সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে প্রতিরোধ করার আহবান দেশের ১০ বরণ্যে বুদ্ধিজীবীর

অনলাইন ডেস্ক

সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে প্রতিরোধ করার আহবান দেশের ১০ বরণ্যে বুদ্ধিজীবীর

ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যে দিয়ে দেশব্যাপী চলছে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী উদযাপন। ঠিক এই সময় সুনামগঞ্জের শাল্লার নোয়াগাঁও গ্রামে সংখ্যালঘুদের বাড়িঘরে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় গোটা দেশ বাকরুদ্ধ, স্তম্ভিত। 

এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে এর সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তার ও কঠোর শাস্তির দাবি জানিয়েছেন দেশের দশ বরেণ্য বুদ্ধিজীবী। 

আজ সন্ধ্যায় তাদের স্বাক্ষরিত এক বিবৃতি গণমাধ্যমে পাঠানো হয়েছে। 

দশ বুদ্ধিজীবী হলেন-আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী, হাসান আজিজুল হক, শামসুজ্জামান খান, সারোয়ার আলী, মফিদুল হক, মামুনুর রশীদ, মুনতাসীর মামুন, শাহরিয়ার কবীর, আবদুস সেলিম ও নাসির উদ্দীন ইউসুফ।

বিবৃতিতে বলা হয়, বাংলাদেশের জনগণ যখন স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী ও মুজিববর্ষ পালন করছে তখন শাল্লায় যে অমানবিক সাম্প্রদায়িক ঘটনা ঘটেছে তা আমাদের ক্ষুব্ধ করেছে। 

বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী থাকাকালীন সময়ে এ ধরণের সাম্প্রদায়িক ঘটনা আমাদের বিস্মিত করেছে।

বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে মারফত জানা গেছে, হেফাজতের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মামুনুল হক-এর উস্কানিতে ও হেফাজতের অনুসারীরা সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্ত করে এ বীভৎস সাম্প্রদায়িক ঘটনা ঘটাতে সক্ষম হয়।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, সংবাদ পত্র অনুসারে স্থানীয় প্রশাসন ও আইন শৃঙ্খলা বাহিনী সম্ভাব্য হামলা সম্পর্কে জেনেও যথাযত ব্যবস্থা নেয়নি। আমরা অবিলম্বে উস্কানিদাতা মামুনুল হক ও শাল্লার নিরীহ মানুষের ওপর আক্রমণকারী ও অগ্নিসংযোগকারী-লুন্ঠনকারী সকল দাঙ্গাবাজদের গ্রেপ্তারের জোর দাবি জানাচ্ছি।

গত বেশ ক'বছর ধরে বিভিন্ন মহলের প্রশ্রয়ে সাম্প্রদায়িক হেফাজত- জামাতিরা দেশের বিভিন্নস্থানে এ ধরণের ঘটনা সাহস পাচ্ছে। পাশাপাশি এই সাম্প্রদায়িক শক্তি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেশের অনেক প্রগতিশীল ব্যক্তিদের নামে কুৎসা রটনা করছে। অথচ বিআরটিসি এই কুৎসা রটনাকারীদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়নি। আমরা এই দণ্ডযোগ্য অপরাধ নিয়ন্ত্রণে বিআরটিসি'র যথাযথ তৎপরতা প্রত্যাশা করি।

আমাদের আশঙ্কা শেখ হাসিনা দেশকে যে লক্ষে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন এবং বিশ্বব্যপী বাংলাদেশের যে ভাবমূর্তি গড়ে তুলেছেন, শাল্লাজাতীয় সাম্প্রদায়িক ঘটনা সেই ভাবমূর্তিকে বিনষ্টকরবে এবং একটি নেতিবাচক দেশ হিসাবে বাংলাদেশ বিশ্বে প্রতীয়মান হবে।


বগুড়ার শেরপুরে দুই বাসের সংঘর্ষের ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪

সুন্দরবনে মারা যাওয়া বাঘটির মৃত্যুরহস্য জানা গেলো

হাসপাতালে ভর্তি বাবা, সব ফেলে দেশে ফিরলেন নায়ক মারুফ

দেশে অস্থিরতা সৃষ্টি করতে চাইলে বিষদাঁত ভেঙে দেয়া হবে: কাদের


অতীতে আমরা দেখেছি যারা এ ধরণের ঘটনা ঘটিয়েছে তাদের বিচারকার্য এখনো সন্পন্ন হয়নি। আমদের আশঙ্কা এ ধরণের সাম্প্রদায়িক ঘটনা অব্যাহত থাকলে বাংলাদেশ এগিয়ে যাবেনা, পিছিয়ে যাবে এবং এতদিনের সব অর্জন ভুলুণ্ঠিত হবে।

এই দাঙ্গাবাজ, সাম্প্রদায়িক অপশক্তির বিরুদ্ধে সরকার যে ব্যবস্থাই নেন তা সরকারের বিবেচনা।

দেশের সকল সুনাগরিকদের প্রতি আমাদের আহ্বান। আসুন আমরা সম্মিলিতভাবে এই জঙ্গী সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে প্রতিরোধ করি।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

যেসব কারণে গণপরিবহন বন্ধের কথা বলছেন পরিবহন সংশ্লিষ্টরা

অনলাইন ডেস্ক

যেসব কারণে গণপরিবহন বন্ধের কথা বলছেন পরিবহন সংশ্লিষ্টরা

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ৮১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ পর্যন্ত করোনায় দেশে মোট মৃত্যু হয়েছে ১৩ হাজার ৮৬৮ জনের। এমন অবস্থায় করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে সারাদেশে ১৪ দিনের ‘শাটডাউন’ দেওয়ার সুপারিশ করেছে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি। করোনার সংক্রমণ রোধে ঢাকাকে  বিচ্ছিন্ন করার কৌশল নিয়েছে সরকার। এরই অংশ হিসেবে ঢাকা থেকে বন্ধ রয়েছে সারাদেশের বাস, ট্রেন ও লঞ্চ চলাচল। এ অবস্থায় জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঢাকাসহ দেশের সর্বত্র গণপরিবহন চলাচল বন্ধের সুপারিশ করেছেন জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা।

পরিবহন খাত সংশ্লিষ্টরা বলছেন, গণপরিবহন হিসেবে শুধু বাস চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। কিন্তু যাত্রী পরিবহনের অন্যান্য বাহন চলছে। বন্ধ রাখলে সব ধরনের যাত্রীবাহী পরিবহন বন্ধ রাখতে হবে। ভেঙে ভেঙে যাত্রীদের চলাচলও বন্ধ করে দিতে হবে।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক লীগের সভাপতি মোহাম্মদ হানিফ খোকন বলেন, ঢাকায় করোনার সংক্রমণ বেড়েছে। ফলে নগরীতে গণপরিবহনের চলাচল পুরোপুরি বন্ধ করে দিতে হবে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) সাবেক উপাচার্য ও কোভিড–১৯ বিষয়ক জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটির সদস্য অধ্যাপক ডা. নজরুল ইসলাম বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) গণমাধ্যমকে বলেন, বিকল্প উপায় না থাকায় ঢাকার আশপাশের জেলাসহ সাত জেলায় লকডাউন দেওয়া হয়েছে। সারাদেশের সঙ্গে ঢাকার বাস, ট্রেন, লঞ্চ চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। কিন্তু অন্য জেলা থেকে ঢাকায় বা ঢাকা থেকে অন্য জেলায় মানুষের চলাচল বন্ধ হয়নি। এতে মূল উদ্দেশ্য বাস্তবায়ন হচ্ছে না। তবে খানিকটা ফল পাওয়া যাবে।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের পাবলিক হেলথ অ্যাডভাইজরি কমিটির সদস্য ও জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ আবু জামিল ফয়সাল বলেন, এখন আমাদের খুব কঠিন অবস্থানে যেতে হবে। আন্তঃজেলা বাস চলাচল বন্ধ করা হয়েছে। কিন্তু যাত্রীদের চলাচল থেমে নেই। বিভিন্ন জেলা থেকে মানুষজন ঢাকায় আসছে। বিকল্প যানে এ চলাচল বন্ধ করতে হবে।


শাটডাউন আসলে কি?

‘যেকোনো সময় শাট ডাউনের ঘোষণা’

স্কুলকেই শারীরিক সম্পর্কের নিরাপদ জায়গা বানালেন তারা!


এদিকে, সব ধরনের যাত্রীবাহী পরিবহন বন্ধের পক্ষে মত দিয়েছেন পরিবহন নেতারাও। তারা বলছেন, দেশের সব জায়গায় যাত্রীবাহী পরিবহন বন্ধ করে দেওয়ার সময় এসেছে।  পণ্যবাহী পরিবহন ছাড়া সব ধরনের যাত্রীবাহী পরিবহন বন্ধ করতে হবে। গণপরিবহনের সংজ্ঞার মধ্যে পড়ে না এমন যানবাহনেও যাত্রী চলাচল বন্ধ করতে হবে। 

প্রসঙ্গত, দেশে এ পর্যন্ত করোনায় দেশে মোট মৃত্যু হয়েছে ১৩ হাজার ৮৬৮ জনের।  মোট শনাক্তের সংখ্যা  ৮ লাখ ৭২ হাজার ৯৩৫ জনে। এদিকে  বাংলাদেশের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ২১ শে জুন প্রকাশিত সর্বশেষ সপ্তাহের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের ৪০ জেলা বর্তমানে করোনা সংক্রমণের অত্যান্ত উচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

সারা দেশে বজ্রসহ বৃষ্টির আভাস

অনলাইন ডেস্ক

সারা দেশে বজ্রসহ বৃষ্টির আভাস

আগামী সপ্তাহ সারা দেশে বজ্রসহ বৃষ্টিপাতের আভাস দিয়েছে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর। বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) রাতে এক পূর্বাভাসে এমন তথ্য জানিয়েছে।

আবহাওয়াবিদ মো. আরিফ হোসেন বলেন, মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের উপর সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে মাঝারি অবস্থান করছে। মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে আগামী সপ্তাহে বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা আছে।

শুক্রবার (২৫ জুন) ঢাকা, রংপুর, রাজশাহী, ময়মনসিংহ, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি/বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। একই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে মাঝারি ধরনের ভারী বর্ষণ হতে পারে। সারাদেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা সামান্য বাড়তে পারে। ঢাকায় এসময় দক্ষিণ/দক্ষিণ-পূর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় বাতাসের গতিবেগ থাকবে ৬-১২ কিমি।

শনিবার নাগাদ আবহাওয়ার সামান্য পরিবর্তন হতে পারে। আর বর্ধিত পাঁচদিনে বৃষ্টিপাতের প্রবণতা বাড়তে পারে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

‘শাটডাউনে’ কঠোর থেকে কঠোরতর বিধিনিষেধ

নিজস্ব প্রতিবেদক

‘শাটডাউনে’ কঠোর থেকে কঠোরতর বিধিনিষেধ

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ৮১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ পর্যন্ত করোনায় দেশে মোট মৃত্যু হয়েছে ১৩ হাজার ৮৬৮ জনের।  এমন অবস্থায় করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে সারাদেশে ১৪ দিনের ‘শাটডাউন’ দেওয়ার সুপারিশ করেছে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি।

১৪ দিন সম্পূর্ণ ‘শাট ডাউন’ করতে করোনাসংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটির সুপারিশকে যৌক্তিক বলে মনে করেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন। 

তিনি বলেছেন, সরকারেরও এই ধরনের প্রস্তুতি আছে। যেকোনো সময় সরকার তা ঘোষণা দেবে।

লকডাউন এবং কঠোর লকডাউনের মতো শাটডাউনেও থাকতে পারে কঠোর থেকে কঠোরতর বিধিনিষেধ। এসময় জরুরি সেবা বাদে বাকি সব বন্ধ থাকবে।

বৃহস্পতিবার কোভিড কারিগরি পরামর্শক কমিটির সভাপতি অধ্যাপক মোহাম্মদ সহিদুল্লাহ স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তি এ তথ্য জানানো হয়েছে।

শাটডাউন মানে হচ্ছে সবকিছু বন্ধ থাকবে, শুধু জরুরি সেবা ছাড়া। অফিস-আদালত, বাজার-ঘাট, গণপরিবহণসহ সব বন্ধ থাকবে। সবাই বাসায় থাকবে। এমনটাই জানিয়েছেন অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ সহিদুল্লাহ। 

তিনি বলেন, জরুরি সেবা বলতে ওষুধ, ফায়ার সার্ভিস, গণমাধ্যম ছাড়া সবকিছু দুই সপ্তাহ বন্ধ করে মানুষ যদি এই স্যাক্রিফাইস-কষ্টটুকু মেনে নেয়, তাহলে আগামীতে ভালো হবে।

অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ সহিদুল্লাহ জানান, দিল্লি এবং মুম্বাইতে শাটডাউন দিয়ে ফলাফল পেয়েছে। সেখানে ৬ সপ্তাহ গণপরিবহন বন্ধ ‍ছিল, এছাড়া দিল্লিতে আরও ৩ সপ্তাহ ছিল। দিল্লিতে প্রতিদিন একসময় ২৮ হাজার শনাক্ত হতেন, কিন্তু এখন সেখানে ১৫০ শনাক্ত হচ্ছেন। মৃত্যুও কমে এসেছে।


শাটডাউন আসলে কি?

‘যেকোনো সময় শাট ডাউনের ঘোষণা’

স্কুলকেই শারীরিক সম্পর্কের নিরাপদ জায়গা বানালেন তারা!


কোভিড কারিগরি পরামর্শক কমিটির বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, কোভিড-১৯ রোগের বিশেষ ডেল্টা প্রজাতির সামাজিক সংক্রমণ চিহ্নিত হয়েছে ও দেশে ইতোমধ্যেই রোগের প্রকোপ অনেক বেড়েছে। এই প্রজাতির জীবাণুর সংক্রমণ ক্ষমতা তুলনামূলকভাবে অনেক বেশি। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য বিশ্লেষণে সারা দেশেই উচ্চ সংক্রমণ, ৫০টির বেশি জেলায় অতি উচ্চ সংক্রমণ লক্ষ্য করা যায়। রোগ প্রতিরোধের জন্য খণ্ড খণ্ড ভাবে নেওয়া কর্মসূচির উপযোগিতা প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে।

প্রসঙ্গত, দেশে এ পর্যন্ত করোনায় দেশে মোট মৃত্যু হয়েছে ১৩ হাজার ৮৬৮ জনের।  মোট শনাক্তের সংখ্যা  ৮ লাখ ৭২ হাজার ৯৩৫ জনে। এদিকে  বাংলাদেশের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ২১ শে জুন প্রকাশিত সর্বশেষ সপ্তাহের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের ৪০ জেলা বর্তমানে করোনা সংক্রমণের অত্যান্ত উচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

রেলওয়েতে ভারতীয় অর্থায়ন নিয়ে আলোচনা

অনলাইন ডেস্ক

রেলওয়েতে ভারতীয় অর্থায়ন নিয়ে আলোচনা

রেলমন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী । বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) দুপুরে রেলমন্ত্রীর কার্যালয়ে এ সাক্ষাৎ অনুষ্ঠিত হয়।

সাক্ষাৎকালে বাংলাদেশ রেলওয়েতে ভারতীয় অর্থায়নে (এল‌ওসি) চলমান ও ভবিষ্যৎ বিভিন্ন প্রকল্পের বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন রেলমন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন ও ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী।

