এটার জবাব আল্লাহর আদালতে দিতে হবে, ওবায়দুল কাদেরকে কাদের মির্জা

অনলাইন ডেস্ক

এটার জবাব আল্লাহর আদালতে দিতে হবে, ওবায়দুল কাদেরকে কাদের মির্জা

বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা বলেছেন, ‘একটি অপ্রিয় সত্য কথা বলতে চাই। বাংলাদেশের রাজনীতিতে আজকে যে দুর্বৃত্তায়ন চলছে এজন্য আজকে রাস্তায় মানুষ বলাবলি করছে ‘ওবায়দুল কাদের সাহেব নাকি মেরুদণ্ডহীন প্রাণী’।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে লাইভে এসে কাদের মির্জা বলেন, আর নোয়াখালীর মানুষ বলাবলি করছে, নোয়াখালীর রাজনীতির এই দূরবস্থা এবং একরাম চৌধুরীর অপকর্মের জন্য মেরুদণ্ডহীন সভাপতি খায়রুল আনম সেলিম দায়ী। তারপরে কোম্পানীগঞ্জের রাজনীতির আজকের এই অবস্থার জন্য আরেক মেরুদণ্ডহীন সাহাব উদ্দিন দায়ী।’

তিনি বলেন, এটা অপ্রিয় হলেও সত্য কথা। এটা মানুষের কথা, মানুষের মনের কথা। আমি আওয়ামী লীগ থেকে পদত্যাগ করেছি। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সংগঠন বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষণা পরিষদের সদস্য হয়ে রাজনীতি করবো। আমি নামাজের বিছানায় বসে শপথ করেছি অন্যায় অবিচারের বিরুদ্ধে কথা বলব।


সময়মতো করোনা টেস্টের ফলাফল না পাওয়ায় এয়ারপোর্টে ভোগান্তি

পশু কোরবানির ৫৯০ ছুরি দুই মাদ্রাসা থেকে জব্দ

মিরপুর চিড়িয়াখানাও বন্ধ ঘোষণা

রংপুরে সব ধরনের মেলা ও সিনেমা হল বন্ধ


তিনি বলেন, আমি আমার প্রতিশ্রুতি থেকে আজও এক চুল পরিমাণ সরে যায়নি। হেফাজতের উত্থান কীভাবে হয়েছে আপনারা জানেন। আওয়ামী লীগের অপরাজনীতির কারণে তাদের উত্থান। তারা আজকে এমন পর্যায়ে গিয়েছে, তারা এখন মানুষ হত্যা করতে দ্বিধা বোধ করে না। দলের এখন সুসময়। বসন্তের কোকিলদের আনাগোনায় ত্যাগীরা হারিয়ে যাচ্ছেন।

কাদের মির্জা বলেন, মন্ত্রীর স্ত্রী সন্ত্রাসীদের অর্থের যোগান দিয়েছেন তার স্বার্থে। যেহেতু তিনি দুর্নীতিগ্রস্ত, তার দুর্নীতিকে ঢাকা দেওয়ার জন্য আমি যাতে তার দুর্নীতির বিরুদ্ধে নেত্রীর কাছে দেশবাসীর কাছে কোনো কিছু করতে না পারি সেজন্য তিনি আমার বিরোধীতা করছেন।

আমাকে হত্যা করার জন্য ষড়যন্ত্র করছে। কিন্তু আমার প্রশ্ন ওবায়দুল কাদের সাহেব আপনি কার স্বার্থে, কিসের স্বার্থে, কেন আজকে সন্ত্রাসী, অস্ত্রবাজদের পক্ষে অবস্থান নিয়েছেন। আমার নেতাকর্মীরা গুলি খেয়ে ঢাকাতে হাসপাতালের বেডে কাতরাচ্ছে। আপনিতো যাননি, আপনার একটা প্রতিনিধি, নেতাও যায়নি। এটার জবাব একদিন জনগণকে দিতে হবে, আল্লাহর আদালতে দিতে হবে।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

