রাজধানীতে গ্যাসের অভাবে ভোগান্তির দ্বিতীয় দিন

নিজস্ব প্রতিবেদক


রাজধানীতে গ্যাসের অভাবে ভোগান্তির দ্বিতীয় দিন

রাজধানীর বেশ কয়েকটি এলাকায় আজও নেই গ্যাস। ফলে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন বাসিন্দারা। সমস্যা সমাধানে তিতাসের দিকে তাকিয়ে থাকলেও সংস্থাটি বলছে গ্যাসের সরবরাহ কখন স্বাভাবিক হবে, তা বলা যাচ্ছে না।

তিতাস আরও বলেছে, আজও সারা দিন গ্যাস নিয়ে ভোগান্তিতে থাকতে হতে পারে।

মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) সকাল থেকে রাজধানীর ধানমন্ডি, মোহাম্মদপুর, আদাবর, কল্যাণপুর, মিরপুর ১, গ্রিনরোড, কলাবাগান এলাকায় গ্যাস ছিলো না। এসব এলাকায় আজও গ্যাস সরবরাহ স্বাভাবিক হয়নি। যেটুকু গ্যাস আসছে, তা দিয়ে রান্না করা যাচ্ছে না। 

সাভারের আমিনবাজার এলাকায় পাইপলাইন ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় গতকাল সকালে গ্যাসের সরবরাহ বন্ধ করে দেওয়া হয়। এরপর লিকেজ বা ছিদ্র শনাক্ত হয় ১২ ইঞ্চি পাইপলাইনে। তাই এটি বন্ধ রেখে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ১৬ ইঞ্চি পাইপলাইনে গ্যাস সরবরাহ করা হয়। এতে করে গ্যাসের স্বাভাবিক সরবরাহ ব্যাহত হচ্ছে।

তিতাসের দায়িত্বশীল তিন কর্মকর্তা জানান, ছিদ্র মেরামতের কাজ করা কঠিন হয়ে যাচ্ছে। আমিনবাজার থেকে ৫০০ মিটার সামনে সালেহপুর ব্রিজ এলাকায় সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগ বালু ফেলে পাইলিং করতে গিয়ে তিতাসের পাইপলাইন ছিদ্র করেছে। এখন এক্সকাভেটর দিয়ে বালু সরাতে গেলেই পানি চলে আসছে। তাই কাজ করা যাচ্ছে না। গতকাল একাধিকবার চেষ্টা করেও কাজ করা যায়নি। এভাবে পানির নিচে কাজ করতে গেলে বড় ধরনের দুর্ঘটনার শঙ্কা আছে।

তিতাস গ্যাস বিতরণকারী কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলী ইকবাল মো. নুরুল্লাহ সকালে বলেন, আমিনবাজারের সমস্যা নিয়ে কাজ চলছে। কিন্তু ওই পাইপলাইনের জন্য সরবরাহে তেমন সমস্যা হওয়ার কথা নয়। এখন সমস্যা হচ্ছে, তাঁরা ডেমরা, যাত্রাবাড়ী পয়েন্ট দিয়ে গ্যাসের সরবরাহ পাচ্ছেন না।


ব্যবসায়ীকে প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যা, আওয়ামী লীগ নেতার গাড়িতে এলাকাবাসীর আগুন

রাত ৮টার মধ্যে দোকান ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধের নির্দেশ

সুয়েজ খালে জাহাজ আটকে তীব্র যানজট

অনুশীলনে হাজির সাকিব আল হাসান


 

তিতাসকে পাইপলাইনে গ্যাস সরবরাহ করে গ্যাস ট্রান্সমিশন কোম্পানি লিমিটেড (জিটিসিএল )- এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আতিকুজ্জামান বলেন, কারিগরি ত্রুটির কারণে সামিট তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস (এলএনজি) সরবরাহ বন্ধ রেখেছে। তাই হঠাৎ দিনে ৩৫ কোটি ঘনফুট সরবরাহ কমে গেছে। ২৬ মার্চ সামিট আবার সরবরাহ শুরু করতে পারে।

তিতাসের দায়িত্বশীল এক কর্মকর্তা জানান, সওজের সঙ্গে যোগাযোগ হয়েছে। পাইপলাইনের দুই পাশে জিও ব্যাগ ফেলে সাময়িকভাবে বাঁধ নির্মাণ করে দিতে অনুরোধ করা হয়েছে। সওজ আজ কাজ শুরু করবে। এরপর পাইপলাইন মেরামতের কাজ শেষ করবে তিতাস।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ঝিনাইদহে করোনায় আক্রান্ত হয়ে দুই নারীর মৃত্যু

শেখ রুহুল আমিন, ঝিনাইদহ

ঝিনাইদহে করোনায় আক্রান্ত হয়ে দুই নারীর মৃত্যু

ঝিনাইদহে করোনায় আক্রান্ত হয়ে এক শিক্ষিকাসহ আরো দুই নারী মৃত্যু হয়েছে। 

নিহত আফরোজা সদর উপজেলা মাড়ন্দী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা ও পৌর এলাকার পবহাটী গ্রামের আব্দুল্লাহ শাহের স্ত্রী এবং লিলি বেগম (৪৩) একই গ্রামের রবিউল ইসলামের স্ত্রী। 

সদর হাসপাতালের করোনা ইউনিট সূত্রে জানা গেছে, গত ২৯ মার্চ প্রধান শিক্ষিকা আফরোজা সুলতানার করোনা ধরা পড়ে। তার অবস্থা বেশি খারাপ হয়ে পড়লে যশোর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ সোমবার বিকাল ৩টার দিকে তিনি মারা যান। 

এদিকে ৩০ মার্চ লিলি বেগম অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গত পহেলা এপ্রিল তার করোনার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। ডাক্তারদের তত্বাবধানে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন লিলি বেগম। সোমবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে লিলি বেগম মারা যান। 

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হলে এই নিয়ে ঝিনাইদহে মা মেয়েসহ ৮ জনের মৃত্যু হলো। এর আগে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার ঘোড়শাল ইউনিয়নের যদুড়িয়া গ্রামের রিনা বেগম, হামিরহাটী চাঁদপুরের আনসার আলী মন্ডল, কালীগঞ্জের আইনজীবী আশরাফুজ্জামান, কালীগঞ্জের বেজপাড়া গ্রামের গোলাম কিবরিয়ার স্ত্রী রহিমা খাতুন ও তার মেয়ে সালমা আক্তার মুন্নি এবং শৈলকুপার ফুলহরি গ্রামের দরবার আলী করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। 

ঝিনাইদহ ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক মো. আব্দুল হামিদ খান জানান, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের লাশ দাফন কমিটির সদস্য মাওলানা তাওহিদুলের নেতৃত্বে আফরোজা ও লিলি বেগমের লাশ পারিবারিক গোরস্থানে দাফন করা হয়েছে। 

তিনি বলেন, করোনা শুরুর পর থেকে ঝিনাইদহ ইসলামিক ফাউন্ডেশনের লাশ দাফন কমিটি করোনা আক্রান্ত ও করোনা উপসর্গ নিয়ে এ পর্যন্ত মৃত ৭২ জনের লাশ দাফন করা হলো। 


রাজধানীর থানায় থানায় বাঙ্কার, লাইট মেশিনগান পাহারা

গাজীপুরে কিশোর গ্যাংয়ের সংঘর্ষ, প্রাণ গেল স্কুলছাত্রের

রোজা শুরু কবে, জানা যাবে সন্ধ্যায়

আব্দুস সবুর খান বীর বিক্রম আর নেই


এদিকে ঝিনাইদহে প্রতিদিন করোনায় আক্রান্ত হওয়ার মাঝেই শহরের মার্কেট ও বিপনী বিতানগুলোতে প্রচণ্ড ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। সোমবার সকাল থেকে দেখা যায় গ্রাম থেকে আসা মানুষ ধুমছে কেনাকাটা করছে। প্রশাসনের কোন বিধি নিষেধ তারা মানছে না। করোনা শুরু হওয়ার পর থেকে প্রায় অর্ধশত মানুষ এ রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।

অন্যদিকে নতুন করে আজ সোমবার ঝিনাইদহে ৮ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এ পর্যন্ত জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা দাড়িয়েছে ২৫৮৬ জনে এবং সুস্থ হয়েছেন ২৪১১ জন।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

কক্সবাজারে ‘দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধকালীন’ ২ সহস্রাধিক গুলি উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক

কক্সবাজারে ‘দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধকালীন’ ২ সহস্রাধিক গুলি উদ্ধার

কক্সবাজার শহরের বিমানবন্দর সংলগ্ন বাকঁখালী নদীর মোহনা থেকে বস্তা ভর্তি দুই হাজার ১৯০টি গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশ বলছে, গুলিগুলো দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধকালীন হতে পারে।

গতকাল গভীর রাতে গুলিগুলো উদ্ধার করা হয়।

কক্সবাজার বিমান বন্দর সূত্র জানায়, বিমান বন্দরের রানওয়ে সম্প্রসারণ কাজ করছে চায়নার একটি কোম্পানি। ওই কোম্পানির নিয়োজিত ঠিকাদার বাঁকখালী নদীর নাজিরারটেক এলাকায় বালি ভরাটের কাজ করছে। রোববার রাতে বালি উত্তোলনের সময় শ্রমিকেরা গুলিগুলো দেখতে পায়।  

এসময় বিমান কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে খবর পেয়ে পুলিশ সেখান থেকে গুলিগুলো উদ্ধার করে সদর থানায় নিয়ে আসে। উদ্ধার করা গুলির মধ্যে মেশিনগান, থ্রি নট থ্রি রাইফেল ও পিস্তলের গুলি রয়েছে।

কক্সবাজার সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা শেখ মুনীরুল গিয়াস গুলি উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় এখানে বিমান ঘাঁটি ছিল। সেসময়ে হয়তো গুলিগুলো রাখা হয়েছিল।


রাজধানীর থানায় থানায় বাঙ্কার, লাইট মেশিনগান পাহারা

গাজীপুরে কিশোর গ্যাংয়ের সংঘর্ষ, প্রাণ গেল স্কুলছাত্রের

রোজা শুরু কবে, জানা যাবে সন্ধ্যায়

আব্দুস সবুর খান বীর বিক্রম আর নেই


কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রফিকুল ইসলাম জানান, গুলিগুলো পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার জন্যে সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞদের কাছে পাঠানো হচ্ছে। এ প্রতিবেদন পাওয়া গেলেই বিস্তারিত জানা যাবে। তবে গুলিগুলো বেশ পুরোনো। ধারণা করা যায় দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়ের গুলি হতে পারে।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

চট্টগ্রামে ব্যাংক কর্মকর্তার আত্মহত্যা, যুবলীগ নেতাসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা

নয়ন বড়ুয়া জয়, চট্টগ্রাম

একটি প্রভাশালী চক্রের চাপে চট্টগ্রামের ব্যাংক কর্মকর্তা আব্দুল মোর্শেদ চৌধুরীকে আত্মহত্যায় বাধ্য হতে হয়েছে-এমন দাবি পরিবারের। এই ঘটনায়, স্ত্রী বাদি হয়ে, কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা শহীদুল হক চৌধুরী রাসেলসহ ৪ জনকে আসামি করে মামলাও দায়ের করেছেন। 

পুলিশ বলছে, তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে, নাগরিক সমাজ দাবি তুলছে প্রভাবমুক্ত তদন্তের। কারণ অভিযুক্তরা রাজনৈতিক ও প্রশাসনিকভাবে শক্তিশালী।

২০১৯ সালের ২৮ শে মে’র সিটিটিভি ফুটেজ। ছবি বলছে, দুটি গাড়িতে করে ৮-১০ জন যুবক ভবনে প্রবেশ করছে। এই ভবনের ৭ তলায় আত্মহত্যার আগ পর্যন্ত, বসবাস করতে একটি বেসরকারি ব্যাংকের ব্রাঞ্চ ম্যানেজার আব্দুল মোর্শেদ। গত ৭ এপ্রিল, তিনি নিজ বাসায় আত্মহত্যা করেন। যেখানে সুইসাইড নোটও  লিখে যান মোর্শেদ।

"আর পারছি না। সত্যি আর নিতে পারছি না। প্রতিদিন একবার করে মরছি। কিছু লোকের অমানসিক প্রেসার আমি আর নিতে পারছি না। প্লিজ, সবাই আমাকে ক্ষমা করে দিও। আমার জুমকে (মেয়ে) সবাই দেখে রেখো। আল্লাহ হাফেজ।"

প্রশ্ন হলো কেনো তাকে আত্মহত্যা করতে হলো, বা কারা বাধ্য করলো? নিহতের স্ত্রী’র দাবি, একটি প্রভাশালী চক্রের চাপে, মোর্শেদ আত্মহত্যা করতে বাধ্য হয়েছেন।


গাজীপুরে কিশোর গ্যাংয়ের সংঘর্ষ, প্রাণ গেল স্কুলছাত্রের

রোজা শুরু কবে, জানা যাবে সন্ধ্যায়

আব্দুস সবুর খান বীর বিক্রম আর নেই

সাগরে ১০ লাখ টন দূষিত পানি ফেলার সিদ্ধান্ত জাপানের


কারা চাপ দিচ্ছিল এই প্রসঙ্গে, একটি অডিও রেকর্ড পরিবাবের পক্ষ থেকে দেয়া হয়েছে। আব্দুল মোর্শেদের স্ত্রী ইশরাত জাহান জানান, কয়েক বছর আগে ব্যবসার কাজে ২৫ কোটি টাকা ধার নেয়, মোর্শেদ। তবে, ২০১৮ সালের মধ্যে ওই ধারের টাকা লভ্যাংশসহ ৩৮ কোটি টাকা পরিশোধ করেছেন। কিন্তু এরপরও তারা টাকার জন্য চাপ দিতে থাকেন। এই বাস্তবতায়, ৮ এপ্রিল মোরশেদ চৌধুরীর আত্মহত্যার ঘটনায় ৪ জনকে আসামি করে, স্ত্রী বাদী হয়ে পাঁচলাইশ থানায় মামলা করেন। 

আসামিরা হলেন- জাবেদ ইকবাল ও পারভেজ ইকবাল, নাইম উদ্দিন সাকিব ও শহীদুল হক চৌধুরী রাসেল। ব্যাংক কর্মকর্তার আত্মহত্যার ঘটনায়, নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিরা ন্যায়বিচারের দাবি তুলছেন।

এদিকে, আসামিপক্ষের আইনজীবীরা অভিযোগকে মিথ্যা দাবি করে সংবাদ সম্মেলন করেছেন।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

চট্টগ্রামে করোনায় প্রাণ গেল সাতজনের

অনলাইন ডেস্ক

চট্টগ্রামে করোনায় প্রাণ গেল সাতজনের

চট্টগ্রামে গত ২৪ ঘণ্টায় ৫৪১ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। আর মারা গেছেন সাতজন। 

আজ সকালে সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি জানান, ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে ২ হাজার ৬০৩টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে আক্রান্ত হয়েছেন ৫৪১ জন। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে নগরে ৪৫২ জন এবং উপজেলায় ৮৯ জন।


একদিনে হেফাজতের ৪ নেতা আটক

বোনকে খুঁজে না পেয়ে ভাইয়ের জিডি, বলছেন তার বোনকেও বিয়ে করেছেন মাওলানা মামুনুল

সূরা তাওবার শেষ দুই আয়াতের ফজিলত

সক্রেটিস আইন মেনে মরলেন, রফিকুল আইন মানেন না


এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৪৪ হাজার ৮৬০ জন। 

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ধর্ষণের পর ভিডিও প্রকাশের হুমকি দিয়ে টাকা আদায়, ধর্ষক গ্রেপ্তার

অনলাইন ডেস্ক

ধর্ষণের পর ভিডিও প্রকাশের হুমকি দিয়ে টাকা আদায়, ধর্ষক গ্রেপ্তার

ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করে তা প্রকাশের হুমকি দিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ এবং চাঁদা দাবির অভিযোগে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে গাজীপুরের বাসন থানার পুলিশ।

অভিযুক্ত নয়ন কুমার ঘোষ (৩০) দিনাজপুরের বিরগঞ্জ থানার ঘোষপাড়া এলাকার সুকুমার ঘোষের ছেলে।

ওই নারী গাজীপুর সিটি করপোরেশন এলাকার বাসিন্দা। স্বামীর রেখে যাওয়া বাড়ি, ট্রাক ভাড়া আর ইটভাটার আয়ের অংশ দিয়ে তিন সন্তান নিয়ে সংসার চলে তার।

তিনি অভিযোগ করেন, গত বছরের ২৮ জানুয়ারি তার বাসার তৃতীয় তলার ভাড়াটে নয়ন কুমার ঘোষ ভাড়া দেওয়ার কথা বলে ঘরে ঢুকে তাকে ধর্ষণ করে সেই ভিডিও ধারণ করেন।

পরবর্তীতে নয়ন ভিডিও প্রকাশের হুমকি দিয়ে তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করেন এবং তার কাছে ২০ লাখ টাকা দাবি করেন।

ভয়ে বাধ্য হয়ে স্বামীর রেখে যাওয়া ট্রাক দুটি বিক্রি করে ৩০০ টাকার নন-জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর গ্রহণ করে ২০ লাখ টাকা নয়নের হাতে তুলে দেন তিনি। টাকা পেয়ে নয়ন ভিডিও ডিলিট করে দেয়ার কথা জানায় এবং গ্রামের বাড়ি চলে যায়।


আরও পড়ুনঃ


শুধুমাত্র পরিবারের সদস্যদের নিয়েই হবে প্রিন্স ফিলিপের শেষকৃত্য

বাংলাদেশের জিহাদি সমাজে 'তসলিমা নাসরিন' একটি গালির নাম

করোনা আক্রান্ত প্রতি তিনজনের একজন মস্তিষ্কের সমস্যায় ভুগছেন: গবেষণা

কুমারীত্ব পরীক্ষায় 'ফেল' করায় নববধূকে বিবাহবিচ্ছেদের নির্দেশ


এরপর কিছুদিন আগে নয়ন আবার ফিরে এসে ওই নারীকে বাড়ি বিক্রি করে তাকে ৫০ লাখ টাকা দাবি করে। টাকা না দিলে তার সন্তানদের অ্যাসিড মারার হুমকি দেয় নয়ন।

পরে তিন বাধ্য হয়ে রবিবার (১১ এপ্রিল) সকালে গাজীপুরের বাসন থানায় একটি ধর্ষণের মামলা করেন। এরপর পুলিশ নয়নকে গ্রেপ্তার করে।

বাসন থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মিজানুর রহমান বলেন, গ্রেপ্তার নয়নকে রোববার বিকেলে আদালতের মাধ্যমে গাজীপুর জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর