দিনাজপুরে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির আজীবন সদস্য সংগ্রহ কার্যক্রম

ফখরুল হাসান পলাশ, দিনাজপুর

দিনাজপুরে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির আজীবন সদস্য সংগ্রহ কার্যক্রম

দিনাজপুরে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির আজীবন সদস্য সংগ্রহ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। আজ সোমবার সকালে শহরের পাহাড়পুরস্থ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির মিলনায়তনে উক্ত অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। 

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইমাম চৌধুরী সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি। এসময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন- “পৃথিবীর যেখানেই মানবিকতার বিপর্যয় ঘটে এবং মানবতা বিপন্ন হয়ে যায় সেখানেই রেডক্রিসেন্ট সোসাইটি আত্মমানবতার সেবায় এগিয়ে আসে।”


ব্রাহ্মণবাড়িয়াতে সরকারি স্থাপনায় আগুন,প্রেসক্লাবে হামলা

পল্টন মোড়ে লাঠিসোটা নিয়ে হেফাজত নেতাকর্মীদের অবস্থান

হরতালকে ঘিরে কঠোর অবস্থানে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী

সাইনবোর্ডে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে হরতাল সমর্থকদের সংঘর্ষে আহত ৩


আজীবন সদস্য সংগ্রহ কার্যক্রম অনুষ্ঠানে শুরুতেই জাতীয় ও সংগঠনের পতাকা উত্তোলন করা হয়। পরে নির্দিষ্ট স্থানে আলোচনা সভা ও সদস্য সংগ্রহ কার্যক্রম পরিচালনা করেন বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির দিনাজপুর শাখার সদস্যবৃন্দরা।

news24bd.tv আয়শা 

পরবর্তী খবর

চরফ্যাশনে মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের গুলিতে একজনের মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক

চরফ্যাশনে মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের গুলিতে একজনের মৃত্যু

ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার হাজারীগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের ৫ নং ওয়ার্ডে দুই মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষে মনির (২৩) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। 

এ সময় আহত হয়েছে শিশুসহ আরও ২ জন। আজ সোমবার (২১ জুন) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। 

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শশীভূষণ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম।

বিস্তারিত আসছে...

আরও পড়ুন:


শেষ ষোলোর আশা বাঁচিয়ে রাখলো সুইজারল্যান্ড

পদ্মা সেতুতে রেলপথের স্ল্যাব বসানো সম্পন্ন

যেসব এলাকায় আজ ২৪ ঘন্টায় গ্যাস থাকবে না

প্রথম ধাপের ২০৪টি ইউনিয়ন পরিষদের ভোটগ্রহণ চলছে


news24bd.tv / কামরুল

পরবর্তী খবর

চার পা বিশিষ্ট সেই নবজাতককে নিয়ে হতাশ বাবা-মা

রেজাউল করিম মানিক, রংপুর:

চার পা বিশিষ্ট সেই নবজাতককে নিয়ে হতাশ বাবা-মা

আশায় বুক বেঁধে ১৭ দিন হাসপাতালে থাকার পরও শিশুটির অস্ত্রোপচারের বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। শেষ পর্যন্ত গতকাল রোববার নবজাতকের বাবা-মা হাসপাতাল ছেড়ে নিজ দায়িত্বে সন্তানকে নিয়ে তাঁদের বাড়ি দিনাজপুরের কাহারোলে চলে যান। 

নবজতকের দিনমজুর বাবা গোলাম রব্বানী সন্তানের চিকিৎসা ব্যয় মেটানোর জন্য সমাজের বিত্তবানদের সহযোগিতা কামনা করেছেন। সহায়তা পাঠানোর জন্য বিকাশ ০১৩১৮-৯০৬৭২৮ নম্বরে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।

গত ৪ জুন দিনাজপুরের বীরগঞ্জ পৌরশহরের খানসমা রোডে অবস্থিত বীরগঞ্জ ক্লিনিকে চার হাত ও চার পা বিশিষ্ট এক পুত্র সন্তানের জন্ম দেন গোলাম রব্বানীর স্ত্রী রুনা লায়লা। স্বাভাবিকভাবেই সন্তান প্রসব করলেও অদ্ভুত নবজাতকটিকে ওইদিনই রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পঞ্চম তলার শিশু সার্জরি ওয়ার্ডে ভর্তি করানো হয়। চিকিৎসাধীন থাকাকালে বেশকিছু পরীক্ষা দেওয়া হয়। কিন্তু ১৭ দিনেও কোনো অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নেননি সেখানকার চিকিৎসকরা। তার কোনো উন্নতিও হয়নি।

নবজাতকের বাবা দিনাজপুরের কাহারোল উপজেলার মুকুন্দপুর ইউনিয়নের মুকন্দপুর গ্রামের বাসিন্দা দিনমজুর গোলাম রব্বানী। গতকাল ছেলেকে নিয়ে বাড়ি ফেরার সময় তিনি বলেন, 'ছেলের চিকিৎসা করাতে গিয়ে বাড়ির তিনটি ছাগল বিক্রি করেছি। 

এছাড়া একজনের কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা ঋণ নিয়েছি। সন্তানকে নিয়ে যখন রংপুর মেডিক্যালে আসি তখন শ্বশুরের কাছ থেকে এবং নিজের জমানো ২৫ হাজার টাকা নিয়ে আসি। সব টাকা চিকিৎসায় শেষ হয়েছে। তবে ডাক্তাররা সঠিকভাবে ছেলেকে দেখেন নাই। চিকিৎসাও ঠিকমতো হয় নাই।

হাসপাতালের চিকিৎসক দুই মাস পর যোগাযোগ করতে বলেছেন উল্লেখ করে গোলাম রব্বানী বলেন, দুই মাস পরে কি হবে জানি না। যদি অপারেশন করাতে হয় তাহলে টাকা পাব কোথায়! অদ্ভুত এই ছেলেকে নিয়ে চরম দুশ্চিন্তায় আছি।

নবজাতকের বাবার অভিযোগ, হাসপাতালে কোনো চিকিৎসা নেই। তাই ছেলেকে বাড়িতে নিয়ে গেলাম।' তবে যাওয়ার সময় ঋণের বোঝা আর দীর্ঘশ্বাস নিয়েই ফিরে গেছেন তাঁরা।

এ ব্যাপারে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের শিশু সার্জারি ওয়ার্ডের প্রধান ডা. বাবলু কুমার সাহা বলেন, ওই নবজাতকের এই অঙ্গগুলোকে পরগাছা জাতীয় অঙ্গ বলে। অপারেশনের মাধ্যমে এগুলো অপসারণ করা সম্ভব। তবে এই ক্ষেত্রে অনেক পরীক্ষা-নিরীক্ষার প্রয়োজন। 

আরও পড়ুন:


শেষ ষোলোর আশা বাঁচিয়ে রাখলো সুইজারল্যান্ড

পদ্মা সেতুতে রেলপথের স্ল্যাব বসানো সম্পন্ন

যেসব এলাকায় আজ ২৪ ঘন্টায় গ্যাস থাকবে না

প্রথম ধাপের ২০৪টি ইউনিয়ন পরিষদের ভোটগ্রহণ চলছে


news24bd.tv / কামরুল

পরবর্তী খবর

ভোটারদের ব্যাপক উপস্থিতি

লক্ষ্মীপুর-২ আসন ও ৬ ইউপি নির্বাচনে শান্তিপূর্ণ ভাবে ভোট গ্রহণ চলছে

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি:

লক্ষ্মীপুর-২ আসন ও ৬ ইউপি নির্বাচনে  শান্তিপূর্ণ ভাবে ভোট গ্রহণ চলছে

পাপুল কাণ্ডে শূন্য হওয়া লক্ষ্মীপুর-২ আসনের উপ-নির্বাচন ও রামগতি-কমলনগরে ৬টি ইউনিয়নের ইউপি নির্বাচনের ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে।

আজ সোমবার (২১জুন) ইভিএম পদ্ধতিতে সকাল ৮ টা থেকে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর কঠোর নিরাপত্তায় শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ শুরু হয়। চলবে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত। ভোট কেন্দ্র গুলোতে ভোটারদের ব্যাপক উপস্থিতি রয়েছে। 

শাকচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, পশ্চিম টুমচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় টুমচর আসাদ একাডেমী কেন্দ্রসহ বেশ কয়েকটি কেন্দ্র ঘুরে দেখা গেছে অনেকটা উৎসবের আমেজ নিয়ে লাইনে দাঁড়িয়ে ভোটাররা তাদের ভোটাধিকার প্রযোগ করছেন। কেন্দ্রে পুরুষ ভোটারের চাইতে নারী ভোটারের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। এখনো পর্যন্ত কোথাও কোন ধরণের অপ্রীতিকর কোন ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

কয়েকটি কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে নৌকার প্রার্থীর অ্যাডভোকেট নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন ভোটের পরিবেশ নিয়ে গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেন। এ সময় তিনি ভোটারদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণের কথা তুলে ধরে কেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতিতেই সুষ্ঠ ভোট হচ্ছে প্রমাণিত হচ্ছে।

প্রতিদ্বন্দ্বিতা প্রার্থীর সঙ্গে ভ্রাতৃ প্রতীম আচরণের মধ্য দিয়ে ভোট চলছে। শেখ হাসিনার সরকারের উন্নয়নে ও নিজেকে তৃনমূলের একজন কর্মী হিসেবে বিপুল ভোটে নৌকার জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদ ব্যাক্ত করেন তিনি।  

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা যায়, লক্ষ্মীপুর-২ আসনে ইভিএম পদ্ধতিতে আর রামগতি ও কমলনগরের ৬ ইউপিতে ব্যালটে অনুষ্ঠিত হচ্ছে নির্বাচন।
সংসদীয় আসনে এমপি পদে নৌকা প্রতীক নিয়ে  জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন ও লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় সদস্য শেখ ফায়েজ উল্লাহ শিপন লড়ছেন।

এ আসনে ১৩৬টি ভোট কেন্দ্রে ৪ লাক ২ হাজার ৯৬৩ ভোটার রয়েছে। ৯৭টি কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ ধরে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। ৪০ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, র‌্যাব, পুলিশ, ১৭ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন রয়েছে নির্বাচনী এলাকায়।

অপরদিকে রামগতি ও কমলনগরের ৬টি ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে ৪০ জন প্রার্থী, নারী সদস্য পদে ৮৩ জন ও সদস্য পদে ২৫১জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এসব ইউনিয়নে মোট ১ লাখ ২৩ হাজার ২শ’৩১ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করছে।

আরও পড়ুন:


শেষ ষোলোর আশা বাঁচিয়ে রাখলো সুইজারল্যান্ড

পদ্মা সেতুতে রেলপথের স্ল্যাব বসানো সম্পন্ন

যেসব এলাকায় আজ ২৪ ঘন্টায় গ্যাস থাকবে না

প্রথম ধাপের ২০৪টি ইউনিয়ন পরিষদের ভোটগ্রহণ চলছে


news24bd.tv / কামরুল

পরবর্তী খবর

নোয়াখালীতে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ প্রদান

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

নোয়াখালীতে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ প্রদান

মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে খাস জমি ও গৃহ প্রদান কার্যক্রমের ২য় পর্যায় উদ্বোধন উপলক্ষ্যে নোয়াখালীর সোনাইমুড়ি উপজেলায় বীর শ্রেষ্ঠ রুহুল আমিন অডিটোরিয়ামে আলোচনাসভা ও প্রধানমন্ত্রীর ভার্সুয়াল উদ্বোধনে অংশ গ্রহণ করেন উপকারভোগী পরিবারসহ বিভিন্ন পর্যায়ের সরকারী কর্মকর্তাবৃন্দ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন নোয়াখালী-১ আসনের সংসদ সদস্য এইচ এম ইব্রাহীম, জেলা প্রশাসক খোরশেদ আলম খান, পুলিশ সুপার আলমগীর হোসেন, প্রধানমস্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী জাহাঙ্গীর আলম। 

নোয়াখালীতে ক শ্রেণীর পরিবার পুণর্বাসনের লক্ষ্যে দুই পর্যায়ে মোট ১২৮৬টি একক গৃহ বরাদ্দ করা হয়। দ্বিতীয় পর্যায়ে প্রধনিমন্ত্রী শেখ হাসিনা নোয়াখালীতে ৮৩৫টি ঘর ভিডিও কনফারেন্সিং এর মাধ্যমে উকারভোগী পরিবারের মাঝে হস্তান্তর করেন।

আরও পড়ুন:


শেষ ষোলোর আশা বাঁচিয়ে রাখলো সুইজারল্যান্ড

পদ্মা সেতুতে রেলপথের স্ল্যাব বসানো সম্পন্ন

ঘুমন্ত ‘প্রেমিকের’ গোপনাঙ্গ কাটলেন নারী, পরে গ্রেপ্তার

নিখোঁজের ১৪ দিন পর অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার


news24bd.tv / কামরুল

পরবর্তী খবর

কুষ্টিয়ায় লকডাউন, কঠোর অবস্থানে পুলিশ

জাহিদুজ্জামান, কুষ্টিয়া:

কুষ্টিয়ায় লকডাউন, কঠোর অবস্থানে পুলিশ

কুষ্টিয়া জেলাব্যাপী ৭দিনের লকডাউন শুরু হয়েছে। বাস্তবায়ন করতে সকাল থেকেই কঠোর অবস্থানে পুলিশ। তারা জেলার বিভিন্ন পয়েন্টে চেকপোস্ট বসিয়ে মানুষ এবং যানবাহনের চলাচল নিয়ন্ত্রণ করছে। 

ঘোষণা অনুযায়ী লকডাউনে জেলায় সব ধরণের গণপরিবহন, শিল্প প্রতিষ্ঠান, দোকানপাট, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকছে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কেউ বাড়ির বাইরে বের হতে পারবেন না। 

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টার কুষ্টিয়ায় করোনায় আরও ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। ২১৭ নমুনায় নতুন আরও ৮৩ জনের দেহে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৩৮.২৪%। হাসপাতালে বেড়েছে রোগীর চাপ। 

আরও পড়ুন:


শেষ ষোলোর আশা বাঁচিয়ে রাখলো সুইজারল্যান্ড

পদ্মা সেতুতে রেলপথের স্ল্যাব বসানো সম্পন্ন

ঘুমন্ত ‘প্রেমিকের’ গোপনাঙ্গ কাটলেন নারী, পরে গ্রেপ্তার

নিখোঁজের ১৪ দিন পর অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার


news24bd.tv / কামরুল

পরবর্তী খবর