৫ই মে তাণ্ডবে খালেদার সম্পৃক্ততার প্রমাণ পেলে মামলার সিধান্ত নেওয়া হবে : ডিবি

অনলাইন ডেস্ক

৫ই মে তাণ্ডবে খালেদার সম্পৃক্ততার প্রমাণ পেলে মামলার সিধান্ত নেওয়া হবে : ডিবি

২০১৩ সালের ৫ই মে সরকার পতনের লক্ষ্যে তাণ্ডবের আগে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার সঙ্গে গোপন বৈঠক করেছিলেন জুনায়েদ বাবুনগরী।  সেই তাণ্ডবের মামলায় খালেদা জিয়াকে আসামি করা হবে কিনা তা সামগ্রিক তথ্য প্রমাণ বিচার করে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানিয়েছে পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ- ডিবি।

বুধবার দুপুরে, গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার মাহবুব আলম সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

তিনি বলেন,  ২০১৩ সালে হেফাজত যে তাণ্ডব চালিয়েছিল। তখন সরকারের বিরুদ্ধে বড় একটি ষড়যন্ত্র ছিল। সেই ষড়যন্ত্রে কারা অংশগ্রহণ করেছে সে কথাও উঠে এসেছে। তখনকার জাতীয়তাবাদী দলের সাথে দলের চেয়ারপার্সন সহ অনেকের সাথে বাবু নগরীর মিটিং হয়েছিল।

সরকার পতনের লক্ষ্যে তাণ্ডবের আগে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার সঙ্গে গোপন বৈঠক করেছিলেন জুনায়েদ বাবুনগরী। ২০১৩ সালে হেফাজত যে তাণ্ডব চালিয়েছিল। তখন সরকারের বিরুদ্ধে বড় একটি ষড়যন্ত্র ছিল। সেই ষড়যন্ত্রে কারা অংশগ্রহণ করেছে সে কথাও উঠে এসেছে। তখনকার জাতীয়তাবাদী দলের সাথে দলের চেয়ারপার্সন সহ অনেকের সাথে বাবু নগরীর মিটিং হয়েছিল।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ছাত্রদলের সাবেক সা. সম্পাদক এখন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক!

অনলাইন ডেস্ক

ছাত্রদলের সাবেক সা. সম্পাদক এখন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক!

কক্সবাজার জেলা বিএনপির সভাপতি ও উখিয়া-টেকনাফের সাবেক এমপি শাহাজান চৌধুরীর আস্থাভাজন হ্নীলা জুমুরিয়া মাদ্রাসা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নুরুল মোস্তফা এখন উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক! গত ১৩ এপ্রিল রাত সাড়ে ১২টার দিকে টেকনাফ উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি অনুমোদন হলেও তা প্রকাশ পায় অনেক পরেই। সেখানে দেখা যায় নুরুল মোস্তফাকে উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক পদ দেওয়া হয়।

কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এস এম সাদ্দাম হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক আবু মো. মারুফ আদনান স্বাক্ষরিত টেকনাফ উপজেলা ছাত্রলীগের নব-গঠিত কমিটিতে সভাপতি করা হয়েছে উপজেলা ছাত্রলীগের দুই বারের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম মুন্নাকে। আগামী এক বছরের জন্য এই কমিটি অনুমোদন দেন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। 

কমিটি প্রকাশের প্রতিবাদে হয়েছে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ। চলছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনা।

হ্নীলা জুমুরিয়া মাদ্রাসা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নুরুল মোস্তফা ছিলেন বিএনপির আন্দোলন সংগ্রামের প্রথম সারির ক্যাডার। ইতিমধ্যে অনেক ছবি ও তথ্য বহুল কাগজপত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

পাশাপাশি তার হাতে অত্যাচার ও নির্যাতনের শিকার হয়েছেন টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের অসংখ্য ছাত্রলীগ কর্মী। কিন্তু হটাৎ রাতারাতি ছাত্রদল থেকে উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মনোনীত হওয়ায় পুরো জেলার রাজনৈতিক অঙ্গনে সমালোচনার ঝড় উঠেছে।
 
কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এসএম সাদ্দাম হোসেন বলেন, ১৩ এপ্রিল উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম মুন্নাকে সভাপতি ও নুরুল মোস্তফাকে সাধারণ সম্পাদক করে এক বছরের জন্য টেকনাফ উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি অনুমোদন দেয়া হয়েছে। সেখানে সাধারণ সম্পাদক নুরুল মোস্তফা ছাত্রলীগের পূর্বের কোনো ধরনের কমিটিতে ছিল না। তবে সে ছাত্রলীগ করে।

