সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে প্রতিরোধ করার আহবান দেশের ১০ বরণ্যে বুদ্ধিজীবীর
Breaking News
সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে প্রতিরোধ করার আহবান দেশের ১০ বরণ্যে বুদ্ধিজীবীর

সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে প্রতিরোধ করার আহবান দেশের ১০ বরণ্যে বুদ্ধিজীবীর

অনলাইন ডেস্ক

ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যে দিয়ে দেশব্যাপী চলছে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী উদযাপন। ঠিক এই সময় সুনামগঞ্জের শাল্লার নোয়াগাঁও গ্রামে সংখ্যালঘুদের বাড়িঘরে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় গোটা দেশ বাকরুদ্ধ, স্তম্ভিত।  

এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে এর সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তার ও কঠোর শাস্তির দাবি জানিয়েছেন দেশের দশ বরেণ্য বুদ্ধিজীবী।  

আজ সন্ধ্যায় তাদের স্বাক্ষরিত এক বিবৃতি গণমাধ্যমে পাঠানো হয়েছে।

 

দশ বুদ্ধিজীবী হলেন-আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী, হাসান আজিজুল হক, শামসুজ্জামান খান, সারোয়ার আলী, মফিদুল হক, মামুনুর রশীদ, মুনতাসীর মামুন, শাহরিয়ার কবীর, আবদুস সেলিম ও নাসির উদ্দীন ইউসুফ।

বিবৃতিতে বলা হয়, বাংলাদেশের জনগণ যখন স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী ও মুজিববর্ষ পালন করছে তখন শাল্লায় যে অমানবিক সাম্প্রদায়িক ঘটনা ঘটেছে তা আমাদের ক্ষুব্ধ করেছে।  

বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী থাকাকালীন সময়ে এ ধরণের সাম্প্রদায়িক ঘটনা আমাদের বিস্মিত করেছে।

বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে মারফত জানা গেছে, হেফাজতের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মামুনুল হক-এর উস্কানিতে ও হেফাজতের অনুসারীরা সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্ত করে এ বীভৎস সাম্প্রদায়িক ঘটনা ঘটাতে সক্ষম হয়।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, সংবাদ পত্র অনুসারে স্থানীয় প্রশাসন ও আইন শৃঙ্খলা বাহিনী সম্ভাব্য হামলা সম্পর্কে জেনেও যথাযত ব্যবস্থা নেয়নি। আমরা অবিলম্বে উস্কানিদাতা মামুনুল হক ও শাল্লার নিরীহ মানুষের ওপর আক্রমণকারী ও অগ্নিসংযোগকারী-লুন্ঠনকারী সকল দাঙ্গাবাজদের গ্রেপ্তারের জোর দাবি জানাচ্ছি।

গত বেশ ক'বছর ধরে বিভিন্ন মহলের প্রশ্রয়ে সাম্প্রদায়িক হেফাজত- জামাতিরা দেশের বিভিন্নস্থানে এ ধরণের ঘটনা সাহস পাচ্ছে। পাশাপাশি এই সাম্প্রদায়িক শক্তি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেশের অনেক প্রগতিশীল ব্যক্তিদের নামে কুৎসা রটনা করছে। অথচ বিআরটিসি এই কুৎসা রটনাকারীদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়নি। আমরা এই দণ্ডযোগ্য অপরাধ নিয়ন্ত্রণে বিআরটিসি'র যথাযথ তৎপরতা প্রত্যাশা করি।

আমাদের আশঙ্কা শেখ হাসিনা দেশকে যে লক্ষে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন এবং বিশ্বব্যপী বাংলাদেশের যে ভাবমূর্তি গড়ে তুলেছেন, শাল্লাজাতীয় সাম্প্রদায়িক ঘটনা সেই ভাবমূর্তিকে বিনষ্টকরবে এবং একটি নেতিবাচক দেশ হিসাবে বাংলাদেশ বিশ্বে প্রতীয়মান হবে।


বগুড়ার শেরপুরে দুই বাসের সংঘর্ষের ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪

সুন্দরবনে মারা যাওয়া বাঘটির মৃত্যুরহস্য জানা গেলো

হাসপাতালে ভর্তি বাবা, সব ফেলে দেশে ফিরলেন নায়ক মারুফ

দেশে অস্থিরতা সৃষ্টি করতে চাইলে বিষদাঁত ভেঙে দেয়া হবে: কাদের


অতীতে আমরা দেখেছি যারা এ ধরণের ঘটনা ঘটিয়েছে তাদের বিচারকার্য এখনো সন্পন্ন হয়নি। আমদের আশঙ্কা এ ধরণের সাম্প্রদায়িক ঘটনা অব্যাহত থাকলে বাংলাদেশ এগিয়ে যাবেনা, পিছিয়ে যাবে এবং এতদিনের সব অর্জন ভুলুণ্ঠিত হবে।

এই দাঙ্গাবাজ, সাম্প্রদায়িক অপশক্তির বিরুদ্ধে সরকার যে ব্যবস্থাই নেন তা সরকারের বিবেচনা।

দেশের সকল সুনাগরিকদের প্রতি আমাদের আহ্বান। আসুন আমরা সম্মিলিতভাবে এই জঙ্গী সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে প্রতিরোধ করি।

news24bd.tv নাজিম

;