নিজের ১৪ বছরের মেয়ের গলায় ছুরি ধরে ধর্ষণ করল বাবা (ভিডিও)

অনলাইন ডেস্ক

নিজের ১৪ বছরের মেয়ের গলায় ছুরি ধরে ধর্ষণ করল বাবা (ভিডিও)

রাজশাহীতে নিজের মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে বাবার মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক মো. মনসুর আলম দুপুর পৌনে ১টার দিকে এক জনাকীর্ণ আদালতে এ রায় ঘোষণা করেন।

মামলার বিবরনীতে জানা যায়, স্থানীয় একটি ছাত্রাবাসে রান্নার কাজের জন্য স্ত্রী বাইরে গেলে ঘুমন্ত অবস্থায় গলায় ছুরি ধরে নিজের ১৪ বছরের মেয়েকে ধর্ষণ করে নজরুল ইসলাম। ২০১৮ সালের ১৪ মে ভোরে রাজশাহী মহানগরীর রাজপাড়া থানার সিলিন্দা মহল্লায় এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনা কাউকে জানালে তার মাকে গলাকেটে হত্যা করা হবে বলেও মেয়েকে হুমকি দেওয়া হয়।

এ ঘটনায় ২০১৯ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি নজরুলের স্ত্রী নার্গিস বেগম বাদী হয়ে তার মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে স্বামীর বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন। সাক্ষ্যপ্রমাণ শেষে আজ এ রায় দেন আদালত।

ভিডিও দেখতে ক্লিক করুন


দুই মাস ধরে নিজের মেয়েকে ধর্ষণ, দাদা-দাদিকে বলেও রেহাই পায়নি কিশোরী!

নিজের মেয়েকে ধর্ষণ করতে প্রেমিককে সাহায্য করল মা!

নিজের মেয়েকে ধর্ষণ, বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

নিজের মেয়েকে টানা ২০ বছর ধর্ষণ!


 

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

খালেদা জিয়ার জন্মদিন সংক্রান্ত নথি চেয়েছে হাইকোর্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক

খালেদা জিয়ার জন্মদিন সংক্রান্ত নথি চেয়েছে হাইকোর্ট

৬০ দিনের মধ্যে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার জন্মদিন সংক্রান্ত সব ধরনের নথি আদালতে দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

পাসপোর্ট অফিসের মহাপরিচালক, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, নির্বাচন কমিশনের সচিব ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিবকে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

আজ রোববার (১৩ জুন) বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সরদার মো. রাশেদ জাহাঙ্গীরের হাইকোর্ট বেঞ্চ একটি রিটের শুনানি শেষে এ আদেশ নির্দেশ দেন।

আদালতে রিট আবেদন দায়ের করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মামুন অর রশিদ।

আবেদনে খালেদা জিয়ার সব ধরনের সার্টিফিকেট (যেগুলোতে জন্মদিন ব্যবহার করা হয়েছে) আদালতে দাখিলের নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে। এছাড়া একটি (সিঙ্গেল) জন্মদিন নির্দিষ্ট করার নির্দেশনাও চাওয়া হয়েছে।

রিট আবেদনে স্বরাষ্ট্রসচিব, স্বাস্থ্যসচিব, আইজিপি, ডিএমপি কমিশনার, গুলশান থানার ওসি এবং খালেদা জিয়াকে বিবাদী করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:


ইউরোপের দেশ উত্তর মেসিডোনিয়াতে ২০ বাংলাদেশি আটক

দেশে ১০ বছরে বজ্রপাতে মৃত্যু ২২৭৬

রাশিয়াকে ৩-০ গোলে উড়িয়ে দিল বেলজিয়াম

আজ মোহাম্মদ নাসিমের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী


news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

ভয়ঙ্কর গাঁজার ৩০টি কেক নিয়ে গ্রেফতার ৩ জন রিমান্ডে

অনলাইন ডেস্ক

ভয়ঙ্কর গাঁজার ৩০টি কেক নিয়ে গ্রেফতার ৩ জন রিমান্ডে

গতকাল বুধবার (০৯ জুন) রাজধানীর মোহাম্মাদপুর ও পল্টন এলাকায় অভিযান চালিয়ে দেড় কেজি ওজনের ৩০টি গাঁজার কেক জব্দ করে ডিবির রমনা জোনাল টিম।এদিকে ভয়ঙ্কর এই নেশা জাতীয় দ্রব্য গাঁজার কেক ‘ব্রাউনি’ নিয়ে গ্রেপ্তার ৩ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। 

বৃহস্পতিবার (১০ জুন) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শাহিনুর রহমান রিমান্ডের এ আদেশ দেন।

রিমান্ড যাওয়া শিক্ষার্থীরা হলেন- কাফিল ওয়ারা রাফিদ, কাজী রিসালাত হোসেন ও সাইফুল ইসলাম সাইফ।

গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) বলছে, দেশে গাঁজার কেকের চালান এবারই প্রথম ধরা পড়েছে। গতকাল বুধবার (০৯ জুন) রাজধানীর মোহাম্মাদপুর ও পল্টন এলাকায় অভিযান চালিয়ে দেড় কেজি ওজনের ৩০টি গাঁজার কেক জব্দ করে ডিবির রমনা জোনাল টিম। অভিযানকালে আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশের (এআইইউবি) ছাত্র কাফিল ওয়ারা রাফিদ, ধানমন্ডির অ্যাডভান্সড প্রফেশনালসে চার্টার্ড অ্যাকাউন্টিং পড়ুয়া কাজী রিসালাত হোসেন এবং ইউনিভার্সিটি অব ডেভেলপমেন্ট অলটারনেটিভের (ইউডা) চারুকলা শিক্ষার্থী সাইফুল ইসলাম সাইফকে গ্রেপ্তার করেছে ডিবির সংশ্লিষ্ট টিম। 

তাদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মোহাম্মদপুর থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

গোয়েন্দা পুলিশের কর্মকর্তারা জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তারা জানতে পারেন রাজধানীতে একাধিক চক্র গাঁজার নির্যাস দিয়ে কেক বানিয়ে মাদকসেবীদের কাছে বিক্রি করে আসছে। এ তথ্যের ভিত্তিতে তারা গত বুধবার বিকেলে মোহাম্মদপুরের শাহাজাহান রোডের একটি জায়গা থেকে প্রথমে রাফিদ ও সাইফকে গ্রেপ্তার করেন। এ সময় তাদের কাছ থেকে প্রায় ১৮টি গাঁজার কেক পাওয়া যায়। তারা সেগুলো ডেলিভারি দিতে যাচ্ছিলেন। পরে তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে পল্টন এলাকার একটি বাসায় অভিযান চালিয়ে রিসালাত হোসেনকে ১২ পিস গাঁজার কেকসহ আটক করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তাকৃত ৩ জনই মাদকাসক্ত বলে স্বীকার করেন। অন্যান্য মাদকের পাশাপাশি তারা নিয়মিত গাঁজা সেবন করে আসছেন। বছর দেড়েক আগে ইউটিউবে দেখে তারা গাঁজার কেক বানানো শিখেছেন। প্রথমে নিজেরা খেলেও পরে বন্ধুদের মধ্যেও এর ব্যপক চাহিদা তৈরি হয়। ব্যবসাটা শুরু করে তখনই।

ডিবি জানায়, গাঁজার পাতা থেকে তরল নির্যাস বের করে তৈরি হয় এ কেক এবং অন্য সাধারণ কেকের মতোই খাওয়া যায়। এ কেক যারা খায় তারা বলছে, সিগারেটের খোসায় গাঁজা ভরে সেবনের চাইতে গাঁজার পাতার নির্যাসে তৈরি কেকে কয়েকগুণ বেশি আসক্তি হয় এবং খাওয়ার পর এর প্রতিক্রিয়া শুধু ভয়ঙ্করই নয়, মারাত্মক ক্ষতিকরও বটে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

তাজরুল সভাপতি, হেলাল সম্পাদক

চিটাগং ইউনিভার্সিটি'র এলএল.এম এসোসিয়েশনের নতুন কমিটি গঠন

নিজস্ব প্রতিবেদক

চিটাগং ইউনিভার্সিটি'র এলএল.এম এসোসিয়েশনের নতুন কমিটি গঠন

বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টস্থ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের প্রাক্তন ছাত্র- ছাত্রীদের সংগঠন চিটাগং ইউনিভার্সিটি এলএল.এম এসোসিয়েশন এর নতুন কার্যনির্বাহী কমিটির (২০২১-২০২৩) নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। 

সদস্যদের স্বতঃস্ফূর্ত মতামতের ভিত্তিতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন তৃতীয় ব্যাচের ব্যারিস্টার মো. হেলাল চৌধুরী সাধারণ সম্পাদক এবং প্রথম ব্যাচের ব্যারিস্টার সৈয়দ মোহাম্মদ তাজরুল হোসেন সভাপতি নির্বাচিত হন। 

সংগঠনের কার্যক্রমকে আরও গতিশীল করা এবং একটি পেশাজীবী সংগঠন হিসেবে চিটাগাং ইউনিভার্সিটি এলএল.এম এসোসিয়েশন তার সদস্য সহ সাধারণ জনগণের অধিকার সংরক্ষণ ও উন্নয়নের সার্বক্ষণিক প্রচেষ্টায় এই সংগঠন আরও সফলতা অর্জন করবে বলে নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক এবং সভাপতি প্রত্যাশা ব্যাক্ত করেন।

যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে স্থানীয় একটি সূপরীম কোট মিলনায়তনে আয়োজিত এক অনাড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানে আগামী ১২.০৬.২০২১ তারিখে ২০২১-২০২৩ সালের জন্য ঘোষিত সংগঠনের ৯৫ সদস্য বিশিষ্ট নতুন কার্য্যনির্বাহী কমিটি দায়িত্বভার গ্রহণ করবেন।

