গোপন ভিডিও ধারণ করে ধর্ষণ করতো গৃহশিক্ষক
গোপন ভিডিও ধারণ করে ধর্ষণ করতো গৃহশিক্ষক

গোপন ভিডিও ধারণ করে ধর্ষণ করতো গৃহশিক্ষক

অনলাইন ডেস্ক

প্রাইভেট পড়ানোর সময় শিক্ষার্থীর গোপন ভিডিও মোবাইলে ধারণ করে বিভিন্ন সময় ধর্ষণ করতো বলে অভিযোগ উঠেছে আশরাফুজ্জামান রানা (৩০) নামের এক গৃহশিক্ষকের বিরুদ্ধে। এছাড়াও গোপন ভিডিও দেখিয়ে ওই শিক্ষার্থীর বিয়ে ভেঙে দেয় আশরাফুজ্জামান রানা।

এসব অভিযোগে গৃহশিক্ষক আশরাফুজ্জামান রানার বিরুদ্ধে নড়াইলের লোহাগড়া থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ ঘটনায় লোহাগড়া পৌর শহরের গোপিনাথপুর এলাকা থেকে পুলিশ অভিযুক্ত গৃহশিক্ষক আশরাফুজ্জামানকে গ্রেপ্তার করে জেলহাজতে পাঠিয়েছে।

 

মামলা সূত্রে জানা গেছে, লোহাগড়া পৌরসভার গোপীনাথপুর এলাকার মৃত মনিরুজ্জামান শেখের ছেলে গৃহশিক্ষক আশরাফুজ্জামান রানা ২০১৯ সালে একই এলাকার একজন শিক্ষার্থীকে প্রাইভেট পড়ানোর ছলে ও বিভিন্ন প্রলোভন দিয়ে ধর্ষণ করে এবং তা মোবাইল ফোনে ধারণ করেন। পরবর্তীতে পারিবারিক সম্মতিতে ওই শিক্ষার্থীর গত রোববার বিয়ের দিন ধার্য করা হয়।

আরও পড়ুন


পঞ্চাশতম ওয়ানডে ফিফটিতে সাকিবকে ছাড়িয়ে তামিম

বাংলাদেশ সরকারের বিরুদ্ধে উস্কানিমূলক প্রচারণায় লন্ডনের এক ব্যক্তির কারাদণ্ড

মায়ামি সৈকতে ভিড় ঠেকাতে কারফিউ

ফিটনেস ইস্যু নিয়ে মিথ্যাচার করেছে বিসিবি: মাশরাফি


বিয়ের আগের দিন গত শনিবার গভীর রাতে অভিযুক্ত গৃহশিক্ষক আশরাফুজ্জামান রানা পাত্র পক্ষর বাড়িতে উপস্থিত হয়ে ধর্ষণের ধারণকৃত ভিডিও প্রদর্শন করলে পাত্র পক্ষ কৌশলে আশরাফুজ্জামান রানাকে আটকিয়ে রেখে লোহাগড়া থানা পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে রাতেই লোহাগড়া থানা পুলিশ আশরাফুজ্জামান রানাকে আটক করে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে লোহাগড়া থানার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই সাইফুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, সোমবার বিকালে অভিযুক্ত আশরাফুজ্জামান রানা নড়াইলের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমাতুল মোর্শেদার আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষা ও জাবানবন্দি সম্পন্ন হয়েছে।

news24bd.tv আহমেদ