বৈষম্যহীন সমাজ এখনও হয়নি বাংলাদেশে: কামাল হোসেন
বৈষম্যহীন সমাজ এখনও হয়নি বাংলাদেশে: কামাল হোসেন

বৈষম্যহীন সমাজ এখনও হয়নি বাংলাদেশে: কামাল হোসেন

Other

“আজ এবং ঠিক এই মুহুর্ত থেকেই আমরা স্বাধীন, আমরা বাঙালি এখন ঐক্যবদ্ধ, তারা যুদ্ধ করবে- জয় সুনিশ্চিত”। একাত্তরের ২৫শে মার্চ রাত ৯টায় কামাল হোসেনকে বলেছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। ঐ দিন শেষবারের মতো ৩২ নম্বরের বাড়িতে যান তিনি।  

ইয়াহিয়া আর ভুট্টো ঢাকা ছাড়লেন সেনা পাহাড়ায়- কামাল হোসেন তখনই বুঝেছিলেন ভয়ঙ্কর কোন ‘ষড়যন্ত্র’ প্রস্তুত হচ্ছে বাঙালীর জন্য।

এখন অনেক বয়স মুক্তিকামী এই বাঙালীর। অনেক কিছুই স্মৃতিতে ঝাপসা। ইতিহাসের স্বাক্ষী নিজেই, ভুল যেনো না হয় টেনে নিলেন নিজের বই। বললেন, ব্যারিস্টার আমিরুল ইসলাম আর ব্যবসায়ী মূসাকে নিয়ে ২৫শে মার্চ রাত সাড়ে আটটার দিকে রওনা হন তাজউদ্দিন আহমেদকে তুলে নিতে। পথেই ৩২ নম্বর, বাঙালীর মুক্তির স্বপ্ন যে বাড়ি। শেষবারে মতো গেলেন বঙ্গবন্ধুর কাছে।


 

কঠোর নিয়ন্ত্রণ কৌশলে সরকার, হবে না ছুটি বা লকডাউন

ইতিহাস গড়ার ম্যাচে আলো ছড়ালেন মেসি

১২ দেশ থেকে ভ্রমণের নিষেধাজ্ঞা আরোপ করল পাকিস্তান

‘বিয়ের আশ্বাস পেয়ে’ স্বামীকে তালাক, চার বছর ধরে চলে ধর্ষণ


কামাল হোসেনের আর বুড়িগঙ্গা পাড়ি দেয়া হয়নি। দুই দিন পরেই ধরা পড়েন সেনাবাহিনীর কাছে। ধরে নিয়ে যাওয়া হয় পাকিস্তানে।

ষড়যন্ত্রকারী ভুট্টো শেষ মুহুর্তে বঙ্গবন্ধুর কাছে নতজানু হয়েছিল, প্রস্তাব দিয়েছিল কোনভাবে, কোন দিক দিয়ে পাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্ক রাখা যায় কি না?

পাকিস্তান টেকে নি কারণ শোষণ নির্যাতন নিষ্পেষণ আর বৈষম্যের কারণে। কিন্তু কামাল হোসেন মনে করেন হয়তো সেই নির্যাতন-শোষণ এখন নেই। তবে বৈষম্যহীন সমাজ এখনও হয়নি বাংলাদেশে।

news24bd.tv আয়শা