কোনটা আসলে অপরাধ! লেখালেখি নাকি হামলা-ভাঙচুর-আগুন!
কোনটা আসলে অপরাধ! লেখালেখি নাকি হামলা-ভাঙচুর-আগুন!

কোনটা আসলে অপরাধ! লেখালেখি নাকি হামলা-ভাঙচুর-আগুন!

Other

আজকাল অনেকেই নাকি বিস্মিত হন না। কিন্তু আমি হই। বোকা বলেই হয়তো! আমার বিস্ময় কিছুতেই কাটে না। যে দেশে যেখানে সামান্য লেখার জন্য শত শত মানুষের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়, জামিনবিহীন শত শত দিন কাটে, এমনকি প্রাণ যায় জেলখানায়; সেই দেশেই আবার একদল লোক বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নদীতে ভাসিয়ে দেওয়ার ঘোষণা দেয় তবু তাদের কিছু হয় না! অথচ তাদের বিরুদ্ধে কিছু বললেই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা! 

আমি আসলে মেলাতে পারি না বঙ্গবন্ধুর ছবিতে আগুন দেয় তারা তবু তাদের কিছু হয় না।

রেল স্টেশন থেকে শুরু করে ভূমি অফিস, সরকারি নানা দপ্তর, প্রেসক্লাব, আওয়ামী লীগ অফিস সব পুড়িয়ে দেয় তবু তাদের কিছু হয় না। হামলাকারীদের ছবি আছে, ভিডিও ফুটেজ আছে, তবু একটি মামলাতেও হামলাকারীরা আসামি হয় না! আসামি হয় বিএনপি নেতাকর্মীরা! 


লকডাউনে যা বন্ধ ও খোলা থাকবে

বাড়ছে করোনা, সড়কে স্বাস্থ্যবিধি মানছে না অধিকাংশ মানুষ

সোমবার থেকে সারাদেশে লকডাউন

বিএনপির দলীয় হুইপ হলেন ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা


আমি আসলে বুঝি না কোনটা আসলে অপরাধ! লেখালেখি নাকি হামলা-ভাঙচুর-আগুন। আসলে অপরাধ কোনটা! আমার বিস্ময় কিছুতেই কাটে না! আমার শুধু ভয় হয় যাদের এতো তোষণে সত্যি সত্যিই না একদিন তারা সব গিলে খায়! এমনকি আওয়ামী লীগকেও! আমার আসলেই বিস্ময় কাটে না! (ফেসবুক থেকে)

শরিফুল হাসান, উন্নয়ন কর্মী

(মত ভিন্ন মত বিভাগের লেখার আইনগত ও অন্যান্য দায় লেখকের নিজস্ব। এই বিভাগের কোনো লেখা সম্পাদকীয় নীতির প্রতিফলন নয়। )

news24bd.tv / কামরুল 

;