এ সময় খুলনা-মোংলা রেলপথ নির্মাণ, ঢাকা-টঙ্গী তৃতীয়‌ ও চতুর্থ রেলপথ নির্মাণ, টঙ্গী-জয়দেবপুর ডাবল লাইন নির্মাণ নিয়েও আলোচনা করেন তারা। এছাড়া বগুড়া-সিরাজগঞ্জ নতুন রেলপথ নির্মাণ, সৈয়দপুরে ভারতীয় অর্থায়নে একটি নতুন কোচ নির্মাণ কারখানার বিষয়ও আলোচনায় উঠে আসে। পণ্য পরিবহনের সুবিধার জন্য সিরাজগঞ্জে একটি আইসিডি নির্মাণ করা হবে। এ কাজের অগ্রগতিসহ আখাউড়া-আগরতলা রেলপথ নির্মাণ বিষয়ে আলোচনা করেন তারা।

এ সময় পঞ্চগড় থেকে বাংলাবান্ধা হয়ে ভারতের নিউ জলপাইগুড়ি পর্যন্ত একটি নতুন রেললাইন নির্মাণ প্রসঙ্গে রেলমন্ত্রী বলেন, বাংলাবান্ধা পর্যন্ত একটি নতুন রেললাইন নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। ভারতীয় অংশে নিউ জলপাইগুড়িতে সংযোগ প্রদানের জন্য ৩টি রুট নির্বাচন করা হয়েছে। ভারতের সম্মতিতে কাজ শুরু করা হবে। দ্রুত সময়ের মধ্যে বিষয়টি সমাধানের আশ্বাস দেন ভারতীয় হাইকমিশনার।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে উভয় অঞ্চলে ৫২টি স্টেশন আধুনিকায়ন ও সংস্কার করা হচ্ছে। স্টেশনগুলোর প্ল্যাটফর্ম উঁচু করা হচ্ছে। এছাড়া ভারতের ক্যাটারিং সার্ভিসের আদলে বাংলাদেশেও ক্যাটারিং সার্ভিস ও ট্রেনিং একাডেমিকে আধুনিক ও উন্নত করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

সাক্ষাৎকালে বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক ধীরেন্দ্র নাথ মজুমদার, রেলপথ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব প্রণব কুমার ঘোষ, অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অবকাঠামো) কামরুল আহসান উপস্থিত ছিলেন।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

৫৫ উপজেলার ২,৯৭৩ মুক্তিযোদ্ধার নামের তালিকা প্রকাশ

অনলাইন ডেস্ক

৫৫ উপজেলার ২,৯৭৩ মুক্তিযোদ্ধার নামের তালিকা প্রকাশ

৮ বিভাগের ৫৫ উপজেলার ২ হাজার ৯৭৩ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার নাম প্রকাশ করেছে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়। বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

তালিকাটি মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক  মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে (www.molwa.gov.bd) পাওয়া যাবে।

প্রকাশিত তালিকায় ঢাকা বিভাগের ৯৩৮ জন চট্টগ্রাম বিভাগের ১৭৭ জন, বরিশাল বিভাগের ১৬৭ জন, খুলনা বিভাগের ৫৬২ জন, ময়মনসিংহ বিভাগের ২০২ জন, রাজশাহী বিভাগের ৭৭৮ জন, রংপুর বিভাগের ৫৮ জন ও সিলেট বিভাগের ৯১ জন বীর মুক্তিযোদ্ধা রয়েছেন।

এর আগে গত ২৫ মার্চ প্রথম ধাপে ১ লাখ ৪৭ হাজার ৫৩৭ জন, দ্বিতীয় ধাপে গত ৯ মে ৬ হাজার ৯৮৮ জন এবং ৭ জুন তৃতীয় ধাপে ১২ হাজার ১১৬ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার নামের সমন্বিত তালিকা প্রকাশ করে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়।

আরও পড়ুন:


পঞ্চাশোর্ধ জেলায় করোনার উচ্চ সংক্রমণ, ১৪ দিনের ‘শাটডাউন’

পাহাড়ি এলাকায় ভারতীয় সেনাকে টেক্কা দিতে অক্ষম চীন: বিপিন রাওয়াত

নাজমুল হুদার স্ত্রী সিগমা হুদার সম্পদের হিসাব চেয়ে দুদকের চিঠি


news24bd.tv / তৌহিদ

পরবর্তী খবর