আরও পড়ুন:


দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু-শনাক্ত বাড়ল

লক্ষ্মীপুর-২ আসনের উপ-নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা

তিন সংসদীয় শূন্য আসনের উপ-নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তন

পাকিস্তানি সিরিয়ালে বাংলা ভাষার গান ভাইরাল (ভিডিও)


news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

টগর হত্যা মামলা: ২৭ বছর পর মূল আসামিসহ ১৮ জনকে খালাস

অনলাইন ডেস্ক

টগর হত্যা মামলা: ২৭ বছর পর মূল আসামিসহ ১৮ জনকে খালাস

১৯৯৪ সালের নওগাঁর বদলগাছিতে টগর হত্যাকাণ্ডের ঘটনার প্রায় ২৭ বছর পর মামলার মূল আসামিসহ ১৮ জনকে খালাস দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

বুধবার (৯ জুন) প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের ভার্চুয়াল বেঞ্চ এই রায় দেন। এই রায়ের বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ দেবনাথ।

হত্যা মামলায় সাজাপ্রাপ্ত আসামিদের কেন খালাস দেয়া হয়েছে তার তথ্য রায় প্রকাশের পর জানা যাবে বলে জানান ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল।

এর আগে টগর হত্যা মামলায় ২০০৫ সালের ১০ জুলাই নওগাঁর আদালত মূল আসামি ডা. নুরুল ইসলামকে মৃত্যুদণ্ড দেন। একই সঙ্গে বাকি ১৮ জনকে যাবজ্জীবন দেয়া হয়।

আরও পড়ুন


বিয়ের আসরে প্রেমিকাকে দেখে দৌড়ে পালালেন বর

ফিলিস্তিনিদের হত্যার অপরাধে যুক্তরাষ্ট্রও সমান অপরাধী: হামাস

‘প্রজেক্ট হিলশা’র পর এবার ভাইরাল ‘প্রজেক্ট তেলাপিয়া’

কোন দেশে নয়, বেশি বজ্রপাত হয় ‘ভারতীয় সিরিয়ালে’


এরপর ২০২০ সালের ২৮ নভেম্বর হাইকোর্ট নুরুলের মৃত্যুদণ্ড কমিয়ে যাবজ্জীবন দেন। বাকি ১৮ জনের সাজাও বহাল থাকে। এর মধ্যে মূল আসামি নুরুল ইসলাম মারা যান। 

সেই মামলারই সব আসামিকে ২৭ বছর পর খালাস দিলেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

news24bd.tv আহমেদ

পরবর্তী খবর

কপিরাইট আইনের ধারা চ্যালেঞ্জ করে নায়ক মান্নার স্ত্রীর রিট

অনলাইন ডেস্ক

কপিরাইট আইনের ধারা চ্যালেঞ্জ করে নায়ক মান্নার স্ত্রীর রিট

কপিরাইট আইনের ৪টি ধারা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট করেছেন প্রয়াত নায়ক মান্নার স্ত্রী শেলী কাদের। সোমবার (৭ জুন) বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চে প্রয়াত নায়ক মান্নার স্ত্রী শেলী কাদেরের পক্ষে আইনজীবী নাজিরুল আলম এ রিট দায়ের করেন।

রিটে কপিরাইট আইন-২০০০ (সংশোধনী ২০০৫) এর ২৪, ২৫, ২৬ ও ২৭ ধারার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা হয়েছে। রিট আবেদনে আইন মন্ত্রণালয়ের সচিবসহ সংশ্লিষ্টদের বিবাদী করা হয়েছে।  

মঙ্গলবার (৮ জুন) বিষয়টি নিশ্চিত করেন প্রয়াত নায়ক মান্নার স্ত্রীর আইনজীবী নাজিরুল আলম। তিনি বলেন, কপিরাইট আইনের ৪টি ধারার কারণে নায়ক মান্না প্রযোজিত ৮টি সিনেমা থেকে তার পরিবার আর্থিক সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। তাই এ চারটি ধারা চ্যালেঞ্জ করে রিট করা হয়েছে।

তিনি আরো জানান, কপিরাইট আইনের চারটি ধারা অনুসারে কোনো প্রযোজককে কপিরাইটের লাইসেন্স দেওয়া হলে তা অনেকেই পূর্ণ মেয়াদের জন্য নিয়ে থাকেন। পূর্ণ মেয়াদের সীমা ৬০ বছর পর্যন্ত হয়। অথচ একই আইনে অন্যরকম বিধান রেখে বলা হয়েছে,  যার দ্বারা ক্রিয়েটর ও প্রযোজকদের মধ্যে এমন কোনো চুক্তি হবে না যা কারো জন্য কঠিন হয়ে যায়। একইসঙ্গে এসব কাজের কপিরাইট অধিকার যেন উত্তরাধিকার সূত্রে পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তরিত হয়, রিটে সে বিষয়েও নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে। এমন আইন ভারতেও করা হয়েছে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর