স্বামী-শাশুড়ির দেওয়া আগুনে ঝলসে যাওয়া শারমিনের মৃত্যু

গাইবান্ধা প্রতিনিধি

স্বামী-শাশুড়ির দেওয়া আগুনে ঝলসে যাওয়া শারমিনের মৃত্যু

যৌতুকের জন্য স্বামী শাশুড়ির দেওয়া আগুনে ঝলসে যাওয়া গৃহবধূ শারমিন আকতার অবশেষে মারা গেলেন । ২৭ মার্চ শনিবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে তার মৃত্যু হয়।

স্বজনরা জানায়, গত ২৩ শে মার্চ মঙ্গলবার গাইবান্ধা সদর উপজেলার মালিবাড়ি গ্রামে যৌতুক না আনতে পারায় স্বামী কোরবান আলী ও তার শাশুড়ি কুলসুম বেগম গৃহবধূ শারমিনের শরীরে আগুন দেয়। তারপর অসুস্থ্য হলে তাকে ঘরবন্দী করে রাখা হয়। পরে গ্রামবাসী অগ্নিদদ্ধ গৃহবধূ শারমিনকে প্রথমে গাইবান্ধা জেলা হাসপাতাল ও পরে রংপুর মেডিকেল কলেজে ভর্তি করে।

সেখানেও তার উন্নতি না হলে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়।


ব্রাহ্মণবাড়িয়াতে সরকারি স্থাপনায় আগুন,প্রেসক্লাবে হামলা

পল্টন মোড়ে লাঠিসোটা নিয়ে হেফাজত নেতাকর্মীদের অবস্থান

হরতালকে ঘিরে কঠোর অবস্থানে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী

সাইনবোর্ডে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে হরতাল সমর্থকদের সংঘর্ষে আহত ৩


আজ সকালে গাইবান্ধার মালিবাড়ি গ্রামে তার পুড়ে যাওয়া লাশ নিয়ে এলে গ্রামে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের সৃষ্টি হয়। দূরদূরান্ত থেকে গ্রামের লোকজন ও তার স্বজনরা শারমিনের মরদেহ এক নজর দেখতে ছুটে আসে।

শারমিনের স্বজন ও গ্রামবাসীদের কান্নায় ভারি হয়ে ওঠে এলাকা। তারা শারমিনের হত্যাকারীদের বিচার দেখতে চায়। আজ স্বজনরা তার মরদেহ নিয়ে গাইবান্ধার গ্রামের বাড়িতে এলে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন স্বজন ও গ্রামবাসী।

উল্লেখ্য, শারমিনের বাবা শফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে গাইবান্ধা থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ স্বামী কোরবান আলী ও শাশুড়ি কুলসুম বেগমকে গ্রেপ্তার করে।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

কুমিল্লায় নকল বিটুমিন-মবিল-ডিজেল তৈরির কারখানার সন্ধান

অনলাইন ডেস্ক

কুমিল্লায় নকল বিটুমিন-মবিল-ডিজেল তৈরির কারখানার সন্ধান

অবৈধভাবে ব্যবহৃত মবিল পরিশোধন করে ভেজাল ডিজেল, মবিল এবং বিটুমিন তৈরি করার দায়ে দুজনকে আটক করেছে র‌্যাব।

কুমিল্লার জেলার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার রাজেন্দ্রপুরে অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাব তাদের আটক করে।

আটকৃতরা হলেন - চৌদ্দগ্রাম উপজেলার গুণবতী গ্রামের আলম মিয়ার ছেলে মো. আব্দুল মান্নান (৪৮), জেলার নাঙ্গলকোটের মোহাম্মদ মোস্তফা মিয়ার ছেলে ফোরকান মাহমুদ (২৩)। 

পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে আব্দুল মান্নানকে এক বছর ও ফোরকান মাহমুদকে ছয় মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

বুধবার  দুপুরে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানান র‌্যাব-১১, সিপিসি-২, কুমিল্লার কোম্পানি অধিনায়ক মেজর তালুকদার নাজমুছ সাকিব।

তিনি জানান, র‌্যাবের সদস্যরা মঙ্গলবার বিকাল থেকে রাত পর্যন্ত চৌদ্দগ্রামের রাজেন্দ্রপুর এলাকায় মেসার্স আলম অ্যান্ড কোম্পানি নামে একটি প্রতিষ্ঠানে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় অনুমোদনহীন ও অবৈধভাবে নকল এবং ভেজাল ডিজেল, মবিল বিটুমিন তৈরি ও বাজারজাতকরণের দায়ে ওই দুইজনকে হাতেনাতে আটক করা হয়। এ সময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এসএম মঞ্জুরুল হক ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাদের কারাদণ্ড প্রদান করেন।

মেজর নাজমুছ সাকিব আরও জানান, ওই প্রতিষ্ঠানটি দীর্ঘদিন যাবত ব্যবহৃত পুরাতন মবিল, ব্লিচিং পাউডার ও সালফিউরিক অ্যাসিড দ্বারা অননুমোদিত ও অবৈধভাবে পরিশোধন করে নকল ও ভেজাল ডিজেল, মবিল উৎপাদন করে বাজারজাত করত। এছাড়া মবিল পরিশোধনের বর্জ্য নকল বিটুমিন হিসেবে অসাধু ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের কাছে বিক্রয় করত।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

পারিবারিক কলহে বাড়ছে হত্যাকাণ্ড, সিলেটে মা ও দুই সন্তানের মরদেহ উদ্ধার

সিলেট থেকে সৈয়দ রাসেল

পারিবারিক কলহে হত্যাকাণ্ডের ঘটনা বেড়েই চলেছে। এবার সিলেটের গোয়াইনঘাটে নিজ বসতঘর থেকে একই পরিবারের তিনজনের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহতরা হলেন- হিফজুর রহমানের স্ত্রী আলিমা বেগম, তার ছেলে মিজান  ও মেয়ে তানিশা। 

এছাড়া আহত অবস্থায় হিফজুরকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পারিবারিক কলহ থেকেই এই হত্যাকান্ড হতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারনা করছে পুলিশ। এ ঘটনায়  জিজ্ঞাসাবাদের  জন্য  আহত হিফজুরসহ তার মামা ও মামীকে হেফাজতে রেখেছে পুলিশ। 

সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার প্রত্যন্ত বিন্নাকান্দি গ্রামের দক্ষিণ পাড়ার এই বাড়ির এক ঘর থেকে একই পরিবারের তিনজনের মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। বুধবার সকালে ঘুম থেকে উঠতে দেরি দেখে প্রতিবেশীরা হিফজুরের ঘরের সামনে যান। ভেতরে প্রবেশ করে খাটের মধ্যে তিন জনের গলাকাটা ও কুপানো মৃতদেহ ও হিফজুরকে রক্তাক্ত দেখে পুলিশে খবর দেয়া হয়।

পরে ঘটনাস্থল থেকে তিনজনের মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন সিলেট রেঞ্জের ডিআইজিসহ পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তারা। হিফজুরের পারিবারিক কলহ কিংবা স্বজনদের সাথে বিরোধের জেরেই এ হত্যাকাণ্ড বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পুলিশ। নৃশংস এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও  দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির  দাবি স্থানীয়দের।

পুলিশ সুপার জানান, তাদের  সন্দেহের তালিকায় রয়েছেন হিফজুল নিজেও। দ্রুত সময়ে এ হত্যাকাণ্ডের  রহস্য উদঘাটন হবে বলে আশাবাদী পুলিশ।

আরও পড়ুন


অভিনব কায়দায় ব্যাংকে চুরি করতে গিয়ে আটক

নারীকে ধর্ষণের পর ভিডিও ধারণ করে ব্লাকমেইল করে কবিরাজ, অতঃপর

পাকিস্তানের সংসদে বাজেট অধিবেশনের সময় মারামারি (ভিডিও)

চলমান ‘বিধি নিষেধ’ আরও এক মাস বাড়ল


news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

নারীকে ধর্ষণের পর ভিডিও ধারণ করে ব্লাকমেইল করে কবিরাজ, অতঃপর

শেখ সফিউদ্দিন জিন্নাহ, গাজীপুর:

নারীকে ধর্ষণের পর ভিডিও ধারণ করে ব্লাকমেইল করে কবিরাজ, অতঃপর

গাজীপুর মহানগরীর পূবাইলে ভণ্ড কবিরাজের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ওই কবিরাজ দুই সন্তানের জননী এক নারীকে ধর্ষণের পর ভিডিও ধারণ করে ব্লাকমেইল করে দীর্ঘ দিন ধরে বহুবার ধর্ষণ করেছে।  

নির্যাতিতা ওই নারী এমন অভিযোগ তুলে কবিরাজ আল আমিনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। পূবাইল থানা পুলিশ মঙ্গলবার রাতে তাকে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করেছে। কবিরাজ আল আমিন (৩২) পূবাইল থানাধীন ৩৯নং ওয়ার্ডের হায়দরাবাদ গ্রামের জাবেদের ছেলে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ধর্ষিত সেই নারীর প্রথম স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদ হয়ে যায়। পরবর্তীতে তার দ্বিতীয় বিয়ে হয়। ওই সংসারে কোনো সন্তান না হওয়ায় সেই নারীর দ্বিতীয় স্বামী তাকে ছেড়ে চলে যান। স্বামীকে ফিরিয়ে আনতে ভণ্ডপীর ও ভুয়া কবিরাজ আল আমিনের দ্বারস্থ হন ওই নারী।

সেই কবিরাজ আল আমিন স্বামীকে ফিরিয়ে দেওয়ার কথা বলে ফুসলিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। সে সময় ধর্ষণের ভিডিও করে রাখেন কবিরাজ আল আমিন। পরে ওই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে মাসের পর মাস ধর্ষণ করতে থাকেন সেই দুই সন্তানের জননীকে।  

ধর্ষিত সেই নারী জানান, ধর্ষণের পাশাপাশি আল আমিন বিভিন্ন সময় তার কাছ থেকে হাতিয়ে নেয় প্রায় দেড় লাখ টাকা।

পূবাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) শাহ আলম জানান, ধর্ষণের শিকার নারী বাদী হয়ে থানায় একটি নারী ও শিশু আইন এবং পর্নোগ্রাফি আইনে মামলা করে। পরে মঙ্গলবার দিবাগত রাতে আল আমিনকে গ্রেপ্তার করা হয়। বুধবার আদালতের মাধ্যমে তাকে গাজীপুর জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুন


পুলিশের শূন্য পদে শিগগিরই জনবল নিয়োগ: সংসদে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

দেশে ১২ কোটি মানুষেরই জন্মতারিখ ঠিক নেই: ডা. জাফরুল্লাহ

অপহরণকাণ্ডে কারাগারে হুইপ সামশু’র অনুসারী মীর কাসেম

অবৈধ সুদের কারবারকে বৈধতা দিতে ব্যস্ত কর্মকর্তারা, দায়সারা তদন্ত প্রতিবেদন


news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

অপহরণ করে টানা তিনদিন গণধর্ষণ

অনলাইন ডেস্ক

অপহরণ করে টানা তিনদিন গণধর্ষণ

অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রীকে অপহরণ করে তিনদিন এক জায়গায় রেখে তিন বন্ধু মিলে ধর্ষণ করেছে। বুধবার (১৬ জুন) দুপুরে অপহৃত ওই শিশুকে  উদ্ধার করা হয়। পুলিশ ওই ছাত্রীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়া হাসপাতালে প্রেরণ করেছে।

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে এই ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় সোনারগাঁ থানায় ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে মামলা করেছেন।

মামলায় অভিযুক্তরা হলেন- রাউৎগাঁও গ্রামের আবদুল আউয়ালের ছেলে জাকারিয়া, রাউৎগাঁও গ্রামের মৃত আব্দুল মান্নানের ছেলে রায়হান ও আবু তালেবের ছেলে মেহেদী হাসান।

সোনারগাঁ থানার ওসি মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান বলেন, স্কুলছাত্রী অপহরণের ঘটনায় মামলা নেয়া হয়েছে। ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ভুক্তভোগীকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ৫০

নিজস্ব প্রতিবেদক

রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ৫০

রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযান চালিয়ে ৫০ জনকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। 

মঙ্গলবার (১৫ জুন) সকাল ৬টা থেকে বুধবার (১৬ জুন) সকাল ৬টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে মাদকদ্রব্যসহ তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

আজ সকালে ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) ইফতেখায়রুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।  

তিনি জানান, অভিযানে গ্রেপ্তার আসামিদের কাছ থেকে ৭ হাজার ৪১৭ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ১১৭ গ্রাম হেরোইন, ৭ কেজি ৫০০ গ্রাম গাঁজা ও ৪ লিটার বিদেশি মদ জব্দ করা হয়।


স্বাধীনতার মূল শর্ত হচ্ছে বাক, চিন্তা ও মত প্রকাশের স্বাধীনতা: ফখরুল

এখনও খোঁজ মেলেনি আবু ত্ব-হা আদনানের, যা বলছে পুলিশ

রোনালদোকাণ্ডের পর এবার টেবিল থেকে বিয়ারের বোতল সরালেন পগবা


তিনি আরও জানান, গ্রেপ্তার আসামিদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ৩৭টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর