জন্ম নিবন্ধনের নতুন শর্তে মানুষের হয়রানি

কাজী শাহেদ, রাজশাহী:

জন্ম নিবন্ধনের নতুন শর্তে ভোগান্তিতে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। রাজশাহী সিটি করপোরেশন ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের কার্যালয়ে বন্ধ আছে এই কার্যক্রম। এতে নাগরিক রোষে পড়ছেন কাউন্সিলররা। তবে ভোগান্তি দূর করতে উদ্যোগ নেয়ার কথা জানিয়েছেন মেয়র। 

যাদের জন্ম ২০০১ সালের পর তাদের জন্ম নিবন্ধনের জন্য বাবা-মায়ের জন্মসনদ বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। আগে মা-বাবার জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর দিয়েই নিবন্ধন করা যেত। আর এতেই সন্তানের জন্ম নিবন্ধন করাতে গিয়ে বিপাকে পড়ছেন অনেকে।


বঙ্গবন্ধুকে অবমাননা: মাদ্রাসায় ছোট পাউরুটি কেটে হাসাহাসি, আটক ২

দুবাইয়ে বঙ্গবন্ধুর ছবি প্রদর্শন স্থগিত

বাংলাদেশ ফুটবল দলে করোনায় আঘাত

সফরে এসে বাংলাদেশকে যে উপহার দেবেন মোদি

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ সহ ১২ দফা সুপারিশ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের


গত ১ জানুয়ারি থেকে নতুন নিয়ম কার্যকর হওয়ায় স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলের কার্যালয়গুলোতে বন্ধ আছে  জন্মনিবন্ধন।

স্থানীয় সরকার বিভাগের আওতাধীন রেজিস্ট্রার জেনারেল কার্যালয় এখন এই নিবন্ধনের দায়িত্বে। কিন্তু সরকারি সিদ্ধান্ত হলেও এনিয়ে প্রচারণা নেই। ফলে সাধারণ মানুষের ক্ষোভ কাউন্সিলরদের উপর।

মেয়র জানিয়েছেন, সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সংশোধনীর জন্য জেলাপ্রশাসকের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। তবে জনভোগান্তি দূর করতে উদ্যোগ নেবেন তিনি।

ভোগান্তি দূর করতে নতুন নিয়ম সম্পর্কে সিটি করপোরেশনের ওয়ার্ডগুলোতে বিশেষ প্রচারণা চালানোর দাবি করেছেন নাগরিকরা।

news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

সমুদ্রসৈকতে ভেসে আসল ১০ ফুট দৈর্ঘ্যের মৃত ডলফিন

অনলাইন ডেস্ক

সমুদ্রসৈকতে ভেসে আসল ১০ ফুট দৈর্ঘ্যের মৃত ডলফিন

পটুয়াখালীর কুয়াকাটা সমুদ্রসৈকতে এবার ভেসে এসেছে ১০ ফুট দৈর্ঘ্যের একটি মৃত ডলফিন। আজ রোববার (৯ মে) বেলা ১১টার দিকে কুয়াকাটার লেম্বুর বনসংলগ্ন সমুদ্রসৈকতে মৃত ডলফিনটি দেখতে পান স্থানীয়রা। 

পটুয়াখালী জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোল্লা এমদাদুল্লাহ বলেন, ঘটনাস্থলে মৎস্য বিভাগের কর্মকর্তাদের পাঠানো হয়েছে। কী কারণে মাছটি মারা গেছে সেটি নিশ্চিত হওয়ার জন্য পোস্টমর্টেম করার চেষ্টা করা হবে। তবে যদি অবস্থা বেশি খারাপ হয় তাহলে ডলফিনটি মাটিচাপা দেয়া হবে।

বাংলাদেশ বন বিভাগের বন্যপ্রাণী ও জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ কর্মকর্তা জোহরা মিলা বলেন, বন বিভাগের সহযোগিতায় বন্যপ্রাণীবিষয়ক আন্তর্জাতিক সংস্থা ওয়াইল্ডলাইফ কনজারভেশন সোসাইটির (ডব্লিউসিএস) জরিপে দেখা যায়, বাংলাদেশের নদী ও সমুদ্রসীমায় সাত প্রজাতির ডলফিনের আবাস রয়েছে। 

ডলফিন রক্ষায় জেলে স্থানীয়দের সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা আইন ২০১২ অনুযায়ী ডলফিন হত্যা করলে সর্বোচ্চ তিন বছরের কারাদণ্ড অথবা তিন লাখ টাকা পর্যন্ত জরিমানা অথবা উভয়দণ্ডের বিধান রয়েছে।

news24bd.tv / কামরুল  

পরবর্তী খবর

ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ভিজিএফ-এর কার্ড দেয়ার কথা বলে টাকা নেয়ার অভিযোগ

রফিকুল আলম, চাঁপাইনবাবগঞ্জ

ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ভিজিএফ-এর কার্ড দেয়ার কথা বলে টাকা নেয়ার অভিযোগ

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার মোবারকপুর ইউপি চেয়ারম্যান তোহিদুর রহমান মিঞার বিরুদ্ধে ভিজিএফ কার্ডধারীদের কাছ থেকে অগ্রিম ২৫০ টাকা করে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। তবে এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন চেয়ারম্যান তোহিদুর রহমান মিঞা।

জানা গেছে, পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে উপজেলার মোবারকপুর ইউনিয়নে ২ হাজার ৩’শ ৫টি অসহায় পরিবারের জন্য ৪ ৫০ টাকা হারে ১০ লাখ ৩৭ হাজার ২৫০ টাকা ও অতিদরিদ্র ৫’শ পরিবারের জন্য ৫’শ টাকা হারে ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়। কিন্তু এ ইউনিয়নের শিকারপুর ও দাইপুখুরিয়া গ্রামের প্রায় ৭’শ পরিবারের কাছ থেকে অগ্রিম ২ শত ৫০ টাকা করে ইউপি চেয়ারম্যান তৌহিদুর রহমান মিঞার নাম করে আদায় করেছেন তার সহকারি দাইপুখুরিয়া গ্রামের আবু বক্করের ছেলে একরামুল হক। একই সঙ্গে তিনি ওই পরিবারগুলোর পরিচয়পত্রের ফটোকপিতে সিরিয়াল নম্বর উল্লেখ করে দেন।

আরও পড়ুন


বরিশালে ৪০০ অসহায় পরিবারের মাঝে সেনাবাহিনীর ত্রাণ বিতরণ

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে গাছ কাটা ও অবকাঠামো নির্মাণ বন্ধে হাইকোর্টে রিট

নওগাঁয় অসহায় কৃষকের ধান কেটে ঘরে তুলে দিল শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা

করোনামুক্ত খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা কিছুটা উন্নতি: ফখরুল


আজ রোববার সকালে মোবারকপুর ইউনিয়নের শিকারপুর ও দাইপুখুরিয়া গ্রামের প্রায় শতাধিক ভুক্তভোগী নারী ইউপি চত্বরে ভিজিএফের টাকা নেয়ার জন্য জড়ো হন। এ সময় ভূক্তভোগী নারীদের উপস্থিতি টের পেয়ে ইউপি চেয়ারম্যান ও একরামুল হক সটকে পড়েন। ওই নারীরা আরও জানান, যদি ভিজিএফের টাকা না পাওয়া যায়, তাহলে আদায় করা টাকাগুলো তাদের ফেরত দেয়া হোক।

এ বিষয়ে একরামুল হকের সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন রিসিভ না করায় তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে মোবারকপুর ইউপি চেয়ারম্যান তৌহিদুর রহমান মিঞা অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, তিনি কোন টাকা নেননি এবং কেউ টাকা নিয়েছে কিনা এব্যাপারে তিনি কিছু বলতে পারবেন না। এদিকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাকিব আল-রাব্বি বলেন, জরুরী ভিত্তিতে ট্যাগ অফিসারকে সাথে নিয়ে বিষয়টি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

news24bd.tv আহমেদ

পরবর্তী খবর

বরিশালে ৪০০ অসহায় পরিবারের মাঝে সেনাবাহিনীর ত্রাণ বিতরণ

রাহাত খান, বরিশাল

বরিশালে ৪০০ অসহায় পরিবারের মাঝে সেনাবাহিনীর ত্রাণ বিতরণ

বরিশালের শেখ হাসিনা সেনা নিবাসের পক্ষ থেকে করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ ৪শত অসহায়-দুঃস্থ পরিবারের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

রোববার ১০টায় বাকেরগঞ্জ উপজেলার দেউলী বিলকিস জাহান টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড বিএম কলেজ মাঠে স্বাস্থ্যবিধি মেনে এই অসহায় দুঃস্থ পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করা হয়।

৬ পদাতিক ব্রিগেডের ব্যবস্থাপনায় এবং ৬২ ইস্ট বেঙ্গলের আয়োজনে ৬ পদাতিক ব্রিগেডের কমান্ডার এই ত্রাণ বিতরণ করেন। এ সময় শেখ হাসিনা সেনা নিবাসের অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন


সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে গাছ কাটা ও অবকাঠামো নির্মাণ বন্ধে হাইকোর্টে রিট

নওগাঁয় অসহায় কৃষকের ধান কেটে ঘরে তুলে দিল শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা

করোনামুক্ত খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা কিছুটা উন্নতি: ফখরুল

যে যেখানে আছে, সেখানে থেকেই ঈদ উদযাপনের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর


এর আগেও বরিশাল বিভাগের বিভিন্ন স্থানে শেখ হাসিনা সেনা নিবাসের পক্ষ থেকে একইভাবে দুঃস্থদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হয়। আগামীতে এই সহায়তা কার্যক্রম অব্যহত রাখার কথা জানিয়েছেন সেনা বাহিনীর কর্মকর্তারা।

news24bd.tv আহমেদ

পরবর্তী খবর

পাহাড়ে দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে সেনাবাহিনীর খাদ্য সহায়তা

ফাতেমা জান্নাত মুমু, রাঙামাটি:

পাহাড়ে দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে সেনাবাহিনীর খাদ্য সহায়তা

পার্বত্যাঞ্চলের করোনায় কর্মহীন মানুষকে খাদ্য সহায়তা দিয়েছে সেনাবাহিনী। রবিবার খাগড়াছড়ি সেনা রিজিয়নের উদ্যোগে ও খাগড়াছড়ি সদর জোনের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হয়। 

এ সময় খাগড়াছড়ি সদর উপজেলার প্রায় ২২০ পরিবারকে এ দেওয়া হয়। এসময় খাগড়াছড়ি সেনা সদর জোনের উপ-অধিনায়ক মেজর মো. সুলতান মাহমুদ শেখ, ক্যাপ্টেন সাফিন আল সাইফ পলক উপস্থিত ছিলেন।

সহায়তার মধ্যে ছিল প্রতি পরিবারকে ১০ কেজি চাল, এক কেজি ডাল, এক লিটার তৈল, ৫ কেজি লবণ, এক কেজি চিনি, একটি সাবানসহ বিভিন্ন দ্রব্যসামগ্রী। এছাড়া করোনাভাইরাস প্রতিরোধে মাস্ক বিতরণ করা হয়।

শুধু তাই নয় করোনা মহামারী শুরুর পর থেকেই দেশের সংকটময় মুহূর্তে পার্বত্যাঞ্চলের জনসাধারণের সেবায় এগিয়ে আসে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। করোনা মহামারী ও দেশের সংকটাপন্ন অবস্থা শেষ না হওয়া পর্যন্ত দেশের মানুষের সহায়তায় এ মানবিক কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে বলে জানায় সেনাবাহিনী।

news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

নওগাঁয় অসহায় কৃষকের ধান কেটে ঘরে তুলে দিল শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা

বাবুল আখতার রানা, নওগাঁ

নওগাঁয় অসহায় কৃষকের ধান কেটে ঘরে তুলে দিল শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা

নওগাঁর মহাদেবপুরের রাইগাঁ ডিগ্রী কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা এক অসহায় কৃষকের ধান কেটে মাড়াই করে ঘরে তুলে দিয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। করোনা ভাইরাসের মহামারিতে যখন কৃষক বাবুল হোসেন শ্রমিকের অভাবে জমির ধান কাটতে পারছিলেন না তখন খবর পেয়ে রাইগাঁ ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ আরিফুর রহমানের নেতৃত্বে ২৫-৩০জন শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও ম্যানেজিং কমিটির সদস্যবৃন্দ ওই কৃষকের ৩ বিঘা জমির ধান কেটে মাড়াই করে ঘরে তুলে দিয়েছেন।

গতকাল রবিবার দুপুরে মহাদেবপুর উপজেলার সহরাই পশ্চিম পাড়া মাঠে গিয়ে দেখা যায় কলেজের অধ্যক্ষ আরিফুর রহমানের নেতৃত্বে কাস্তে হাতে নিয়ে শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও ম্যানেজিং কমিটির সদস্যরা জমিতে নেমে ধান কাটছেন। পরে ওই ধানগুলো কৃষক বাবুলের বাড়িতে এনে মাড়াই করে দিয়েছেন। সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত তারা ওই কৃষকের জমির সকল ধান কেটে ঘরে তুলে দিয়েছেন।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন মহাদেবপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান, একাডেমিক সুপারভাইজার ফরিদুল ইসলাম প্রমুখ। শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের এমন উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন স্থানীয় সচেতন মহল।

অসহায় কৃষক বাবুল হোসেন বলেন, আমি গরীব এবং বয়স্ক মানুষ। করোনা ভাইরাসের কারণে ধান কাটার শ্রমিক পাওয়া যাচ্ছে না। আবার পাওয়া গেলেও তাদের মজুরী অনেক বেশি। তাই আমার পক্ষে এতো বেশি মজুরী দিয়ে শ্রমিক নিয়ে ধান কাটা সম্ভব নয়। আমার এমন অবস্থার কথা জানতে পেরে রাইগাঁ কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা এসে জমির ধান কেটে আমার ঘরে তুলে দিয়েছে। এতে আমি অনেক খুশি। আমি তাদের জন্য মন থেকে দোয়া করছি।

আরও পড়ুন


করোনামুক্ত খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা কিছুটা উন্নতি: ফখরুল

যে যেখানে আছে, সেখানে থেকেই ঈদ উদযাপনের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

এবার নার্সের ‘নিমুরা নিমুরা’ গানের নাচের ভিডিও ভাইরাল (ভিডিও)

করোনার ভারতীয় ধরণ, বিপদজনক ভবিষ্যতেরই পূর্বাভাস: কাদের


অধ্যক্ষ আরিফুর রহমান জানান, শুধু কৃষকের ধান কাটাই নয় এমন জনহিতকর কাজ তিনি অনেক আগে থেকেই করে আসছেন। তিনি নিজ উদ্যোগে মুজিব শতবর্ষে বিভিন্ন সামাজিক ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান এবং রাস্তার দুপাশ দিয়ে প্রায় সাড়ে এগার হাজার ফলদ ও বনজ গাছের চারা রোপন করেছেন।

এছাড়া এলাকায় সবুজায়নের জন্য বিভিন্ন জাতীয় ও গুরুত্বপ‚র্ন দিবসেও দীর্ঘদিন ধরেই তিনি গাছের চারা রোপন করে আসছেন। এসব কাজের পাশাপাশি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা মোতাবেক আমার কলেজের সকল শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্যদের নিয়ে মাঠে গিয়ে অসহায় কৃষকের ধান কাটার কার্যক্রম শুরু করেছি। যতদিন মাঠে ধান আছে ততদিন আমাদের এই কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। যেখানে খবর পাবো সেখানে গিয়ে আমরা স্বেচ্ছায় ওই কৃষকের ধান কেটে ঘরে তুলে দিয়ে আসবো।

news24bd.tv আহমেদ

পরবর্তী খবর