উন্নয়নশীল দেশগুলোর টিকা তৈরির পথ 'রুদ্ধ করছে' ধনী দেশগুলো

অনলাইন ডেস্ক

উন্নয়নশীল দেশগুলোর টিকা তৈরির পথ 'রুদ্ধ করছে' ধনী দেশগুলো

উন্নয়নশীল দেশগুলো যাতে তাদের নিজেদের জন্য টিকার উৎপাদনের সক্ষমতা অর্জন করে সেই সহায়তার প্রস্তাব আটকে দিচ্ছে যুক্তরাজ্যসহ অন্যান্য ধনী দেশ। বিবিসি নিউজনাইট অনুষ্ঠানে এ সংক্রান্ত নথি ফাঁস হয়েছে।

বেশ কয়েকটি দরিদ্র দেশ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে বলেছিল তাদের সহায়তা করতে।

আন্তর্জাতিক আইনের বিধান অনুযায়ী দরিদ্র দেশগুলোকে এই সহায়তা দেয়ার কথা থাকলেও ধনী দেশগুলো তা উপেক্ষা করছে।

এই তথ্য পাওয়া গেছে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার একটি ফাঁস হওয়া অনুলিপি থেকে।

এই ধনী দেশগুলির মধ্যে যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলো রয়েছে।

জাস্ট ট্রিটমেন্টের ডায়ারমেড ম্যাকডোনাল্ড বলেন "ভাষাসহ এমন আরও অনেক বিষয় রয়েছে, যার কারণে একটি দেশের পক্ষে অভ্যন্তরিণভাবে আরও বেশি টিকা এবং ওষুধ উৎপাদন করা সহজ হয়। এর মধ্যে এমন উদ্যোগও থাকবে যা অর্থায়নের বিষয়টিকে সহজতর করবে। অন্যদিকে যুক্তরাজ্য এ ধরণের প্রগতিশীল প্রস্তাবগুলো সরিয়ে নেয়ার চেষ্টা করেছে,"

জাস্ট ট্রিটমেন্ট মূলত রোগীদের একটি গোষ্ঠী যারা ওষুধের সুষ্ঠু সরবরাহে জন্য কাজ করে।

যুক্তরাজ্য সরকারের একজন মুখপাত্র বলেছেন, "বিশ্বব্যাপী মহামারির জন্য একটি বিশ্বব্যাপী সমাধান প্রয়োজন এবং যুক্তরাজ্য বিশ্বজুড়ে কোভিডের টিকা এবং এ রোগের চিকিৎসা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে এগিয়ে চলেছে, সামনে থেকে নেতৃত্ব দিচ্ছে।"

ওই মুখপাত্র বলেছেন, চলতি বছরে উন্নয়নশীল দেশগুলো যেন করোনাভাইরাসের এক কোটি ডোজ টিকা পায় তা নিশ্চিত করার জন্য যে আন্তর্জাতিক প্রচেষ্টা চলছে, তার অন্যতম অনুদান প্রদানকারী দেশ হল যুক্তরাজ্য।

এসব ওষুধের সরবরাহ সাশ্রয়ী মূল্যে নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে সরকার কখন হস্তক্ষেপ করবে কিংবা হস্তক্ষেপ করবে কিনা, সেটি একটি দীর্ঘস্থায়ী সমস্যা।

তবে বিভিন্ন দেশের টিকা ও ওষুধ সংগ্রহের সক্ষমতার বিষয়টি মহামারির সময়ে উঠে এসেছে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন যে, বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে মৃত্যু রোধ করতে এবং মানুষের মধ্যে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে তুলতে ভ্যাকসিনের ন্যায়সঙ্গত প্রবেশাধিকার অপরিহার্য।

ওষুধ নীতি এবং মেধাসত্ব আইন বিশেষজ্ঞ এলেন টি'হোয়ান বলেছেন, বিশ্বব্যাপী ওষুধ প্রস্তুত করার সক্ষমতা রয়েছে প্রয়োজনের তিনভাগের এক ভাগ।

"এসব টিকা ধনী দেশগুলিতে উৎপাদিত হয় এবং সাধারণত ধনী দেশগুলোই তা সংরক্ষণ করে থাকে।"

"উন্নয়নশীল দেশগুলি বলছে যে তারা এই সুযোগের ভাগ চান, কেবল টিকার অংশই নয়, এই টিকাগুলো উৎপাদন করার অধিকারেরও চেয়েছেন তারা," তিনি যোগ করেন।

একটি টিকা তৈরির জন্য আপনার কেবলমাত্র ওই পেটেন্ট বা সরঞ্জামের প্রয়োজন তা নয়, আপনার এই টিকা উৎপাদনের অধিকারও থাকতে হবে, কীভাবে এটি তৈরি করতে হয় সে সম্পর্কে আপনার জ্ঞান থাকতে হবে। কারণ টিকা উৎপাদনের প্রযুক্তি বেশ জটিল।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এই পেটেন্টগুলো পাশ কাটিয়ে যাওয়ার এখতিয়ার নেই - তবে তারা টিকা সরবরাহ কিভাবে জোরদার করা যায় তা বের করতে বিভিন্ন দেশকে সমন্বিত করার চেষ্টা করছে।

আলোচনার মধ্যে রয়েছে পেটেন্ট পাওয়ার জন্য আন্তর্জাতিক আইনের বিধান ব্যবহার করা এবং দেশগুলোকে তাদের প্রযুক্তিগত দক্ষতা অর্জনে সহায়তা করা।

তবে ওষুধ শিল্পগুলো বলছে, পেটেন্ট রক্ষা করা না গেলে কোভিড এবং অন্যান্য যেকোনো রোগের চিকিৎসায় ভবিষ্যতে বিনিয়োগ করার ক্ষমতা বাধার মুখে পড়বে।

এই মাসের শুরুতে, যুক্তরাষ্ট্রের ওষুধ শিল্পের প্রতিনিধিরা তাদের উদ্বেগ জানাতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে চিঠি লেখেন।

"এই সুরক্ষাগুলো তুলে নিলে মহামারির বিরুদ্ধে বৈশ্বিক প্রচেষ্টা বাধাগ্রস্ত হবে," এই চিঠিতে তারা করোনাভাইরাসের, নতুন ধরণ মোকাবেলায় চলমান প্রচেষ্টার বিষয়টিও উল্লেখ করেছে।

প্রতিনিধিরা বলেছেন, এটি এমন বিভ্রান্তি সৃষ্টি করবে যা টিকার নিরাপত্তার ব্যাপারে মানুষের মধ্যে আস্থাহীনতার সৃষ্টি করবে এবং তথ্য ভাগাভাগিতে বাধা সৃষ্টি করতে পারে।

"সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হল টিকার নিরাপত্তার বিষয়ে প্রশ্ন উঠলে উৎপাদনও ঝুঁকির মুখে পড়বে।" তারা যোগ করেছে।


আরও পড়ুনঃ


দক্ষিণ আফ্রিকায় সড়ক দুর্ঘটনায় দুই বাংলাদেশি নিহত

মওদুদ আহমদ আমাদের একজন অভিভাবক ছিলেন: ফখরুল

সুনামগঞ্জে আবারও মহাসমাবেশ ডেকেছে হেফাজত

পত্রিকার সাংবাদিকগুলো বিসিএস ক্যাডার চাকরিটাকে বিশাল কিছু বানিয়ে ফেলেছেন


এতে অন্যরাও একমত। ভ্যাকসিন ইমিউনলজির বিশেষজ্ঞ অ্যান মুর ভবিষ্যতের গবেষণায় পেটেন্ট কেমন প্রভাব ফেলবে তা নিয়ে চিন্তিত।

তিনি বলেন "সময়ের সাথে সাথে আমরা দেখছি যে অনেক কম সংস্থা এবং বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান এই টিকা উৎপাদনের সাথে আছে। কারণ এতে লাভ খুব কম।"

ওষুধ কোম্পানিগুলো জানিয়েছে যে তারা মহামারি মোকাবেলায় আর্থিক অনুদান ও ওষুধ দিয়েছে।

তবে প্রচারকারীদের দাবি ১২ হাজার ৫শ কোটি ডলার অর্থ কোভিড-১৯ এর চিকিৎসা এবং টিকার উন্নয়নের পেছনে ব্যয় হয়েছে। এবং এই অর্থ সাধারণ মানুষের অর্থ, তাই মানুষের এই ভাগ পাওয়া উচিৎ। একবার এই মহামারি বিদায় নিলে, প্রচুর অর্থোপার্জন করা যাবে বলে তারা জানান।

মিসেস টি'হোয়ান বলেছেন "এটি স্পষ্ট যে মহামারির কঠিন মুহূর্তটি শেষ হওয়ার পরে এই টিকাগুলোর দাম বাড়ানোর দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা রয়েছে। সুতরাং উন্নয়নশীল দেশগুলো বলছে যে আমাদের এখন এসব টিকা তৈরি করার দক্ষতা অর্জন করা আরও বেশি প্রয়োজন।”

সূত্রঃ বিবিসি

news24bd.tv / নকিব

পরবর্তী খবর

যুক্তরাষ্ট্রে বিমান বিধ্বস্ত

অনলাইন ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রে বিমান বিধ্বস্ত

যুক্তরাষ্ট্রের ফিলাডেলফিয়ার বিমানবন্দরের কাছে বিমান বিধ্বস্ত হয়ে বিমান চালক নিহত হয়েছেন। বিমানটি একটি বাড়ির পেছনে বিধ্বস্ত হয়।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বার্কিংহামের দোয়েলস্টাউন বিমানবন্দরের কাছে একটি বনভূমি এলাকায় এই বিমানদুর্ঘটার ঘটনা ঘটে।

আরও পড়ুন:


বিপদটা এখানেই

ফ্রান্সের কাছে জার্মানির হার

ওমানের কাছে ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত বাংলাদেশ


বাকিংহামের পুলিশের বরাতে যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদ সংস্থা দ্যা এক্সপ্রেসের জানিয়েছে, সিঙ্গেল ইঞ্জিনের বিমানের পাইলট একাই বিমানটি পরিচলনা করছিলেন। হঠাৎ বিমানটি বিধ্বস্ত হলে ঘটনাস্থলে চালক মারা যান। নিহত পাইলটের নাম প্রকাশ করা হয়নি। তবে এই ঘটনায় কোনও বাড়িঘর বা অন্যান্য কাঠামো ক্ষতিগ্রস্ত হয়নি।

দেশটির জাতীয় পরিবহন সুরক্ষা বোর্ড জানিয়েছে, বিমানটি এক্সপেরিমেন্টাল ভ্যানের আরভি-৬, যেটি এক ধরণের গৃহনির্মিত বিমান।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

মেক্সিকোতে বাস দুর্ঘটনায় নিহত ১২

অনলাইন ডেস্ক

মেক্সিকোতে বাস দুর্ঘটনায় নিহত ১২

মেক্সিকোতে যাত্রীবাস উল্টে গিয়ে কমপক্ষে ১২ জন নিহত হয়েছেন। এ দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন ১০ জন। 

দেশটির উত্তরপূর্বাঞ্চলের রাজ্য তামাউলিপাসে মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি। 

খবরে বলা হয়, নাগরিক সুরক্ষা সমন্বয়ক পেদ্রো গ্রানাদোস সাংবাদিকদের জানান, দুর্ঘটনায় বাসের চালকসহ নয়জন ঘটনাস্থলেই নিহত হন। হাসপাতালে নেয়ার পর মৃত্যু হয় আরও তিনজনের। আহতদের হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন:


স্বাধীনতার মূল শর্ত হচ্ছে বাক, চিন্তা ও মত প্রকাশের স্বাধীনতা: ফখরুল

এখনও খোঁজ মেলেনি আবু ত্ব-হা আদনানের, যা বলছে পুলিশ

রোনালদোকাণ্ডের পর এবার টেবিল থেকে বিয়ারের বোতল সরালেন পগবা


 

সীমান্তবর্তী শহর রেইনোসা থেকে পাশের রাজ্য নুয়েভো লিয়নের মনটেরির উদ্দেশ্যে বাসটি যাচ্ছিল। সেসময় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

গুজরাটে দুই গাড়ির সংঘর্ষে নিহত ১০

অনলাইন ডেস্ক

গুজরাটে দুই গাড়ির সংঘর্ষে নিহত ১০

ভারতের গুজরাটের সড়ক দুর্ঘটনায় ১০ জন নিহত হয়েছেন। বুধবার সকালে আনন্দ জেলার তারাপুর থানার ইন্দ্রনাজ গ্রামের কাছে এ ঘটনা ঘটে। 

তারাপুর থানার পুলিশ কর্মকর্তার বরাতে হিন্দুস্তান টাইমস ​জানিয়েছেন, আনন্দ জেলার তারাপুরকে আহমেদাবাদ জেলার ভাতামানকে সংযোগকারী একটি মহাসড়কে দুর্ঘটনাটি ঘটেছে।

আরও পড়ুন:


বিপদটা এখানেই

ফ্রান্সের কাছে জার্মানির হার

ওমানের কাছে ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত বাংলাদেশ


তিনি বলেন, গাড়িতে একটি শিশুসহ মোট ১০ জন যাত্রী ছিল, বিপরীত দিক থেকে আসা দ্রুতগামী ট্রাকের ধাক্কায় তারা সবাই নিহত হয়েছেন।

ওই কর্মকর্তা জানান, গাড়ির ভেতর থেকে লাশগুলো বের করা হয়েছে। নিহতদের শনাক্ত করার চেষ্টা চলছে।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

সোমালিয়ায় আত্মঘাতী বোমা হামলা, নিহত ১৫

অনলাইন ডেস্ক

সোমালিয়ায় আত্মঘাতী বোমা হামলা, নিহত ১৫

সোমালিয়ার রাজধানী মোগাদিশুতে আত্মঘাতী বোমা হামলায় অন্তত ১৫ জন নিহত হয়েছেন। জঙ্গি গোষ্ঠী আল শাবাব এর দায় স্বীকার করেছে।

মঙ্গলবার সেনাবাহিনীর একটি শিবিরের সামনে নতুন নিয়োগকৃতদের লাইন লক্ষ্য করে হামলাটি চালানো হয়।


বিপদটা এখানেই

ফ্রান্সের কাছে জার্মানির হার

ওমানের কাছে ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত বাংলাদেশ


 

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রত্যক্ষদর্শী একজন সাংবাদিক এ তথ্য জানিয়েছেন।

রয়টার্স জানিয়েছে, ওই লাশগুলো মোগাদিশুর জেনারেল দেগাবান সামরিক প্রশিক্ষণ শিবিরের বাইরে একটি চেকপয়েন্টে চালানো হামলায় যারা নিহত হয়েছেন, তাদের বলে নিশ্চিত করেছেন হাসপাতালটিতে থাকা কর্মকর্তারা।

আল শাবাবের রেডিও আল আনদালুসে বলা হয়েছে, জঙ্গি গোষ্ঠীটির যোদ্ধারা হামলাটি চালিয়েছে।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

সেই কিশোরের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে সৌদি সরকার

অনলাইন ডেস্ক

সেই কিশোরের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে সৌদি সরকার

ছয় বছর আগে রাজতন্ত্রবিরোধী আন্দোলনের দায়ে সৌদি আরবের পূর্বাঞ্চলীয় কাতিফ শহরে আটক এক কিশোরের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে দেশটির সরকার। এই কিশোরের বিরুদ্ধে উসকানি সৃষ্টি এবং শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভে অংশ নেয়ার অভিযোগ এনেছিল রিয়াদ।

এছাড়া, তার বিরুদ্ধে আরো ভিত্তিহীন নানা অভিযোগ এনেছিল সৌদি সরকার। কাতিফ হচ্ছে সৌদি আরবের শিয়া মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ একটি অঞ্চল।

গতকাল মঙ্গলবার সৌদি আরবের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এই কিশোরের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার ব্যাপারে একটি বিবৃতি দিয়েছে। এতে বলা হয়েছে, মুস্তাফা বিন হাশেম বিন ঈসা আল-দারভিশ নামে এই কিশোরের মৃত্যুদণ্ডের শাস্তি কার্যকর করা হয়েছে। সৌদি আরবের পূর্বাঞ্চলীয় দাম্মাম প্রদেশে তার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়।

আরও পড়ুন


এখনও খোঁজ মেলেনি আবু ত্ব-হা আদনানের, যা বলছে পুলিশ

দেশের নদীবন্দরে সতর্কতা

সংসদে এমপি চুন্নু বললেন, নাসির ‘ভালো লোক’

বিশ্বে করোনা আক্রান্তের সর্বশেষ তথ্য


সৌদি সরকার অভিযোগ করেছিল যে, মুস্তাফা দেশটির সরকারের বিরুদ্ধে অস্ত্র হাতে তুলে নিয়েছিল, জাতীয় নিরাপত্তা হুমকির মুখে ফেলেছিল, সৌদি নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের হত্যার জন্য একটি সন্ত্রাসী চক্র গড়ে তুলেছিল এবং উসকানি দিয়ে দাঙ্গা-হাঙ্গামা সৃষ্টির চেষ্টা করেছে। সৌদি সরকারের এ সমস্ত অভিযোগ মানবাধিকার সংগঠনগুলো প্রত্যাখ্যান করে কিশোর মোস্তফার বিরুদ্ধে দেয়া মৃত্যুদণ্ডের আদেশ প্রত্যাহারের আহ্বান জানিয়েছিল। কিন্তু সৌদি সরকার এসব আহ্বানকে উপেক্ষা করে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে।

২০১৫ সালে কাতিফ শহর থেকে মুস্তাফাকে আটক করা হয়। তখন তার বয়স ছিল ১৭ বছর। সূত্র: পার্সটুডে।

news24bd.tv আহমেদ

পরবর্তী খবর