জেলা সভাপতি দাবি করেন, রাতারাতি নয় এবং অনৈতিক উপায়েও নয়, কাউন্সিল ও সম্মেলন করে দুই মাস পর কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে।

এদিকে যার বিরুদ্ধে এত অভিযোগ সেই নুরুল মোস্তফা সাংবাদিকদের জানান, তার বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগ সত্য নয়।

কক্সবাজার জেলা ছাত্রদলের সভাপতি শাহাদৎ হোসেন রিপন জানান, টেকনাফ ছাত্রলীগের কমিটি দেখার পর আমাদের নিজেদের মধ্যেও অনেক আলোচনা হয়েছে। কারণ নুরুল মোস্তফা হ্নীলা ইউনিয়ন ছাত্রদলের সদস্য এবং হ্নীলা জুমুরিয়া মাদ্রাসা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। তার আত্মীয় স্বজন সবাই বিএনপি করে। তার বড়ভাই নাছির উদ্দিন ইউনিয়ন যুবদলের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। এছাড়া তার চাচা ও চাচাত ভাই সবাই বিএনপি রাজনীতির সঙ্গে জড়িত এটা সবাই জানে।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

৫ মে হেফাজত নেতাদের অর্থ দেন বিএনপির কয়েক নেতা

অনলাইন ডেস্ক

৫ মে হেফাজত নেতাদের অর্থ দেন বিএনপির কয়েক নেতা

২০১৩ সালের ৫ মে ঢাকা ঘেরাও কর্মসূচি সফল করতে অর্থের যোগানদাতা ছিলেন বিএনপির কয়েকজন নেতা। বিএনপির প্রয়াত নেতা সাদেক হোসেন খোকা, হাবিব-উন-নবী খান সোহেল ও এক জামায়াত নেতার সঙ্গে হেফাজত নেতাদের বৈঠক হয়েছিল। খোকার বাসা ও একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের অফিসে ওই বৈঠক হয়। সেখানে হেফাজত নেতাদের টাকা-পয়সা দেওয়া হয়। সিদ্ধান্ত হয়, তাদের ১৩ দফা বাস্তবায়ন না হলে সরকার পতনের আন্দোলন করা হবে।

সোমবার (১৯ এপ্রিল) ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম দেবদাস চন্দ্র অধিকারীর আদালতে দেওয়া স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে চাঞ্চল্যকর এই তথ্য জানিয়েছেন হেফাজতে ইসলামের ঢাকা মহানগর কমিটির তৎকালীন প্রচার সম্পাদক মুফতি ফখরুল ইসলাম। তিনি বর্তমানে বাংলাদেশ জনসেবা আন্দোলনের চেয়ারম্যান।

এই বিষয়ে বিএনপি বলছে, আদালতে প্রমাণ হওয়ার আগে গণমাধ্যমে কিছু আসলে  সেটার দায় নেবে না বিএনপি।

গত ১৪ এপ্রিল লালবাগ এলাকা থেকে মুফতি ফখরুলকে গ্রেফতারের পর পাঁচ দিনের রিমান্ডে নেয় ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। রিমান্ড শেষে সোমবার তিনি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। এরপর আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

৭ দিনের রিমান্ডে কোরবান আলী

অনলাইন ডেস্ক

৭ দিনের রিমান্ডে কোরবান আলী

হেফাজতে ইসলাম ঢাকা মহানগরীর সহসভাপতি ও বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা কোরবান আলীর সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। আজ বুধবার (২১ এপ্রিল) তাকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করে পুলিশ।


ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তাণ্ডবের ঘটনায় ২৪ ঘণ্টায় গ্রেপ্তার ১১

ভিপি নুরের নামে আরও এক মামলা

নাটোরের বড়াইগ্রামে দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে চালক নিহত


শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম মামুনুর রশীদ তার সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে রাজধানীর বাসাবো এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ফেইসবুক লাইভে কাদের মির্জা

কোম্পানীগঞ্জে শান্তি ফেরাতে ১১ দফা প্রস্তাবনা

নোয়াখালী প্রতিনিধি

কোম্পানীগঞ্জে শান্তি ফেরাতে ১১ দফা প্রস্তাবনা

কোম্পানীগঞ্জের চলমান সংকট কাটিয়ে শান্তির জনপদে রূপান্তর করতে ১১ দফা প্রস্তাবনা তুলে ধরেন এবং তা দ্রুত বাস্তবায়নের দাবি জানান বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা। বুধবার ভোররাতে সাড়ে ৪টায় তার অনুসারী স্বপন মাহমুদের ফেসবুক থেকে লাইভে এসে ১১ দফা প্রস্তাবনা তুলে ধরেন তিনি।

আবদুল কাদের মির্জা বলেন, কোম্পানীগঞ্জ আমাদের শান্তির জনপদ। আমাদের প্রিয় কোম্পানীগঞ্জে যেন রক্তপাত, সংঘাত, সংঘর্ষ না হয় এ জন্য অস্ত্রমুক্ত, মাদকমুক্ত, সন্ত্রাসমুক্ত, দখলমুক্ত ও দুর্নীতিবাজমুক্ত কোম্পানীগঞ্জ গড়তে হবে। এরপর তিনি ১১ দফা প্রস্তাবনা তুলে ধরেন।


ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তাণ্ডবের ঘটনায় ২৪ ঘণ্টায় গ্রেপ্তার ১১

ভিপি নুরের নামে আরও এক মামলা

নাটোরের বড়াইগ্রামে দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে চালক নিহত


কাদের মির্জার ১১ দফা প্রস্তাবনাগুলো হলো-

১. নোয়াখালীর যে সকল প্রশাসনিক কর্মকর্তা নিরপেক্ষতা হারিয়েছে তাদের সরিয়ে অস্ত্রের রাজনীতি বন্ধ করতে হবে।

২. সাংবাদিক মুজাক্কির ও সিএনজিচালিত অটোরিকশাচালক আলাউদ্দিন হত্যার সুষ্ঠু তদন্ত করে দ্রুত বিচার করতে হবে।

৩. আমার ছেলে তাশিক মির্জার ওপর হামলায় সিসিটিভি ফুটেজ দেখে দোষীদের আইনের আওতায় আনতে হবে।

৪. গত তিন মাসে দায়ের করা সকল মামলার দ্রুত সুষ্ঠু তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

৫. নিরপেক্ষভাবে পুলিশের নির্যাতনের মামলার বিচার করতে হবে।

৬. কোম্পানীগঞ্জের আগামী ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

৭. কোম্পানীগঞ্জে রাজনৈতিক ও প্রশাসনিক অন্যায়, অনিয়ম ও দুর্নীতি বন্ধ করতে হবে।

৮. কোম্পানীগঞ্জে রাজনৈতিক সহাবস্থান নিশ্চিত করতে হবে।

৯. গত তিন মাসে অন্যায়ভাবে যাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে তাদের দ্রুত মুক্তি দিতে হবে।

১০. গত তিন মাসে যারা কোম্পানীগঞ্জে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করেছে, তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত করে ব্যবস্থা নিতে হবে।

১১. যে সকল ঘটনায় মামলা হয়নি যেমন, দাগনভূঁইয়ায় আমার ওপর হামলা, গুলিবর্ষণ এবং চট্টগ্রামের হামলার ঘটনার দ্রুত বিচার করতে হবে।

প্রসঙ্গত, গত ১৬ জানুয়ারি বসুরহাট পৌরসভা নির্বাচনে আবদুল কাদের মির্জা আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। এর আগে তিনি তিনবার মেয়র নির্বাচিত হন। নির্বাচনের আগে দলীয় নেতাকর্মীদের সমালোচনা করে আলোচনায় আসেন তিনি।

এরপর কাদের মির্জার সঙ্গে তার দলের বিরোধী পক্ষের সংঘর্ষে সাংবাদিকসহ দুইজন নিহত হন। এসব ঘটনায় তার বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ জমা পড়েছে আদালতে। ৩১ মার্চ নিজের ফেসবুক আইডি থেকে তিনি দল থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দেন। এ ছাড়া তিনি আর জনপ্রতিনিধি হিসেবে নির্বাচন করবেন না বলেও ঘোষণা দেন।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর