শার্টের কলারের দাগ দূর করার উপায়

অনলাইন ডেস্ক

শার্টের কলারের দাগ দূর করার উপায়

শার্টের কলার পরিষ্কার না হলে কি আর চলে?  এটি পরিষ্কারের সহজ কিছু উপায় রয়েছে। আসুন সেগুলো একটু জেনে নেই:

শ্যাম্পু:

ঘামের কারণে শার্ট বা টি-শার্টের কলারে হলদে দাগ হয়ে যায়। এই দাগ দূর করতে দারুণ কার্যকর শ্যাম্পু। যেকোনো শ্যাম্পু নিয়ে কলারে লাগিয়ে ভালোভাবে ঘষে নিতে হবে। এরপর ভালোভাবে কাপড় ধুয়ে ফেলতে হবে।

লিকুইড ডিশ ডিটারজেন্ট:

সাধারণত থালাবাটি, হাড়ি পাতিল ইত্যাদি ধোয়ার জন্য আমরা ডিশ ডিটারজেন্ট ব্যবহার করে থাকি। এটি কিন্তু কাপড়ের জেদি দাগ দূর করতেও বেশ কার্যকর। কারণ এতে থাকে প্রাকৃতিক লেবুর রস। ঠান্ডা পানিতে ডিশ ডিটারজেন্ট দিয়ে শার্টের কলার ভিজিয়ে রেখে দুই হাতে ভালো করে ঘষুন। দাগ চলে যাবে নিমিষেই।

বেকিং সোডা:

পানিতে শার্ট ভিজিয়ে নিন। এবার দাগযুক্ত স্থানে বেকিং সোডা ছড়িয়ে মিনিট দুয়েক ঘষুন। দাগ উঠে যাবে।


আনুশকাকে ধর্ষণ ও হত্যা: দিহানের বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন ফের পেছালো

সেই ষাটোর্ধ্ব প্রকৌশলীর সঙ্গেই বিয়ের গুঞ্জন পপির

ইসলাম নিয়ে এ কেমন মন্তব্য প্রিয়াঙ্কার, বিতর্ক চরমে

বিএনপি নেতা খন্দকার আহাদ আহমেদ না ফেরার দেশে


ব্রাশের ব্যবহার:

সাধারণ নিয়মে ধোয়ার পরও দাগ না গেলে দাগযুক্ত স্থানে সাবান কিংবা অন্য কোনো ডিটারজেন্ট লাগিয়ে নিন। এরপর একটু গরম পানি ঢেলে কিছুক্ষণ ভিজিয়ে রাখুন। এরপর ব্রাশের সাহায্যে ভালো করে ঘষুন। দাগ উঠে যাবে সহজেই। সবশেষে ঠান্ডা পানিতে ধুয়ে নিন।

লেবুর রস:

ঘরে লেবু থাকলে সেটিই কাজে লাগান। লেবুর রসে থাকে প্রচুর অ্যান্টি অক্সিডেন্ট উপাদান যা কাপড়ের ময়লা দূর করতে বেশ কার্যকর। ডিটারজেন্ট মিশ্রিত পানিতে শার্টের কলার ভিজিয়ে রাখুন। এরপর দাগযুক্ত স্থানে লেবুর রস চিপে লাগিয়ে নিন। পাঁচ মিনিট অপেক্ষা করে ধুয়ে ফেলুন। দাগ চলে যাবে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

কোন ত্বকে কোন ফেসিয়াল

অনলাইন ডেস্ক

কোন ত্বকে কোন ফেসিয়াল

দরজায় কড়া নাড়ছে ঈদ। হাতে সময় খুবই কম। কাজের চাপে ত্বকের যত্ন নেওয়া হয়নি অনেকের। অনেকে ভাবছেন, ‘কালো হয়ে গিয়েছি, ফেসিয়ালটা করে নিলে রং খুলবে- রূপবিশেষজ্ঞরা এটা পুরোপুরি ভুল ধারণা।

প্রধানত ত্বক তিন ধরনের হয়। যেমন- তৈলাক্ত, শুষ্ক ও মিশ্র বা স্বাভাবিক। আর ত্বকের ধরন বুঝেই ফেসিয়াল করা উচিৎ বলে মত দিয়েছেন তারা।

আসুন জেনে নেই কোন ত্বকে কোন ফেসিয়াল করা যায়।

শুষ্ক ত্বক

শুষ্ক ত্বকের জন্য ফেসিয়ালের উপাদানগুলোর মধ্যে অবশ্যই ময়েশ্চারাইজার থাকা জরুরি। স্ক্রাবার যেন ক্রিমি হয়। শুষ্ক ত্বক অনেক সময় স্পর্শকাতর (সেনসিটিভ) হয়ে থাকে। সেখানে দুধ কিংবা দুধের সর ব্যবহার করা যেতে পারে। এমন ত্বকের জন্য অ্যালোভেরা ফেসিয়াল করা যাবে।

তৈলাক্ত ত্বক

তৈলাক্ত ত্বকে অনেক সময় ব্রণ হয়। তাই ত্বককে শুষ্ক করতে পারে এমন ফেসিয়াল করতে হবে। তৈলাক্ত ত্বক স্পর্শকাতর হলে ফেসিয়ালে ক্রিমজাতীয় উপাদান ব্যবহার না করাই ভালো। ক্রিম ত্বকের তেল শুকাতে দেবে না। পাউডার-জাতীয় উপাদানও এড়িয়ে যেতে হবে। লোমকূপে পাউডার জমে থাকলে ব্রণ হতে সাহায্য করে। ব্রণ থাকলে নিম কিংবা ব্রণ ফেসিয়াল করা যেতে পারে। এ ছাড়া অক্সি ফেসিয়াল করা যাবে।

স্বাভাবিক বা মিশ্র ত্বক

মিশ্র ত্বককে আদর্শ ত্বক হিসেবে বিবেচনা করা হয়। যেকোনো ফেসিয়াল, যেকোনো উপাদান দিয়ে নির্দ্বিধায় করতে পারেন।

ত্বকের কোনো স্থান যদি স্পর্শকাতর হয় তাহলে ফেসিয়ালের সময় তা খেয়াল রাখতে হবে। কার ত্বকে কী উপাদান উপযুক্ত, তা বিবেচনা করে ফেসিয়াল করতে হবে। তবে গোল্ড ফেসিয়াল কিংবা ফ্রুট ফেসিয়াল বেশ কার্যকর ।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

ফ্যাশনব্রান্ড ‘সেলাই’ এর ঈদ আয়োজন

অনলাইন ডেস্ক

ফ্যাশনব্রান্ড ‘সেলাই’ এর ঈদ আয়োজন

একদিকে ঈদের খুশিকে বরণ করার আয়োজন, অন্যদিকে করোনার নতুন প্রভাব। পাকিস্তানী ড্রেসের বাংলাদেশী লাইফস্টাইল ব্রান্ড "সেলাই" তাই এবারের ঈদকে কেন্দ্র করে রেখেছে দারুণ সব আয়োজন যা ফ্যাশনপ্রিয় নারীদের জন্য হতে যাচ্ছে বাড়তি পাওয়া! 

করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের সময় সব স্বাস্থ্যসুরক্ষা এবং নিরাপত্তা বজায় রেখে সেলাই’র সব আউটলেট থেকে পাওয়া যাবে ঈদের সব সেরা কালেকশন। এছাড়াও সব স্বাস্থ্য নিরাপত্তা মেনে ঢাকাসহ সারাদেশে অনলাইনের মাধ্যমে সেলাইর ফেসবুক পেইজে থেকে পণ্য অর্ডার করলেই গ্রাহকের কাছে পৌঁছে যাবে পছন্দের পোশাক।

বনানীর এইচ ব্লকে প্রতিষ্ঠানটির আউটলেট ঘুরে জানা গেলো, এবারের ঈদ উপলক্ষ্যে পাকিস্তানী ব্রান্ড "জোহরা", "সোবিয়া নাজির", "ইলান", "গুল আহমেদ", "মোঘল ", "মারিয়া বি", "জারা শাহজাহান", " বারিজ", "জয়নব চট্টানী"," সাইরা রেজোয়ান", "নুর বাই সাদিয়া আসাদ", "ইরুম খান", "খুবসুরাত" সহ জনপ্রিয় সব ব্রান্ডের কালেকশন পাওয়া যাচ্ছে সেলাইতে।

ঈদুল ফিতরের এবারের আয়োজনে মেয়েদের জন্য ‘সেলাই’ এনেছে সিঙ্গেল পিস কামিজ, লন থ্রি পিস, আনইস্টিচ লন, আকর্ষনীয় পার্টি থ্রি পিস, এথনিক কূর্তি, ফ্যাশন টপস"। সেলাই’র পাকিস্তানী ব্রান্ডগুলোর বাইরে সেলাই এর সিইও রুবাবা আকতার এর নিজস্ব ব্রান্ড "কালার লাইফ" এর সকল দৃষ্টিনন্দন ড্রেসও মিলছে সেলাইতে।


আরও পড়ুনঃ


ট্রিও মান্ডিলি: এক আধুনিক রূপকথার গল্প

মিষ্টি বিতরণে পুলিশের বাঁধা, ২০ কেজি রসগোল্লা জব্দ

ইসরাইলের বিরুদ্ধে লড়াই করা মুসলিম উম্মাহর ধর্মীয় দায়িত্ব: হুথি নেতা

শত বছরের পুরনো বিয়ের রীতি ভাঙলেন ‘হার্ডকোর ফেমিনিস্ট’ যুবক


সেলাই’র সিইও রুবাবা আকতার বলেন, "এবারের ঈদ সব প্রেক্ষাপটেই একটু ভিন্ন। আমরা এখন থেকেই স্বাস্থ্যবিধি মেনে আমাদের কাস্টমারদের সেবা দিতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি। আমাদের বনানী আউটলেট ছাড়াও অনলাইনে আমাদের পেইজের মাধ্যমে প্রতিদিন অসংখ্য মানুষের কাছে পৌঁছে যায় আমাদের ভালোবাসা। পাকিস্তানী পোশাকের পাশাপাশি আমি যেহেতু একজন ফ্যাশন ডিজাইনার আমি, দেশের জন্য আধুনিক ব্রান্ড গড়ার লক্ষ্যে আমি ব্লুবেরী এবং কালারলাইফ নামের দুটো ব্রান্ড প্রতিষ্ঠা করেও বেশ সাফল্য পেয়েছি।

সেলাইর আউটলেটে আসা বনানীর এক তরুণীর সাথে কথা হলে তিনি জানান," অথেনটিক পাকিস্তানী ব্রান্ডশপের পোশাক দেশে বসে পাচ্ছি সেলাইর মাধ্যমে, সেজন্য সেলাইকে অনেক ধন্যবাদ।"

news24bd.tv / নকিব

পরবর্তী খবর

অনলাইন শপিংয়ে যে বিষয়গুলোতে সতর্ক থাকবেন

অনলাইন ডেস্ক

অনলাইন শপিংয়ে যে বিষয়গুলোতে সতর্ক থাকবেন

বাংলাদেশে অনলাইন শপিং দিনে দিনে জনপ্রিয় হচ্ছে। বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে আমাদের দেশের মানুষও কেনাকাটার জন্য দিনে দিনে অনলাইন নির্ভর হচ্ছে। কিন্তু, অনলাইন শপিং করার সময় আপনাকে অবশ্যই কয়েকটি বিষয় খেয়াল রাখতে হবে। 

সঠিক দামটি আগে জানুন:-

অনলাইনে কোন কিছু কেনার আগে সেটির দাম সম্পর্কে আগে থেকেই সঠিক ধারণা নিতে হবে। দেখা যাবে একই পণ্য অনলাইনে ৫০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে কিন্তু বাজারে সেটির দাম ৩০০ টাকা।তাই কোনো কিছু কেনার আগে ভালোভাবে যাচাই করে নিতে হবে। তাহলে দাম নিয়ে ঠকার সম্ভাবনা থাকবে না।

বিশ্বাসযোগ্য মাধ্যম থেকে কেনা:-

অনলাইনে জনপ্রিয়তার সুযোগে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী মানহীন পণ্য নিয়ে ব্যবসা করছে। নকলের পাশাপাশি কমদামী জিনিস নিয়ে তাদের পসরা সাজিয়েছে। অনেক ক্ষেত্রে চাহিদা বেশি থাকায় গুণগত মানের পণ্য ডেলিভারি দিতে হিমশিম খাচ্ছে।এসব ভুয়া সাইট সম্পর্কে সতর্ক থাকতে হবে। আবার গ্রাহকের কাছ থেকে টাকা নিয়ে পণ্য নাও পাঠাতে পারে এসব সাইট। এ ছাড়া ছবিতে এক পণ্য দেখিয়ে পরে অন্য কিছু ডেলেভারি দিচ্ছে। তাই অনলাইনে পণ্য কেনার আগে বিশ্বাসযোগ্য মাধ্যম থেকে কেনা উচিত।

ক্যাশ অন ডেলিভারি ব্যবহার:-

অনলাইনে অর্থ লেনদেনের ক্ষেত্রে সব সময় সাবধান থাকা উচিত। ফেইসবুক পেইজ ও নতুন ওয়েবসাইটগুলোর ক্ষেত্রে কখনই পণ্যে পাওয়ার আগে পেমেন্ট করা উচিত না।এ ক্ষেত্রে ক্যাশ অন ডেলিভারি করা উচিত। এতে পণ্য হারানো বা টাকা হারানোর ঝুঁকি থাকবে না। তবে বিশ্বাসযোগ্য কোনো প্রতিষ্ঠান হলে অনলাইনে প্রেমেন্ট দেওয়া যাবে।

ওয়ারেন্টি:-

অনলাইনে পণ্য কেনার ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি যে সমস্যা পড়তে হয় তা হলো ওয়ারেন্টি। তাই পণ্যটি কেনার আগে ওয়ারেন্টি সম্পর্কে আগে জেনে নিতে হবে।যে অনলাইনে প্রতিষ্ঠান পণ্যটি কেনা হবে তাদের ফোন বা যোগাযোগ ওয়ারেন্টি সর্ম্পকে নিশ্চিত হয়ে তারপর পণ্যটি কেনা উচিত।


আগামী মাসে পুতিনের সঙ্গে সাক্ষাতের আগ্রহ প্রকাশ করলেন বাইডেন

বাবা-মা-বোনের পর এবার কোভিড পজিটিভ দীপিকা পাড়ুকোন

সাক্ষাতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে যে ৪টি আবেদন জানালো হেফাজত নেতারা

দুধের ১০ উপকারিতা


ছাড় ও অফার:-

ফেসবুকের নিউজ ফিডে অনেক সময়ই চোখে পড়বে নানা লোভনীয় ছাড়ে অনলাইনে পণ্য কেনাবেচার  বিজ্ঞপ্তি। ছাড় বা অফারের ক্ষেত্রে অনেক সময় পণ্যের মান ঠিক থাকে না।তাই ছাড় বা অফারে পণ্য অনলাইনে কেনার আগে ভালোভাবে যাচাই বাছাই করে নিতে হবে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

ওভেন পরিষ্কারের সহজ কিছু কৌশল

অনলাইন ডেস্ক

ওভেন পরিষ্কারের সহজ কিছু কৌশল

ওভেনের ব্যবহার কমবেশি আমরা সবাই করি। ব্যবহৃত এই যন্ত্রটি পরিষ্কার রাখাটাও খুব জরুরি। নইলে মাইক্রোওয়েভ ওভেনে বাসা বাধতে পারে জীবাণু। যা স্বাস্থ্যের জন্য খুবই ক্ষতিকর। ওভেন পরিষ্কারের কিছু কৌশল রয়েছে। চলুন সেই কৌশলগুলো জেনে নেই।

>> প্রথমে মাইক্রোওয়েভ থেকে র‍্যাক ও গ্রিল বের করে সাবান-পানিতে ডুবিয়ে রাখুন। ব্রাশ দিয়ে ভালোভাবে কিছুক্ষণ ঘষে ধুয়ে শুকিয়ে নিন।

>> একটি মাইক্রোওয়েভ সেফ পাত্রের মধ্যে ভিনেগার আর পানি মিশিয়ে নিন। এবার উচ্চতাপে ওভেনের ভেতর এটি পাঁচ মিনিট রেখে দিন। এ থেকে যে স্টিম তৈরি হবে তা মাইক্রোওভেনে লেগে থাকা ময়লা নরম করবে। তারপর ঠাণ্ডা হয়ে গেলে পাত্রটি বের করে পেপার টাওয়েল বা কাপড় দিয়ে ওভেন পরিষ্কার করে নিন।

>> পানির সঙ্গে বেকিং সোডা, লেবু এবং লবণ মেশান। মিশ্রণটিতে কাপড় ভিজিয়ে মাইক্রোওয়েভের ভেতরের অংশ ভালো করে পরিষ্কার করুন।

>> এক কাপ পানিতে দুই চা চামচ অ্যাপেল সিডার ভিনেগার মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটি একটু গরম করে তাতে একটি কাপড়ের টুকরো ডুবিয়ে মাইক্রোওয়েভ পরিষ্কার করুন।


খালেদার জিয়ার স্বাস্থ্য পরিস্থিতি পর্যালোচনায় দুপুরে বসছে মেডিকেল বোর্ড

মেক্সিকোতে মেট্রো ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহত ১৫

পুড়ছে সুন্দরবন, এখনও নেভেনি আগুন

মমতার শপথ: কখন শুরু হবে, কারা থাকছেন অনুষ্ঠানে?


>> একটি পাত্রে অল্প পানির সঙ্গে বেকিং সোডা মিশিয়ে পেস্ট বানিয়ে নিন। মাইক্রোওয়েভের টার্ন টেবিল আর ভেতরের দিকে এই পেস্টটি লাগিয়ে কিছুক্ষণ রেখে দিন। একটি ভেজা কাপড় দিয়ে ভেতর পুরোটা এবং টার্ন টেবিল মুছে নিন।

>> ওভেনের ভেতরের দুর্গন্ধ দূর করতে একটি মাইক্রোওয়েভ প্রুফ বাটিতে পানি ও কয়েক টুকরা লেবুর চাকা ফেলে উচ্চতাপে কয়েক মিনিট গরম করুন।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

খুশকির ঘরোয়া সমাধান

অনলাইন ডেস্ক

খুশকির ঘরোয়া সমাধান

খুশকি একবার মাথার ত্বকে আক্রমণ শুরু করলে, তা বাড়তেই থাকে। এক্ষেত্রে চুলকানি ও চিটচিটে হয় স্ক্যাল্পে। খুশকি দূর করার ঘরোয়া উপায় সম্পর্কে জানানো হল।

অ্যাপল সাইডার ভিনিগার

খুশকির সমস্যা দূর করতে অ্যাপল সাইডার ভিনিগার খুব ভালো কাজ করে।

ব্যবহার পদ্ধতি: সম-পরিমাণ ভিনিগার ও পানি এক সঙ্গে মিশিয়ে মাথার ত্বকে মালিশ করুন। ১৫ মিনিট অপেক্ষা করেতা ধুয়ে ফেলুন।

পরামর্শ: ভালো ফলাফল পেতে সপ্তাহে দুবারের বেশি এটা ব্যবহার করা যাবে না।

নারিকেল তেলের সঙ্গে লেবু

নারিকেল তেল ও লেবু একসঙ্গে খুশকির বিরুদ্ধে ভালো কাজ করে। নারিকেল তেল চুল মসৃণ রাখে এবং লেবু মাথার ত্বকের মৃত কোষ দূর করতে সাহায্য করে। 

ব্যবহার পদ্ধতি: দুই টেবিল-চামচ নারিকেল তেল ও সম-পরিমাণ লেবুর রস এক সঙ্গে মিশিয়ে মাথার ত্বকে মালিশ করুন। এরপর শ্যাম্পু দিয়ে চুল পরিষ্কার করে নিন।

পরামর্শ: যাদের মাথার ত্বক সংবেদনশীল তাদের লেবু ব্যবহারের ক্ষেত্রে সতর্ক থাকতে হবে। কেন-না এতে মাথার ত্বকে জ্বলুনি সৃষ্টি হতে পারে।

টক দই

দইয়ের মাস্ক চুলের নানান সমস্যার সমাধানে সহায়তা করে। চুলের যত্নে এটা সহজ ঘরোয়া সমাধান।

ব্যবহার পদ্ধতি: একটা বাটিতে টক দই নিয়ে তা চুলে ব্যবহার করুন। মাস্কটি শুকানোর জন্য এক ঘণ্টা অপেক্ষা করে শ্যাম্পু করে ফেলুন।

পরামর্শ: খুশকির সমস্যা দূর করতে সপ্তাহে তিনবার ব্যবহার করা ভালো।

গ্রিন টি

গ্রিন টি ব্যাক্টেরিয়া-রোধী উপাদান সমৃদ্ধ এবং এটা মাথার ত্বকের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে সহায়তা করে। তাই খুশকি কমাতে গ্রিন টি ব্যবহার করতে পারেন।

ব্যবহার পদ্ধতি: এক কাপ গরম পানিতে দুইটা টি ব্যাগ ২০ মিনিট ধরে ডুবিয়ে রাখুন। ঠাণ্ডা হয়ে আসলে তা মাথার ত্বকে ব্যবহার করে ৩০ মিনিট অপেক্ষা করুন। এরপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে তা চুল ধুয়ে নিন। 

পরামর্শ: খুশকি থেকে বাচঁতে গোসলের পরে এটা ব্যবহার করুন।

জলপাই তেল

খুশকির সমস্যা দূর করতে জলপাই তেল বা অলিভ অয়েলের ব্যবহার নানা দেশে খুবই জনপ্রিয়। নিয়মিত জলপাই তেল ব্যবহারে খুশকি কমে। কারণ জলপাই তেল প্রাকৃতিকভাবেই ভালো ময়েশ্চারাইজার এবং ক্লিনজার হিসেবে কাজ করে বা ত্বকের আর্দ্রতা ও পরিচ্ছন্নতা নিশ্চিত করে।

কর্পূর ও নারকেল তেল

নারকেল তেল ও কর্পূ‌রের তেল নানা ভেষজ গুণে সমৃদ্ধ। আধা কাপ নারকেল তেলের মধ্যে এক চা-চামচ কর্পূ‌রের তেল নিয়ে একটা বোতল বা পাত্রে রাখুন। খেয়াল রাখতে হবে যাতে বোতলের মুখ ভালো করে লাগানো থাকে বা পাত্রটির ঢাকনা ঠিকঠাক আটকানো থাকে, যাতে ভেতরে বাতাস না ঢোকে। শুষ্ক স্থানে এভাবে রাখা পাত্র থেকে কিছুটা তেল নিয়ে প্রতিরাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে মাথায় দিন। মিনিট দশেক ধরে ঘষে ঘষে চুলের গোড়ায় মাখুন। সকালে ভালো করে ধুয়ে ফেলুন। এভাবে টানা দুই সপ্তাহ ব্যবহার করে উপকার পেলে ধীরে ধীরে এটা একদিন পর পর মাখুন বা আরও কমিয়ে দিন।

বেকিং সোডা

হালকা পানিতে মাথা ভিজিয়ে নিয়ে খানিকটা বেকিং সোডা পুরো মাথায় মেখে নিন। ভালো করে ঘষে ঘষে শ্যাম্পু না করে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটা মাথার খুলিতে থাকা ছত্রাক দমন করে প্রথমদিকে ত্বককে অতিরিক্ত শুষ্ক করে ফেলতে পারে। কিন্তু অল্পদিনেই ত্বকে স্বাভাবিক তৈলাক্ত অবস্থা ফিরে আসবে। কিন্তু এ সময়ে আপনি খুশকি থেকে মুক্তি পাবেন।

লেবুর রস

দুই টেবিল-চামচ লেবুর রস নিয়ে পুরো মাথায় চুলের গোড়ায় ঘষে ঘষে মাখুন। পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এবার এক টেবিল-চামচ লেবুর রস নিয়ে এক কাপ পানিতে মেশান। লেবুর রস মেশানো পানি দিয়ে মাথা ধুয়ে ফেলুন। খুশকি না কমা পর্যন্ত প্রতিদিন এভাবে লেবু চিকিৎসা চালিয়ে দেখতে পারেন।


বড় ব্যবধানে হার বাংলাদেশের

বাংলাবাজার ঘাটে স্পিডবোট ডুবির ঘটনায় ৬ সদস্যের তদন্ত কমিটি

মুখ্যমন্ত্রী হতে যেসব নিয়মের মধ্য দিয়ে যেতে হবে মমতাকে

মুক্ত গণমাধ্যম দিবস আজ


মেথি-তেল

সাধারণ নারকেল তেলের সঙ্গে মেথি মিশিয়ে কয়েকদিন বোতলে রেখে দিন। নিয়মিত এই মেথি মেশানো তেল মাখুন মাথায়। রাতে মেখে সকালে ধুয়ে ফেলুন। এভাবে নিয়মিত ব্যবহারে মাথার চুল ও ত্বক দুইই ভালো থাকবে। খুশকি থেকেও রেহাই পাবেন।

লবণ

প্রতিদিনই কাজে লাগা লবণের অনেক ব্যবহারই হয়তো আমরা জানি না। মাথায় হালকা করে লবণ ব্যবহার করে দেখুন। প্রাকৃতিক পরিষ্কারক হিসেবে লবণ খুশকি দূর করতে দারুণ কাজ করবে। হালকা করে লবণ ব্যবহার করে তারপর শ্যাম্পু করলে শ্যাম্পুর পুরো সুবিধা আপনি কাজে লাগাতে পারবেন। এ ছাড়া চুলকাতে থাকা খুশকি ভরা মাথায় লবণ-চিকিৎসা দারুণ প্রশান্তিও দেবে আপনাকে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর