ (ভিডিও)

টিকা সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে: চীনের আশ্বাস

জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে পরীমণিকে


তিনি আরও জানান, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সকলকে অগ্রাধিকারভিত্তিতে খুব তাড়াতাড়ি করোনাভাইরাসের টিকার আওতায় নিয়ে আসা হবে। টিকা প্রদানের কর্মসূচি শুরু হবে হলের আবাসিক শিক্ষার্থীদের দিয়ে। টিকা প্রদানের পর হলগুলো খুলে দেওয়া হবে। এরপরই বিশ্ববিদ্যালয়ের সরাসরি পাঠদান শুরু হবে।

news24bd.tv/এমিজান্নাত

পরবর্তী খবর

বশেমুরবিপ্রবির ভিসি-রেজিস্ট্রারকে অবরুদ্ধ করে রেখেছে মাস্টারোল কর্মচারীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক

বশেমুরবিপ্রবির ভিসি-রেজিস্ট্রারকে অবরুদ্ধ করে রেখেছে মাস্টারোল কর্মচারীরা

গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বশেমুরবিপ্রবি) চাকরি স্থায়ীকরণের দাবিতে উপাচার্য ও রেজিস্ট্রারকে অবরুদ্ধ করে রেখেছে মাস্টাররোলের কর্মচারীরা।

আজ সকাল ১১টার দিকে আন্দোলনরত কর্মচারীরা উপাচার্য ও রেজিস্ট্রারের দপ্তরের ফটকে তালা লাগিয়ে দেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে জেলা প্রশাসনের প্রতিনিধি ও পুলিশ বিশ্ববিদ্যালয়ে অবস্থান করছে।

উপাচার্যকে অবরুদ্ধের বিষয়ে মাস্টাররোল কর্মচারী রিপন গাজী বলেন, আমরা গত তিন বছর যাবৎ অস্থায়ী ভিত্তিতে কাজ করছে। মাঝে প্রায় ১৩ মাস আমাদের বেতন বন্ধ ছিলো। নতুন উপাচার্য আসার পর চাকরি স্থায়ীকরণের আশ্বাস দিয়েছিলেন। কিন্তু আমরা এখনও আশ্বাসের কোনো বাস্তবায়ন দেখিনি। এখন আমাদের একটাই দাবি নীতিমালা প্রণয়ন করে চাকরি স্থায়ীকরণ করতে হবে। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত গেট আটকানো থাকবে এবং অবরোধ চলবে।

আরও পড়ুন:


স্বাধীনতার মূল শর্ত হচ্ছে বাক, চিন্তা ও মত প্রকাশের স্বাধীনতা: ফখরুল

এখনও খোঁজ মেলেনি আবু ত্ব-হা আদনানের, যা বলছে পুলিশ

রোনালদোকাণ্ডের পর এবার টেবিল থেকে বিয়ারের বোতল সরালেন পগবা


এ বিষয়ে উপাচার্য ড. এ কিউ এম মাহবুব বলেন, আমি বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্য হিসেবে আসার আগে মাস্টাররোলে প্রায় দেড় শতাধিক কর্মচারী নেওয়া হয়েছে। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয়ে এত সংখ্যক কর্মচারীর পদ নেই। ইউজিসির কাছে সম্প্রতি কিছু পদে লোক নিয়োগের আবেদন করা হয়েছে। এক্ষেত্রে হয়ত ১২-১৩টি কর্মচারীর পদ আসতে পারে। ইউজিসি অনুমতি না দিলে আমাদের চাকরি স্থায়ীকরণের সুযোগ নেই। বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য খন্দকার নাসিরউদ্দিন নিয়ম না মেনে মাস্টাররোলে এইসব কর্মচারীদের নিয়োগ দিয়েছিলেন।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

অটোপাস পাচ্ছেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের যেসব শিক্ষার্থীরা

অনলাইন ডেস্ক

অটোপাস পাচ্ছেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের যেসব শিক্ষার্থীরা

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের আওতাধীন অনার্স প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের অটোপাস দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।  এ ছাড়া স্নাতক দ্বিতীয় ও তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীদের মৌখিক অথবা অনলাইন পরীক্ষার মাধ্যমে পরবর্তী বর্ষে উত্তীর্ণ করার চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে। 

বিশ্ববিদ্যালয়ের সংশ্লিষ্ট সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মশিউর রহমান বলেন, আমরা শর্তসাপেক্ষে প্রথম বর্ষের ছাত্রছাত্রীদের অটোপাস দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আমরা সশরীরে পরীক্ষা নেব। তখন অটোপাস পাওয়া শিক্ষার্থীদের সেসব পরীক্ষায় পাস করতে হবে।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের আওতাধীন কলেজের শিক্ষার্থীরা ৩ বছর আগে অনার্স প্রথম বর্ষে ভর্তি হলেও করোনাভাইরাসের কারণে পরীক্ষা না হওয়ায় দ্বিতীয় বর্ষে উত্তীর্ণ হতে পারেনি। এই অবস্থায় শর্তসাপেক্ষে প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের অটোপাস দিয়ে দ্বিতীয় বর্ষে উত্তীর্ণ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এক্ষেত্রে ওই শিক্ষার্থীদের অনার্স শেষ করার আগে প্রথম বর্ষের বিষয়গুলোর পরীক্ষায় পাস করতে হবে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা নিয়ে যা বললেন শিক্ষামন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা নিয়ে যা বললেন শিক্ষামন্ত্রী

ফাইল ছবি

করোনা পরিস্থিতি দেখে চলতি বছরের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা হবে কি না বিবেচনা করা হবে বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি। মঙ্গলবার (১৫ জুন) দুপুরে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান তিনি।

তিনি আরও বলেন, ২০২১ সালের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য আমরা চেষ্টা করছি সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে পরীক্ষা নেওয়ার। এখন সেটিও যদি না হয়, আমরা তার বিকল্প নিয়েও চিন্তা করছি। কিন্তু এখন পরীক্ষা আমরা নিতে পারব কিনা, পরীক্ষা নিতে না পারলে বিকল্প কোনো ব্যবস্থা থাকলে- তার সবকিছু নিয়েই কিন্তু আমাদের চিন্তাভাবনা আছে।

গত রবিবার (১৩ জুন) চলতি বছরের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে নেওয়া সম্ভব না হলে বিকল্প ব্যবস্থার চিন্তাভাবনা চলছে বলে জানিয়েছিলেন শিক্ষামন্ত্রী।


আরও পড়ুন:


 

হেফাজত নেতা আজহারুল ইসলাম গ্রেপ্তার

সিলেটের জকিগঞ্জে দেশের ২৮তম গ্যাসক্ষেত্রের সন্ধান!

পরীমণিকে বোট ক্লাবে নিয়ে যাওয়া কে সেই অমি?

আবারও চুপি চুপি ‘রোমাঞ্চকর’ ভ্রমণে নুসরাত-যশ


উল্লেখ্য, গত বছরের ১৭ মার্চ দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়া হয়। চলতি বছরে কয়েক দফায় স্কুল ও কলেজ খোলার তারিখ নির্ধারণ এবং প্রস্তুতি নেওয়ার কথা বলা হলেও মহামারি পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায় তা সম্ভব হয়নি।

সর্বশেষ ১৩ জুন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার কথা থাকলেও তা পিছিয়ে ৩০ জুন পর্যন্ত ছুটি বাড়ানো হয়েছে।

news24bd.tv / নকিব

পরবর্তী খবর